আজঃ মঙ্গলবার ২৮ জুন ২০২২
শিরোনাম

গুচ্ছভুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা শুরু ৩০ জুলাই

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ৩১ মে ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ৩১ মে ২০২২ | ১৭৯০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সেশনজট কমাতে এক মাস এগিয়ে আনা হয়েছে ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষে ২২টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ গুচ্ছের ভর্তি পরীক্ষা। নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, আগামী ৩০ জুলাই ক ইউনিটের মাধ্যমে এই পরীক্ষা শুরু হবে।ভর্তি পরীক্ষার আবেদন ফি ১৫০০ টাকা। এবং পাস মার্ক ৩০ নির্ধারণ করা হয়েছে।

সোমবার (৩০ মে) উপাচার্যদের গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা বিষয়ক কমিটির সভা শেষে বাংলানিউজকে এ তথ্য জানিয়েছেন কমিটির যুগ্ম আহবায়ক ও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক মো. ড. ইমদাদুল হক।

তিনি বলেন, আগামী ৩০ জুলাই ক’ ইউনিট, ১৩ আগস্ট খ’ ইউনিট এবং ২০ আগস্ট গ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

তিনি আরও বলেন, গতবার আবেদন ফি ১,২০০ টাকা নির্ধারণ হলেও পরবর্তীতে শিক্ষার্থীদের আলাদাভাবে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির জন্য আবেদন করতে হতো। এবার আর দ্বিতীয় ধাপে আবেদন করতে হবে না। এবার ভর্তি পরীক্ষা ছাড়াও ভর্তি কার্যক্রমসহ সব কিছু কেন্দ্রীয়ভাবে পরিচালিত হবে। শিক্ষার্থীরা শুধু একবারই টাকা দিতে হবে। পাশাপাশি ১০০ নাম্বারের ভর্তি পরীক্ষায় ৩০ নাম্বারে পাস নাম্বার নির্ধারণ করা হয়েছে। এবং পরীক্ষায় চারটি ভুল উত্তরের জন্য এক নম্বর কাটা হবে।

গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষায়  আবেদনের জন্য ন্যূনতম যোগ্যতার বিষয়ে তিনি বলেন, বিজ্ঞান বিভাগে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিকের মোট জিপিএ ৭ (চতুর্থ বিষয় ছাড়া), ব্যবসায় শিক্ষায় মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিকের মোট জিপিএ ৬.৫ (চতুর্থ বিষয় ছাড়া) এবং মানবিকে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিকের মোট জিপিএ ৬ (চতুর্থ বিষয় ছাড়া) নির্ধারণ করা হয়েছে।

এর আগে গত ৮ এপ্রিল বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় পরিষদের এক সভায় ২২টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের (সাধারণ গুচ্ছ) ক’ ইউনিটের বিজ্ঞান বিভাগের ভর্তি পরীক্ষা ৩ সেপ্টেম্বর, খ’ ইউনিটের মানবিকের ১০ সেপ্টেম্বর ও গ’ ইউনিটের বাণিজ্যের ১৭ সেপ্টেম্বর নেওয়া সিদ্ধান্ত হয়েছিল।

গুচ্ছভুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়গুলো হলো- জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাকা), ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় (কুষ্টিয়া), শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (সিলেট), খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় (খুলনা), হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (দিনাজপুর), মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (টাঙ্গাইল), নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (নোয়াখালী), কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় (কুমিল্লা), জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয় (ময়মনসিংহ), যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (যশোর), বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় (রংপুর), পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (পাবনা), বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (গোপালগঞ্জ), বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় (বরিশাল), রাঙামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (রাঙ্গামাটি), রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশ (সিরাজগঞ্জ), বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল ইউনিভার্সিটি (গাজীপুর), শেখ হাসিনা বিশ্ববিদ্যালয় (নেত্রকোনা), বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (জামালপুর), পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (পটুয়াখালী), কিশোরগঞ্জ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় এবং চাঁদপুর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়। উল্লেখ্য, শেষ দুইটি বিশ্ববিদ্যালয় এ বছর নতুন করে গুচ্ছের সঙ্গে যুক্ত হয়েছে।

নিউজ ট্যাগ: ভর্তি পরীক্ষা

আরও খবর



বায়তুল মোকাররমে বঙ্গবন্ধুর নামে নির্মিত হবে ডিজিটাল লাইব্রেরি

প্রকাশিত:শনিবার ০৪ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০৫ জুন ২০২২ | ৫৪৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে বঙ্গবন্ধুর নামে ডিজিটাল লাইব্রেরি করার ঘোষণা দিয়েছেন বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদ মুসল্লি কমিটির প্রধান উপদেষ্টা সায়েম সোবহান আনভীর। গত বৃহস্পতিবার (২ জুন) মসজিদ কমিটির সঙ্গে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় এ ঘোষণা দেন তিনি। এসময় তিনি একশো মুসল্লিকে হজে পাঠানোর কথাও জানান।

জানা যায়, সম্প্রতি বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদ মুসল্লি কমিটির প্রধান উপদেষ্টা সায়েম সোবহান আনভীরের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় এ দাবি তুলে ধরেন মুসল্লিরা।

এরপর ইসলামী ফাউন্ডেশনের অনুমতিক্রমে, বঙ্গবন্ধুর নামে দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে বৃহত্তম ডিজিটাল লাইব্রেবি নির্মাণ করে দেয়ার ঘোষণা দেন সায়েম সোবহান আনভীর। এ উদ্যোগের জন্য তাকে ধন্যবাদ জানান মুসল্লিরা।

এছাড়া এই বছর ১০০ অসামর্থ্যবান মুসল্লিকে হজে পাঠানোর কথা জানান বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সায়েম সোবহান আনভীর। এ সময় সায়েম সোবহান আনভীর ও তার পরিবারের সুস্থতা কামনায় বিশেষ মোনাজাত করা হয়।

১৯৬৮ সালে বাইতুল মোকাররম মসজিদ প্রতিষ্ঠিত হয়। সময়ের পরিক্রমায় এটিকে ঘোষণা করা হয় জাতীয় মসজিদ। একসঙ্গে ৪০ হাজারের বেশি মুসল্লির ধারণ ক্ষমতাসম্পন্ন মসজিদটি বিশ্বের দশম বৃহত্তম মসজিদ। মসজিদ ভবনে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের বেশ কিছু অফিস থাকলেও দীর্ঘদিনেও এখানে গড়ে ওঠেনি অত্যাধুনিক লাইব্রেরি। 


আরও খবর



রূপসা নদীতে বজ্রপাতে মাঝি নিখোঁজ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৬ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৬ জুন ২০২২ | ৪২০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

খুলনায় রূপসা নদীতে বৃষ্টির সময় বজ্রপাতে মতি শিকদার (৪৫) নামের এক ট্রলার মাঝি নিখোঁজ হয়েছেন। এ ঘটনায় মো. জুয়েল ও রানা নামে আরও দুই যাত্রী জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন। তাদের উদ্ধার করে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়।

বুধবার বিকালে রূপসার মাঝ নদীতে এ ঘটনা ঘটলেও সন্ধ্যা পর্যন্ত ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল নিখোঁজ মাঝিকে উদ্ধার করতে পারেনি।

স্থানীয়রা জানায়, বুধবার বিকেল থেকে বৃষ্টি শুরু হয়। এর সাথে সাথে বজ্রপাত ছিল। ওই সময়ে পূর্ব রূপসা থেকে যাত্রীবাহী একটি ট্রলার পশ্চিম রূপসার দিকে আসতে থাকে। বৃষ্টির সময় হঠাৎ ট্রলার থেকে দুহাত দূরে নদীর পানিতে বজ্রপাত হয়। এতে আতঙ্কিত ট্রলার মাঝি ট্রলার থেকে নদীতে ঝাঁপ দেয়। এসময় তার ছেলে রাকিব শিকদারও নদীতে ঝাঁপ দেয়। রাকিব নদী থেকে সাঁতার কেটে ঘাটে উঠতে পারলেও মতি মাঝির খোঁজ পাওয়া যায়নি।

ফায়ার সার্ভিসের ডুমুরি দল তাকে উদ্ধারের জন্য বিকেল পৌনে ৬টা থেকে রূপসা নদীতে অভিযান শুরু করে। কিন্তু এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত নিখোঁজ মাঝিকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি।


আরও খবর



এখনও খোঁজ মিলেনি ফায়ার সার্ভিসের ৮ কর্মীর

প্রকাশিত:সোমবার ০৬ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ০৬ জুন ২০২২ | ৩৬০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সীতাকুণ্ডে কনটেইনার ডিপোতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় এখন পর্যন্ত নিহত ৪৯ জন নিহত হয়েছে। তাদের মধ্যে ৯ জন ফায়ার সার্ভিস কর্মী রয়েছে। অগ্নিকাণ্ডের আরও অন্তত চার কর্মী নিখোঁজ রয়েছেন।

সোমবার (৬ জুন) সংবাদমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন ফায়ার সার্ভিস সদর দপ্তরের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (মিডিয়া) মো. শাহজাহান সর্দার। তিনি বলেন ফায়ার সার্ভিসের আরও চার কর্মী নিখোঁজ রয়েছেন। তবে একজনের মরদেহ পাওয়া গেছে সেটি এই চারজনের কি না, এখন নিশ্চিত করা বলা যাচ্ছে না।

নিখোঁজ ফায়ার ফাইটাররা হলেন মো. রবিউল ইসলাম (ফায়ার ফাইটার), ফরিদুরজ্জামান (ফায়ার ফাইটার), শফিউল ইসলাম (ফায়ার ফাইটার), মো. ইমরান হোসেন মজুমদার (লিডার)।

তিনি বলেন, শনিবার রাত ১১টা ২৫ মিনিটে ফায়ার সার্ভিস ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ শুরু করে। এ সময়ে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এতে ফায়ার ফাইটাররাও হতাহত হয়েছেন। এর মধ্যে এখন পর্যন্ত ফায়ার সার্ভিসের নয়জনের মৃত্যু হয়েছে। এ ছাড়া নিখোঁজ রয়েছেন আরও চারজন।

অগ্নিকাণ্ড ও ভয়াবহ বিস্ফোরণে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৪৯ জনে দাঁড়িয়েছে। তবে জেলা প্রশাসনের তথ্যমতে, মৃতের সংখ্যা ৪১ জন। দগ্ধ ও আহত ১৬৩ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ফায়ার সার্ভিস জানায়, আগুন লাগার ৪১ ঘণ্টা পার হলেও তা নিয়ন্ত্রণে আসেনি। এখনও বেশ কয়েকটি কনটেইনার দাউ দাউ করে জ্বলছে। কয়েকটি কনটেইনার থেকে ধোঁয়া বের হচ্ছে।


আরও খবর



রোহিঙ্গা ক্যাম্পে পানিতে ডুবে দুই শিশুর মৃত্যু

প্রকাশিত:সোমবার ০৬ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ০৬ জুন ২০২২ | ৩৪৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলার নয়াপাড়া ও শালবন রোহিঙ্গা ক্যাম্পে পানিতে ডুবে দুই শিশুর মৃত্যু হয়েছে। সোমবার (৬ জুন) সকালে এসব ক্যাম্পের পুকুর থেকে লাশ উদ্ধার করা হয়।

মারা যাওয়া শিশু দুজন হলো-টেকনাফের নয়াপাড়া মৌচনি ক্যাম্পের ডি-ব্লকের বাসিন্দা কামাল সাদেক (৭) এবং একই ক্যাম্পের মো. ইয়াছার (৮)।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, শালবন ও নয়াপাড়া শরণার্থী ক্যাম্পের পাশের মাঠে খেলছিল দুই শিশু। খেলা শেষে পুকুরে নামলে তারা নিখোঁজ হয়। পরে লোকজন এসে উদ্ধার করে ক্যাম্পের ভেতরে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

টেকনাফ নয়াপাড়া নিবন্ধিত ক্যাম্পের নেতা মো. ইসলাম জানান, দুই শিশুর মৃত্যুর বিষয়টি কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে। পারিবারিকভাবে দাফনের প্রস্তুতি চলছে।

আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন ১৬-এপিবিএনের অধিনায়ক (এসপি) তারিকুল ইসলাম জানান, লোকজনের সহাতায় দুই শিশুর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।


আরও খবর



46th IPAMS এর লোগো উন্মোচন ও ওয়েবসাইট উদ্বোধন

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৪ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৪ জুন ২০২২ | ৩১৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ, এসবিপি, ওএসপি, এনডিইউ, পিএসসি, পিএইচডি আজ মঙ্গলবার (১৪ জুন) 46th IPAMS এর লোগো উন্মোচন ও ওয়েবসাইট উদ্বোধন করেন। এসময় সেনাবাহিনীর ঊধ্বর্তন কর্মকর্তাগণ এবং USARPAC এর সদস্যগণ উপস্থিত ছিলেন। আগামী ১২-১৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ তারিখে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী এবং US Army Pacific (USARPAC) এর যৌথ ব্যবস্থাপনায় ঢাকা ও কক্সবাজারে 46th Indo-Pacific Armies Management Seminar (IPAMS) অনুষ্ঠিত হবে। উক্ত সেমিনার উপলক্ষে US Army Pacific (USARPAC) এর সদস্য এবং বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সদস্যদের মধ্যে গত ১২ জুন ২০২২ তারিখ হতে তিন ব্যাপি মধ্যম পর্যায়ের সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

যুক্তরাষ্ট্রের সেনাবাহিনী এবং ইন্দো প্যাসিফিক এলাকার সেনাবাহিনীর মধ্যে সহযোগিতা, সহমর্মিতা ও সম্মিলিত প্রয়াসে একসাথে এই এলাকার বৃহত্তর স্বার্থ সম্পর্কিত বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হয় এবং উপযুক্ত কর্মধারাকে নিরুপনের জন্য এই সম্মেলন প্রতিবছর সংঘটিত হয়। এ বছর বাংলাদেশ সেনাবাহিনী তৃতীয়বারের মত এই বৈশ্বিক সম্মেলন আয়োজন করবে। এ সম্মেলনে মিত্র দেশসমূহের সেনাবাহিনী সাম্প্রতিক গুরুত্বপূর্ণ নিরাপত্তা সম্পর্কিত বিষয়সমূহ বিবেচনায় নিয়ে এবারের প্রতিপাদ্য বিষয় হচ্ছে ‘‘ইন্দো প্যাসিফিক এলাকায় শান্তি এবং স্থিতিশীলতা রক্ষায় সম্ভাবনা এবং প্রতিকূলতা’’ (Prospect and Challenges of Maintaining Peace and Stability and Indo-Pacific Region)।

বর্তমানে করোনা পরিস্থিতির মধ্যে আন্তর্জাতিক পরিমন্ডলে এ রকম একটি বৃহৎ বিষয়ে আন্তর্জাতিক সম্মেলন নিঃসন্দেহে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর জন্য একটি সাহসী উদ্যোগ। বাংলাদেশ এবং যুক্তরাষ্ট্রের সেনাবাহিনীর পেশাদারী যোগাযোগের মাধ্যমে দুই দেশের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক সুদৃঢ় হওয়ার পাশাপাশি সামগ্রিক সম্পর্কেরও উন্নয়ন সাধন হবে। এই সম্মেলনে ইন্দো প্যাসিফিক এলাকার ত্রিশোর্ধ্ব দেশের সেনাপ্রধানসহ জ্যেষ্ঠ সামরিক কর্মকর্তাগণ অংশগ্রহণ করবেন। এতে দেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল হবে এবং সেনাবাহিনীর পেশাদারিত্বের মান আন্তর্জাতিক পরিমন্ডলে প্রকাশিত হবে।

উল্লেখ্য যে, 46th IPAMS সম্পর্কিত বিভিন্ন তথ্যাদি https://ipams.army.mil.bd এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে জানা যাবে।


আরও খবর