আজঃ মঙ্গলবার ২৮ জুন ২০২২
শিরোনাম

ঘরে বসেই যেভাবে করবেন অনলাইন জিডি

প্রকাশিত:বুধবার ২২ জুন 20২২ | হালনাগাদ:বুধবার ২২ জুন 20২২ | ২৯০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলাকে প্রযুক্তির শীর্ষে নিতে ভিশন-২০২১ লক্ষ্য ঘোষণা করেছে সরকার। সে লক্ষ্যে দেশ এগিয়েছে অনেক দূর। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিশন-২০২১ এর আলোকে ২০১০ সালেই সারাদেশে প্রতিটি থানায় ইলেকট্রনিক এফআইআর ও জিডি চালুর পরিকল্পনা করেন। মঙ্গলবার (২১ জুন) সেটির পূর্ণতা পেয়েছে। ভিশন-২০২১ এর দীর্ঘমেয়াদি ১০টি বিভিন্ন স্ট্র্যাটেজিক লক্ষ্যের মধ্যে অন্যতম লক্ষ্য ছিল ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশের সকল থানায় ইলেকট্রনিক জিডি ও এফআইআর চালু করা। মঙ্গলবার (২১ জুন) বিকেলে সেটির উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

রাজারবাগ পুলিশ অডিটোরিয়ামে আয়োজিত অনুষ্ঠানে গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে অনলাইন জিডি কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। একই অনুষ্ঠানে পদ্মা সেতু উত্তর ও দক্ষিণ থানার উদ্বোধন, বাংলাদেশ পুলিশ কর্তৃক দ্বিতীয় পর্যায়ে নির্মিত ১২০টি গৃহ হস্তান্তর, পুলিশ হাসপাতালসমূহের আধুনিকায়ন প্রকল্পের আওতায় ১২টি পুলিশ হাসপাতাল, ৬টি নারী ব্যারাকের উদ্বোধন করেন তিনি।

পুলিশ সদর দপ্তর সূত্রে জানা গেছে, পুলিশের আধুনিকায়নের যুক্ত হওয়া অনলাইন জিডি কার্যক্রমের সফটওয়্যারটি সিডিএমএস++ সফটওয়্যারের সাথে এপিআইয়ের মাধ্যমে সংযুক্ত। ২০১১ সালে সিডিএমএস সফটওয়্যার তৈরি করা হয়, যা বর্তমানে বাংলাদেশের সকল থানায় দায়ের করা এফআইআর ও তদন্তসংশ্লিষ্ট বিভিন্ন তথ্যাদির ডিজিটাল রেকর্ড হিসেবে কেন্দ্রীয়ভাবে সংরক্ষিত হচ্ছে। দেশের যে কোনো থানায় বসেই কোনো সন্দেহভাজন সম্পর্কে বাংলাদেশের বিভিন্ন থানায় তার বিরুদ্ধে কী ধরনের মামলা রয়েছে তার আপডেট জানা এখন মাঠ পুলিশের কাছে একটি নৈমিত্তিক বিষয়।

অনলাইন জিডির শুরু ২০১৯ সালে: সিডিএমএস++ তথা অনলাইন জিডির বর্তমান সফটওয়্যারটির নির্মাণ শুরু হয় ২০১৯ সালে। ২০২০ সালের জুন থেকে এর পরীক্ষামূলক ব্যবহার শুরু হয়।। ২০২২ সালের জুনে উদ্বোধন করা হলো।

৬৬২ থানায় অনলাইন জিডির দেখভালে ৬৬০০ পুলিশ: করোনা মহামারির মধ্যেও অনলাইন জিডির কাজ বন্ধ রাখেনি পুলিশ। পুলিশ স্ব-উদ্যোগে ৬৪ জেলায় ৮ মেট্রোপলিটন ও ৬৬২ থানায় প্রয়োজনীয় সংখ্যক জনবলকে প্রশিক্ষিত করেছে। ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে এবং সরকারের ভিশন-২০২১ এর লক্ষ্য অর্জনে প্রশিক্ষিত জনবলে অনলাইন জিডি চালু করার সব প্রস্তুতি নেওয়া হয়।

সিডিএমএস++ এ ১৩ ফিচারের অন্যতম অনলাইন জিডি: অনলাইন জিডি সুবিধাসহ ১৩টি ফিচার নিয়ে সিডিএমএস++ বাংলাদেশ পুলিশের নিজস্ব উদ্যোগে সিডিএমএস টেকনিক্যাল কমিটির সার্বিক তত্ত্বাবধানে নির্মিত একটি অ্যাপ্লিকেশন সফটওয়্যার। সফটওয়্যারটির মোবাইল অ্যাপস ও ওয়েব সংস্করণ ব্যবহার করে সেবাগ্রহীতা ঘরে বসেই জিডিযোগ্য বিভিন্ন বিষয়ে অভিযোগ রেকর্ড করতে পারবেন এবং এ বিষয়ে গৃহীত কার্যক্রম সম্পর্কে স্বয়ংক্রিয়ভাবে পরবর্তী আপডেট জানতে পারবেন। অন্যদিকে থানায় দায়িত্বরত ডিউটি অফিসার অভিযোগ প্রাপ্তির ব্যবস্থা গ্রহণসহ থানার সকল কার্যক্রম ডিজিটাল জেনারেল ডায়েরিতে এন্ট্রি করবেন এবং পিআরবি প্রবিধি মোতাবেক ২০০ পৃষ্ঠা বিশিষ্ট জেনারেল ডায়েরি বই বাঁধাই করে সংরক্ষণ করবেন। একইসাথে থানার ওসি, সার্কেল বা জোনাল অফিসার পুলিশ সুপারসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা তাদের সার্বিক তদারকি কার্যক্রম সম্পাদন করতে পারবেন।

অনলাইন জিডি যেভাবে করবেন, যা লাগবে: প্রথমে প্লে স্টোর থেকে ONLINE GD নামে সফটওয়্যার ইন্সটল করতে হবে। এরপর নিজের মোবাইল নম্বর ও মনে রাখার সুবিধা মতো পাসওয়ার্ড দিয়ে এবং অন্যান্য নির্দেশনা অনুসরণ করে নিবন্ধন সম্পন্ন করতে হবে। এরপর নির্ধারিত ছকের তথ্যসমূহ পূরণ করে অনলাইন জিডির তথ্যাদি এন্ট্রি করতে হবে।

এনআইডির তথ্য দিয়ে অভিযোগ এন্ট্রি করতে হবে: নিবন্ধন অপশনে গেলে মিলবে আরও চারটি অপশন। সেখানে আছে জাতীয় পরিচয়পত্র, জন্ম নিবন্ধন, পাসপোর্ট ও বিদেশি পাসপোর্ট। তবে আপাতত জাতীয় পরিচয়পত্রের তথ্যে নিবন্ধন করা যাচ্ছে। জাতীয় পরিচয়পত্রের অপশনে গিয়ে জাতীয় পরিচয়পত্রের নম্বর জন্মতারিখ ও পরিচয়পত্র যাচাই করে ব্যবহারকারীর জেলা থানা ইউনিয়ন গ্রাম ও ঘটনার বিবরণ সংক্রান্ত তথ্য বিবরণী দিতে হবে।

অভিযোগ সম্পন্ন হলেই মিলবে সার্ভিস কোড: অনলাইনে জিডি প্রক্রিয়া সম্পন্ন হলে ব্যবহারকারী পাবেন সার্ভিস কোড। অল্প সময়ের মধ্যেই অ্যাপসের মাধ্যমে অনলাইনে কিউ-আর কোড সম্বলিত জিডির কপি সংগ্রহ ও মুদ্রণ করা যাবে। সফটওয়্যার ছাড়াও অনলাইন জিডি করা যাবে GD.POLICE.GOV.BD ওয়েবসাইটে।

সিডিএমএম++ রয়েছে আরও ১৩টি ফিচার: ১. অনলাইন জিডি, ২. জিডি সংশ্লিষ্ট অনুসন্ধান ও তদারকি কার্যক্রম , ৩. হারানো ও প্রাপ্তি সংক্রান্ত ম্যাচিং রেকর্ড উপকারভোগীকে স্বয়ংক্রিয়-অবহিতকরণ, ৪. অশনাক্ত লাশ শনাক্তে ফটো-ম্যাচিং সুবিধা, ৫. মৃতের শরীরের বিভিন্ন অংশের ৩২টি ছবিসহ ভয়েস-টাইপে স্বয়ংক্রিয় সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি , ৬. ডিজিটাল মানচিত্রে সন্দেহভাজনদের আবাসন চিহ্নিতকরণ, ৭. বিট পুলিশিংসহ টহল দলের গতিবিধি অনলাইন-মানচিত্রে সরাসরি নিরীক্ষণ, ৮. পুলিশের ছুটি ও সিসি ব্যবস্থাপনা, ৯. অটো আপডেটিং পুলিশ ফোনবুক, ১০. পুলিশের সুষম দায়িত্ব বণ্টন ব্যবস্থা, ১১. পুলিশের দক্ষতা-পরিমাপক কর্ম-মূল্যায়ন ব্যবস্থা, ১২. পুলিশের জন্য সিমবিহীন বহুমুখী আন্তঃযোগাযোগ ব্যবস্থা, ১৩. অবস্থান চিহ্নিতকরণ ও লাইভ-ফটো ম্যাচিং সুবিধাসহ পুলিশের ডিজিটাল হাজিরা।

জনপ্রত্যাশা পূরণে অনলাইন জিডি একটি মাইলফলক: অনলাইন জিডি সম্পর্কে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগে সিনিয়র সচিব মো. আখতার হোসেন বলেন, ভিশন-২০২১ অনুযায়ী টেকসই, অংশগ্রহণমূলক উন্নয়নের জন্য যে কোনো সংস্থা বা প্রতিষ্ঠানের ভূমিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। প্রযুক্তিনির্ভর প্রাতিষ্ঠানিক সক্ষমতা বৃদ্ধিতে বাংলাদেশ পুলিশ বিজ্ঞানভিত্তিক তদন্ত ও গোয়েন্দা তথ্য নির্ভর পুলিশিংয়ে অনেক সাফল্য অর্জন করেছে এবং এ লক্ষ্যে নিরন্তর প্রয়াস অব্যাহত রেখেছে। এর অন্যতম হলো অনলাইন জিডি। জনপ্রত্যাশা পূরণে এ পদক্ষেপ একটি মাইলফলক হবে বলে আমাদের প্রত্যাশা।

মুজিববর্ষের শ্রেষ্ঠ উপহার অনলাইন জিডি: আইজিপি ড. বেনজীর আহমেদ বলেন, পুলিশ বর্তমানে প্রতিরোধমূলক পুলিশিংয়ের ক্ষেত্রে ব্যাপক সক্ষমতা অর্জন করেছে। প্রযুক্তির সদ্ব্যবহারের কারণে এই প্রযুক্তি ব্যবহারের সক্ষমতা পুলিশের অর্জন করা মুজিববর্ষের শ্রেষ্ঠ উপহার। মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তাগণ অনলাইন জিডি ব্যবহারে দক্ষতা অর্জনের মাধ্যমে অনুসন্ধানে গুণগত মান উন্নয়ন ও তদন্তে গতিশীলতা আনতে সক্ষম হবেন। একই সাথে তদারককারী কর্মকর্তাগণ এ সফটওয়্যারের সহায়তায় অনুসন্ধানকারী কর্মকর্তাদের জবাবদিহিতা নিশ্চিত করবেন। এতে বিচারপ্রার্থী সাধারণ জনগণ উপকৃত হবে। তাছাড়া সেবা প্রার্থী জনগণ অতি সহজে এ সুবিধা ব্যবহার করতে পারবেন।

অনলাইন জিডি দেশরক্ষার মাইলফলক: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, বাংলাদেশের সর্বসাধারণের জন্য বাংলাদেশ পুলিশের নতুন উপহার অনলাইন জিডি দেশরক্ষায় আত্ম-নিবেদিত পুলিশবাহিনীর জন্য নতুন এক মাইলফলক।

নিউজ ট্যাগ: অনলাইন জিডি

আরও খবর



পদ্মা সেতুতে দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন হবে: প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:সোমবার ২৭ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৭ জুন ২০২২ | ১৯৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

পদ্মা সেতু দক্ষিণাঞ্চলের ২১টি জেলার মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন ঘটাবে এবং এর ফলে এই অঞ্চলে শিল্পায়ন হবে বলে মনে করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সোমবার (২৭ জুন) দুপুরে একটি অনুষ্ঠানে সরকারি বাসভবন গণবভন থেকে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে তিনি এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, দক্ষিণাঞ্চলের মানুষ দীর্ঘদিন পর্যন্ত অবহেলিত ছিল। আমরা আমাদের নিজেদের টাকায় পদ্মা সেতু করেছি। এর ফলে এই অঞ্চলে শিল্পায়ন হবে। এতে দক্ষিণাঞ্চলের ২১ জেলার মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন হবে।

সম্প্রতি সিলেট-সুনামগঞ্জসহ কয়েকটি জেলায় ভয়াবহ বন্যা পরিস্থিতির কথা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, প্রাকৃতিক দুর্যোগ, সমস্যা আসবে। তা মোকাবিলা করেই আমাদের চলতে হবে। এ সময় বন্যার্তদের সহযোগিতায় যারা অনুদান দিয়েছেন তাদের ধন্যবাদ জানান তিনি।

প্রধানমন্ত্রী জানান, খাদ্য উৎপাদন নিশ্চিত করতে কৃষি উৎপাদনে জোর দিচ্ছে সরকার। এসময় অর্থনৈতিক উন্নয়নে ১০০টি অর্থনৈতিক অঞ্চল করা হয়েছে। অনুষ্ঠানে বন্যাদুর্গত মানুষের সহায়তার জন্য প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে ৩০৪ কোটি ৪১ লাখ টাকা অনুদান দিয়েছে ৪৫টি ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান।


আরও খবর



জঙ্গল থেকে গাঁজাসহ যুবকের গলাকাটা লাশ উদ্ধার

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৬ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৬ জুন ২০২২ | ৪২০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বগুড়ার সারিয়াকান্দিতে এক যুবকের (৩৫) গলাকাটা লাশ উদ্ধা করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার বিকালে থানা পুলিশ উপজেলার দীঘলকান্দি প্রেম যমুনা ঘাটের দক্ষিণপাড়ে জঙ্গল থেকে পচন ধরা লাশটি উদ্ধার করে। ওই যুবকের পরিচয় মেলেনি বলে সারিয়াকান্দি থানার ওসি মিজানুর রহমান জানিয়েছেন।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, বগুড়ার সারিয়াকান্দি উপজেলার সদর ইউনিয়নের দীঘলকান্দি গ্রামে যমুনা নদীর প্রেম যমুনা ঘাটের দক্ষিণ পাশে একটি জঙ্গলে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে পচা দুর্গন্ধ বের হচ্ছিল। লোকজন সেখানে গিয়ে এক যুবকের পচন ধরা লাশ দেখতে পান। খবর পেয়ে সারিয়াকান্দি থানা পুলিশ বিকালে লাশটি উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। লাশের পাশে কিছু গাঁজা ও গাঁজা সেবনের সরঞ্জামাদি পাওয়া গেছে।

সারিয়াকান্দি থানার ওসি মিজানুর রহমান বলেন, দুর্বৃত্তরা পূর্ব পরিকল্পিতভাবে অজ্ঞাত ওই ব্যক্তিকে দীঘলকান্দির জঙ্গলে এনে গলা কেটে ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে ছুরিকাঘাতে হত্যা করেছে। তার পরনে সাদা শার্ট ও লুঙ্গি আছে। ৩-৪ দিন আগে তাকে হত্যা করায় লাশ পচন ধরে বিকৃত হয়ে গেছে। তাই স্থানীয়রা তাকে শনাক্ত করতে পারছেন না। পরিচয় নিশ্চিত হতে বিভিন্ন থানায় বার্তা পাঠানো হয়েছে।


আরও খবর



মিরপুরে কিশোরীকে ৪ দিন আটকে রেখে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ

প্রকাশিত:বুধবার ২২ জুন 20২২ | হালনাগাদ:বুধবার ২২ জুন 20২২ | ৪৭৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রাজধানীর মিরপুর-১১ নম্বরের বাউনিয়া বাঁধের ডি ব্লকে ১৪ বছরের এক কিশোরীকে চারদিন আটকে রেখে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

মহসিন কাজী নামে এক ব্যক্তি তার স্ত্রীর সহযোগিতায় আরও দুই ব্যক্তিকে নিয়ে ওই কিশোরীকে কয়েক দফা সংঘবদ্ধ ধর্ষণ করেছেন বলে জানা গেছে। মহসিনের স্ত্রীর নাম মর্জিনা। এ ঘটনায় ওই কিশোরীর বাবা হানিফ গত ১৯ জুন চারজনকে আসামি করে পল্লবী থানায় একটি মামলা করেছেন।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, ওই কিশোরী ৮ বছর ধরে ভাসানটেকের এক বাড়িতে গৃহকর্মীর কাজ করত। গত ১৫ জুন রাতে সে ওই বাসা থেকে পালিয়ে ভাসানটেকের দেওয়ান পাড়ার একটি ব্রিজের কাছাকাছি দাঁড়িয়েছিল।এ সময় মহসিন ও মর্জিনা ওই রাস্তা দিয়ে যাচ্ছিলেন। কিশোরী তাদেরকে ভালো মানুষ মনে করে এক রাতে থাকার জন্য তাদের কাছে আশ্রয় চায়।

তখন তারা ওই কিশোরীকে আশ্রয় দেন। একপর্যায়ে চারদিন আটকে রেখে মর্জিনার সহযোগিতায় ওই কিশোরীকে ধর্ষণ করেন মহসীন। শুধু তাই নয়, মহসিন ও মর্জিনার সহযোগিতায় মাসুদ রানাসহ অজ্ঞাত আরও এক ব্যক্তি কিশোরীকে কয়েক দফা ধর্ষণ করে। ৪ দিন পর সেখান থেকে ওই কিশোরী পালিয়ে আসে।

এ বিষয়ে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও পল্লবী থানার পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশন) উদয় কুমার মন্ডল বলেন, আমরা প্রাথমিকভাবে ওই কিশোরীর ধর্ষণের আলামত পেয়েছি। ভিকটিমের ডাক্তারি পরীক্ষা করানো হয়েছে। আগামী দুই-এক দিনের মধ্যে রিপোর্ট আসবে। ইতোমধ্যে চার আসামিকে গ্রেপ্তার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে।


আরও খবর



পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী দিন সব বাহিনীকে সতর্ক থাকার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

প্রকাশিত:বুধবার ১৫ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১৫ জুন ২০২২ | ৩৪৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

আগামী ২৫ জুন বিরোধীতাকারীরা এমন ঘটনা ঘটাতে পারে যাতে পদ্মা সেতুর উদ্বোধন না হয়, সেজন্য সব বাহিনীকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বুধবার (১৫ জুন) সকালে গণভবনে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

এ সময় প্রধানমন্ত্রী বলেন, আওয়ামী লীগ দেশের চিন্তা করে, মানুষের চিন্তা করে। পরিবেশের কথা ভেবে পরিবেশ রক্ষায় বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছে ও কর্মসূচি বাস্তবায়ন করছে।

সবাইকে অন্তত একটি করে ফলদ, বনজ ও ভেষজ গাছ লাগানোর আহ্বান জানিয়ে সরকার প্রধান বলেন, রাজধানীতে হয়তো সবার জায়গা নেই। তবে ছাদ তো আছে, নিজের বাসার ছাদে বাগান করেন। সরকারি অফিসগুলোর ছাদে বাগান করার পরামর্শ দিয়ে তিনি বলেন, শহরে যারা থাকেন, তারা ব্যালকনিতে ছোট একটি গাছও লাগাতে পারেন। অন্তত একটি করে গাছ লাগান।

গণভবনের বাগানে ছাতিম, সফেদা ও হরিতকীর চারা রোপণের মাধ্যমে বাংলাদেশ কৃষক লীগের বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ সময় আওয়ামী লীগসহ সব সহযোগী সংগঠনকে বৃক্ষরোপণের আহ্বান জানান তিনি।

অনুষ্ঠানে কৃষক লীগের সভাপতি সমীর চন্দ্র, সাধারণ সম্পাদক উম্মে কুলসুম স্মৃতিসহ সংগঠনের নেতারা ও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর



সাংবাদিকতার 'হাতেখড়ি' শেখালো জবি প্রেসক্লাব

প্রকাশিত:শনিবার ২৫ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২৫ জুন ২০২২ | ১৭৫জন দেখেছেন

Image

জবি প্রতিনিধি:

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) শিক্ষার্থীদের সাংবাদিকতায় আগ্রহ তৈরি ও সংবাদমাধ্যমের বিভিন্ন দিক তুলে ধরার মধ্য দিয়ে বুনিয়াদি প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় প্রেসক্লাবের আয়োজিত এই কর্মশালাটিতে সাংবাদিকতার হাতেখড়িসহ নাগরিক সাংবাদিকতার বিভিন্ন দিক শেখানো হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন একাডেমিক ভবনের ম্যানেজমেন্ট স্টাডিজ বিভাগের ২১৫নং কক্ষে সকাল ১০ টায় শুরু হওয়া কর্মশালাটি বিকেল ৪ টায় শেষ হয়। প্রায় দুই শতাধিক শিক্ষার্থীর স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণে কর্মশালাটি অনুষ্ঠিত হয়।

কর্মশালায় সংবাদের উপাদান ও পারিপার্শ্বিকতা বিষয়ে কথা বলেন ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি ও দৈনিক আনন্দ বাজার পত্রিকার বাংলাদেশ প্রতিনিধি কুদ্দুস আফ্রাদ। এছাড়াও মোবাইল জার্নালিজম ও এর পারিপার্শ্বিকতা নিয়ে আলোচনা করেন ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের কল্যাণ সম্পাদক জুবায়ের রহমান চৌধুরী।

ক্যাম্পাস সাংবাদিকতায় চলতে ফিরতে শেখা নিয়ে আলোচনা করেন বিশ্ববিদ্যালয় প্রেসক্লাবের প্রতিষ্ঠাকালীন সভাপতি ও বর্তমানে 'নগদ' এর জনসংযোগ কর্মকর্তা ইমরান আহমেদ অপু। পরিশেষে সাংবাদিকতার মৌলিক ধারণা ও নাগরিক সাংবাদিকতা নিয়ে আলোচনা করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের প্রভাষক শেখ আবু রাইহান সি‌দ্দিকী। কর্মশালা শেষে অংশগ্রহণকারী সকলকে সার্টিফিকেট প্রদান করা হয়।

প্রশিক্ষণ কর্মশালায় জবি প্রেসক্লাবের সভাপতি মোস্তাকিম ফারুকীর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আরমান হাসানের সঞ্চালনায় অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয় প্রেসক্লাবের প্রধান উপদেষ্টা বিডি নিউজটোয়েন্টিফোর ডটকমের স্টাফ রিপোর্টার কাজী মোবারক হোসেন। এছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. মোস্তফা কামাল, সহকারী প্রক্টরবৃন্দ শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন দিকনির্দেশনামূলক উপদেশ দেন।

অনুষ্ঠান শেষে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় প্রেসক্লাবের ২০২২ সালের সাংবাদিক পুরস্কার প্রদান করা হয়৷ সেরা প্রতিবেদক হিসেবে নিউজবাংলা টুয়েন্টিফোরের মেহেরাবুল ইসলাম সৌদিপ, বিশেষ প্রতিবেদক হিসেবে এনটিভি অনললাইনের আহনাফ তাহমিদ ফাইয়াজ, অনুসন্ধানী প্রতিবেদক হিসেবে দৈনিক সকালের সময়ের ইউছুব ওসমান এবং সর্বোচ্চ সংখ্যক প্রতিবেদনের জন্য অনুপম মল্লিক আদিত্যকে ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।


আরও খবর