আজঃ সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

ফেসবুকে শুক্রাণুদাতা খুঁজে নিয়ে মা হচ্ছেন ব্রিটিশ নারীরা!

প্রকাশিত:সোমবার ০১ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ০১ মার্চ ২০২১ | অনলাইন সংস্করণ
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
এসব কিছুর পর ক্লো যেখানে থাকতেন, তার কয়েক মাইল দূরে একটি কারপার্কে লোকটির সঙ্গে দেখা করার পরিকল্পনা করা হলো। পরিকল্পনা মতো শুক্রাণুদাতার সঙ্গে ক্লো এবং তার স্বামীও মোট ৬ বার

ব্রিটেনে যেসব দম্পতির সন্তান হচ্ছে না, তাদের অনেকেই নানা কারণে জাতীয় স্বাস্থ্যসেবা ব্যবস্থায় উপযুক্ত চিকিৎসা পান না। ফলে তাদের অনেকেই গর্ভধারণের জন্য ফেসবুকের বিভিন্ন গ্রুপ থেকে স্পার্ম ডোনার বা শুক্রাণুদাতা খুঁজে নিচ্ছেন।

বছর খানেক ধরে সন্তান নেবার চেষ্টা করে যাচ্ছিলেন ক্লো এবং তার সঙ্গী। কিন্তু কিছুতেই তার গর্ভসঞ্চার হচ্ছিল না। পারিবারিক ডাক্তার তাদের জাতীয় স্বাস্থ্য সেবা বা এনএইচএসের স্থানীয় ফার্টিলিটি ক্লিনিকে যাওয়ার পরামর্শ দেন। সেখানে বিভিন্ন পরীক্ষার পর দেখা যায়, ক্লোর সঙ্গীর শুক্রাণুর কিছু সমস্যা রয়েছে এবং তাই গর্ভধারণ করতে হলে তাকে একজন দাতার শুক্রাণু নিতে হবে। ক্লিনিক থেকে তাদের শুক্রাণুদাতার তালিকা দেয়া হয়। সেই তালিকায় মাত্র একজন উপযুক্ত দাতার সন্ধান পেলেন তারা।

তার শুক্রাণু ব্যবহার করে ২০১৭ সালের অক্টোবরে ক্লোর প্রথম আইভিএফ বা কৃত্রিম গর্ভসঞ্চারের চেষ্টা করা হলো। কিন্তু তাতে কোনও কাজ হলো না। তখন ক্লিনিক থেকে ক্লোকে বলা হলো, তারা আইসিএসআই নামে আরেকটি পদ্ধতি চেষ্টা করে দেখতে পারেন- যাতে সরাসরি ডিম্বাণুর ভেতরে শুক্রাণু প্রবেশ করিয়ে দেয়া হয়।

কিন্তু এ পদ্ধতিটি আরও ব্যয়বহুল এবং এর খরচ তাদেরকেই বহন করতে হবে। ক্লো বলছিলেন, আমাদের পক্ষে তখন হাজার হাজার পাউণ্ড খরচ করা সম্ভব ছিল না। ততদিনে ক্লো আর তার সঙ্গী বিয়ে করেছেন। তার স্বামীই একদিন বললেন, অনলাইনে একজন শুক্রাণু দাতার খোঁজ করলে কেমন হয়? ক্লো তাই করলেন। তবে তার বন্ধুরা ও পরিবার যাতে ব্যাপারটা জানতে না পারে- সে জন্য তিনি একটা ভুয়া নাম নিয়ে ফেসবুকে কিছু গ্রুপে যোগদান করলেন এবং কয়েকদিনের মধ্যে একজন সম্ভাব্য শুক্রাণু দাতা পেয়েও গেলেন।

সেই শুক্রাণু দাতা লোকটি তার মেডিকেল ও পারিবারিক ইতিহাস জানালেন। তার কোনও যৌনরোগের সংক্রমণ হয়েছিল কিনা- তা চেক করার দলিলপত্রও দিলেন। এসব কিছুর পর ক্লো যেখানে থাকতেন, তার কয়েক মাইল দূরে একটি কারপার্কে লোকটির সঙ্গে দেখা করার পরিকল্পনা করা হলো। পরিকল্পনা মতো শুক্রাণুদাতার সঙ্গে ক্লো এবং তার স্বামীও মোট ৬ বার দেখা করেছিলেন। ক্লো এতে একবার গর্ভবতী হয়েছিলেন ঠিকই, কিন্তু তার মিসক্যারেজ বা গর্ভপাত হয়ে যায়। প্রতিবার তারা সেই দাতা লোকটিকে তার শুক্রাণুর জন্য ৫০ পাউণ্ড এবং যাতায়াতের জন্য ১০ পাউণ্ড দিয়েছিলেন।

এর মধ্যে শুরু হলো করোনাভাইরাস মহামারি। লকডাউনের কারণে কোথাও যাতায়াত করার ওপর বিধিনিষেধ থাকায় ক্লো এবং তার স্বামী ভিন্ন উপায় বের করলেন। তারা ফেসবুক থেকেই অন্য একজন শুক্রাণুদাতা খুঁজে বের করলেন। এই লোকটি এলেন ক্লোর বাড়িতে। এবার ক্লো সাফল্য পান। তিনি এখন সন্তানসম্ভবা। তিনি বলেন, আমরা ভীষণ আনন্দিত। অনেক দিন চেষ্টার পর এখন আমাদের একটি সন্তান হতে যাচ্ছে, পরিবার হতে যাচ্ছে- যা আমরা দুজনে অনেকদিন ধরে চেয়ে আসছি।

ক্লো এবং তার স্বামী যে সন্তানের জন্য একজন শুক্রাণুদাতা ব্যবহার করেছেন, তা তারা তাদের পরিবার বা বন্ধুদের বলেননি। একটা কারণ হচ্ছে- ক্লোর স্বামী যে সন্তান উৎপাদনে অক্ষম তা তারা কাউকে জানতে দিতে চান না। আরেকটা কারণ হলো- কিছু লোক আছে যারা ভাববে যে এটা একটা গুরুতর অন্যায় কাজ করেছেন তারা। ক্লো বলছেন, সৌজন্যবোধ থেকেই তিনি তার গর্ভবতী হবার কথা শুক্রাণুদাতাকে জানিয়েছেন। তবে তিনি বলছেন, এ শিশুর ওপর দাতার কোন অধিকার থাকবে না এবং সন্তানের জন্ম সনদেও থাকবে ক্লোর স্বামীর নাম।


আরও খবর



রওশনপন্থিদের কমিটিকে আমলে নিতে সিইসিকে চিঠি

প্রকাশিত:সোমবার ২৯ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৯ জানুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

জাতীয় পার্টির (জাপা) কমিটি পরিবর্তন করে রওশনপন্থিদের কমিটিকে আমলে নিতে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়ালকে চিঠি দিয়েছে দলটির একাংশ। সোমবার (২৯ জানুয়ারি) নির্বাচন কমিশনে গিয়ে এ চিঠি দেন রওশন এরশাদের ঘোষিত কমিটির মহাসচিব কাজী মো. মামুনূর রশিদ।

এতে বলা হয়, রোববার (২৮ জানুয়ারি) জাপার অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা এবং সাবেক বিরোধী দলীয় নেতা বেগম রওশন এরশাদের গুলশানের বাসভবনে জাতীয় পার্টির সর্বস্তরের নেতাকর্মীদের সভায় সর্বসম্মতিতে পার্টির চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ কাদের ও মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নুকে তাদের পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।

চিঠিতে আরও বলা হয়, বর্তমানে নিবন্ধন নং-১২ জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান বেগম রওশন এরশাদ ও মহাসচিব কাজী মো. মামুনূর রশিদ জাতীয় পার্টির দাপ্তরিক কার্যক্রম পরিচালনা করবেন। এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য অনুরোধ জানাচ্ছি। দ্রুত সময়ের মধ্যে জাতীয় সম্মেলন আহ্বান করা হবে বলেও এতে উল্লেখ করা হয়েছে।


আরও খবর



ঘুমের ওষুধ না খেয়ে একটু বইটই পড়ুন: প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক

Image

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, পৃথিবীতে সব থেকে মধুর ভাষা বাংলা। এত চমৎকার ভাষা কোথাও আছে কি না জানি না। হয়তো এটি আমাদের মাতৃভাষা বলে এমনটা মনে হয়।

তিনি বলেন, পড়ার অভ্যাস সবার থাকা উচিত। ছোটবেলা থেকে বাবা-মা যদি শিখায় সেটি ভালো হয়। অনেকে ঘুমের জন্য ওষুধ খায়, প্রয়োজন নেই। বই পড়লেই ঘুম চলে আসে। বেশি মজাদার বই পড়লে আবার ঘুম আসবে না। এ জন্য আবার বই বাছাই করতে হবে।

বৃহস্পতিবার (১ ফেব্রুয়ারি) বাংলা একাডেমি ও সোহরাওয়ার্দী উদ্যান প্রাঙ্গণে অমর একুশে বইমেলার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, এখন প্রকাশকদের শুধু কাগুজে প্রকাশক হলে চলবে না, ডিজিটাল প্রকাশক হতে হবে। তাহলে আমরা বেশি মানুষের কাছে পৌঁছাতে পারবো। বিদেশেও পৌঁছাতে পারবো। লেখার পাশাপাশি অডিও থাকবে, এমনটাই করা উচিত। যুগের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে হবে। অনুবাদ করতে হবে। বিশ্বের বিভিন্ন ভাষা ও সাহিত্য আছে, অনুবাদ না করলে আমরা কীভাবে জানবো? পাশাপাশি আমাদের বইগুলোও বাংলা থেকে বিভিন্ন ভাষায় অনুবাদ করতে হবে।

বইমেলায় প্রাণ ফিরে পাওয়ার স্মৃতি তুলে ধরে শেখ হাসিনা বলেন, এখানে এলে ভালো লাগে। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী হিসেবে আসার মজা নেই। ডানে ঘুরলে নিরাপত্তা, বামে ঘুরলে নিরাপত্তা। এ নিরাপত্তার বেড়াজালে স্বাধীনতাই হারিয়ে গেছে। এখানে স্কুল জীবন থেকে আসতাম। সে মজা এখন নিরাপত্তার কারণে তা পাই না।

এ বছর ১১টি বিভাগে বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কার-২০২৩ দেওয়া হয়েছে। বক্তব্যের আগেই প্রধানমন্ত্রী তাদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন। বক্তব্যের পর মেলায় বিভিন্ন স্টল ঘুরে দেখেন।


আরও খবর



গ্যাসের প্রিপেইড মিটারের আওতায় আসবে গ্রাহকরা : জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী

প্রকাশিত:শনিবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

এই সরকারের মেয়াদকালের মধ্যেই দেশের সব গ্যাসের গ্রাহকরা প্রিপেইড মিটারের আওতায় চলে আসবে বলে জানিয়েছেন বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ। শনিবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) সকালে সিলেটে ডাটা সেন্টার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন তিনি।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, সিলেটের ৫০ হাজার গ্রাহককে ইতিমধ্যে প্রিপেইড মিটারের আওতায় আনা হয়েছে। আমরা চেষ্টা করছি শীঘ্রই আরও দেড় লাখ গ্রাহককে প্রিপেইড মিটারের আওতায় নিয়ে আসতে পারবো। এই পরিকল্পনা দিকেই এগুচ্ছে জালালাবাদ গ্যাস। পর্যায়ক্রমে সিলেট বিভাগের সব গ্রাহক প্রিপেইড মিটারের আওতায় চলে আসবে।

প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদের তিন দিনের সিলেট সফরে বিভিন্ন প্রকল্প উদ্বোধনসহ নানা কর্মসূচি রয়েছে। 


আরও খবর



পিনাকী ভট্টাচার্যসহ ৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা

প্রকাশিত:রবিবার ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
সিলেট প্রতিনিধি

Image

বিদেশে অবস্থানরত লেখক ও অনলাইন অ্যাকটিভিস্ট পিনাকী ভট্টাচার্যসহ সাতজনের বিরুদ্ধে সিলেটে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা হয়েছে।

আজ রোববার সাইবার ট্রাইব্যুনালে মামলাটি করেছেন বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ সিলেট জেলা সহসভাপতি ও মহানগরের কুয়ারপারের বাসিন্দা আব্দুর রহমান।

সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক (জেলা জজ) মো. মনির কামাল মামলাটি আমলে নিয়ে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করার জন্য সিআইডি জোন সিলেটকে নির্দেশ দেন।

সাইবার নিরাপত্তা আইন ২০২৩ এর ২৪,২৫, ২৬,২৯, ৩১ ও ৩৩ ধারায় মামলাটি দায়ের করেন তিনি।

সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি বিকৃত ও এডিট করে ব্যঙ্গাত্মকভাবে নানা কটূক্তিমূলক উপাখ্যান দিয়ে ফেসবুকে প্রচার ও ভাইরাল করার প্রতিবাদে এবং আইনি প্রতিকার দাবির বিষয়টি এ মামলায় উল্লেখ করা হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বাদীপক্ষের আইনজীবী সিলেট জেলা বারের টিপু রঞ্জন দাশ। বাদীপক্ষে আরও রয়েছেন সিলেটের অতিরিক্ত পিপি অ্যাডভোকেট মাহফুজুর রহমান।

পিনাকী ভট্টাচার্য ছাড়াও মামলার অন্যান্য আসামিরা হলেননাজমুল ইসলাম, শাহরিয়ার হোসেন সাকিব (এসএইচ), ফেসবুক পেজ ফাইট ফর ডেমোক্রেসি এর অ্যাডমিন শাকিল আহমেদ, মো. হাসান মিয়া (হাসান), মো. আব্দুল হাদী ও মো. রেজাউল করিম।


আরও খবর
ঝিনাইদহ জেলা কারাগারে কয়েদির মৃত্যু

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




ক্রিকেটার শামির স্ত্রীর খোলামেলা ছবি ভাইরাল

প্রকাশিত:শুক্রবার ০২ ফেব্রুয়ারী 2০২4 | হালনাগাদ:শুক্রবার ০২ ফেব্রুয়ারী 2০২4 | অনলাইন সংস্করণ
ক্রীড়া প্রতিবেদক

Image

দীর্ঘদিন ধরে আলাদা রয়েছেন ভারতীয় ক্রিকেটার মোহাম্মদ শামি ও মডেল হাসিন জাহান দম্পতি। ভালোবেসে বিয়ে করলেও সেই সংসার সুখের হয়নি তাদের। বিয়ের কয়েক বছরের মাথায় শামির বিরুদ্ধে নির্যাতন, পরকীয়াসহ একাধিক অভিযোগ তোলেন হাসিন।

এরপর বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নেন এই দম্পতি। যদিও আনুষ্ঠানিকভাবে ডিভোর্স এখনও চূড়ান্ত হয়নি। কারণ মামলা গড়িয়েছে আদালতঅব্দি। যেখানে ভরণপোষণের টাকা চেয়ে অভিযোগ দায়ের করেছেন ক্রিকেটারের স্ত্রী।

এসবের পর থেকেই মেয়ে আইরাকে নিয়ে আলাদা থাকছেন হাসিন। সুযোগ পেলেই শামিকে আক্রমণ করে কথা বলেন তিনি। যা নিয়ে তুমুল আলোচনা চলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও।

শুধু মন্তব্যেই নয়, লাস্যময়ী হাসিন আরও নানা কারণে ঝড় তোলেন নেটদুনিয়ায়। সম্প্রতি ইনস্টাগ্রামে নিজের কিছু খোলামেলা ছবি প্রকাশ করেন ক্রিকেটারের স্ত্রী। যেখানে দেখা যায়, তোয়ালে গায়ে বিছানায় শুয়ে আছেন হাসিন।

অপর একটি ছবিতে লাল টিপ, সিঁদুর রাঙা সিঁথিতে ধরা দিয়েছেন মোহাম্মদ শামির স্ত্রী। ভিন্ন ধর্মাবলম্বী হলেও সিঁথিতে সিঁদুর দিয়ে ছবি প্রকাশ করায় কটাক্ষের মুখে পড়েছেন এই মডেল। যদিও সেসবে পাত্তা দেননি তিনি।

হাসিনের সমালোচনা করে একজন লিখেছেন, ইশ্বর যেন চরম শত্রুকে এমন বউ না দেয়। অপর একজন লেখেন, অসহ্যকর একটা মহিলা, শামি ভক্তদের দুই চোখের বিষ

উল্লেখ্য, ২০১৮ সাল থেকে আইনি লড়াই চলছে শামি-হাসিনের। ক্রিকেটারের স্ত্রীর দাবি, যৌতুকের জন্য নির্যাতন করতেন শামি। এছাড়াও একাধিক নারীর সঙ্গে সম্পর্কে রয়েছে তার। এসব অভিযোগের পরেই হাসিনকে ডিভোর্স দেন ভারতীয় এই পেসার।


আরও খবর
হাথুরুসিংহেকে ‘শোকজ’ করবেন পাপন!

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪