আজঃ রবিবার ০৫ ডিসেম্বর ২০২১
শিরোনাম

একসঙ্গে ৫ সন্তানের জন্ম দিলেন সাদিয়া

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০২ নভেম্বর 2০২1 | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০২ নভেম্বর 2০২1 | ৬৫৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

কুষ্টিয়া ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে একসঙ্গে পাঁচ সন্তানের জন্ম দিয়েছেন এক গৃহবধূ। মঙ্গলবার (০২ নভেম্বর) সকাল ১০টার দিকে প্রথমবারের মতো পাঁচ সন্তানের জন্ম দেন প্রসূতি সাদিয়া খাতুন (২৪)।

গর্ভধারণের পাঁচ মাসের মাথায় জন্ম হওয়ায় শিশুদের ওজন কম হয়েছে। পাঁচ শিশুর মধ্যে চার মেয়ে ও এক ছেলে সন্তান রয়েছে। বর্তমানে মা সুস্থ থাকলেও শিশুরা ঝুঁকিতে রয়েছে।

সাদিয়া খাতুন কুমারখালী উপজেলার পান্টি ইউনিয়নের পান্টি গ্রামের কলেজপাড়া এলাকার সোহেল রানার স্ত্রী।

হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, ৫-৬ মাসের মাথায় সাদিয়া সন্তান প্রসব করেছেন। একসঙ্গে পাঁচ বাচ্চার প্রসবে অনেক ঝুঁকি ছিল। তবে মা সুস্থ থাকলেও ওজন কম হওয়ায় ঝুঁকিতে রয়েছে শিশুরা। শিশুদের দেখতে হাসপাতালের রোগী ও রোগীর স্বজনরা ভিড় করছে।

শিশুদের বাবা সোহেল রানা জানান, খুবই ভালো লাগছে। অনুভূতি প্রকাশের ভাষা পাচ্ছি না। মা সুস্থ আছে। কিন্তু শিশুর ওজন কম হওয়ায় ঢাকায় নিয়ে যেতে বলছে চিকিৎসক। শিশুদের অক্সিজেন চলছে। তারা শিশু ওয়ার্ডের দুই নম্বর রুমের নবজাতক ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

দায়িত্বরত চিকিৎসক ও নার্সরা বলেন, সকাল ১০টার দিকে ওই গৃহবধূ পাঁচ সন্তানের জন্ম দেন। তাকে সোমবার রাত ১০টার দিকে   হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। মা সুস্থ রয়েছে কিন্তু শিশুরা ঝুঁকিতে আছে।

জেনারেল হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক শাহীন আক্তার সুমন বলেন, বাচ্চাদের সুস্থ করে তোলার জন্য চিকিৎসা চলছে। তবে ঝুঁকি থেকেই যাচ্ছে। তাদের ওজন কম হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য দ্রুত ঢাকা মেডিকেল কলেজের শিশু বিভাগে অথবা শিশু হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। বাচ্চাগুলোর ওজন ৫০০-৬০০ গ্রাম। তবে মা সুস্থ রয়েছেন।


আরও খবর



চরম নাটকীয়তায় শেষ ম্যাচও হারল বাংলাদেশ

প্রকাশিত:সোমবার ২২ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ২২ নভেম্বর ২০২১ | ৪০০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

শুরুটা হয়েছিলো টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে। বাছাইপর্বে স্কটল্যান্ডের কাছে হারের পর ক্রিকেটে নতুন মুখ ওমান ও পাপুয়া নিউগিনিকে হারিয়ে বিশ্বকাপের মূল পর্বে খেলার যোগ্যতা অর্জন করে বাংলাদেশ। যদিও বিশ্বকাপ মিশনে যাওয়ার আগে বিসিবির কর্মকর্তারা স্বপ্ন দেখিয়েছিলেন সেমিফাইনাল খেলবে টাইগার বাহিনী।

বাছাই পর্ব থেকে বিশ্বকাপের মূলপর্বে খেলার সুযোগ পাওয়ার পর কেমন যেন অগোছালো হয়ে যায় বাংলাদেশ শিবির। দল ও কোচিং স্টাফদের নিয়ে উঠে নানা প্রশ্ন। এমন অগোছালো দল নিয়ে বিসিবি কর্মকর্তারাও কঠোর হওয়ার ইঙ্গিত দেন। কিন্তু ভালো আর হলো কই?

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে থাকা ৬ জনকে পরিবর্তন করে একগাদা নতুন মুখ নিয়ে ঘরের মাঠে তিন ম্যাচ টি-টোয়েন্টির দল ঘোষণা করে বিসিবি। যদিও নতুনদের দলে নেওয়া বা বেশ কয়েকজন সিনিয়রদের বাদ দেওয়ার কোনো কারণ ব্যাখ্যা করেননি কর্তা ব্যক্তিরা।

বিশ্বকাপে ধরাশায়ীর পর ঘরের মাঠেও পাকিস্তানের কাছে ধবলধোলাই হলো বাংলাদেশ। যদিও প্রথম দুই ম্যাচ হেরেই সিরিজ হাত ছাড়া করে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের দল।

নিয়মরক্ষার শেষ ম্যাচে টস জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন বাংলাদেশ অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। এদিন দলে আনা হয় বেশ কিছু পরিবর্তন। তবে শেষ ম্যাচের আগের দিন দলে ডাক পাওয়া পারভেজ হোসেন ইমন ও কামরুল ইসলাম রাব্বীকে রাখা হয়নি মূল একাদশে।

আগে ব্যাট করা বাংলাদেশ ভালো কিছুর ইঙ্গিত দিলেও শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে মাত্র ১২৪ রান সংগ্রহ করতে সক্ষম হয়। দলের পক্ষে নাঈম শেখের ব্যাট থেকে ৫০ বলে আসে ৪৭ রান। যেখানে দুটি চার ও দুটি ওভার বাউন্ডারির মার ছিলো।

তাছাড়া শামীম হোসেন ২২ ও আফিফ হোসেনের ২০ রান ছাড়া বলার মতো কোনো রান করতে পারেননি কোনো ব্যাটসম্যান।

জয়ের জন্য ১২৫ রানের লক্ষে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা হয় ধীরগতির ব্যাটিং দিয়ে। দলীয় ৩২ রানের মাথায় ব্যক্তিগত ১৯ রান করে আমিনুলের বলে ক্যাচ দিয়ে আউট হন পাকিস্তান অধিনায়ক বাবর আজম। পরে হায়দার আলীকে সঙ্গে নিয়ে জয়ের দিকে এগিয়ে যেতে থাকে সফরকারীরা। তবে ১৫ দশমিক ১ ওভারে দলীয় ৮৩ রানের মাথায় শহিদুল ইসলামের বলে বোল্ড হয়ে প্যাভিলিয়নের পথ ধরেন ৪৩ বলে ৪০ রান করা মোহাম্মদ রিজওয়ান।

তখনও পাকিস্তানকে জিততে হলে দরকার ২৮ বলে ৪১ রান। এমন সমীকরণেও ঘুরে দাঁড়াতে পারলো না বাংলাদেশ। তবে খেলা পর্যন্ত নাটকীয়তায় রূপ নেয়। ৬ বলে পাকিস্তানের দরকার হয় ৮ রান। বল হাতে নেন অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। প্রথম বল ডট, দ্বিতীয় ও তৃতীয় বলে উইকেট। চতুর্থ বলে ছক্কা, পঞ্চম বলে আবারো উইকেট। জয়ের জন্য শেষ বলে দরকার দুই রান। আর একরান হলে সুপারওভার। কিন্তু ব্যাটসম্যান মোহাম্মাদ নেওয়াজ সব সমীকরণ শেষ করে বাউন্ডারি হাঁকিয়ে ৫ উইকেট হাতে রেখেই শেষ ম্যাচেও জয় তুলে নিলো পাকিস্তানিরা।

বাংলাদেশের পক্ষে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ এক ওভার বল করে ১০ রান দিয়ে নেন তিন উইকেট। আর শহিদুল ইসলাম ও আমিনুল ইসলাম নেন একটি করে উইকেট।

নিউজ ট্যাগ: টি-টোয়েন্টি

আরও খবর



৮ দফা দাবি দিয়ে সড়ক ছাড়ল শিক্ষার্থীর

প্রকাশিত:রবিবার ২১ নভেম্বর 20২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২১ নভেম্বর 20২১ | ৩০২০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

হাফ ভাড়া দেওয়াকে কেন্দ্র করে ঠিকানা পরিবহনের একটি বাসে ছাত্রীকে ধর্ষণের হুমকি দিয়েছে চালকের সহকারী। এই হুমকির প্রতিবাদে বকশীবাজারে সড়ক অবরোধ করে বদরুন্নেসা কলেজের শিক্ষার্থীরা। ঘণ্টা দুই অবস্থানের পর ২৪ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দিয়ে সড়ক ছেড়ে দিয়েছে শিক্ষার্থীরা। এসময়ের মধ্যে বাসের সহকারীকে আইনের আওতায় আনাসহ ৮ দফা দাবি ঘোষণা করেছেন তাঁরা।

শিক্ষার্থীদের উত্থাপিত দাবিগুলো-

শিক্ষার্থীদের হাফ ভাড়া নিশ্চিত করা, ছাত্র-ছাত্রীদের সঙ্গে হয়রানিমূলক আচরণ না করা, শিক্ষার্থীদের বাস থেকে নামানোর সময়ে বাস থামাতে হবে, শিক্ষার্থীদের বাসে উঠতে দেওয়া, বাসে নারীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা, ধর্ষণের হুমকি প্রদানকারীকে আইনের আওতায় আনা, রায়েরবাগ, শনিআখড়া, কাজলা, সাইনবোর্ড এলাকায় সব ধরনের বাস থামাতে হবে এবং শিক্ষার্থীদের উঠতে বাধা দেওয়া যাবে না।

দাবি আদায় না হলে আগামীকাল আবারও রাস্তায় নামার ঘোষণা দিয়ে আজকের বিক্ষোভ শেষ করেন শিক্ষার্থীরা।

এর আগে, আজ রোববার সকাল ১০টার দিকে রাজধানীর বকশীবাজার মোড়ে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ শুরু করেন বদরুন্নেসা কলেজের কয়েকশ শিক্ষার্থী।

হুমকির শিকার ওই ছাত্রী জানান, রাজধানীর শনিরআখড়া থেকে কলেজে আসার জন্য ঠিকানা পরিবহনের বাসে উঠেন তিনি। শনিরাখড়া থেকে কলেজের ভাড়া ১০ টাকা। কিন্তু ওই ছাত্রীর কাছ থেকে ১৫ টাকা ভাড়া রাখা হলে তিনি নিজেকে স্টুডেন্ট বলে ১০ টাকা ফেরত চাইলে চালকের সহকারী তাঁর সঙ্গে খারাপ ভাষায় কথা বলেন। পরে কলেজের সামনে বাস থেকে নেমে যাওয়ার সময়ে তাঁকে ৫ টাকা দিয়ে ধর্ষণ ও শারীরিক নির্যাতনের হুমকি দেন।

ওই ছাত্রী আরো বলেন, বাসটি চলন্ত অবস্থায় থাকায় বাসটির নম্বর মনে রাখতে পারিনি। তাঁদের এই ভোগান্তি প্রতিদিনের জানিয়ে বলেন, বাসগুলো তাঁদের তুলতেও চায় না।


আরও খবর



বাসের ধাক্কায় প্রাণ গেলো ইজিবাইকের ৬ যাত্রীর

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৯ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৯ নভেম্বর ২০২১ | ৩১৯৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা রংপুরগামী হানিফ পরিবহনের একটি নৈশকোচের ধাক্কায় ইজিবাইকের ছয় যাত্রী নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছেন আরও তিনজন। শুক্রবার (১৯ নভেম্বর) সকালে উপজেলার ঢাকা-রংপুর মহাসড়কের কালিতলা এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

তাৎক্ষণিকভাবে হতাহতের নাম-পরিচয় জানা যায়নি।

দুর্ঘটনার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন গোবিন্দগঞ্জ হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খাইরুল ইসলাম।

স্থানীয়রা জানান, সকালে ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা রংপুরগামী হানিফ পরিবহনের একটি বাস গোবিন্দগঞ্জের কালিতলা এলাকায়  একটি ইজিবাইককে চাপা দেয়। এতে ইজিবাইকটি দুমড়ে-মুচগে ঘটনাস্থলেই চারজন নিহত হয়। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে আরও একজনের মৃত্যু হয়।

নিউজ ট্যাগ: সড়ক দুর্ঘটনা

আরও খবর



নতুন বাইক কিনেই সড়কে প্রাণ গেল ৩ বন্ধুর

প্রকাশিত:শুক্রবার ১২ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১২ নভেম্বর ২০২১ | ৫২০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় তিন কিশোর নিহত হয়েছে। শুক্রবার দুপুরে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন- মকবুল (১৭), রাকিব (১৮) ও আসাদুল ইসলাম (১৭)। তার পরস্পর বন্ধু।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, রাকিব গতকাল বৃহস্পতিবার নতুন মোটরসাইকেল কিনে। গতকাল সে বন্ধুদের নিয়ে বাইক চালায়। আজও মকবুল ও আসাদকে নিয়ে ঘুরতে বের হয়।

উপজেলার মাটিকাটা এলাকা থেকে তারা বাইক যোগে বঙ্গবন্ধু সেতু আঞ্চলিক মহাসড়কের দিকে যাচ্ছিল। পথে রুহুলি এলাকায় একটি দেয়ালে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ধাক্কা খায় তাদের বাইকটি। এতে ঘটনাস্থলেই তিনজন নিহত হয়। ভূঞাপুর থানার ওসি আব্দুল ওহাব দুর্ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

নিউজ ট্যাগ: সড়ক দুর্ঘটনা

আরও খবর



রাজধানীর গুলশানে স্কুলছাত্রীর লাশ উদ্ধার

প্রকাশিত:শনিবার ১৩ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১৩ নভেম্বর ২০২১ | ৫০০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রাজধানীর গুলশানে সানা রেজওয়ান (১৪) নামের এক স্কুলছাত্রীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। আজ শনিবার ভোরে গুলশান-২-এর ৪১ নম্বর রোডের একটি বাড়ির সামনে থেকে সানার লাশ উদ্ধার করা হয়।

পরিবারের বরাত দিয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির বাচ্চু মিয়া বলেন, মা-বাবার সঙ্গে অভিমান করে রাত আড়াইটার দিকে ১০ তলা থেকে লাফিয়ে পড়ে আত্মহত্যা করেছে সানা। ভোর সাড়ে ৪টার দিকে লাশটি উদ্ধার করা হয়।’ বাচ্চু মিয়া আরও বলেন, তবে সত্যিই সে আত্মহত্যা করেছে, না-কি অন্য কোনো কারণে তার মৃত্যু হয়েছে, সেটি তদন্ত করা হচ্ছে।

জানা গেছে, ১২ তলা বাড়ির দশম তলায় মা-বাবার সঙ্গে থাকত সানা। তার বাবা একজন পোশাক ব্যবসায়ী। উত্তরার সানবিমস স্কুলের ষষ্ঠ শ্রেণিতে পড়ত সানা।

এ বিষয়ে গুলশান থানার উপপরিদর্শক (এসআই) শিল্পী আক্তার বলেন, সানা আত্মহত্যা করেছে বলে পরিবার জানিয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য তার লাশ ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।


আরও খবর