আজঃ মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম

দিল্লিতে মেয়ের সঙ্গে খাবার টেবিলে প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:সোমবার ১০ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১০ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

ভারতের নবনির্বাচিত প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানের আমন্ত্রণ পেয়ে দিল্লিতে গেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেখানে ব্যস্ত সূচির এক ফাঁকে মেয়ে সায়মা ওয়াজেদ পুতুলের সঙ্গে সময় কাটিয়েছেন তিনি। মা-মেয়ের খাবার খাওয়ার এক মুহূর্ত শেয়ার করেছেন মেয়ে সায়মা।

নিজের অফিশিয়াল টুইটার অ্যাকাউন্টে দেওয়া এক পোস্টে মায়ের সঙ্গে ছবি দিয়ে ক্যাপশনে বলেন, মার সঙ্গে খাওয়ার মুহূর্ত। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে যাওয়ার আগে..

সায়মা ওয়াজেদ পুতুল জাতিসংঘের স্বাস্থ্য বিষয়ক অন্যতম নীতিনির্ধারক সংস্থা ডব্লিউএইচও এর আঞ্চলিক পরিচালক হিসেবে দায়িত্বরত রয়েছেন। গতকাল রবিবার দুপুরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক-এ নিজের পেইজে মায়ের সঙ্গে খাবার খাওয়ার ছবি পোস্ট করেন পুতুল। এরপর থেকেই ছবিটি তাদের অনুসারীরা শেয়ার করতে থাকেন বিভিন্ন মাধ্যমে।

শনিবার (৮ জুন) সকাল সোয়া ১০টায় শপথ অনুষ্ঠানে অংশ নিতে ঢাকা ত্যাগ করেন শেখ হাসিনা। শপথ অনুষ্ঠান শেষে আগামী সোমবার (১০ জুন) দুপুরে দেশে ফেরার কথা রয়েছে তার।


আরও খবর



চারঘাটে নির্মিত হচ্ছে মুজিব কিল্লা

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৮ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৮ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
উপজেলা প্রতিনিধি

Image

পদ্মা-বড়াল বিধৌত রাজশাহীর চারঘাটে নির্মিত হচ্ছে মুজিব কিল্লা। দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রাণালয়ের সার্বিক ব্যবস্থাপনায় উপজেলার চারঘাট ইউনিয়নের রাওথা কলেজ প্রাঙ্গনে নির্মিত হচ্ছে তিন তলা বিশিষ্ট মুল ভবন ও একতলা বিশিষ্ট একটি ক্যাটেল শেড। দুর্যোগ পূর্ববর্তী, দুর্যোগকালীন বা দুর্যোগ পরবর্তী অস্থায়ী সেবা কেন্দ্র হিসেবে সেবা নিতে পারবে উপজেলা প্রায় কয়েক হাজার মানুষ ও গৃহপালিত পশু।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, মুজিব কিল্লার প্রায় ৭ কোটি ৪১ লাখ টাকা ব্যয়ে ৭হাজার ৬শত স্কয়ারফুট একটি ক্যাটলশেড ও ১৩ হাজার স্কয়ারফুট তিন তলা বিশিষ্ট একটি মুল ভবন নির্মান কাজ চলমান রয়েছে, যার নির্মান কাজ সম্পন্ন হবে ২০২৫ সালের নভেম্বর মাসে। নির্মান কাজ পরিচালনা করছেন ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান কুষ্টিয়ার মেসার্স রুমানা এন্টারপ্রাইজ। নদী তীরবর্তী এলাকাবসীরা জানান, বন্যা অথবা নদী ভাঙ্গন হলে অন্ততপক্ষে এই মুজিব কিল্লায় আশ্রয় নিতে পারবো।

উপজেলার পদ্মা বিধৌত নদী তীরবর্তী এলাকার বন্যা কবলিত এলাকা পিরোজপুর, চন্দনশহর, গোপালপুর, রাওথা, বাখরাবাদ, মোক্তারপুর, শ্যামপুর, ইউসুফপুর, টাঙ্গন এর বন্যাকবলিত এলাকার লোকজন, গবাদিপশু পাখি সহ নির্মানাধীন মুজিব কিল্লা শতভাগ ব্যবহার করবে। এছাড়াও স্থানীয় কর্তৃপক্ষ ও জনগণের সমন্বয়ে বিভিন্ন সামাজিক অনুষ্ঠান আয়োজনে ব্যবহার করতে পারবে বলে জানিয়েছেন প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা এ এস এম শামীম আহম্মেদ।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাইদা খানম বলেন, চলমান মুজিব কিল্লার কাজ দ্রুত বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। উপজেলাবাসীদের দুর্যোগ থেকে জীবন বাঁচাতে ও গৃহপালিত পশু-পাখির আশ্রয়স্থল হিসেবে ভরসা পাবে নির্মানাধীন এই মুজিব কিল্লা।

উপজেলার নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক কাজী মাহমুদুল হাসান (মামুন) বলেন, পদ্মা ও বড়াল পাড়ের বন্যাকবলিত মানুষদের কথা বিবেচনা করে সাবেক পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী ও স্থানীয় এমপি শাহারিয়ার আলম এর ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই উপজেলায় মুজিব কিল্লা নির্মানে বরাদ্দ দিয়েছেন। মুজিব কিল্লার নির্মান কাজ শেষ হলে বন্যা কবলিত এলাকাবাসীর পাশাপাশি অত্র কলেজের শিক্ষার্থীরাও শিক্ষার সুন্দর পরিবেশ পাবে বলে তিনি জানিয়েছেন।


আরও খবর



বাগেরহাটে বাসের ধাক্কায় স্কুলের অফিস সহকারি নিহত

প্রকাশিত:রবিবার ২৩ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৩ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
বাগেরহাট প্রতিনিধি

Image

বাগেরহাটের ফকিরহাটে বাসের ধাক্কায় খোদেজা খাতুন মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের অফিস সহকারি জামির আলী নিহত হয়েছেন।

রবিবার বেলা ১১টায় খুলনা-মাওয়া মহাসড়কের ফকিরহাটের আরা পেট্রোল পাম্পের সামনে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত জামির আলী ফকিরহাট উপজেলা সদরের আট্টাকি গ্রামের মৃত আলীম উদ্দিনের ছেলে।

স্থানীয়রা জানান, জামির আলী মোটরসাইকেল চালিয়ে খুলনা যাওয়ার পথে ঘটনাস্থলে পৌছালে ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা গ্রীন লাইন পরিবহনের একটি বাসের ধাক্কায় গুরুত্বর আহত হন। তাকে উদ্ধার করে ফকিরহাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়ার পরে তার মৃত্যু হয়। মাথা, পাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থান থেতলে যাওয়াসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে ক্ষত রয়েছে।

মোল্লাহাট হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুরুজ্জামান তানু ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, খবর পেয়ে পুলিশের একটি টিম ঘটনাস্থলে গেছে।


আরও খবর



রথযাত্রা উপলক্ষে যানবাহন চলাচলে সিএমপি'র ট্রাফিক নিদের্শনা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৪ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৪ জুলাই ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
রাহুল সরকার, চট্টগ্রাম ব্যুরো

Image

আগামী ৭ জুলাই শ্রীশ্রী জগন্নাথ দেবের রথযাত্রা অনুষ্ঠিত হবে। ধর্মীয় রথযাত্রা যথাযথ মর্যাদায় উদযাপনকালীন বিপুল সংখ্যক ভক্ত ও পূজারীদের সমাগমে ৩টি প্রধান রথযাত্রা নগরীর নির্দিষ্ট সড়কসমূহ দিয়ে প্রদক্ষিণ করবে। সেজন্য আগামী ৭ জুলাই (রোববার) বেলা ২টা থেকে নির্ধারিত রুটসমূহে ডাইভারশনসহ সকল প্রকার যানবাহন চলাচল নিয়ন্ত্রণ করা হবে।

 বৃহস্পতিবার (৪ জুলাই) বিকেলে গণমাধ্যমে প্রেরিত বিজ্ঞপ্তিতে নির্দেশনার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সিএমপির ট্রাফিক-দক্ষিণ বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার এন.এম নাসিরুদ্দিন।

শ্রীশ্রী তুলশীধামের রথযাত্রা রুট-১ বোস ব্রাদার্স থেকে রাইফেল ক্লাব-আমতল-নিউ মার্কেট মোড় (বামে মোড়)-জিপিও-কোতোয়ালী মোড় (বামে মোড়)-কোর্ট বিল্ডিং উঠার মুখ-লালদীঘি উত্তর পাড়-বক্সির বিট-আন্দরকিল্লা-জেএমসেন হল-চেরাগী পাহাড়-জামালখান মোড়-সার্সন রোড-কাজিরদেউরী-নেভাল এভিনিউ-লাভ লেইন-বৌদ্ধ মন্দির-নন্দনকানন ১নং গলি হয়ে পূনঃরায় বোস ব্রাদার্স (তুলশীধাম)।

শ্রীশ্রী রাধামাধব মন্দির (ইসকন), নন্দনকানন রথযাত্রা রুট-২ শ্রীশ্রী রাধামাধব মন্দির (ইসকন), নন্দনকানন ১নং গলি থেকে-ডিসি হিল-বৌদ্ধ মন্দির-হেমসেন লেইন-চেরাগী পাহাড়-জেএমসেন হল-আন্দরকিল্লা-বক্সির বিট-লালদীঘির উত্তর পাড়-সোনালী ব্যাংক-কোতোয়ালী মোড়-জিপিও গ্যাপ-নিউ মার্কেট মোড়-আমতল-রাইফেল ক্লাব-পুলিশ প্লাজা (বোস ব্রাদার্স) হয়ে পূনঃরায় নন্দনকানন ১নং গলি।

আন্তর্জাতিক কৃষ্ণ ভাবনামৃত সংঘ (ইস্কন)-এর রথযাত্রা রুট-৩ প্রবর্ত্তক ইসকন মন্দিও থেকে প্রবর্ত্তক মোড়-গোলপাহাড় মোড়)-চট্টেশ্বরী মোড়-আলমাস-কাজিরদেউরী-আসকার দিঘীর উত্তর পাড়-সার্সন রোডের মাথা-জামালখান মোড় (খাস্তগীর স্কুল)-প্রেস ক্লাব-চেরাগী পাহাড়-জে.এম.সেন হল-আন্দরকিল্লা-বক্সির বিট-লালদীঘির উত্তর পাড়-সোনালী ব্যাংক-কোতোয়ালী মোড় -নিউ মার্কেট- আমতল-রাইফেল ক্লাব-সিনেমা প্যালেস হয়ে হাজারী গলি (কেসিদে রোড)।

আগামী ৭ জুলাই নগরীর উপরোল্লিখিত সড়কসমূহে রথযাত্রার সুষ্ঠু চলাচলের নিমিত্তে নগরীর  চট্টেশ্বরী মোড়, ওয়াসা মোড়, স্টেডিয়াম গোল চত্ত্বর, নেভাল মোড়, নুর আহাম্মদ সড়কের মাথা, এনায়েতবাজার মোড়, তিন পোলের মাথা, নিউ মার্কেট, আলকরণ রোডের মুখ (জিপিও), কোতোয়ালীর মোড়, লালদীঘির উত্তর পাড়, আন্দরকিল্লা মোড়, গুডস হিল মুখ, গণি বেকারী ও সার্সন রোডের মুখে রোড ব্লক স্থাপনের মাধ্যমে ডাইভারশন প্রদান করা হবে। ফলে উক্ত সময়ে রথযাত্রা অভিমুখে সকল ধরণের যানবাহন চলাচল নিয়ন্ত্রণ করা হবে।

এমতাবস্থায় রথযাত্রা সুষ্ঠুভাবে সম্পন্নের নিমিত্তে সকল প্রকার যানবাহনের চালক ও যাত্রী সাধারণসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে রথযাত্রা অনুষ্ঠান চলাকালীন উক্ত এলাকার সড়কগুলো যথাসম্ভব এড়িয়ে বিকল্প সড়ক ব্যবহারের জন্য অনুরোধ করা যাচ্ছে।

 রথযাত্রা অনুষ্ঠান সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে সম্পন্ন করার নিমিত্তে সিএমপির ট্রাফিক-দক্ষিণ বিভাগ নগরবাসীর সর্বাত্মক সহযোগিতা প্রত্যাশা করেছে।


আরও খবর



ঝালকাঠিতে স্কুলের ছাদ থেকে পলেস্তারা খসে ৫ শিক্ষার্থী আহত

প্রকাশিত:রবিবার ০৭ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ০৭ জুলাই ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
ঝালকাঠি প্রতিনিধি

Image

ঝালকাঠি রাজাপুর উপজেলায় একটি বিদ্যালয় ভবনের পলেস্তারা খসে পড়ে পাঁচজন শিক্ষার্থী আহত হয়েছে। পাঁচজনই ওই বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থী।

রোববার (৭ জুলাই) দুপুর ১২ টার দিকে উপজেলার পূর্ব সাতুরিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিদ্যালয়টির প্রধান শিক্ষক সিদ্দিকুর রহমান।

তিনি জানান, ক্লাস চলাকালীন সময় হঠাৎ ছাদের পলেস্তারা খসে বেঞ্চের উপর পড়ে। এ সময় ৫ জন শিক্ষার্থী আহত হয়। তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

তিনি আরও জানান, ২০০৪ সালে এই ভবনটি নির্মাণ করা হয়। এটি আগে থেকেই ঝুঁকিপূর্ণ ছিলো। আমরা বারবার কর্তৃপক্ষের কাছে চিঠি দিয়েছি। তারপরও তারা কোন পদক্ষেপ নেননি।

উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা আক্তার হোসেন বলেন, ভবনটিকে ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত করে বিকল্প স্থানে পাঠদানের ব্যবস্থা করা হবে।


আরও খবর



খান ইউনিসে ইসরাইলি বিমান হামলা, নিহত ৭১

প্রকাশিত:শনিবার ১৩ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ১৩ জুলাই ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

অধিকৃত গাজার পশ্চিম খান ইউনিসের আল-মাওয়াসি এলাকার বাস্তুশিবিরে মুহুর্মুহু বিমান হামলা চালিয়েছে ইসরাইলি বাহিনী। এতে অন্তত ৭১ জন ফিলিস্তিনি নিহত এবং ২৮৯ জন আহত হয়েছেন।

শনিবার গাজার স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রের বরাত দিয়ে আল জাজিরা এ তথ্য জানিয়েছে।

হামাস ও গাজার সরকারি মিডিয়া অফিসও পৃথক বিবৃতিতে শনিবার দুপুরে এ হামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, খান ইউনিসের আল-মাওয়াসি এলাকায় ইসরাইলি বিমান হামলায় বেসামরিক প্রতিরক্ষা কর্মীসহ তিন শতাধিক ফিলিস্তিনি হতাহত হয়েছেন।

ঘটনাস্থলে থাকা আল জাজিরার সংবাদকর্মীদের মতে, ইসরাইলি যুদ্ধবিমান আল-নুস গোলচত্বরের কাছে বাস্তুচ্যুত ফিলিস্তিনিদের দিকে পাঁচটি ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করেছে। আল-মাওয়াসির তাঁবুগুলো এবং একটি পানি বণ্টন ইউনিটের কাছে ক্ষেপণাস্ত্রগুলো আঘাত হানে। যার ফলে বিপুল সংখ্যক মানুষ হতাহত হন।

তাৎক্ষণিকভাবে আহতদের উদ্ধার করে কাছের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে বলেও জানায় সংবাদমাধ্যমটি।

গাজার বেসামরিক প্রতিরক্ষা মুখপাত্র আল জাজিরাকে বলেছেন, হামলার লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত করা এলাকাটিকে ইসরাইলি বাহিনী তথাকথিত নিরাপদ অঞ্চল হিসাবে মনোনীত করেছিল।

হামাস পরিচালিত গাজার সরকারি মিডিয়া অফিসের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, খান ইউনিসে বাস্তুচ্যুতদের তাঁবু ক্যাম্প লক্ষ্য করে বোমাবর্ষণ করে ইসরাইলি দখলদার বাহিনী একটি বড় গণহত্যা চালিয়েছে। ভয়াবহ এ গণহত্যায় সিভিল ইমার্জেন্সি সার্ভিসের সদস্যসহ তিন শতাধিক মানুষ নিহত ও আহত হয়েছে।

ফিলিস্তিনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, আহতদের বেশিরভাগেরই অবস্থা আশঙ্কাজনক। খান ইউনিসের নাসের মেডিকেল কমপ্লেক্সের কর্মীরা তাদের তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছেন।

নাসের হাসপাতালের একজন কর্মকর্তা আল জাজিরাকে বলেছেন, ৫০টিরও বেশি মৃতদেহ এবং শতাধিক আহত ব্যক্তিকে হাসপাতালে আনা হয়েছে।

এ সময় তিনি জোর দিয়ে বলছিলেন যে, আমাদের মেডিকেল টিমের আর কোনো আহত রোগীকে গ্রহণ করার ক্ষমতা নেই।

এদিকে বেশ কয়েকজন আহতকে রাফাহর হাসপাতালগুলোতে পাঠানো হয়েছে। তবে চিকিৎসা সরবরাহের ঘাটতির কারণে তারাও প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দিতে অক্ষম বলে জানিয়েছে।

এদিকে হামলার লক্ষ্য খুবই তাৎপর্যপূর্ণ ছিল বলে জানিয়েছে ইসরাইলি সেনাবাহিনী। নিজেদের রেডিও প্রতিরক্ষা সূত্রের বরাত দিয়ে এ তথ্য জানায় বর্বর বাহিনীটি।


আরও খবর