আজঃ বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

ধান কাটা-মাড়াইয়ে ব্যস্ত কৃষক-শ্রমিক

প্রকাশিত:বুধবার ১৬ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১৬ নভেম্বর ২০২২ | অনলাইন সংস্করণ
Image

শেরপুর (বগুড়া) প্রতিনিধি:

শেরপুর উপজেলার বিস্তীর্ণ মাঠজুড়ে দোল খাচ্ছে কৃষকের সোনালী স্বপ্ন। চারিদিকে আমন ধানের মৌ মৌ ঘ্রাণ। ধান কাটা ও মাড়াইয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন কৃষক-শ্রমিকরা। কারণ নতুন ফসলে হেমন্তের নবান্ন উৎসবে মেতে উঠবেন তারা। কৃষকরা বলছেন, বিগত বছরের তুলনায় এবার ফলন ভালো হয়েছে। কোনো ধরনের প্রাকৃতিক দুর্যোগ ছাড়াই মাঠের ধান গোলায় তুলতে পারছেন।

নবান্ন উৎসবের সঙ্গে মিশে আছে বাঙালির ঐতিহ্যবাহী সংস্কৃতি। নতুন ধান কাটা আর সেই ধানের প্রথম অন্ন খাওয়াকে কেন্দ্র করে পালিত হয় এ উৎসব। নতুন চালের তৈরি পায়েস-পোলাও, পিঠা-পুলিসহ রকমারি খাদ্যসামগ্রী পাড়া-প্রতিবেশী, আত্মীয়-স্বজন সবাইকে নিমন্ত্রণ করে খাওয়ানো হয়। পাশাপাশি পালন করা হয় সামাজিকভাবে প্রচলিত প্রথা অনুযায়ী নানা আচার অনুষ্ঠান।

শেরপুর উপজেলার বিশালপুর গ্রামের গৃহবধূ সাবিনা বেগম বলেন, নবান্ন উৎসবকে কেন্দ্র করে ঘরবাড়ি পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন করা হয়। নতুন ধানের চাল ও আটা দিয়ে হরেক রকম পিঠা তৈরি করা হয়। সঙ্গে গুড় ও চিনি থাকে। নতুন চালের এক অন্য রকম সুগন্ধ থাকে। প্রতিবেশীসহ আত্মীয়স্বজন ও মেয়ে-জামাইকে দাওয়াত করে খাওয়ানো হয়। সে সময় গ্রামের বাড়ি বাড়ি যেন উৎসব বিরাজ করে।

উপজেলার কাফুড়া গ্রামের কৃষক জাহিদুল ইসলাম বলেন, নতুন ধান কাটা-মাড়াই শুরু হয়েছে। ফলন ভালো হওয়ায় খুশি। কোনো ধরনের সমস্যা ছাড়াই মাঠের ফসল ঘরে উঠাতে পেরেছি। প্রতি বিঘায় প্রায় ১৮-২০ মণ ফলন হয়েছে। সামান্য রোগ-বালাই হলেও তেমন সমস্যা হয়নি। তবে সার, কীটনাশক, শ্রমিকের দাম বাড়ায় উৎপাদন খরচ বেশি পড়েছে। এ নতুন ধান দিয়ে এবার নবান্ন উৎসব পালন করবো।

শেরপুর শালফা টেকনিক্যাল বিএম কলেজের বাংলা বিভাগের প্রভাষক নুরুল ইসলাম বলেন, বাঙালি সংস্কৃতির একটা অন্যতম উৎসব নবান্ন। অগ্রহায়ণ মাসে নতুন ধান গোলায় উঠতো। সেই ধানের চালের খির-পায়েস তৈরি করে মানুষ উৎসব পালন করতো। এখন আর তেমন পালন করতে দেখা যায় না। আগে বছরে মাত্র একটি ফসল হতো। অভাব থাকায় মানুষকে সেই ফসল ঘরে উঠানোর জন্য দীর্ঘসময় প্রতীক্ষায় থাকতে হতো। এখন বছরে তিনটি ফসল হয়। এ কারণে মানুষের মধ্যে নবান্নের আগের সেই রূপ, চরিত্র ও বৈশিষ্ট্য নেই। তবে গ্রামের মানুষ এখনো সেই দিনটিকে যথাযথ মূল্যায়ন করে। তাদের কাছে নবান্ন উৎসবের দিনটি গুরুত্বপূর্ণ দিন।

নিউজ ট্যাগ: কৃষক

আরও খবর
সিলেট নগরী থেকে গৃহবধূর গলিত লাশ উদ্ধার

বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




বিশাল ব্যবধানে ইমরান খানের দল প্রধানের জয়

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

পাকিস্তানের সাধারণ নির্বাচনে ভোট গণনা চলছে। বৃহস্পতিবার (০৮ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে ভোট গ্রহণ শেষে খুবই ধীরগতিতে ভোট গণনার কাজ করা হচ্ছে। এর আগের নির্বাচনের দিন স্থানীয় সময় মধ্যরাতের মধ্যে কোন দল এগিয়ে ছিল সে সম্পর্কে একটি পরিষ্কার চিত্র পাওয়া গিয়েছিল। আর এবার ভোট গ্রহণের পর থেকে এ পর্যন্ত ১৯ ঘণ্টায় ২৬৫ আসনের মধ্যে মাত্র ২২টি আসনের ফল পাওয়া গেছে।

এর মধ্যে পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) এর বর্তমান চেয়ার‌ম্যান গওহর আলী খান বিপুল ব্যবধানে জয়লাভ করেছেন। তিনি পেয়েছেন এক লাখ ১০ হাজার ২৩টি ভোট, আর তার প্রতিদ্বন্দ্বী এএনপি প্রার্থী পেয়েছেন ৩০ হাজার ৩০২টি ভোট।

ডন পত্রিকার অনলাইন ভার্সনে এখন পর্যন্ত ২২টি আসনে ফল ঘোষণার তথ্য পাওয়া গেছে। স্থানীয় সময় বেলা সাড়ে ১১টা পর্যন্ত পাওয়া তথ্য অনুযায়ী- পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থীরা ৭ আসনে, পাকিস্তান মুসলিম লীগ-নওয়াজে (পিএমএল-এন) ১০টিতে, পাকিস্তান পিপলস পার্টির (পিপিপি) ৫টি আসনে জয়লাভ করেছে এবং অন্যান্য একটি।


আরও খবর
সৌদি আরবে এক দিনে সাতজনের শিরশ্ছেদ

বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




প্রথম দিনেই অনুপস্থিত ১০ হাজার এসএসসি পরীক্ষার্থী

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

আজ বৃহস্পতিবার শুরু হয়েছে ২০২৩ সালের এসএসসি ও সমমান পরীক্ষা। সারা দেশের ৯টি সাধারণ শিক্ষা বোর্ডে প্রথম দিনের পরীক্ষায় অনুপস্থিত ছিল ৯ হাজার ৭৩১ জন পরীক্ষার্থী। পরীক্ষায় অসাধু উপায় অবলম্বন করায় বহিষ্কৃত হয়েছে সাতজন। এরমধ্যে পরীক্ষার্থী ছয়জন‌ এবং একজন পরিদর্শক।

বৃহস্পতিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) শিক্ষা মন্ত্রণালয় কন্ট্রোল রুম এবং ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের ওয়েবসাইট থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

আজ সাধারণ শিক্ষা বোর্ডের অধীনে এসএসসিতে প্রথম দিনে আজ বাংলা প্রথম পত্র পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের অধীন দাখিলে কুরআন মজিদ বিষয়ের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে। আর কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অধীন এসএসসি ভোকেশনাল ও দাখিল ভোকেশনালে বাংলা-২ বিষয়ের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।

এবারে ১১টি শিক্ষা বোর্ডের অধীনে পরীক্ষার্থী ছিল ২০ লাখ ২৪ হাজার ১৯২ জন।

শিক্ষা বোর্ডের রুটিন অনুসারে ১২ মার্চ পরীক্ষা শেষ হবে। আর ১৩ থেকে ২০ মার্চের মধ্যে অনুষ্ঠিত হবে ব্যাবহারিক পরীক্ষা। এবার ২৯ হাজার ৭৩৫টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ৩৭০০টি কেন্দ্রে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। গত বছরের তুলনায় এবার পরীক্ষাকেন্দ্র কমেছে ১৮০টি এবং পরীক্ষায় অংশ নেওয়া শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সংখ্যা কমেছে ৬৩টি।

গত মঙ্গলবার থেকে পরীক্ষা সুষ্ঠু, সুন্দর ও প্রশ্ন ফাঁসের গুজবমুক্ত রাখতে দেশের সব কোচিং সেন্টার বন্ধ রাখা হয়েছে। ১২ মার্চ পর্যন্ত এসব কোচিং সেন্টার বন্ধ থাকবে।


আরও খবর



ট্রাকচাপায় প্রাণ গেল মোটরসাইকেল আরোহী দুই বন্ধুর

প্রকাশিত:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | অনলাইন সংস্করণ
মোঃ মাসুদ রানা, কুড়িগ্রাম

Image

কুড়িগ্রামে পাথর বোঝাই ট্রাকের চাপায় মোটরসাইকেল আরোহী দুই কিশোর নিহত হয়েছে। শুক্রবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে কুড়িগ্রাম ধরলা ব্রিজ পশ্চিম পাড়ের কাছে ট্যানারি পাড়া এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- পৌর শহরের পলাশবাড়ী বানিয়া পাড়া গ্রামের ঠিকাদার আব্দুল ওয়াদুদের ছেলে সাদনাম সাদিক এবং পৌর শহরের গড়ের পাড় এলাকার নুরুল ইসলামের ছেলে হাজ্জাজ বিন হিমু। তারা দুজন কুড়িগ্রাম সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্র।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে শহরের ট্যানারি পাড়া এলাকায় ভুরুঙ্গামারী থেকে ছেড়ে আসা পাথর বোঝাই ট্রাকের সঙ্গে ধরলা সেতুর দিকে যাওয়ার মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে মোটরসাইকেলটি ট্রাকের ভেতরে ঢুকে দুমড়েমুচড়ে যায়। পরে মোটরসাইকেলে থাকা দুই কিশোরকে উদ্ধার করে কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে পাঠায় স্থানীয়রা। হাসাপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক সাদনাম সাদিক নামের এক কিশোরকে মৃত ঘোষণা করেন। অপর মোটরসাইকেল আরোহী কিশোর হাজ্জাজ বিন হিমুকে গুরুতর আহত অবস্থায় রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। পরে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত ১০টার পর হাজ্জাজ বিন হিমুর মৃত্যু হয়।

কুড়িগ্রাম সদর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাসুদুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ঘাতক ট্রাকটিকে আটক করা হলেও চালক পালিয়ে গেছে। এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


আরও খবর
সিলেট নগরী থেকে গৃহবধূর গলিত লাশ উদ্ধার

বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




সংরক্ষিত ৫০ নারী আসনের ভোট ১৪ মার্চ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক

Image

দ্বাদশ জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত ৫০টি নারী আসনে নির্বাচনের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে আগামী ১৪ মার্চ। মঙ্গলবার (৬ ফেব্রুয়ারি) সংরক্ষিত নারী আসনে ভোটের এ তফসিল ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

এদিন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়ালের সভাপতিত্বে কমিশন বৈঠক হয়। বৈঠক শেষে তফসিল ঘোষণা করেন ইসি সচিব মো. জাহাংগীর আলম।

জানা গেছে, ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ ১৪ দলের শরিকদের সঙ্গে জোটবদ্ধ হয়ে সংসদে সংরক্ষিত ৫০টি নারী আসনের নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে। তাদের সঙ্গে স্বতন্ত্র এমপিদের সমর্থন থাকতে পারে।

বিদ্যমান আইন অনুযায়ী, সরাসরি ভোটে জয়ী দলগুলোর আসন সংখ্যার অনুপাতে নারী আসন বণ্টন করা হয়। সংসদের সাধারণ আসনে নির্বাচিত সংসদ সদস্যরা সংরক্ষিত আসনের নির্বাচনের ভোটার হন।

আইন অনুযায়ী সাধারণ নির্বাচনের ফলাফলের গেজেট প্রকাশের ৯০ দিনের মধ্যে সংরক্ষিত নারী আসনের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে হবে। গত ৭ জানুয়ারি ভোটের পর ৯ জানুয়ারি গেজেট প্রকাশ হয়েছে। এ হিসাবে ইসির আগামী ৭ এপ্রিলের মধ্যে সংরক্ষিত নারী আসনের ভোট অনুষ্ঠানের বাধ্যবাধকতা রয়েছে। যদিও তফসিল অনুযায়ী তার তিন সপ্তাহ আগেই ভোটগ্রহণের দিন ঠিক করেছে কমিশন।

গত ৭ জানুয়ারি ২৯৯টি আসনে অনুষ্ঠিত দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ ২২৩টি, জাতীয় পার্টি ১১টি, জাসদ ১টি, ওয়ার্কার্স পার্টি ১টি, কল্যাণ পার্টি ১টি এবং স্বতন্ত্র ৬২টি আসনে জয় পেয়েছে। নির্বাচনের আগে প্রার্থীর মৃত্যু হওয়ায় নওগাঁ-২ আসনের ভোট স্থগিত করা হয়। ওই আসনে ভোট হবে আগামী ১২ ফেব্রুয়ারি।

আনুপাতিক প্রতিনিধিত্ব পদ্ধতিতে এবার জাসদ ও ওয়ার্কার্স পার্টির দুজনসহ আওয়ামী লীগ ৩৮টি, জাতীয় পার্টি দুটি, স্বতন্ত্র প্রার্থীরা জোটভুক্ত হয়ে ১০টি সংরক্ষিত আসন পেতে পারে।


আরও খবর



হাজার হাজার নয়, ভালো ডাক্তার চাই : সামন্ত লাল সেন

প্রকাশিত:শনিবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. সামন্ত লাল সেন বলেছেন, ‘মেডিকেল শিক্ষার্থীদের মনোযোগের সঙ্গে পড়াশোনা করে ভালো চিকিৎসক হতে হবে। এর সঙ্গে অবশ্যই সৎ ও আদর্শিক মানসিকতা নিয়ে ডাক্তারি পেশায় নিজেকে নিযুক্ত করতে হবে।’
তিনি বলেন, ‘আমরা হাজার হাজার ডাক্তার চাই না, আমরা চাই ভালো ডাক্তার–এ কথাটির অর্থ শিক্ষার্থীদের বুঝতে হবে।’
শনিবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ অডিটোরিয়ামে শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের সঙ্গে মতবিনিময়ের সময় তিনি এসব কথা বলেন।
এ সময় কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নির্মাণকাজ অচিরেই শুরু করা হবে বলে আশ্বাস দেন ডা. সামন্ত লাল সেন।
প্রসঙ্গত, স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. সামন্ত লাল সেন ১৫ ফেব্রুয়ারি থেকে কক্সবাজার জেলা সফরে যান। সফরের শেষ দিন শনিবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) সকালে উখিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স পরিদর্শন করেন। এ সময় তিনি জরুরি বিভাগ, আউটডোর ও ইনডোর রোগীদের সঙ্গে কথা বলেন এবং তাদের চিকিৎসার খোঁজখবর নেন।
এরপর মন্ত্রী রামু উপজেলার খুনিয়াপালং ইউনিয়ন উপ-স্বাস্থ্যকেন্দ্র পরিদর্শন করেন এবং ইউনিয়ন পর্যায়ে চিকিৎসা ও পরিবার পরিকল্পনা সেবার চিত্র প্রত্যক্ষ করেন।


আরও খবর