আজঃ শুক্রবার ০৯ ডিসেম্বর ২০২২
শিরোনাম

ধামরাইয়ে নববধূর রহস্যজনক মৃত্যু, স্বামী পলাতক

প্রকাশিত:বুধবার ২৬ অক্টোবর ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ২৬ অক্টোবর ২০২২ | ১৪৮৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক


Image

ধামরাই (ঢাকা) প্রতিনিধি:

ঢাকার ধামরাইয়ে জুলেখা আক্তার (১৯) নামে এক নববধূর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। প্রতিবেশীদের ধারণা জুলেখার স্বামীই তাকে হত্যা করেছে। এঘটনার পর থেকে নিহতের স্বামী মিরাজ হোসেন শেখ পলাতক রয়েছে।

বুধবার (২৬ অক্টোবর) বেলা ১১ টার দিকে উপজেলার গাংগুটিয়া ইউনিয়নের কাওয়ালিপাড়া গ্রামের শামসুল হকের বাড়ি থেকে নববধূর মরদেহ উদ্ধার করা হয়। জানা যায়, জুলেখা আক্তার ও মিরাজ হোসেন শেখের সাথে তিন মাস আগে বিয়ে হয়।

নিহত জুলেখা আক্তার ধামরাই উপজেলার বালিয়া ইউনিয়নের উত্তর বাস্তা আদর্শ গ্রামের সোনা মিয়ার মেয়ে । স্বামী মো. মিরাজ হোসেন শেখ (২৩) খুলনা জেলার ডুমুরিয়া উপজেলার ডুমুরিয়া গ্রামের মো. হান্নান শেখের ছেলে। গাংগুটিয়া ইউনিয়নের কাওয়ালিপাড়া গ্রামের শামসুল হকের বাড়িতে ভাড়া থেকে একটি গার্মেন্টসে চাকরি করতেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত বৃহস্পতিবার স্বামী স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া হয়। একপর্যায়ে ওই স্ত্রী অজ্ঞান হয়ে যায়। পরে বাড়িওয়ালাদের ডেকে মিটমাট করে দেয়। এরপর থেকে ভালো ভাবেই চলছিল তাদের সংসার জীবন। হঠাৎ গতকাল মঙ্গলবার দুপুরের দিকে জুলেখার স্বামী ঘরে শিকল দিয়ে বের হয়ে যায়। দিন গড়িয়ে রাত হলেও তার স্বামী আর বাড়ি ফিরে আসেনি। কিন্তু ওদের এক পরিচিত সেলিম নামের এক ব্যক্তি গতকাল সন্ধ্যার দিকে জুলেখার খোঁজ করতে আসে। তখন ঘরের দরজা বাহির থেকে আটকানো দেখে সে চলে যায়। পরে আজ সকালে আবার খোঁজ করতে আসলে পাশের রুমের এক ভাড়াটিয়া দরজা খুলে দেখে জুলেখা কাঁথা গায়ে দিয়ে শুয়ে আছে। তখন শত ডাকাডাকিতে ঘুম না ভাঙলে স্থানীয় ইউপি সদস্য ও থানা পুলিশে খবর দেয়া হয়। পরে পুলিশ এসে গলায় আঘাতের চিহ্ন দেখে এবং প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে নববধূকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে।

ধামরাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আতিকুর রহমান বলেন- নিহতের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। সুরতহাল প্রতিবেদন শেষে ময়নাতদন্তের জন্য লাশ ঢাকা শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হবে। এব্যাপারে হত্যা মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।


আরও খবর