আজঃ সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

দেশের শান্তি রক্ষার দায়িত্বে সরকার সচেতন থাকবে: আইনমন্ত্রী

প্রকাশিত:বুধবার ২৯ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:বুধবার ২৯ নভেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
মোঃ রাসেল আহমেদ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া

Image

আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ একটি গণতান্ত্রিক দেশ হিসেবে পরিচিত। সেই গণতান্ত্রিক দেশে ভিন্ন অনেক রকম মত থাকতে পারে, ভিন্ন মতের লোকেরা কথা বলতে পারে। আমার মনে হয় না আমাদের সে অধিকার দেওয়ার ব্যাপারে কোন দ্বিমত আছে। কিন্তু জননেত্রীর শেখ হাসিনা সরকারের কাছে জনগণ যে দায়িত্ব দিয়েছে, সেটা জনগণের জান ও মাল রক্ষার দায়িত্ব এবং দেশের শান্তি রক্ষার দায়িত্ব।সে বিষয়ে আমরা সচেতন থাকব।

নির্বাচন পেছানো প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, সেটা নির্বাচন কমিশন বলতে পারবে। আমি বলতে পারব না। মন্ত্রী আরো বলেন, তার নির্বাচনী এলাকা কসবা-আখাউড়ার উন্নয়নে যা যা করা প্রয়োজন তিনি তা করবেন।

তিনি বুধবার বিকেলে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় মহিলা ডিগ্রী কলেজের হলরুমে উপজেলা আওয়ামী লীগের বিশেষ বর্ধিত সভায় যোগদানের আগে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন।

এ সময় কসবা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট রাশেদুল কাওসার ভূইয়া জীবন, কসবা পৌর মেয়র এমজি হাক্কানীসহ দলীয় নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। পরে তিনি বর্ধিত সভায় সভাপতি হিসেবে যোগদান করেন।


আরও খবর



সহকর্মীর কিল ঘুষিতে গার্মেন্টস শ্রমিকের মৃত্যুর অভিযোগ

প্রকাশিত:শনিবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
ঢামেক প্রতিবেদক

Image

রাজধানীর দক্ষিণখানের বটতলা এলাকায় সহকর্মীর কিল ঘুষিতে মো. সজিব (১৭) নামে এক গার্মেন্টস শ্রমিকের মৃত্যুর অভিযোগ পাওয়া গেছে। নিহতের পরিবারের অভিযোগ মাহিন (১৭) নামে আরেক গার্মেন্টস কর্মীর কিল ঘুষিতে মৃত্যু হয় তার।

শনিবার (২৭ জানুয়ারি) গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসলে সকাল ১১টায় চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

নিহত সজীবের ভাই সলেমান বলেন, আমার ভাই দক্ষিণখান এলাকায় ফ্যাশন গার্মেন্টসে কাজ করে। সকালে আমার ভাই বাসা থেকে গার্মেন্টসে কাজ করার উদ্দেশ্যে বের হয়। পরে খবর পাই আমার ভাই উত্তরায় কুয়েত মৈত্রী হজ হাসপাতালে আছে। সেখানে গিয়ে তাকে ঢাকা মেডিকেলে নিয়ে আসলে চিকিৎসক জানান আমার ভাই আর বেঁচে নেই।

তিনি আরও বলেন, জানতে পারি একই গার্মেন্টসের মাহিনের সঙ্গে আমার ভাইয়ের কথা কাটাকাটি হয়। কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে কিল ঘুষি ও বুকে লাথি মারলে আমার ভাই অজ্ঞান হয়ে পড়ে। ওরে আশেপাশের লোকজন তাকে উদ্ধার করে মৈত্রী হাসপাতালে নিয়ে যায়। পরে আমরা খবর পেয়ে তাকে ঢাকা মেডিকেলে নিয়ে আসলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

ঢামেক হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ পরিদর্শক বাচ্চু মিয়া বলেন, মরদেহটি হাসপাতালের জরুরি বিভাগের মর্গে রাখা হয়েছে। আমরা বিষয়টি দক্ষিণখান থানাকে জানিয়েছি।


আরও খবর
খারাপ হয়েছে ঢাকার বায়ু

শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪




চট্টগ্রাম রেলওয়ে পুলিশের জনসচেতনতামূলক কার্যক্রম

প্রকাশিত:শুক্রবার ০২ ফেব্রুয়ারী 2০২4 | হালনাগাদ:শুক্রবার ০২ ফেব্রুয়ারী 2০২4 | অনলাইন সংস্করণ
চট্টগ্রাম প্রতিনিধি

Image

চট্টগ্রাম রেলওয়ে জেলা পুলিশের উদ্যোগে ট্রেন ভ্রমণে অজ্ঞান ও মলম পার্টি থেকে সতর্ক হওয়া, চলন্ত ট্রেনে পাথর নিক্ষেপ ও ছাদে ভ্রমণ, মাদকদ্রব্য বহন, রেললাইনের যন্ত্রাংশ (নাট, বল্টু, স্লিপার ইত্যাদি) চুরি বন্ধ, রেলওয়ে পারাপার, টিকিট কালোবাজারি বন্ধ ও ট্রেন ভ্রমণে সতর্কতা, ট্রেনে ও রেললাইনে নাশকতা প্রতিরোধে, চলন্ত অবস্থায় ট্রেনে না উঠা এবং রেললাইন পারাপার ও ট্রেন ভ্রমণে সতর্ক করতে জনসচেতনতামূলক কর্মসূচি পালন করা হয়েছে। শুক্রবার সকাল থেকে দিনব্যাপী বিভিন্ন স্থানে এ কার্যক্রমের কর্মূসচি শুরু করা হয়।

রেলওয়ে পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হাছান চৌধুরীর নির্দেশনায় চাঁদপুর রেলওয়ে থানার বড় রেলওয়ে স্টেশন এলাকা, লাকসাম রেলওয়ে থানার রেলওয়ে জংশন রেললাইন এলাকা, ফৌজদার হাট রেলওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির রেললাইন এলাকা, সীতাকুণ্ড রেলওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির রেলওয়ে স্টেশন এলাকা, ফেনী রেলওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির সহদেবপুর রেলক্রসিং এলাকা, চৌমুহনী রেলওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির আটিয়াব্রীজ রেলক্রসিং এলাকা, কুমিল্লা রেলওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির রেলওয়ে স্টেশন এলাকায়  রেলপথে নাশকতা রোধে বিশেষ কার্যক্রমের অংশ হিসেবে বিভিন্ন স্থানে জনসচেতনতামূলক সভা অনুষ্ঠিত হয়।

রেলওয়ে পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হাছান চৌধুরী বলেন, যাত্রীদের আরামদায়ক ও স্বাচ্ছন্দ্যে ট্রেন ভ্রমণ করার লক্ষ্যে আমাদের নিয়মিত কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে। চলন্ত ট্রেনে পাথর নিক্ষেপ রোধ, অপরিচিত কারো কাছ থেকে কোনো কিছু না খাওয়া, মলম ও অজ্ঞান পার্টির খপ্পর থেকে রক্ষাসহ রেলওয়ে পুলিশ কর্তৃক নানান ধরনের পদক্ষেপ হাতে নিয়েছে। এরই অংশ হিসেবে বিভিন্ন এলাকায় ও কলোনিতে সচেতনতামূলক কার্যক্রম চলমান রয়েছে।

সভায় রেলওয়ে কর্মকর্তা-কর্মচারী, স্থানীয় লোকজন, রেলওয়ে যাত্রীসাধারণ, দোকানদার এবং রেললাইনের পাশে বসবাসরত জনসাধারণ উপস্থিত ছিলেন।

সভায় ট্রেনে ভ্রমণরত অবস্থায় অজ্ঞান পার্টি ও মলম পার্টি হতে রক্ষার সর্তকতা থাকতে বলা হয়। এছাড়া চলন্ত ট্রেনে পাথর নিক্ষেপকারিকে ধরিয়ে দিতে, চলন্ত অবস্থায় ট্রেনে না উঠা, রেললাইনের যন্ত্রাংশ (নাট, বল্টু, স্লিপার ইত্যাদি) চুরি বন্ধে রেলওয়ে পুলিশকে তথ্য দিয়ে সহায়তা করা এবং রেললাইন পারাপারে সতর্ক হতে  সকলকে অনুরোধ করা হয়।


আরও খবর



ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ট্রাক্টর উল্টে খাদে, নিহত ২

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
মোঃ রাসেল আহমেদ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া

Image

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরে উপজেলায় বালুবোঝাই ট্রাক্টর উল্টে চালকসহ দুইজন নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার সকালে নাটঘর ইউনিয়নের নবীনগর-রাধিকা সড়কের বড়হিত এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে বলে জানান নবীনগর থানার শিবপুর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই আলী আক্কাস রুবেল। নিহতরা হলেন- ট্রাক্টর চালক মো. এনামুল (২৬) ও তার সহযোগী আমির হোসেন (১৪)।

এনামুল আখাউড়া উপজেলার ধরখার ইউনিয়নের রুটি গ্রামের মো. শাহজাহানের ছেলে এবং আমির নবীনগর উপজেলার কাইতলা (উত্তর) ইউনিয়নের ব্রাহ্মণহাতা গ্রামের বজলু মিয়ার ছেলে। এ ঘটনায় গুরুতর আহত হয়েছেন ট্রাক্টর চালকের আরেক সহযোগী রাকিব (১৫)। তাকে জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এসআই রুবেল জানান, সকালে কাইতলা (উত্তর) ইউনিয়নের নারুই গ্রাম থেকে বালুবোঝাই ট্রাক্টরটি শিবপুরের দিকে যাচ্ছিল। পথে বড়হিত এলাকায় বেপরোয়া গতির কারণে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ট্রাক্টরটি খাদে পড়ে উল্টে যায়।

এতে ঘটনাস্থলেই এনামুল ও আমির মারা যান। আহত হন ট্রাক্টর চালকের আরেক সহযোগী রাকিব। পরে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে হতাহতদের উদ্ধার করে বলে জানান এসআই রুবেল।


আরও খবর



মিয়ানমার বিজিপির আরও ১১ সদস্য বাংলাদেশে

প্রকাশিত:সোমবার ০৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ০৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
মোহাম্মদ ফারুক, কক্সবাজার

Image

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার তুমব্রু সীমান্তের ওপারে মিয়ানমারের অভ্যন্তরে দেশটির সীমান্তরক্ষী বাহিনী বর্ডার গার্ড পুলিশের (বিজিপি) সঙ্গে বিচ্ছিন্নতাবাদী গোষ্ঠীর সংঘাতের জেরে বিজিপির আরও ১১ সদস্য বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে। এ নিয়ে বিজিপির মোট ১০৬ জন সদস্য বাংলাদেশে আশ্রয়

সোমবার (৫ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)-এর সদর দপ্তরের জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. শরিফুল ইসলাম এ তথ্য জানান।

বিজ্ঞপ্তিতে তিনি বলেন, রবিবার দিনভর বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার তুমব্রু সীমান্তের ওপারে মিয়ানমার অভ্যন্তরে আরাকান আর্মি ও মিয়ানমার বর্ডার গার্ড পুলিশের ( বিজিপি ) মধ্যে গোলাগুলি অব্যাহত ছিল। এতে সংঘর্ষের জেরে রবিবার সকাল থেকে সোমবার সন্ধ্যা পর্যন্ত বিজিপির ১০৬ জন সদস্য অস্ত্রসহ তুমব্রু সীমান্ত দিয়ে পালিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে। পরে তারা বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)-এর কাছে আশ্রয় চাইলে হেফাজতে নেওয়া হয় তাদের।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়েছে, বিজিবি তাদের (বিজিপি) নিরস্ত্রীকরণ করে নিরাপদ আশ্রয় দিয়েছে। বিজিপির আহতদের চিকিৎসার ব্যবস্থাও নেওয়া হয়েছে।

এর আগে সকালে বিজিপির ৯৫ জন সদস্য পালিয়ে এসে আশ্রয় নেয়।


আরও খবর



বিএনপির শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে বাধা দেবে না সরকার: ওবায়দুল কাদের

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২০ ফেব্রুয়ারী ২০24 | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২০ ফেব্রুয়ারী ২০24 | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

বিএনপির শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে বাধা দেবে না সরকার। তবে আন্দোলনের সহিংসতার উপাদান যুক্ত হলে বাধা আসবে বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। মঙ্গলবার (২০ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে রাজধানীর ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, বাধা দেওয়ার মত সহিংস তৎপরতা, সন্ত্রাস, অগ্নিসন্ত্রাস- এসব উপাদান যদি আন্দোলনে যুক্ত হয়, তাহলে বাধা আসবে। তারা শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি দিলে আমরা বাধা দিব কেন?

বিএনপির বর্তমান রাজনৈতিক কর্মসূচি নিয়ে তিনি বলেন, বাংলাদেশে বিরোধী দলের যে রাজনীতি, মুল ইস্যুই হচ্ছে যত দোষ নন্দ ঘোষ সরকার। সরকারই সব অপরাধে অপরাধী। তারা নালিশ করতে যায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে। বিএনপি নেতা মঈন খান মার্কিন দূতাবাসে গিয়ে নালিশ করেছেন দেশে মানবাধিকার নেই, গণতন্ত্র নেই। এ হচ্ছে বিএনপির অবস্থা। 

আরও পড়ুন>> আমদানির খবরে কমতে শুরু করেছে পেঁয়াজের দাম

তিনি বলেন, বিএনপি নেতাদের কাছে জানতে চাই, ৫৪ দলের সরকার, বিরোধী যে ঐক্য জোট, এ জোটের শরিকরা কোথায়? সেই ঐক্য কোথায়? জগাখিচুড়ি ঐক্যজোট কোথায়? এখন সরকারের ওপর দোষ দিয়ে পার পাওয়া যাবে?

নির্বাচনে আওয়ামী লীগ হেরেছে, বিএনপি জিতেছে- বিএনপি নেতাদের এমন বক্তব্যের বিষয়ে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, সবাই জানে নির্বাচনে কারা জিতেছে। নির্বাচনে অংশ না নিয়েই বিএনপি জিতে গেল? এটা পাগলের প্রলাপ ছাড়া আর কি?

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের সংঘর্ষের ঘটনা নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, ব্যবস্থা হচ্ছে, নতুন করে চিন্তাভাবনা করছি। দলে সিদ্ধান্ত হয়েছে, এসব ঘটনার পুনরাবৃত্তি রোধে যত কঠোর হওয়া দরকার হবে।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হক, এসএম কামাল হোসেন, মির্জা আজম, আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপনসহ কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের নেতারা।


আরও খবর