আজঃ বুধবার ২৫ মে ২০২২
শিরোনাম

ছাত্রদলের ঢাকা মহানগরের ৮টি ইউনিটে নতুন কমিটি

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১০ মে ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১০ মে ২০২২ | ৩৯০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সংগঠনের সুপার ইউনিট খ্যাত আটটি ইউনিটের কমিটি ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল। মঙ্গলবার (১০ মে) ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সভাপতি কাজী রওনকুল শ্রাবণ ও সাধারণ সম্পাদক মাহমুদ জুয়েল নতুন কমিটিগুলো ঘোষণা করেন।

এই ৮ টি ইউনিট হলো- ঢাকা মহানগর উত্তর ও পশ্চিম, শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা কলেজ, সরকারি তিতুমীর কলেজ, কবি নজরুল সরকারি কলেজ, তেজগাঁও কলেজ ও সরকারি বাঙলা কলেজ।

* ঢাকা মহানগর উত্তর: সভাপতি মো. মেহেদী হাসান রুয়েল, সিনিয়র সহ-সভাপতি মো. রাজিব হোসেন, সহ-সভাপতি মো. সালাউদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক মো. রাসেল বাবু, যুগ্মসম্পাদক মো. মনিরুল ইসলাম (মনির), রবিউল ইসলাম রবি ও সাংগঠনিক সম্পাদক সাগর আহমেদ বাবু।

* ঢাকা মহানগর পশ্চিম: সভাপতি আবুল কালাম আজাদ নাসির, সিনিয়র সহ-সভাপতি মো. তরিকুল ইসলাম রানা, সহ-সভাপতি গোলাম মাওলা গোলাপ, সাধারণ সম্পাদক জুয়েল হাসান রাজ, যুগ্মসম্পাদক মো. মঞ্জুরুল হাসান ইফাত ও আতিক মোহাম্মদ হাবীব চৌধুরী এবং সাংগঠনিক সম্পাদক মো. রবিন খান।

* শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়: সভাপতি আহমেদুল কবীর তাপস, সিনিয়র সভাপতি তারিকুল ইসলাম তারিক, সাধারণ সম্পাদক বি.এম. আলমগীর কবীর, সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক আব্দুস সামাদ ও সাংগঠনিক সম্পাদক ফরহাদ হোসেন।

* ঢাকা কলেজ: সভাপতি শাহিনুর রহমান, সিনিয়র সহ-সভাপতি মো. দেলোয়ার হোসেন রাসেল, সহ-সভাপতি আতিকুর রহমান রাসেল, ইব্রাহিম কার্দি, পিয়াল হাসান, সিরাজউদ্দিন বাবু, মেসকাত হোসেন তয়ন, সাধারণ সম্পাদক জুলহাস মৃধা, সিনিয়র যুগ্মসম্পাদক সাজ্জাদ হোসেন চৌধুরী, যুগ্মসম্পাদক শাহাবউদ্দিন ইমন, আবু রাসেল ভূঁইয়া, মাহফুজুর রহমান খান, মাহিবুর রহমান টিপু ও মামুনুর রহমান মামুন, সাংগঠনিক সম্পাদক বোরহান উদ্দিন ইসরাক, প্রচার সম্পাদক ইমরান হোসেন রাজ এবং দপ্তর সম্পাদক তানভীর আহমদ মাদবর।

* সরকারি তিতুমীর কলেজ: সভাপতি আরিফুর রহমান এমদাদ, সিনিয়র সহ-সভাপতি মাহফুজুর রহমান লিপকন, সহ-সভাপতি‌ আরিফুল ইসলাম মোল্যা, সেলিম রেজা, জসিম উদ্দিন মুন্সি রানা, সাধারণ সম্পাদক ইমাম হোসেন, সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক কাজী সাইফুল ইসলাম, যুগ্ম সম্পাদক মিরাজ আল ওয়াসী, রিয়াজুল ইসলাম রিয়াজ ও শাহিন আল মাহমুদ এবং সাংগঠনিক সম্পাদক হামদে রাব্বি আকরাম।

* কবি নজরুল সরকারি কলেজ: সভাপতি সাইদুর রহমান সাইদ, সিনিয়র সভাপতি ইরফান আহমেদ ফাহিম, সহ-সভাপতি রোমান আহমেদ, মুজিবুল হক রিপন, মো. শামিম হোসেন, সাধারণ সম্পাদক কাওসার হোসেন, সিনিয়র যুগ্মসম্পাদক কে এম সিরাজুল ইসলাম, যুগ্মসম্পাদক লিখিল চন্দ্র শ্রাবণ, কামরুল ইসলাম কানন, শওকত হোসেন সৈকত ও সাংগঠনিক সম্পাদক মো. নাজমুল হাসান।

* তেজগাঁও কলেজ: সভাপতি মো. ফয়সাল দেওয়ান, সিনিয়র সহ-সভাপতি শামীম পালোয়ান, সহ-সভাপতি মোহাম্মদ ইসমাইল সোহাগ, তরুন মোর্শেদ, সাধারণ সম্পাদক মো. বেলাল হোসেন খান, সিনিয়র যুগ্মসম্পাদক এইচ এম মুনকির হোসেন সাগর, যুগ্মসম্পাদক মো. সেলিম হোসেন, সাদ্দাম হোসেন অনিক, হাসান মাহমুদ, এস আই জুয়েল শিকদার, সাংগঠনিক সম্পাদক ইয়াছিন ভূঁইয়া, প্রচার সম্পাদক মোহাম্মাদ আলী ও দপ্তর সম্পাদক নাজমুল হাসান নাঈম।

* সরকারি বাঙলা কলেজ: সভাপতি ইব্রাহিম হোসেন বিপ্লব, সিনিয়র সভাপতি মোকলেছুর রহমান, সহ-সভাপতি প্রদিপ কুমার হাওলাদার, তারিকুল ইসলাম তারেক, তানভীর মাহমুদ পাপ্পু, হাফিজুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক মো. বেল্লাল হোসেন সোহাগ, সিনিয়র যুগ্মসম্পাদক মেহেদী হাসান মিলন, যুগ্মসম্পাদক মেহেদী হাসান সালাম, সোহাগ মাহমুদ, রিয়ান জোয়াদার, মো. শরীফুল ইসলাম শ্রাবণ ও সাংগঠনিক সম্পাদক ফয়সাল রেজা।

নতুন কমিটিগুলোকে আগামী ১৫ দিনের মধ্যে পূর্ণাঙ্গ কমিটি কেন্দ্রে জমা দিতে বলা হয়েছে।


আরও খবর



আজ ঐতিহাসিক ফারাক্কা লংমার্চ দিবস

প্রকাশিত:সোমবার ১৬ মে ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৬ মে ২০২২ | ২৯০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

আজ ১৬ মে ঐতিহাসিক ফারাক্কা লংমার্চ দিবস। ফারাক্কা বাঁধের ফলে নদীর নাব্যতা হারানোর আশঙ্কায় ও পানির নায্য হিসসার দাবিতে ১৯৭৬ সালের এই দিনে মজলুম জননেতা  মওলানা ভাসানীর নেতৃত্বে লংমার্চ অনুষ্ঠিত হয়। রাজশাহীর মাদ্রাসা ময়দান থেকে ফারাক্কা বাঁধ অভিমুখে লাখো জনতার সেই লংমার্চ রওনা হয় ফারাক্কা বাঁধ অভিমুখে। লংমার্চ শেষে কানসাট হাই স্কুল মাঠে অনুষ্ঠিত বিশাল সমাবেশে বক্তব্য দেন মজলুম জননেতা। সেই  থেকে ১৬ মে ফারাক্কা দিবস নামে পরিচিতি লাভ করে। চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার ১৮ কিলোমিটার উজানে ভারত ফারাক্কা বাঁধটি নির্মাণ করে।

১৯৭২ সালে ভারত-বাংলাদেশ যৌথ নদী কমিশন গঠন করা হয়। এরপর ১৯৭৪-এর ১৬ মে একটি সমঝোতায় পৌঁছায় বাংলাদেশ ও ভারত। কিন্তু ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মালদহ ও মুর্শিদাবাদ জেলায় অবস্থিত ফারাক্কা ব্যারাজের নির্মাণকাজ ১৯৭৫ সালে শেষ করে দেশটি। ওই বছর থেকেই ব্যারাজের মাধ্যমে পানিপ্রবাহ নিয়ন্ত্রণ করে ভারত। ১৯৭৬ সাল থেকে একতরফাভাবে পানি নিজ দেশের অভ্যন্তরে ফিডার ক্যানাল দিয়ে প্রত্যাহার অব্যাহত রাখে ভারত। এর বিরূপ প্রভাবে চাঁপাইনবাবগঞ্জের পদ্মা, মহানন্দাসহ দেশের বড় বড় সব নদী নাব্যতা হারিয়ে হয়ে পড়ে পানিশূন্য বালির চর।

ফারাক্কার প্রভাবে চাঁপাইনবাবগঞ্জের পদ্মাসহ চার নদীই এখন মৃতপ্রায়। স্থানীয়রা বলছেন, নদীতে এখন পানির প্রবাহ নির্ভর করে ভারতের ইচ্ছা-অনিচ্ছার ওপর। শুষ্ক মৌসুমে পানি পাওয়া যায় না, আবার বর্ষায় হঠাৎ পানি ছেড়ে দিলে বন্যা এবং নদীভাঙন দেখা দেয়। পরিবেশবাদীরা বলছেন, নদী শুকিয়ে যাওয়ায় জীববৈচিত্র্যের ওপর মারাত্মক ক্ষতিকর প্রভাব পড়েছে।

সেভ দ্য নেচারসহ কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের নেতারা জানান, পদ্মায় পানি না থাকায় পরিবেশের ওপর পড়ছে বিরূপ প্রভাব। সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে উদ্ভিদ ও জীবচক্র।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তারা জানান, ফারাক্কা ব্যারাজের দীর্ঘমেয়াদি প্রভাবের কারণে চাঁপাইনবাবগঞ্জের পদ্মাসহ অন্য তিন নদী- মহানন্দা, পাগলা ও পুনর্ভবা শুকিয়ে যাচ্ছে, ব্যারাজ নির্মাণের পর পানিপ্রবাহ বাধাগ্রস্ত হওয়ায় নদীতে নাব্যসংকট দেখা দিয়েছে। এখন প্রয়োজনীয় পানি পেলেও তা ধরে রাখা যায় না। আর ফারাক্কা ব্যারাজের দরজা হঠাৎ খুলে দেওয়ার কারণে বন্যা ও নদীভাঙন প্রবণতা বাড়ছে।


আরও খবর
১২ মে: ইতিহাসে আজকের এই দিনে

বৃহস্পতিবার ১২ মে ২০২২




এবার ঈদ যাত্রা স্বস্তিতেই কাটবে

প্রকাশিত:শনিবার ৩০ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ৩০ এপ্রিল ২০২২ | ৩৯০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
আগে গাজীপুরের যে জায়গাটায় যানজট ছিল সেখানেও গাড়ি চলাচল করছে। অতীতের যে কোনো সময়ের চেয়ে এবার সড়কের অবস্থা ভালো। স্বস্তিতেই ঘরমুখো মানুষদের ঈদযাত্রা কাটবে

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, অতীতের যে কোনো সময়ের চেয়ে এবার দেশের সড়ক ও মহাসড়কের অবস্থা ভালো। এবারের ঈদ যাত্রা স্বস্তিতেই কাটবে। শনিবার বেলা ১১টার দিকে রাজধানীর মহাখালী আন্তঃজেলা বাস টার্মিনাল পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের কাছে তিনি এই আশা প্রকাশ করেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, আগে গাজীপুরের যে জায়গাটায় যানজট ছিল সেখানেও গাড়ি চলাচল করছে। অতীতের যে কোনো সময়ের চেয়ে এবার সড়কের অবস্থা ভালো। স্বস্তিতেই ঘরমুখো মানুষদের ঈদযাত্রা কাটবে।

অতিরিক্ত ভাড়ার প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, অতিরিক্ত ভাড়া নেওয়ার কারণে শুক্রবার চারটি কাউন্টারকে জরিমানা করা হয়েছে। বাস টার্মিনালগুলোতে বিআরটিএর ভ্রাম্যমাণ আদালত আছে। যাত্রীদের অভিযোগ পেলে তারা ব্যবস্থা নিচ্ছে।

যাত্রীদের অভিযোগ কয়েকটি পরিবহন দ্বিগুণ ভাড়া নিচ্ছে, এ বিষয়ে কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হবে কি না? সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে সেতুমন্ত্রী বলেন, অভিযোগ যেহেতু এসেছে সেটাকে মিথ্যা মনে করার অবকাশ নেই। ঘটনা ঘটেছে বলেই অভিযোগ আসছে। আমি বিআরটিএর চেয়ারম্যানকে এখনই বলে দিচ্ছি অতিরিক্ত ভাড়ার বিষয়ে নজরদারি বাড়াতে ও ব্যবস্থা নিতে।


আরও খবর



টি-টোয়েন্টি র‍্যাংকিংয়ে বাংলাদেশের উন্নতি

প্রকাশিত:বুধবার ০৪ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ০৪ মে ২০২২ | ৪১০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে শ্রীলঙ্কা-আফগানিস্তানকে পেছনে ফেলে এগিয়েছে বাংলাদেশ। আইসিসির র‍্যাঙ্কিংয়ে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের দলের অবস্থান এখন আটে।

হালনাগাদ করা র‍্যাঙ্কিংয়ে এক ধাপ এগিয়েছে বাংলাদেশ। মাহমুদউল্লাহদের পয়েন্ট এখন ২৩৩। ২৩০ পয়েন্টে থাকা শ্রীলঙ্কাও এক ধাপ এগিয়ে আছে নয়ে। এক ধাপ পিছিয়ে আফগানিস্তান আছে দশে। ছয় রেটিং পয়েন্ট হারিয়ে রশিদ খানদের পয়েন্ট এখন ২২৬। ২৭০ পয়েন্টে শীর্ষে ভারত।

তবে আশ্চর্যজনক উন্নতি করেছে ইউরোপের দেশ পর্তুগাল। নয় ধাপ এগিয়ে পর্তুগিজ ক্রিকেট দল ৫৪ থেকে উঠে এসেছে ৪৫তম স্থানে।

টি-টোয়েন্টিতে এগোলেও ওয়ানডে ও টেস্টে র‍্যাঙ্কিংয়ের কোনো পরিবর্তন হয়নি বাংলাদেশের। ৫০ ওভারের ক্রিকেটে আছে যথারীতি সাতে। টেস্টে আছে নবম স্থানেই। সাদা পোশাকে শীর্ষস্থান ধরে রেখেছে অস্ট্রেলিয়া। ওয়ানডের শীর্ষস্থান নিউজিল্যান্ডের দখলে। মাত্র এক পয়েন্টের ব্যবধানে দুইয়ে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ড।

একনজরে আইসিসির টি-টোয়েন্টি র‍্যাংকিংয়ের শীর্ষ ১০ দেশ।

১ম ভারত

২য় ইংল্যান্ড

৩য় পাকিস্তান

৪র্থ দক্ষিণ আফ্রিকা

৫ম অস্ট্রেলিয়া

৬ষ্ঠ নিউজিল্যান্ড

৭ম ওয়েস্ট ইন্ডিজ

৮ম বাংলাদেশ

৯ম শ্রীলঙ্কা

১০ম আফগানিস্তান

নিউজ ট্যাগ: টি-টোয়েন্টি

আরও খবর



ওয়ালটন ফ্রিজ কিনে ২০ লাখ টাকা পেলেন আরো দুই ক্রেতা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৮ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৮ এপ্রিল ২০২২ | ৩০৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ওয়ালটনের কাছ থেকে পাওয়া ১০ লাখ টাকার ডামি চেক হাতে টুঙ্গিপাড়ার কুশলী ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মো. পারভেজ রেজা হোসেন (ডানে) এবং নাটোরের কৃষক জুয়েল রানা (বায়ে)।

ওয়ালটন ফ্রিজ কিনে ২০ লাখ টাকা পেলেন আরও দুই ক্রেতা। তারা হলেন গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ার কুশলী ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মো. পারভেজ রেজা হোসেন এবং নাটোরের সিংড়া উপজেলার কৃষক জুয়েল রানা। পাশাপাশি ফ্রিজসহ টিভি, এসি, ওয়াশিং মেশিন, মাইক্রোওয়েভ ওভেন, ব্লেন্ডার, গ্যাস স্টোভ, রাইস কুকার ও ফ্যান কিনে দেশব্যাপী ক্রেতারা ৮৫ হাজারের বেশি ওয়ালটন পণ্য ফ্রি পেয়েছেন। এছাড়া এখন পর্যন্ত ১ লাখ টাকা করে পেয়েছেন ১০ জন। ঈদুল ফিতর উপলক্ষে ঝড়ো অফারে ডিজিটাল ক্যাম্পেইন সিজন-১৪ এর আওতায় এই সুবিধা দিচ্ছে ওয়ালটন।

এর আগে ওয়ালটনের ফ্রিজ কিনে ১০ লাখ টাকা করে পেয়েছেন ময়মনসিংহের ফুলবাড়িয়ার মাদ্রাসা শিক্ষক আবুল হাসিম এবং নাটোরের বিরাহিমপুর মসজিদের ইমাম মো. আব্দুর রাজ্জাক। এছাড়া অসংখ্য ক্রেতা পেয়েছেন বিভিন্ন অঙ্কের নিশ্চিত ক্যাশব্যাক।

উল্লেখ্য, অনলাইন অটোমেশনের মাধ্যমে গ্রাহকদের আরও দ্রুত ও সর্বোত্তম বিক্রয়োত্তর সেবা দিতে সারা দেশে ডিজিটাল ক্যাম্পেইন চালাচ্ছে ওয়ালটন। ক্যাম্পেইনের মাধ্যমে রেজিস্ট্রেশন পদ্ধতিতে ক্রেতার নাম, মোবাইল নাম্বার এবং বিক্রি করা পণ্যের মডেল নম্বরসহ বিস্তারিত তথ্য ওয়ালটনের সার্ভারে সংরক্ষণ করা হচ্ছে। ফলে, ওয়ারেন্টি কার্ড হারিয়ে ফেললেও দেশের যেকোনো ওয়ালটন সার্ভিস সেন্টার থেকে দ্রুত সেবা পাচ্ছেন গ্রাহক। এ কার্যক্রমে ক্রেতাদের অংশগ্রহণে উৎসাহিত করতে ক্যাম্পেইনের সিজন-১৪ এর আওতায় ১০ লাখ টাকা পর্যন্ত নিশ্চিত ক্যাশব্যাক এবং কোটি কোটি টাকার ফ্রি পণ্য পাওয়ার সুযোগ রয়েছে।

বুধবার (২৭ এপ্রিল, ২০২২) গোপালগঞ্জ ওয়ালটন প্লাজায় আনুষ্ঠানিকভাবে পারভেজ রেজার হাতে ১০ লাখ টাকার চেক তুলে দেন ওয়ালটনের সিনিয়র এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর জনপ্রিয় চিত্রনায়ক আমিন খান এবং পৌর মেয়র কাজী লিয়াকত আলী।

এর আগে ২৩ এপ্রিল বগুড়ার নন্দীগ্রাম ওয়ালটন প্লাজায় আনুষ্ঠানিকভাবে জুয়েল রানার হাতে ১০ লাখ টাকার চেক তুলে দেন উপজেলা চেয়ারম্যান রেজাউল আশরাফ জিন্নাহ ও আমিন খান। সে সময় নন্দীগ্রাম থানা অফিসার ইন-চার্জ (ওসি) আনোয়ার হোসেনসহ ওয়ালটনের বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। কৃষক জুয়েল রানার বাড়ি নাটোরের সিংড়া উপজেলায় হলেও তিনি পার্শ্ববর্তী নন্দীগ্রাম ওয়ালটন প্লাজা থেকে ফ্রিজটি কিনেছিলেন।

আমিন খান বলেন, দেশে তৈরি পণ্য কেনার অর্থ দেশের অর্থনীতিতে অবদান রাখা। ক্রেতারা বাংলাদেশে তৈরি আন্তর্জাতিকমানের পণ্যে আস্থা রেখেছেন বলেই ওয়ালটন মানুষের জন্য কর্মসংস্থান সৃষ্টিসহ অর্থনীতিতে অবদান রাখতে পারছে। ১০ লাখ টাকার চেক হস্তান্তর অনুষ্ঠান প্রমাণ করে ওয়ালটন কথা দিয়ে কথা রাখে।

নন্দীগ্রাম উপজেলা চেয়ারম্যান রেজাউল আশরাফ জিন্নাহ বলেন, বাংলাদেশে ইলেকট্রিক্যাল ও ইলেকট্রনিক্স খাতে রোল মডেল ওয়ালটন। তারা সাশ্রয়ী দামে পণ্য দেয়ায় সবার জন্য টিভি-ফ্রিজ-এসির মতো পণ্য ব্যবহার সহজ হয়েছে।

সৌভাগ্যবান ক্রেতা পারভেজ রেজা বলেন, আমার এলাকার অধিকাংশ মানুষ ওয়ালটনের ফ্রিজ ব্যবহার করেন। দামে সাশ্রয়ী এবং মানে ভালো হওয়ায় আমি ওয়ালটন ফ্রিজার কিনেছি। ১০ লাখ টাকা পাওয়ার অনুভূতি বলে বোঝানো যায় না। ক্রেতাকে দেয়া প্রতিশ্রুতি রক্ষা করায় ওয়ালটনকে ধন্যবাদ।

ওয়ালটন ফ্রিজ কিনে ১০ লাখ টাকা পেয়ে আবেগে আপ্লুত জুয়েল রানা। পেশায় কৃষক জুয়েল রানা জানান এই টাকা দিয়ে তিনি জমি কিনবেন।

জানা গেছে, ওয়ালটন ফ্রিজে ১ বছরের রিপ্লেসমেন্টসহ কম্প্রেসরে ১২ বছরের গ্যারান্টি, ৫ বছরের ফ্রি বিক্রয়োত্তর সেবা, দেশব্যাপী বিস্তৃত ৭৭টি সার্ভিস সেন্টার থেকে দ্রুত বিক্রয়োত্তর সেবা পাওয়ার নিশ্চয়তা এবং সর্বোচ্চ ৩৬ মাসের সহজ কিস্তি সুবিধা দেওয়া হচ্ছে।


আরও খবর
যশোরে ১০ ঢাকায় ৮০

বুধবার ২৫ মে ২০২২




ভারতের কাশ্মিরের স্কুলে হিজাব নিষিদ্ধ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৮ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৮ এপ্রিল ২০২২ | ৪২০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

হিজাব ইস্যুতে আবারও উত্তপ্ত ভারত। জম্মু-কাশ্মিরে শিক্ষিকারা হিজাব পরতে পারবেন না এমন নির্দেশনা জারি করা হয়েছে একটি স্কুলে। সেটি ঘিরেই উত্তাপ ছড়িয়ে পড়েছে রাজনীতিতেও। খবর ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের।

জানা গেছে, এ নির্দেশিকা জারি করেছে ডাগর পরিবার নামের একটি স্কুল। পুনের একটি এনজিও এবং ভারতীয় সেনাবাহিনী বিশেষভাবে সক্ষম শিশুদের জন্য স্কুলটি পরিচালনা করে। সেই স্কুল কর্তৃপক্ষই শিক্ষিকাদের উদ্দেশে নতুন নির্দেশনা জারি করেছে। যেখানে স্পষ্টভাবে বলা হয়েছে, স্কুলের মধ্যে শিক্ষিকারা হিজাব পরতে পারবেন না।

স্কুল কর্তৃপক্ষের দাবি, শিশুদের মনের মধ্যে যাতে ভয়ের সঞ্চার না হয়, তারা যাতে কোনো সংশয়ে না থাকে এবং অনেক বেশি নিরাপদ অনুভব করে, সে জন্যই এ নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এর সমালোচনা করেছেন জম্মু-কাশ্মিরের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি এবং উমর আবদুল্লা।

সোমবার জারি করা বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, পরিবার ও স্কুল হলো আবেগ ও নৈতিকভাবে শেখার এবং বেড়ে ওঠার জায়গা। স্কুলের কর্মী হিসাবে, মূল উদ্দেশ্য হলো প্রতিটি শিক্ষার্থীর পূর্ণ সম্ভাব্য বিকাশের ব্যবস্থা করা। একই জন্য, শিক্ষার্থীদের সঙ্গে বিশ্বাস স্থাপন করতে হবে এবং তাদের স্বাগত, নিরাপদ এবং সুখী বোধ করতে হবে।


আরও খবর