আজঃ বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

চাঁপাইনবাবগঞ্জে বাস-ট্রাক মুখোমুখি সংঘর্ষে ৯ জন আহত

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৭ মার্চ ২০২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৭ মার্চ ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি

Image

চাঁপাইনবাবগঞ্জে গোমস্তাপুর উপজেলার মেশিন মোড়ে বাস ও ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় ট্রাক ও বাসের যাত্রীসহ নয়জন আহত হয়েছে। শুক্রবার (১৮ মার্চ) রাত ৯টার দিকে রহনপুর ইউনিয়নের মেশিন মোড়ে ভোলাহাট থেকে ছেড়ে আসা সাথী এন্টারপ্রাইজ নামে ঢাকাগামী একটি বাসের সঙ্গে অরপদিক থেকে আসা একটি ট্রাকের সংঘর্ষ হয়।

এতে আহত হন  ট্রাক চালক মো. নুরনবী (২৬), বাস যাত্রী ভোলাহাট উপজেলার চকধরনপুর গ্রামের মো. মামুন-অর-রশিদ (২২), মো. মেহেদি হাসান (১৮), মো. তরিকুল ইসলাম (৪৫), মোসা. নাসিমা বেগম (৪০), মেহেদী হাসান (২৫), রফিকুল ইসলাম (৪০), মটরী বেগম (৩৮) ও মো. রাকিবুল ইসলাম (৩০)।

স্থানীয়রা জানান, রহনপুর টু আড্ডা আঞ্চলিক সড়কের মেশিন মোড়ে রাত ৯টার দিকে ভোলাহাট থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী বাসটির সঙ্গে চাঁপাইনবাবগঞ্জ অভিমুখে যাওয়া ট্রাকটির সংঘর্ষ। এতে বাসটির সামনের অংশ দুমড়ে-মুচড়ে যায়। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিস ঘটনাস্থল আসে। সদস্যরা আহতদের উদ্ধার করে গোমস্তাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

গোমস্তাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের দায়িত্বরত চিকিৎসকরা ট্রাক চালক নুরনবীকে পরীক্ষা নিরীক্ষা করে তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করেন। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা গেছে।

গোমস্তাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহবুবুর রহমান এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

নিউজ ট্যাগ: সড়ক দুর্ঘটনা

আরও খবর
সিলেট নগরী থেকে গৃহবধূর গলিত লাশ উদ্ধার

বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




দেশে এলএনজি সরবরাহে কাতার এনার্জির সঙ্গে মার্কিন কোম্পানির চুক্তি

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ৩০ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ৩০ জানুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
অর্থ ও বাণিজ্য ডেস্ক

Image

বাংলাদেশে বছরে ১০ লাখ টন তরলীকৃত প্রাকৃতিক গ্যাস (এলএনজি) সরবরাহের জন্য কাতার এনার্জির সঙ্গে চুক্তি হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক প্রতিষ্ঠান এক্সিলারেট এনার্জির। সোমবার (২৯ জানুয়ারি) চুক্তির বিষয়টি এক বিবৃতিতে নিশ্চিত করেছে কাতার।

চুক্তি অনুযায়ী, ২০২৬ সালের জানুয়ারি মাস থেকে ১৫ বছর মেয়াদে এক্সিলারেট কাতারের প্রতিষ্ঠানটি থেকে এলএনজি কিনে বাংলাদেশকে সরবরাহ করবে। বিষয়টি নিয়ে এক্সিলারেটের সঙ্গে পেট্রোবাংলার চুক্তি রয়েছে।

আন্তর্জাতিক বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, কাতারের নর্থ ফিল্ড সম্প্রসারণ প্রকল্পে ইউরোপীয় ও এশীয় অংশীদারদের সঙ্গে কাতার এনার্জির করা সিরিজ চুক্তির মধ্যে সর্বশেষ চুক্তি এটি। ২০২৭ সালের মধ্যে কাতারের এলএনজি উৎপাদন বর্তমানের বছরে ৭৭ মিলিয়ন টন (এমটিপিএ) থেকে ১২৬ এমটিপিএতে উন্নীত হবে বলে আশা করা হচ্ছে। কাতার বাংলাদেশেরও সবচেয়ে বড় এলএনজি সরবরাহকারী।

কাতার এনার্জির প্রধান নির্বাহী সাদ আল-কাবি এক বিবৃতিতে বলেন, এই নতুন চুক্তি এক্সিলারেটের সঙ্গে আমাদের সম্পর্ক আরও জোরদারের পাশাপাশি বাংলাদেশের জ্বালানি চাহিদা এবং বৃহত্তর অর্থনৈতিক উন্নয়নের পথে অগ্রযাত্রাকে সমর্থন করবে।

এছাড়া, এক্সিলারেট এনার্জি ২০২৬ ও ২০২৭ সালে ৮ লাখ ৫০ হাজার এমটিপিএ এবং ২০২৮ থেকে ২০৪০ সালের মধ্যে ১ এমটিপিএ এলএনজি কিনবে। এটি বাংলাদেশের ভাসমান স্টোরেজ এবং রিগ্যাসিফিকেশন ইউনিটে পাঠানো হবে বলেও জানিয়েছে কাতার এনার্জি।


আরও খবর
কোম্পানির রিটার্ন জমার সময় বাড়ল দুই মাস

বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




বিদ্রোহী দুই যোদ্ধাকে গাছে ঝুলিয়ে হত্যা করেছে জান্তা বাহিনী

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

বিদ্রোহী দুই যোদ্ধাকে মিয়ানমারে ম্যাগওয়ে অঞ্চলে প্রকাশ্যে পুড়িয়ে হত্যা করেছে জান্তা বাহিনী। তিন মাস আগের এ নৃশংস অপরাধের ভিডিও গত মঙ্গলবার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। সংবাদমাধ্যম ইরাবতীতে এ নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে।

ভিডিওতে দুই তরুণকে গাছে ঝোলানোর পর পুড়িয়ে মারতে দেখা যায়। প্রথমে স্থানীয় দুটি সংবাদমাধ্যমে এ ভিডিও নিয়ে খবর প্রকাশিত হয়।

বিদ্রোহী গোষ্ঠী ইয়াও ডিফেন্স ফোর্স (ওয়াইডিএফ) বলেছে, গাঙ্গাও শহরের মায়ুক খিন ইয়ান গ্রামে জান্তা সেনা ও তাদের মিত্র পিউ সো হতি মিলিশিয়া সদস্যরা এই ঘটনার জন্য দায়ী।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওতে দেখা যায়, ওই দুই ব্যক্তিকে স্বীকার করতে বাধ্য করা হচ্ছে যে, তারা স্থানীয় পিপলস ডিফেন্স ফোর্সের সদস্য। ভুক্তভোগীদের ঘিরে দাঁড়িয়ে থাকা জান্তা সেনারা তাদের নিজেদের কুকুর বলতে বাধ্য করে। অনেক বেসামরিক নাগরিক জান্তা সেনাদের বোঝাতে সামরিক কুকুর শব্দগুলো ব্যবহার করে।

জীবন্ত পুড়িয়ে মারার আগে তাদের নির্যাতন করা হয়েছে বলে ভিডিওতে প্রমাণ পাওয়া গেছে। তাদের গুরুতর জখম এবং রক্তাক্ত অবস্থায় দেখা যায়। ওই তরুণদের হাতে পায়ে লোহার শিকল বেঁধে একটি গাছের দিকে টেনে নিয়ে যাওয়া হয়। নিজেদের কুকুর বলে সম্বোধন করতে বাধ্য করার পর তাদের গাছ থেকে ফাঁসিতে ঝোলানো হয়। এরপর গায়ে দাহ্য তরল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়। জনসম্মুখেই তাদের জীবন্ত পোড়ানো হয়।

ওয়াইডিএফ জানায়, গ্রামের প্রতিটি পরিবারকে ফাঁসির সাক্ষী থাকার জন্য একজন করে সদস্যকে পাঠাতে বলা হয়েছিল। ভিডিওটিতে একটি আনন্দিত কণ্ঠে এই অপরাধকে বিজয় হিসেবে উপস্থাপন করে বর্ণনা করা হয়েছে। অবশ্য যে সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্ট থেকে ভিডিওটি পোস্ট করা হয়েছে ইরাবতী সেটি যাচাই করতে পারেনি।

ওয়াইডিএফ নিহত ওই দুই তরুণকে ফো তে এবং থার হাতুং বলে শনাক্ত করেছে। তারা ওয়াইডিএফ সদস্য ছিলেন, যাদের ২০২৩ সালের ৭ নভেম্বর মিয়াউক খিন ইয়ান গ্রামে একটি অভিযানের সময় জান্তা সেনা এবং পিউ সো হতি সদস্যরা আটক করে।

সামরিক বাহিনী সমর্থিত ইউনিয়ন সলিডারিটি অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট পার্টির সাবেক আইনপ্রণেতা বুলেট খ্যাত হ্লা সোয়ের নির্দেশনায় গ্রামটি পিউ সো হতি মিলিশিয়ারা নিয়ন্ত্রণ করে। মিলিশিয়ারা বেসামরিক নাগরিকদের বিরুদ্ধে সহিংসতা, গ্রামে এবং আশপাশের গ্রামে নির্বিচারে গোলাবর্ষণের কারণে কুখ্যাত। ২০২২ সালের মার্চে ওই গ্রামে দুই বেসামরিক নাগরিককে নির্যাতন করে হত্যা করা হয়। পিউ সো হতি মিলিশিয়াদের বিস্তৃতির কারণে গ্রামের অনেক বাসিন্দাই পালিয়ে গেছে।

ওয়াইডিএফ বলেছে, ওই দুই ব্যক্তিকে প্রকাশ্যে জীবন্ত পুড়িয়ে মারা হয়েছে। এর আগে তাদের ওপর বারবার নির্যাতন চালানো হয়েছে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহারকারীরা ভিডিওটি দেখে ক্ষোভ প্রকাশ করছেন। আতঙ্ক ছড়ানোর উদ্দেশ্যে এ ধরনের অমানবিকতা স্বৈরাচারের বিরুদ্ধে বিপ্লবী চেতনাকেই আরও শক্তিশালী করবে বলে অনেকে মন্তব্য করেছেন।

এক বিবৃতিতে ওয়াইডিএফ বলে, সন্ত্রাসী সামরিক বাহিনী অনেক আগে থেকেই অমানবিক কর্মকাণ্ড চালিয়ে আসছে। এ ধরনের ঘটনা যাতে আর না ঘটে তা নিশ্চিত করার একমাত্র উপায় হচ্ছে, সামরিক শাসনের মূলোৎপাটন করা এবং বিপ্লবের সাফল্য নিশ্চিত করা।


আরও খবর
গাজায় অভিযানে ২৩৮ ইসরায়েলি সেনা নিহত

বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




ভালোবাসা দিবসে ম্যাডাম ওয়েবের অ্যাকশন

প্রকাশিত:শনিবার ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
বিনোদন ডেস্ক

Image

ফিফটি শেডস অব গ্রে খ্যাত হলিউড তারকা ডাকোটা জনসন। বিশ্ব ভালোবাসা দিবস সামনে রেখে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন। কারণ ১৪ ফেব্রুয়ারি ভালোবাসা দিবসের দিন মুক্তি পাচ্ছে তার নতুন সিনেমা ম্যাডাম ওয়েব। সিনেমাটির প্রচারে ব্যস্ত সময় পার করছেন ডাকোটা।

মার্ভেলের সিনেমা ম্যাডাম ওয়েব মূলত স্প্যাইডারম্যানের স্পিন অব সিরিজ। তারকায় ভরা এ সিনেমায় দেখানো হবে স্প্যাইডারম্যান ও ভেনমের মধ্যকার লড়াই। ইতোমধ্যে সিনেমার সব ধরনের কাজ সম্পন্ন হয়েছে।

সম্প্রতি সিনেমাটি নিয়ে বিবিসি রেডিওর সাক্ষাৎকারে অংশ নেন ডাকোটা। সেখানে বলেন, প্রথমবারের মতো সুপারহিরো গল্পে অভিনয় করলাম। কাজটি করে আমি আনন্দিত। মার্ভেলের সঙ্গে এটাই আমার প্রথম কাজ। তাই অফারটি যখন আসে আমি রাজি হই। আমার চরিত্রের নাম সিনেমার নামে, ম্যাডাম ওয়েব; বিষয়টি আমার কাছে দুর্দান্ত লেগেছে। বেশ কিছু দৃশ্যের শুটিংয়ে আমাদের কো-আর্টিস্টরা আহতও হয়েছেন। আমিও সামান্য ইনজুরিতে পড়েছিলাম। তবে কাজের অভিজ্ঞতা দারুণ। কাজটি আমার ক্যারিয়ারে স্মরণীয় করে রাখতে নিজের সর্বোচ্চটা দেওয়ার চেষ্টা করছি। বাকি কথা সিনেমা মুক্তির পর দর্শক বলবে।

ম্যাডাম ওয়েব নির্মাণ করছেন এস জে ক্লার্কসন। এর প্রধান আরেকটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন অ্যাডাম স্কট।

এ ছাড়া বিভিন্ন চরিত্রে দেখা যাবে এমা রবার্টস, ইসাবেলা মার্চেডন জিল হেন্সি, জসিয়া ম্যামেট, তাহের রহিম, মাইক ইপস, মাইক ব্যাশ, অস্টিন জে রায়ান ও মিচেল ম্যালভেস্তির মতো তারকাকে।


আরও খবর



সিলেটের পর্যটন শিল্প বিকাশে চ্যালেঞ্জ ও সম্ভাবনা শীর্ষক সেমিনার

প্রকাশিত:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | অনলাইন সংস্করণ
সিলেট প্রতিনিধি

Image

সিলেট বিভাগের পর্যটন শিল্প বিকাশে চ্যালেঞ্জ ও সম্ভাবনা শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার সিলেট জেলা প্রশাসকের হলরুমে শুরু হওয়া সেমিনারে সভাপতিত্ব করেন সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার আবু আহমদ সিদ্দিকী এনডিসি।

সিনিয়র সহকারী কমিশনার অনুপমা দাসের পরিচালনায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, জনপ্রশাসন মন্ত্রালয়ের সিনিয়র সচিব মোহাম্মদ মেজবাহ্ উদ্দিন চৌধুরী।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, সিলেট মহানগর পুলিশ কমিশনার জাকির হোসেন খান। মূল প্রবদ্ধ উপস্থাপন করেন সিলেট মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটির উপাচার্য প্রফেসর ড. মোহাম্মদ জহিরুল হক।

মূল আলোচকের বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আবু তাহের মোহাম্মদ জাবের।

র‍্যাপআপ করেন সিলেটের অতিরিক্ত বিভগীয় কমিশনার (সার্বিক) দেবজিৎ সিনহা, বান্হুবল উপজেলার নির্বাহী অফিসার তাহমিনুল হক, সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার নির্বাহী অফিসার মৌসুমী মান্নান।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, সিলেটের জেলা প্রশাসক শেখ মোহাম্মদ রাসেল হাসান, সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ রাশেদ ইকবাল চৌধুরী, মৌলভীবাজারের জেলা প্রশাসক উর্মি বিনতে সালাম, হবিগঞ্জের জেলা প্রশাসক মোছা. জিলুফা সুলতানা, সিলেট সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ইফতেখার আহমেদ চৌধুরীসহ বিভিন্ন দপ্তরের সরকারী বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা ও গণমাধ্যম কর্মীরা।

সেমিনারে বক্তারা সিলেটের পর্যটন খাতের নানা সমস্যার কথা তুলে ধরেন। বক্তারা বলেন, সিলেট ব্যবসা বাণিজ্য পর্যটন নির্ভর। এই খাতের উপর ভিত্তি করে সিলেটের অর্থনীতি সমৃদ্ধ হয়। তাই পর্যটন শিল্পে সরকারকে বরাদ্দ বাড়ানোর উপর জোর দেন তারা। পাশাপাশি পর্যটন খাতের সমস্যাগুলো দ্রুত সমাধানের তাগিদ দেন বক্তারা।

নিউজ ট্যাগ: সিলেট

আরও খবর
সিলেট নগরী থেকে গৃহবধূর গলিত লাশ উদ্ধার

বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




ফিলিস্তিনকে রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি দিতে চায় ব্রিটেন : ক্যামেরন

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ৩০ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ৩০ জানুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

আনুষ্ঠানিকভাবে ফিলিস্তিন রাষ্ট্রকে স্বীকৃতি দিতে চায় ব্রিটেন, ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন এমন ইঙ্গিতই দিয়েছেন। মধ্যপ্রাচ্যে শান্তি প্রতিষ্ঠার জন্য ফিলিস্তিনিদের একটি রাজনৈতিকক্ষেত্র দিতে হবে বলেও মন্তব্য করেছেন তিনি। নভেম্বরে পররাষ্ট্রমন্ত্রী নিযুক্ত হওয়ার পর তিনি অঞ্চলটিতে চতুর্থবার সফর করবেন। বিবিসি মঙ্গলবার (৩০ জানুয়ারি) এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

ক্যামেরন ওয়েস্টমিনস্টারের এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বলেন, ফিলিস্তিন রাষ্ট্র কেমন হবে তা নির্ধারণ করার দায়িত্ব যুক্তরাজ্যের। ফিলিস্তিনি জনগণকে দ্বি-রাষ্ট্রীয় সমাধানের দিকে অপরিবর্তনীয় অগ্রগতি দেখাতে হবে।

রক্ষণশীল মধ্যপ্রাচ্য কাউন্সিলকে তিনি বলেন, যুক্তরাজ্য জাতিসংঘসহ মিত্রদের সঙ্গে ফিলিস্তিন রাষ্ট্রকে স্বীকৃতি দেওয়ার বিষয়টি বিবেচনা করবে। এটি এই বিষয়টি বাস্তবায়ন করতে সহায়তা করবে।

অনুষ্ঠানে যুক্তরাজ্যের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইসরায়েলকে গাজায় আরও মানবিক সহায়তার অনুমতি দেওয়ার আহ্বান জানিয়ে বলেন, এটি হাস্যকর, ব্রিটিশ ও অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ সহায়তা সীমান্তে ফেরত পাঠানো হচ্ছে।

ডেভিড ক্যামেরন বলেন, গত ৩০ বছর ইসরায়েল তার নাগরিকদের নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ হয়েছে। সেই ব্যর্থতা স্বীকার করলেই শান্তি ও অগ্রগতি হবে বলে তিনি দাবি করেন।

ব্রিটেন দীর্ঘদিন ধরে একটি দ্বি-রাষ্ট্রীয় সমাধানকে সমর্থন করেছে, যেখানে ইসরায়েলি ও ফিলিস্তিনিরা আলাদা দেশে পাশাপাশি থাকতে পারে। কিন্তু ক্যামেরন বলছেন, ব্রিটেন একটি ফিলিস্তিনি রাষ্ট্রকে আনুষ্ঠানিক ও কূটনৈতিক স্বীকৃতি দিতে পারে এবং তা চূড়ান্ত শান্তি চুক্তির অংশ হিসেবে নয়, বরং আলোচনার সময়েই। একই সময়ে গাজা শাসন করতে সক্ষম টেকনোক্র্যাট এবং ভালো নেতাদের নিয়ে দ্রুত একটি নতুন ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষ গঠন করতে হবে বলেও জানান তিনি।

ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেছেন, এসবের সঙ্গে সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ হলো, ফিলিস্তিনি জনগণকে একটি রাজনৈতিকক্ষেত্র প্রদান করা, যাতে তারা দ্বি-রাষ্ট্র সমাধানের অপরিবর্তনীয় অগ্রগতি এবং গুরুত্বপূর্ণভাবে ফিলিস্তিনি রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা দেখতে পায়।

ক্যামেরন বলেন, সেখানে আমাদের একটি দায়িত্ব রয়েছে। কারণ ফিলিস্তিনি রাষ্ট্রটি কেমন হবে, এতে কী থাকবে, কিভাবে কাজ করবে এবং গুরুত্বপূর্ণভাবে জাতিসংঘসহ মিত্রদের সঙ্গে ফিলিস্তিন রাষ্ট্রকে স্বীকৃতি দেওয়ার বিষয়টি বিবেচনা শুরু করা উচিত।

তিনি বলেন, এ ছাড়া একটি দীর্ঘমেয়াদী চুক্তির অংশ হিসেবে ইসরায়েলের সব জিম্মিকে মুক্তি দিতে হবে, নিশ্চয়তা দিতে হবে যে হামাস ইসরায়েলের ওপর আক্রমণ চালাবে না এবং গোষ্ঠীটির নেতারা গাজা ছেড়ে চলে যাবে। এমন চুক্তি কঠিন হলেও অসম্ভব নয়।

গাজায় যুদ্ধের অবসানের চলমান প্রচেষ্টার বিষয়ে ক্যামেরন বলেন, যুদ্ধে একটি বিরতি এখন প্রয়োজন এবং আলোচনার বিষয়ে আশাজনক লক্ষণ রয়েছে। এমন একটি পথ আছে, যা আমরা এখন উন্মুক্ত দেখতে পাচ্ছি, যেখানে আমরা সত্যিই অগ্রগতি করতে পারি। শুধু সংঘাতের অবসান ঘটাতে নয়, বরং এমন একটি রাজনৈতিক সমাধান খোঁজার ক্ষেত্রে অগ্রগতি রয়েছে, যা কয়েক মাসের জন্য শান্তির পরিবর্তে বছরের পর বছর শান্তি আনতে পারে।

তিনি আরও বলেন, আসল চ্যালেঞ্জ হবে যুদ্ধে ফিরে না গিয়ে সেই বিরতিটিকে একটি টেকসই যুদ্ধবিরতিতে পরিণত করা। যদিও এটি অবিশ্বাস্যভাবে কঠিন, যদিও অতীতে প্রচেষ্টা ব্যর্থ হয়েছে। তবে আমরা হাল ছেড়ে দিতে পারি না। গত ৩০ বছরে আমরা শুধু ব্যর্থতা দেখেছি। এটি ইসরায়েলের জন্য ব্যর্থতার গল্প। কারণ তাদের একটি ক্রমবর্ধমান অর্থনীতি ছিল, তাদের জীবনযাত্রার মান বেড়েছে, তারা প্রতিরক্ষা ও সুরক্ষায় বিনিয়োগ করেছিল। কিন্তু তারা একটি রাষ্ট্র দিতে পারেনি। প্রতিটি পরিবার নিরাপত্তা চায়। গত ৩০ বছর তারা ব্যর্থ হয়েছে।


আরও খবর
গাজায় অভিযানে ২৩৮ ইসরায়েলি সেনা নিহত

বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪