আজঃ রবিবার ০৫ ডিসেম্বর ২০২১
শিরোনাম

চাঁদপুরের বাস দুর্ঘটনার ভিডিও ভাইরাল

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ২৫২০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

চাঁদপুর-কুমিল্লা আঞ্চলিক মহাসড়কে বেপরোয়া গতিতে চলা যাত্রীবাহী বাস দুর্ঘটনার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। ভিডিওটি দুর্ঘটনাকবলিত বাসের পেছনের অন্য আরেকটি বাস থেকে ধারণ করা হয়েছে। তবে কে তা ধারণ করেছেন তার পরিচয় ঘটনার একদিন পার হলেও এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

সোমবার (৮ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে চাঁদপুরের শাহরাস্তি উপজেলার মৌতাবাড়ি এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে। এতে দুই নারী যাত্রী ঘটনাস্থলেই নিহত হন।

এদের একজন শাহরাস্তির নাওড়া গ্রামের বীভা রানী দাস এবং কুমিল্লার নিমসারের গীতা রানী দাস। এই দুজন পরস্পর আত্মীয়। এই দুর্ঘটনায় বাসের আরো বেশ কয়েকজন যাত্রী আহত হন।

পুলিশ জানিয়েছে, কুমিল্লা থেকে চাঁদপুরের উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসা বোগদাদ পরিবহনের বাসটি শাহরাস্তির মৌতাবাড়ি এলাকায় পৌঁছে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সড়কের পাশের খাদে পড়ে যায়।

শাহরাস্তি থানার ওসি আব্দুল মান্নান জানান, খুব বেপরোয়া গতিতে চলার কারণে এমন দুর্ঘটনা ঘটে। বাসটি জব্দ করা হয়েছে। তবে চালক পালিয়ে যাওয়ায় তাকে আটক করা যায়নি।

দেশের বিশিষ্ট দারুশিল্পী সমীরণ দত্ত জানান, এই দুর্ঘটনায় তার বড়বোন নিহত হন। এর আগে আরেক দুর্ঘটনায় কয়েক বছর আগে তার বোনের স্বামীও নিহত হন।

অন্যদিকে স্থানীয়দের অভিযোগ, চাঁদপুর-কুমিল্লা আঞ্চলিক মহাসড়কে চলাচলকারী বোগদাদ পরিবহনের বাসগুলো প্রায় এমন বেপরোয়া গতিতে চলার কারণে দুর্ঘটনার শিকার হয়।



নিউজ ট্যাগ: সড়ক দুর্ঘটনা

আরও খবর
সীতাকুণ্ডে ৪০ কেজি গাঁজাসহ আটক ২

শুক্রবার ০৩ ডিসেম্বর ২০২১




সারাদেশে অনলাইনে মাধ্যমিকে ভর্তির আবেদন শুরু কাল

প্রকাশিত:বুধবার ২৪ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ২৪ নভেম্বর ২০২১ | ৩২০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

দেশের সব সরকারি ও বেসরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে অনলাইনে ভর্তির আবেদন শুরু হচ্ছে আগামীকাল থেকে। বৃহস্পতিবার (২৫ নভেম্বর) সকাল ১১টা থেকে শুরু হয়ে ৮ ডিসেম্বর বিকাল ৫টা পর্যন্ত চলবে।

গত ১৬ নভেম্বর মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদপ্তর ভর্তি সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে।

এতে জানানো হয়, প্রথমবারের মতো সরকারি মাধ্যমিকের পাশপাশি বেসরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়গুলোতেও অনলাইনে আবেদন এবং কেন্দ্রীয় লটারি অনুষ্ঠিত হবে। সরকারি মাধ্যমিকে লটারি অনুষ্ঠিত হবে আগামী ১৫ ডিসেম্বর এবং বেসরকারিতে লটারি হবে ১৯ ডিসেম্বর।

ভর্তির আবেদনপত্র শুধু httpgsa.teletalk.com.bd-এই ঠিকানায় পাওয়া যাবে। ২০২২ শিক্ষাবর্ষে ভর্তি হওয়ার জন্য টেলিটক প্রি-পেইড মোবাইল থেকে এসএমএসের মাধ্যমে আবেদন ফি হিসেবে ১১০ টাকা দিতে হবে।

ঢাকা মহানগরীর ৪৪টি সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয় (তিনটি ফিডার শাখাসহ) তিনটি ভিন্ন গ্রুপে বিভক্ত থাকবে। আবেদনের সময় একজন প্রার্থী একই গ্রুপে পছন্দের ক্রমানুসারে সর্বাধিক পাঁচটি বিদ্যালয় নির্বাচন করতে পারবে।

এছাড়াও সারাদেশের আবেদনকারীরা আবেদনের সময় প্রতিষ্ঠান নির্বাচনকালে থানাভিত্তিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের তালিকা পাবে। প্রার্থীরা প্রাপ্যতার ভিত্তিতে প্রতিটি আবেদনে সর্বোচ্চ পাঁচটি বিদ্যালয় পছন্দের ক্রমানুসারে নির্বাচন করতে পারবে।

এছাড়া www.dshe.gov.bd এর secondary circularorder9 www.teletalk.com.bd ওয়েবসাইট থেকে ফরম পূরণ ও ভর্তি সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য জানা যাবে।


আরও খবর



কর্মসংস্থান সৃষ্টি করতে ১২৭৫ কোটি টাকা দেবে এডিবি

প্রকাশিত:সোমবার ২৯ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ২৯ নভেম্বর ২০২১ | ৩৫০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বাংলাদেশে কর্মসংস্থান সৃষ্টির জন্য ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের সহায়তা করবে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি)। এজন্য ১৫ কোটি ডলার ঋণ দিচ্ছে সংস্থাটি। বাংলাদেশি মুদ্রায় এ অর্থের পরিমাণ প্রায় ১ হাজার ২৭৫ কোটি টাকা (প্রতি ডলার ৮৫ টাকা ধরে)।

সোমবার (২৯ নভেম্বর) শেরেবাংলা নগরে অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগে (ইআরডি) এ সংক্রান্ত ঋণচুক্তি সই হয়েছে। সরকারের পক্ষে ইআরডি সচিব ফাতিমা ইয়াসমিন ও এডিবির পক্ষে সংস্থাটির কান্ট্রি ডিরেক্টর এডিমং গিনটিং চুক্তিতে সই করেন।

দেশের তরুণ, বিদেশফেরত কর্মী এবং করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত গ্রামীণ উদ্যোক্তা বিশেষ করে কুটির, মাইক্রো ও ক্ষুদ্র নারী উদ্যোক্তাদের (সিএমএসই) জন্য ঋণ দিচ্ছে সংস্থাটি। বাংলাদেশ ব্যাংক এ ঋণ দেশের ৩০ হাজার সিএমএসই উদ্যোক্তাদের মাঝে বিতরণ করবে। কর্মসংস্থান সৃষ্টি সহজতর করা এবং দুর্বল জনগোষ্ঠীকে মহামারির প্রভাব থেকে পুনরুদ্ধার করতে এ অর্থায়ন করা হচ্ছে।

এছাড়া গ্রামাঞ্চলে মানুষের আয় কমে গেছে এবং কৃষি ছাড়া অন্যান্য কর্মসংস্থানের সুযোগও কমে গেছে। পাশাপাশি গ্রামীণ উদ্যোক্তারাও মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন করোনার প্রভাবে। এসব জনগোষ্ঠীকে সহায়তা করা হবে।

এডিবির এ অর্থে কোভিড-১৯ মহামারির কারণে ক্ষতিগ্রস্ত ৩০ হাজার কুটির, মাইক্রো এবং ছোট আকারের উদ্যোগকে সহায়তা করা হবে। যুব, প্রত্যাবর্তনকারী অভিবাসী শ্রমিক এবং গ্রামীণ জনগোষ্ঠী দ্বারা পরিচালিত কুটির, মাইক্রো এবং ছোট আকারের উদ্যোগের জন্য বাংলাদেশকে এ অর্থায়ন করা হবে। ঋণের এ অর্থে করোনাভাইরাসে ক্ষতিগ্রস্ত বিশেষ করে নারী উদ্যোক্তাদের সহায়তা করা হবে।

ইআরডি সচিব বলেন, এডিবির ঋণ কোভিড-১৯ মহামারির সংকট মোকাবিলায় সহায়তা করবে। ক্ষতিগ্রস্তদের আর্থ-সামাজিক পুনরুদ্ধারে সহায়তা করার জন্য সরকারের প্রচেষ্টাকে এগিয়ে নেবে।

এডিবি কান্ট্রি ডিরেক্টর গিনটিং বলেন, এডিবির এ প্রয়াস নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে সহায়তা করবে। একটি ব্যাপক কর্মপরিকল্পনা তৈরি করে সিএমএসমইকে অর্থায়ন করা হবে। ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীকে সংকট মোকাবিলায় সহায়তা করা হবে। এক কথায় করোনা সংকটে পড়া মানুষকে সহায়তা করতেই ঋণ দিচ্ছে এডিবি।

প্রকল্পটির আওতায় ২০২৫ সালের মধ্যে কমপক্ষে ৪৫ হাজার কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরি করবে। অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধারে সহায়তার জন্য নারীদের অগ্রাধিকার দেওয়া হবে। নারীদের জন্য ২০ শতাংশ ঋণ নির্ধারণ করা হয়েছে। কর্মসূচির আওতায় ৯০ হাজার মানুষকে প্রযুক্তিগত প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে।

নিউজ ট্যাগ: এডিবি

আরও খবর
আলেশা মার্টের কার্যক্রম বন্ধ ঘোষণা

বৃহস্পতিবার ০২ ডিসেম্বর 2০২1




লঞ্চ ভাড়া বাড়ানোর প্রজ্ঞাপন জারি

প্রকাশিত:সোমবার ০৮ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ০৮ নভেম্বর ২০২১ | ৫১৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

লঞ্চের ভাড়া বাড়ানোর প্রজ্ঞাপন জারি করেছে সরকার। রোববার নৌপরিবহন মন্ত্রণালয় থেকে এ প্রজ্ঞাপন জারি করা হলেও তা সোমবার দুপুরে প্রকাশ করা হয়েছে।

এর আগে গত রাতে লঞ্চ মালিকদের সাথে বৈঠকে কিলোমিটার প্রতি লঞ্চভাড়া ৬০ পয়সা বাড়ানো হয়েছে। শতাংশের হিসাবে যা কম দূরত্বে লঞ্চের ক্ষেত্রে ৩৫ দশমিক ২৯ শতাংশ ও বেশি দূরত্বের ক্ষেত্রে ৪২ শতাংশ বাড়ানো হয়েছে।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন (নৌরুট, পারমিট, সময়সূচি ও ভাড়া নির্ধারণ) বিধিমালা, ২০১৯-এর বিধি ২৭ মোতাবেক সরকার নৌযানে যাত্রী পরিবহনের জন্য কিলোমিটার প্রতি সর্বোচ্চ ও সর্বনিম্ন যাত্রী ভাড়া পুনর্নির্ধারণের লক্ষ্যে গঠিত কমিটির সুপারিশের আলোকে বিআইডব্লিউটিএ-এর প্রস্তাবের পরিপ্রেক্ষিতে নিম্নরূপভাবে যাত্রীভাড়া পুনর্নিনির্ধারণ করলো-

প্রথম ১০০ কিলোমিটার দূরত্বের জন্য প্রতি কিলোমিটারে জনপ্রতি যাত্রী ভাড়া ৬০ পয়সা বাড়িয়ে ২ টাকা ৩০ পয়সা নির্ধারণ করা হয়েছে। তবে প্রথম ১০০ কিলোমিটারের বেশি দূরত্বের জন্য প্রতি কিলোমিটারে জনপ্রতি যাত্রী ভাড়া ৬০ পয়সা বাড়িয়ে ২ টাকা করা হয়েছে বলেও এতে জানানো হয়।

প্রজ্ঞাপনে আরো জানানো হয়, জনপ্রতি সর্বনিম্ন ভাড়া ২৫ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। জনস্বার্থে পুনর্নির্ধারিত এ ভাড়া ৮ নভেম্বর থেকে কার্যকর হবে।


আরও খবর



৭২ ঘণ্টা পর ধর্ষণের মামলা না নেওয়ার কথা নেই লিখিত রায়ে

প্রকাশিত:বুধবার ১৭ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ নভেম্বর ২০২১ | ৩৭৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বনানীর রেইনট্রি হোটেলে ধর্ষণের অভিযোগে করা মামলার লিখিত রায়ে ধর্ষণের ঘটনার ৭২ ঘণ্টা পরে মামলা না নিতে পুলিশকে নির্দেশনার কোনো উল্লেখ নেই। চার বছর আগে বনানীর রেইনট্রি হোটেলে দুই তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগে করা মামলায় ১১ নভেম্বর রায় দেন ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৭-এর তৎকালীন বিচারক মোছা. কামরুন্নাহার।

রায়ে পাঁচ আসামির সবাইকে খালাস দেওয়া হয়। খালাস পাওয়া পাঁচজন হলেন আপন জুয়েলার্সের মালিকের ছেলে সাফাত আহমেদ, তাঁর বন্ধু সাদমান সাকিফ, নাঈম আশরাফ, সাফাতের দেহরক্ষী রহমত আলী ও গাড়িচালক বিল্লাল হোসেন।

রায়ের পর কৌঁসুলিদের উদ্ধৃত করে সংবাদমাধ্যম খবর প্রকাশ করে, রায় ঘোষণার সময় বিচারক নির্দেশনা দিয়েছেন যে ধর্ষণের অভিযোগের ক্ষেত্রে ঘটনার ৭২ ঘণ্টা পেরিয়ে গেলে পুলিশ যেন মামলা না নেয়। এমন নির্দেশনার খবর প্রকাশিত হলে তা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন আইনজীবী ও মানবাধিকারকর্মীরা। তাঁরা বলেন, এই নির্দেশনা সংবিধান ও ন্যায়নীতির পরিপন্থী।

এ নিয়ে সমালোচনার মধ্যে গত শনিবার ওই বিচারকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। তিনি বলেন, বিচারকের রায়ের বিষয়বস্তু নিয়ে কথা বলতে চান না। তবে ওই বিচারকের পর্যবেক্ষণ সম্পূর্ণ বেআইনি ও অসাংবিধানিক। এ কারণে তিনি গত রোববার প্রধান বিচারপতির কাছে বিচারক হিসেবে তাঁর (মোছা. কামরুন্নাহার) দায়িত্ব পালন নিয়ে যেন ব্যবস্থা নেওয়া হয়, সে জন্য একটা চিঠি লেখার কথা বলেন। এরপর রোববার প্রধান বিচারপতি ওই বিচারককে আদালতে না বসতে নির্দেশ দেন। পরে তাঁকে ট্রাইব্যুনাল থেকে প্রত্যাহার করে আইন ও বিচার বিভাগে সংযুক্ত করা হয়।

ইংরেজিতে লেখা ৫৪ পৃষ্ঠার লিখিত রায়ে ধর্ষণের অভিযোগের ক্ষেত্রে ঘটনার ৭২ ঘণ্টা পেরিয়ে গেলে পুলিশ যেন মামলা না নেয়, সেসংক্রান্ত কোনো নির্দেশনা বা পর্যবেক্ষণ পাওয়া যায়নি। তবে লিখিত রায়ে ৭২ ঘণ্টার প্রসঙ্গ এনেছেন মোছা. কামরুন্নাহার। কিন্তু এর প্রেক্ষাপট ভিন্ন।

রায়ে বিচারক লিখেছেন, এই ট্রাইব্যুনাল বহু ধর্ষণ মামলা দেখেছেন। প্রাপ্তবয়স্ক ও যৌনজীবনে অভ্যস্ত নারী বিচারের জন্য আসেন, যেখানে কথিত অপরাধ সংঘটিত হওয়ার অনেক দিন পর তাঁদের মেডিকেল পরীক্ষা হয়েছে। অনেক দিন পর মামলা হলে যৌন সহিংসতার প্রমাণ পাওয়া যায় না। মামলা করার সময় যদি বিষয়টি দেখা হয়, ৭২ ঘণ্টার মধ্যে যদি মেডিকেল পরীক্ষা করা হয় (যেমনটি বহু মামলায় চিকিৎসকেরা মতামত দিয়েছেন) এবং ফরেনসিক পরীক্ষায় যদি প্রমাণ পাওয়া যায়, তাহলে ধর্ষণ মামলায় তা গুরুত্বপূর্ণ নথি বলে গণ্য হয়। তখন ধর্ষণ মামলার অভিযুক্ত ব্যক্তির বিচার নিশ্চিত করা যায় এবং ন্যায়বিচার সর্বোত্তমভাবে করা সম্ভব হয়।

রায়ে বিচারক লিখেছেন, প্রাপ্তবয়স্ক বাদীদের যদি ঘটনার পরপর বা দ্রুততম সময়ের মধ্যে ডাক্তারি পরীক্ষা হতো, তাহলে ধর্ষণের চিহ্ন বাদীদের পক্ষে যেত। এমনকি তাঁরা যদি পরদিন অথবা ঘটনার পরপর মামলা করতেন, তাহলে পুলিশ যৌন সহিংসতার কারণে আঘাতের চিহ্ন তাঁদের মুখে, গালে বা শরীরের অন্য কোথাও পেত।

মামলাটি সম্পর্কে মোছা. কামরুন্নাহার লিখেছেন, ৩৮ দিন পর মামলা হওয়া ও পারিপার্শ্বিক সাক্ষ্যপ্রমাণের অভাবে এই ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

সাফাতের সাবেক স্ত্রী ফারিয়া মাহাবুব পিয়াসার প্রসঙ্গও এসেছে লিখিত রায়ে। বিচারক রায়ে লিখেছেন, বাদীরা মামলা করতে যাননি; বরং পিয়াসা তাঁদের সঙ্গে করে নিয়ে যান তাঁর সাবেক স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা করাতে। বিষয়টি এ মামলাকে সাজানো মামলায় পরিণত করে। বাদীপক্ষ যে সাক্ষ্যপ্রমাণ উপস্থাপন করেছে, তা অসংগতি ও অসামঞ্জস্যতায় পূর্ণ এবং সাক্ষ্যপ্রমাণকে বিশ্বাসযোগ্য করে না। এমন সাক্ষ্যপ্রমাণ মূল্যহীন, যা মামলাটির শিকড়ে আঘাত করেছে। সংশয় তৈরি করেছে।

বিচারক লিখেছেন, বাদীরা সংশয়ের ঊর্ধ্বে মামলাটিকে প্রতিষ্ঠায় হতাশাজনকভাবে ব্যর্থ হয়েছেন।

বিচারক তাঁর রায়ে লিখেছেন, সাফাত ও নাঈম ৯(১) ধারায় অপরাধ করেছেন কি না, অন্য তিন আসামি সাদমান সাকিফ, মো. বিল্লাল হোসেন ও রহমত আলী ধর্ষণের ঘটনায় সহযোগিতা করেছেন কি না, বাদীরা অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে অপরাধ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণ করতে পারলেন কি নাএ তিন বিষয় তিনি বিবেচনা করেছেন।

২০১৭ সালের ২৮ মার্চ রাতে বনানীর রেইনট্রি হোটেলে ডেকে নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া দুই ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা হয়। মামলাটি তদন্ত করে একই বছরের ৮ জুন পুলিশ পাঁচ আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দেয়। পাঁচ আসামিই আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। পরে তাঁরা আদালতকে বলেন, পুলিশ ভয় দেখিয়ে তাঁদের কাছ থেকে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি আদায় করেছিল।




আরও খবর



বিদেশী সকল ভ্রমণকারীর ওপর নিষেধাজ্ঞা জাপানের

প্রকাশিত:সোমবার ২৯ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ২৯ নভেম্বর ২০২১ | ৩১০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

করোনার নতুন ধরন ওমিক্রন মোকাবেলায় জাপান সীমান্তে আবারো কড়াকড়ি আরোপ করেছে। যদিও মাত্র কয়েক সপ্তাহ আগে দেশটি সীমান্তে কড়াকড়ি শিথিল করেছিল। এ ছাড়া দেশটি বিদেশী সকল ভ্রমণকারীর ওপরও নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। দেশটির প্রধানমন্ত্রী ফুমিও কিশিদা সোমবার এক ঘোষণায় এ সব কথা বলেন।

কিশিদা সাংবাদিকদের আরো বলেন, আমরা জাপানে সকল বিদেশীর প্রবেশ নিষিদ্ধ করছি। ৩০ নভেম্বর থেকে এ সিদ্ধান্ত কার্যকর হচ্ছে।

তবে শুধু জাপানই নয়, করোনার নতুন ধরন ওমিক্রন মোকাবেলায় বিশ্বের বিভিন্ন দেশ ইতিমধ্যে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। কানাডা এর মধ্যে অন্যতম। দেশটিতে সম্প্রতি করোনার ওমিক্রন ধরন শনাক্ত হয়েছে। নাইজেরিয়া ভ্রমণ করেছেন এমন দুব্যক্তির শরীরে নতুন এ ধরন শনাক্ত হয়।


আরও খবর
করোনায় আরও ৭ হাজারের বেশি মৃত্যু

শনিবার ০৪ ডিসেম্বর ২০২১