আজঃ বুধবার ২৫ মে ২০২২
শিরোনাম
রংপুরে পেট্রল সংকট

চাহিদা পূরণে হিমশিম খাচ্ছে ফিলিং স্টেশনগুলো

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১২ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১২ মে ২০২২ | ৪২৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রেলপথনির্ভর জ্বালানি তেল পরিবহন দীর্ঘদিন ছুটির ফাঁদে পড়ায় রংপুর বিভাগে এখনো পেট্রলের চাহিদা পূরণে হিমশিম খাচ্ছে ফিলিং স্টেশনগুলো। আবার তেল পরিবহনে রেলের সীমাবদ্ধতা থাকায় ঈদ ঘিরে পেট্রলের বর্ধিত চাহিদার অনুপাতে পাম্পগুলো প্রয়োজনীয় তেল সংগ্রহ করতে ব্যর্থ হচ্ছে। ফলে ভোগান্তিতে পড়েছেন যানবহন মালিক ও যাত্রীরা।  রংপুর বিভাগীয় পেট্রল পাম্প ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন সূত্রে জানা গেছে, বিভাগে ফিলিং স্টেশনের সংখ্যা হচ্ছে ৩৫৪টি। প্রতিদিন পেট্রলের চাহিদা প্রায় ৩ লাখ লিটার। ঈদ ঘিরে এ চাহিদা অনেক বেড়ে যায়। কিন্তু পদ্মা, মেঘনা ও যমুনা অয়েল কোম্পানিগুলো সোমবার পর্যন্ত প্রয়োজনীয় পেট্রল সরবরাহ করতে পারেনি।

রংপুরের শাপলা ফিলিং স্টেশনের মালিক মো. আজিজুল ইসলাম মিন্টু বলেন, রংপুরে অবস্থিত অয়েল কোম্পানিগুলোয় চাহিদামতো তেল পাওয়া যাচ্ছে না। আবার দিনাজপুর জেলার পার্বতীপুরে অবস্থিত ডিপো থেকে তেল পাওয়া কঠিন। রোববার কিছু পেট্রল বিক্রি করলেও সোমবার তার পাম্পে পেট্রল নেই। আবার কবে পেট্রল পাবেন তিনি তা জানেন না। একই অবস্থা অধিকাংশ পাম্পে।

পদ্মা, মেঘনা এবং যমুনা তেল কোম্পানিগুলোয় খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, রেলের দুটি র্যাকারের মাধ্যমে তাদের প্রয়োজনীয় জ্বালানি তেল পেট্রল, ডিজেল, অকটেন এবং কেরোসিন নিয়ে আসা হয়। চট্টগাম থেকে একটি র্যাকারে তেল নিয়ে আসতে ছয় থেকে সাতদিন সময় লাগে। মেঘনা তেল কোম্পানির সিনিয়র সেলস অফিসার মো. গোলাম ইয়াসিন বলেন, ঈদ উপলক্ষে দীর্ঘ ছুটি থাকায় তেল এনে বিতরণে বিলম্ব হয়েছে। এদিকে ঈদে পেট্রলের চাহিদা বৃদ্ধি পাওয়ায় সময়মতো পেট্রল পেতে সময় লাগছে।

এদিকে দিনাজপুরের পার্বতীপুরে অবস্থিত যমুনা তেল কোম্পানির এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা নাম না প্রকাশ করার শর্তে বলেন, ১-৫ মে পর্যন্ত সরকারি ছুটি থাকায় জ্বালানি তেল বিতরণে ব্যাঘাত ঘটে। আস্তে আস্তে স্বাভাবিক হচ্ছে। সিন্ডিকেটের কারণে রংপুরে পাম্পমালিকরা প্রয়োজনে পার্বতীপুর থেকে তেল সংগ্রহ করতে ব্যর্থ হওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি এ বিষয়ে কোনো কিছু বলতে অপারগতা জানান।

রংপুর বিভাগীয় পেট্রল পাম্প ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাংগঠনিক সম্পাদক এবং সাঈদ ফিলিং স্টেশনের প্রোপাইটার মো. রিয়াজ শহিদ শোভন বলেন, যদি এখানে অন্তত রেলের পাঁচটি র‌্যাকার নিরবচ্ছিন্নভাবে চলাচল করত তাহলে ঈদের এ চাহিদায়ও পাম্পমালিকদের বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়তে হতো না বলে তিনি মনে করেন।

রংপুর বিভাগীয় পেট্রল পাম্প ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক এবং রংপুর চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজের সভাপতি মোস্তফা সোহরাব চৌধুরী টিটু বলেন, যেকোনো সংকটে একটি অসাধু মহল সরকারকে বিব্রতকর পরিস্থিতিতে ফেলতে চায়। তাই প্রশাসনের তদারকি বৃদ্ধি করতে হবে। এছাড়াও তিনি বলেন, পাশের দেশে জ্বালানি তেলের দাম বেশি হওয়ায় সীমান্তসংলগ্ন জেলাগুলো দিয়ে যাতে তেল পাচার না হয় সেজন্য প্রশাসনিক নজরদারি বৃদ্ধি করা দরকার। রংপুর রেলের সুপারিনটেনডেন্ট শংকর গাঙ্গুলী বলেন, র‌্যাকার বৃদ্ধির বিষয়টি রেলের নীতিনির্ধারকদের সিদ্ধান্তের বিষয়। রেলের ইঞ্জিন সংকটের কারণে র‌্যাকার বহনে বিলম্ব হয় এ কথা সত্য বলে তিনি জানান।

নিউজ ট্যাগ: পেট্রল-ডিজেল

আরও খবর



আবারো মঞ্চে পদাতিকের ‘পাকে-বিপাকে’

প্রকাশিত:শনিবার ২১ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২১ মে ২০২২ | ২৫০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

পদাতিক নাট্য সংসদের ৪৩তম প্রযোজনা পাকে-বিপাকে আবারো মঞ্চে আসছে।  সোমবার (২৩ মে) সন্ধ্যা ৭টায় বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির পরীক্ষণ থিয়েটারে মঞ্চায়ন হবে মনোজ মিত্রের নাটকটি।

 নির্মাতা জানান, নাটকটিতে গরিবদের শোষণ ও বঞ্চনা তুলে ধরা হয়েছে। এতে বোঝানো হয়েছে সমষ্টিবদ্ধভাবে কাজ না করলে মিলবে না মুক্তির পথ। এর গল্পে দেখা যাবে, নিঝুম রাতে গ্রামের আল পথ ধরে কাঁপা গলায় গান গেয়ে এগিয়ে আসছে হাবলা জনার্দন। হঠাৎ তার আর্তচিৎকারে কেঁপে ওঠে বিলের চারিধার, যেন বিষাক্ত সাপ দিয়েছে ছোবল। জনার্দন ছুটে যায় এক লণ্ঠনের আলোর দিকে, যেখানে বসে আছেন জমিদার নবকৃষ্ণ।

নবকৃষ্ণ বাবুর কুকীর্তি তুলে ধরে হাবলা জনার্দন। যেন তিন বছর আগের পেষে রাখা ক্রোধ মেটাচ্ছে সে। এদিকে, জমিদার নবকৃষ্ণ ভয়ে অস্থির বর্গাদার পান্তু দাস তার ধান লুট করার পরিকল্পনা ঠেকিয়ে দেয় কী-না, সে চিন্তায়। পরিকল্পনা বাস্তবায়নে পান্থর ভাই ডালিমকে নিয়ে আসে নবকৃষ্ণ। এর মধ্যে অন্ধকার ভেদ করে বেরিয়ে আসে নবকৃষ্ণের রক্ষিতা দুর্বা। নবকৃষ্ণের বন্দুক লুট করে পান্তুকে সাহায্য করার চেষ্টা করে সে। এভাবেই এগিয়ে যায় মনোজ মিত্রের পাকে বিপাকে নাটকের কাহিনী। 

নাটকটির নির্দেশনা দিয়েছেন সঞ্জীব কুমার দে। অভিনয়ে- শাখাওয়াত হোসেন শিমুল, ইমরান খান, এখলাসুর প্রান্ত, জিনাত ইসলাম প্রমুখ।


আরও খবর



৮০০ মিটার সড়ক পুনর্নির্মাণে খরচ ২২ কোটি টাকা!

প্রকাশিত:শনিবার ০৭ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০৭ মে ২০২২ | ৪৩০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

খুলনা নগরীর সোনাডাঙ্গা বাস টার্মিনাল সংলগ্ন বাইপাস সংযোগ সড়কের ময়ূরী সেতু পর্যন্ত পুনর্নির্মাণের উদ্যোগ নিয়েছে খুলনা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (কেডিএ)। এ জন্য ২৫ কোটি টাকার একটি প্রকল্প গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। প্রকল্পে ৮০০ মিটার সড়ক পুনর্নির্মাণে ব্যয় ধরা হয়েছে ২২ কোটি ৬২ লাখ টাকা। বাকি টাকা জমি অধিগ্রহণসহ অন্য কাজে ব্যয় হবে। প্রস্তাব অনুযায়ী কাজ হলে এটিই হবে খুলনার সবচেয়ে ব্যয়বহুল সড়ক।

৯ বছর আগে এ সড়কটি নির্মাণ করেছিল কেডিএ। তখন ২ দশমিক ১৬ কিলোমিটারের ওই সড়ক নির্মাণে ব্যয় হয়েছিল ২০ কোটি ৪৮ লাখ টাকা। সড়কের মাঝে অসংখ্য গর্ত তৈরি হওয়ায় দুই বছরের মধ্যে সড়কটি ব্যবহারের অনুপযোগী হয়ে পড়ে। সড়ক সংস্কার নিয়ে দীর্ঘদিন রেষারেষি চলেছে কেডিএ ও খুলনা সিটি করপোরেশনের মধ্যে। কোনো সংস্থা সংস্কার না করায় সড়কটি ব্যবহার অনুপযোগী হয়ে পড়ে। এটিই ছিল খুলনার সবচেয়ে বেশি ভাঙাচোরা সড়ক।

কেডিএ থেকে জানা গেছে, গত মার্চ মাসে খুলনা-২ আসনের সংসদ সদস্য সেখ সালাহ উদ্দিন জুয়েল আধাসরকারিপত্র (ডিও) দিয়ে সড়কটি মেরামতে প্রকল্প তৈরির জন্য অনুরোধ জানান। সেই নির্দেশনা পেয়েই সড়ক মেরামত প্রকল্প তৈরি করেছে কেডিএ। একই সঙ্গে বালু ও ইট বিছিয়ে কিছুটা সড়কটি চলাচল উপযোগী করা হয়।

কেডিএর নির্বাহী প্রকৌশলী (প্রকল্প) মোর্তুজা আল মামুন জানান, এম এ বারী সড়ক থেকে ময়ূরী সেতু পর্যন্ত সিটি উন্নয়ন নামের প্রকল্পটি গত মার্চে মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে।

প্রকল্পের আওতায় সড়কটি চার লেন করা হবে। সাড়ে ২৩ ফুট প্রশস্ততার দুটি করে চার লেন, ৩ ফুট ডিভাইডার এবং দুই পাশে ৫ ফুট প্রশস্ততার ড্রেন ও ফুটপাত নির্মাণ করা হবে। বর্তমান উচ্চতার চেয়ে প্রায় দুই ফুট উঁচু হবে সড়ক। দুই পাশে ড্রেনের সংযোগ ময়ূর নদীতে গিয়ে মিশবে। এ জন্য নদীর পাড়ে ২ দশমিক ৯ শতক জমি অধিগ্রহণ করতে হবে। এ ছাড়া ডিভাইডারে সৌন্দর্যবর্ধন করা হবে।

এত বিপুল ব্যয়ের কারণ প্রসঙ্গে মোর্তুজা বলেন, বাস টার্মিনাল সংলগ্ন সড়ক হওয়ায় প্রতিদিন অসংখ্য গাড়ি সড়কটি দিয়ে চলাচল করে। এ জন্য আঞ্চলিক মহাসড়কের মানে সড়কটি নির্মাণ হবে। সড়ক ও জনপথ বিভাগের পরামর্শ নিয়ে প্রকল্পটি তৈরি করা হয়েছে।

বৃহত্তর খুলনা উন্নয়ন সংগ্রাম সমন্বয় কমিটির সভাপতি শেখ আশরাফ উজ জামান বলেন, ২০ কোটি টাকার সড়ক দুই বছরও টেকেনি। এ কারণে এই সড়ক নিয়ে মানুষের ক্ষোভ ও কষ্টের শেষ ছিল না। পুনর্নির্মাণের উদ্যোগ অবশ্যই ভালো, কিন্তু এই বিপুল পরিমাণ ব্যয়ের আগে আরও ভালোভাবে যাচাই-বাছাই করা উচিত। যেভাবে মজবুত সড়ক তৈরির কথা কেডিএ বলছে, সে রকম সড়ক তৈরির অভিজ্ঞতা কেডিএ কর্মকর্তাদের নেই। এ জন্য কেডিএকে না দিয়ে সড়কটি অন্য কোনো সংস্থাকে দিয়ে সংস্কার করা উচিত।


আরও খবর



মারিয়ুপোলের ইস্পাত কারখানায় আদৌ কেউ কি বেঁচে আছে ?

প্রকাশিত:রবিবার ০১ মে ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০১ মে ২০২২ | ৬০০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রুশ বাহিনীর গোলা থেকে বাঁচতে আজ ভস্টল ইস্পাত কারখানার নীচে বাঙ্কারে আশ্রয় নিয়েছিলেন মারিয়ুপোলের হাজার খানেক মানুষ। বন্দর-শহরটি রাশিয়ার দখলে যাওয়ার পরে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন নির্দেশ দিয়েছিলেন, কোনও হামলা যেন না-করা হয়। শুধু কারখানা থেকে বেরনোর সব পথ বন্ধ করে দেওয়া হোক।

বাস্তব পরিস্থিতি তার থেকেও ভয়ঙ্কর। উপগ্রহচিত্রে ধরা পড়েছে, কারখানার প্রতিটি ব্লকের ছাদে বড় বড় গর্ত। আকাশপথে বোমা ফেলে কার্যত গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়েছে পুরো অঞ্চল। কারখানার ভিতরে এক-এক জায়গা ধসে গিয়েছে। এক-একটি বাড়ি সম্পূর্ণ ধ্বংসস্তূপ।  ভরেজিমেন্টের আশঙ্কা, মাটির নীচে আদৌ কেউ বেঁচে আছে কি না সন্দেহ! কমান্ডার শিতোস্লাভ পালামার বলেন, ৪ মাসের বাচ্চাও ছিল ওখানে। ১৬ বছরের কিশোরও ছিল। ওরা এমন ভাবে আটকে, বেঁচে থাকলেও উদ্ধার করতে যাওয়ার কোনও পথ নেই।

পূর্ব ইউক্রেনের ডনবাস অঞ্চলের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বন্দর-শহর মারিয়ুপোল। যুদ্ধের গোড়া থেকে এটিকে দখল করতে মরিয়া ছিল রাশিয়া। কিন্তু ইউক্রেনের বাহিনী ও সাধারণ মানুষের প্রতিরোধে প্রায় দুমাস লেগে গিয়েছে লক্ষ্যপূরণে। পরিণতি হিসেবে রোজই শোনা যাচ্ছে, রুশ হামলার নৃশংস বয়ান। ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জ়েলেনস্কি আজ বলেন, ‘‘ডনবাসে যাতে কোনও প্রাণ না-বাঁচে, তা নিশ্চিত করতে বদ্ধপরিকর রাশিয়া।

আজ ডনবাস এলাকায় পোপাসনায় দুটি উদ্ধারকারী বাস পাঠানো হয়েছিল। খোঁজ নেই কোনওটির। সেনাকর্তা মিকোলা খানাতোভ জানিয়েছেন, একটি বাস রুশ হামলার মুখে পড়েছে। এটুকু খবর তাদের কাছে আছে। কিন্তু দ্বিতীয় বাসটির সম্পর্কে কিছু জানা যায়নি। মিকোলা জানান, স্থানীয় এক ইতিহাসের শিক্ষক বাসটি নিয়ে উদ্ধারে গিয়েছিলেন।

আর একটি বাসও পাঠানো হয়েছিল। সেটি ৩১ জনকে উদ্ধার করে এনেছে। নিখোঁজ বাস দুটিকে খোঁজার চেষ্টা করারও উপায় নেই। ইউক্রেন প্রশাসন জানিয়েছে, গোটা ডনবাস এলাকা জ্বলছে। উত্তর-পূর্বে খারকিভ শহরেও হামলা চলছে। একটি হাসপাতালে বোমা ফেলে শত্রুরা। দুটি নতলা আবাসনেও আকাশপথে হামলা করা হয়।

আগুন ধরে যায় বাড়ি দুটিতে। রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রক নিজেরাও ঘোষণা করেছে, তারা ডনবাস এলাকায় একাধিক ইউক্রেনীয় সেনাঘাঁটিতে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে। আজ জানা গিয়েছে, রাশিয়ার হামলায় প্রাণ হারিয়েছেন কিভের ভূত। ২৯ বছর বয়সি স্টেফান তারাবালকাকে এই নামেই ডাকা হত। একা ৪০টি রুশ যুদ্ধবিমানকে ঘায়েল করেছিলেন এই ফাইটার পাইলট। গত ১৩ মার্চ তাঁর মিগ-২৯-কে গুলি করে নামায় রুশ বাহিনী। তারাবালকাকে ইউক্রেনীয়রা ভালবেসে বলতেন ঈশ্বরের পাঠানো রক্ষক

ইউক্রেনে রুশ আগ্রাসনের আজ ৬৬তম দিন। কার্যত ধ্বংসস্তূপের উপরে দাঁড়িয়ে দেশটা। মস্কো অবশ্য এই গোটা পর্বকে বলে চলেছে বিশেষ সেনা অভিযান। পশ্চিমি রাষ্ট্রগুলোর আশঙ্কা, এ ভাবে আর বেশি দিন নয়। সামনেই ৯ মে রাশিয়ার বিজয় দিবস। ওই দিন যুদ্ধ ঘোষণা করতে পারে ক্রেমলিন। গত দুমাসে সেই অর্থে ইউক্রেনের খুব অল্প অংশ দখল করতে পেরেছে রাশিয়া। তারা যুদ্ধ ঘোষণা করলে রাশিয়ার মিত্র দেশগুলোও অংশ নেবে লড়াইয়ে। এখন শুধুমাত্র পুতিনের অঙ্গুলি হেলনের অপেক্ষা।


আরও খবর



আর বিনামূল্যে নয় টুইট : ইলন মাস্ক

প্রকাশিত:বুধবার ০৪ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ০৪ মে ২০২২ | ৪৩০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

টুইটার ব্যবহার করতে আগামী দিনে টাকা খরচ হবে বলে জানিয়েছেন বিশ্বের শীর্ষধনী ইলন মাস্ক। তবে সবাইকে টাকা খরচ করতে হবে না, কেবলমাত্র বাণিজ্যিক ও সরকারি ব্যবহারকারীদের টুইটার ব্যবহারে খরচ করতে হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

বুধবার (৪ মে) এক টুইটে ইলন মাস্ক এ তথ্য জানিয়েছন। তিনি বলেন, টুইটার সবসময়ই সাধারণ ব্যবহারকারীদের জন্য ফ্রি থাকবে। তবে বাণিজ্যিক/সরকারি ব্যবহারকারীদের জন্য সামান্য খরচ করতে হতে পারে।

তবে এ বিষয়ে জানতে রয়টার্সের পক্ষ থেকে টুইটার কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তারা কোনো মন্তব্য করেনি।

সব জল্পনা-কল্পনা এবং দরদামের পর টুইটার কিনে নিয়েছেন ইলন মাস্ক। এই মাইক্রো ব্লগিং সাইটটি কিনতে মাস্কের খরচ পড়েছে ৪৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। এরই মধ্যে সংস্থার সব কর্মীর কাছে একটি মেইল করে পুরো বিষয়টি জানিয়েছেন টুইটারের সিইও পরাগ আগরওয়াল। ২৫ এপ্রিল পুরো বিষয়টি সম্পন্ন হয়।

টুইটার কিনে নেওয়ার পর থেকেই এতে বেশকিছু পরিবর্তন আনার বিষয়ে চিন্তাভাবনার কথা জানান টেসলার কর্ণধার ইলন মাস্ক। তিনি জানান, টুইটারের ফিচারে বেশকিছু পরিবর্তন আনা হবে। ব্যবহারকারীদের মধ্যে বিশ্বাসযোগ্যতা বাড়াতে টুইটারের অ্যালগরিদমে পরিবর্তন আনার কথাও জানান তিনি।

 

 


আরও খবর



ভূমি দখলের অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন

প্রকাশিত:রবিবার ২২ মে 20২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২২ মে 20২২ | ২২৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

কদমতলী থানার দনিয়া এলাকায় ভূমি দখলের অভিযোগ সংবাদ সম্মেলন করেছেন ভুক্তভোগী আজাদুল ইসলাম। ওই এলাকায় পলাশ, খোকন, মান্নান, সিরাজ, ও কদমতলী থানার ওসির বিরুদ্ধে ভূমি দখলের অভিযোগ তুলে ধরেন।

শনিবার (২১ মে) দুপুরে বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টাস এসোসিয়েশন (ক্র্যাব) এ সংবাদ সম্মেলন ডাকে মোঃ আজাদুল ইসলাম নামে এক ভুক্তভোগী ও তার পরিবার।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, আমার সকল প্রকার বৈধ কাগজ থাকা সত্ত্বেও কিছু চিহ্নিত সন্ত্রাসী বাহিনী তাদের জমি দখলের চেষ্টা চালাচ্ছে, আমাদের পরিবার বাধা দিলে আমার বড় ভাইকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে মারাত্মক ভাবে আঘাত করে এবং ভাইয়ের সহধর্মীনির সাথে অকথ্য ভাষায় গালাগাল করে এ বিষয়ে থানার অভিযোগ বা মামলা দিতে গেলে কদমতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা অভিযোগ না নিয়ে বরং সন্ত্রাসীদের পক্ষে কথা বলেন।

এছাড়া এদের নামে থানায় একাধিক মামলা রয়েছে বলেও জানা গেছে।


আরও খবর