আজঃ রবিবার ০৩ মার্চ ২০২৪
শিরোনাম

ব্যবসায়ী দম্পতির বিরুদ্ধে ২৬ কোটি টাকার খেলাপি মামলা

প্রকাশিত:বুধবার ০১ মার্চ ২০২৩ | হালনাগাদ:বুধবার ০১ মার্চ ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
চট্টগ্রাম প্রতিনিধি

Image

ন্যাশনাল ফাইন্যান্সের ২৬ কোটি টাকা ঋণ খেলাপি মামলায় আগ্রাবাদের এইনশাম এসেনশিয়াল ট্রেড লিমিটেডের এমডি রাশেদ মুরাদ ইব্রাহিম ও তার স্ত্রী প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারপার্সন কানিজ ফারজানা রাশেদকে পাঁচ মাসের আটকাদেশ দিয়েছে আদালত। একই সাথে তাদের দুজনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানাও জারি করা হয়েছে।

গতকাল মঙ্গলবার চট্টগ্রামের অর্থঋণ আদালতের বিচারক মুজাহিদুর রহমান শুনানি শেষে এই আদেশ দেন।

আদালতের বেঞ্চ সহকারী মো. রেজাউল করিম এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, রাশেদ মুরাদ প্রায় সময় কানাডায় যাওয়া আসা করেন। তার স্ত্রীসন্তান থাকে কানাডায়। অথচ তিনি ন্যাশনাল ফাইন্যান্সের ঋণ পরিশোধ করছেন না। আজকে (গতকাল) এক কোটি টাকা পরিশোধ করার কথা ছিল। কিন্তু তা না করে তিনি সময়ের আবেদন করেন।

আদালত আবেদন নাকচ করে দিয়ে আটকাদেশ দেন এবং গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন। বেঞ্চ সহকারী আরো বলেন, ২০১৯ সালে ন্যাশনাল ফাইন্যান্স ঢাকা অফিস আসামিদের বিরুদ্ধে প্রথমে অর্থঋণ ও পরে অর্থজারি মামলাটি দায়ের করেন।


আরও খবর



কালীগঞ্জে সরিষার বাম্পার ফলন, আগ্রহ বাড়ছে কৃষকের

প্রকাশিত:সোমবার ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
উপজেলা প্রতিনিধি

Image

গাজীপুরের কালীগঞ্জে বিগত বছরের তুলনায় এ বছর রেকর্ড পরিমাণ জমিতে বিভিন্ন জাতের সরিষার চাষ করা হয়েছে। স্থানীয় চাষিরা বলছেন, বর্তমান বাজারে সরিষার দাম ও চাহিদা ভালো থাকায় অনেকেই সরিষা চাষে আগ্রহ দেখাচ্ছেন। তাছাড়া সরিষা সিজনে গ্রাম-বাংলার প্রকৃতি সাজে অন্যরকম এক সাজে। যা পথচারী ও প্রকৃতি প্রেমিদের মুগ্ধ করে।

উপজেলার কৃষি অফিসের তথ্যমতে, কালীগঞ্জ পৌরসভাসহ ৭টি ইউনিয়নেই সরিষার চাষ হয়। তবে উপজেলার তুমলিয়া ও জামালপুর ইউনিয়নে সরিষার চাষ একটু বেশি হয়। এ উপজেলায় বারি সরিষা ৯, ১৪, ১৭ ও ১৮ এবং বিনা সরিষা ৯ ও ১১ উচ্চ ফলনশীল জাত ছাড়াও স্থানীয় টরি সেভেন ও মাঘি প্রজাতির রেকর্ড পরিমাণ সরিষা চাষ হয়েছে।

সূত্র আরো জানায়, চলতি বছর এ উপজেলায় ২৯৫ হেক্টর জমিতে বিভিন্ন জাতের সরিষা চাষ হয়েছে। গেল বছর ১৫০ হেক্টর জমিতে ২৩৭ মেট্রিক টন সরিষা উৎপাদন হলেও এ বছর লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ৪৭২ মেট্রিক টন। গত বছরের তুলনায় এ বছর ১৪৫ হেক্টর জমিতে সরিষার চাষ বেশি হয়েছে।

উপজেলা তুমলিয়া ইউনিয়নের পিপ্রাশৈর গ্রামের কৃষাণী স্টেলা জোৎস্না বলেন, আমি প্রতি বছর সরিষার চাষ করি। তবে এবার কৃষি কর্মকর্তাদের কাছ থেকে বীজ ও পরামর্শ পাওয়ায় সরিষা চাষ ভালো হয়েছে। সেই সাথে আবহাওয়া ভালো থাকায় ফলন বেশ ভালো হয়েছে।

কৃষক নয়ন মিয়া জানান, গত বছর ২ বিঘা জমিতে সরিষার চাষ করেছিলাম, ফলন খুব ভালো হয়েছে। গত বছরের ভাল ফলন দেখে এবার দ্বিগুন জমিতে সরিষার চাষ করেছি। এবারও ফলন খুব ভালো হয়েছে। আগামীতে হয়তো আরো বেশি জমিতে সরিষার চাষ করার চেষ্টা করবো।

একই এলাকার আরেক কৃষক দিপু রোজারিও বলেন, গত বছর আমি ৩ বিঘা জমিতে সরিষার চাষ করেছি ফলন খুব ভালো হয়েছে। তবে এবারও আমি ৩ বিঘা জমিতেই সরিষার চাষ করেছি এ বছরও ফলন খুব ভালো হয়েছে।