আজঃ শনিবার ২৯ জানুয়ারী ২০২২
শিরোনাম

বুয়েটে সশরীরে ক্লাস-পরীক্ষা বন্ধ

প্রকাশিত:বুধবার ১২ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১২ জানুয়ারী ২০২২ | ৪৫৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

করোনাভাইরাস সংক্রমণের বিস্তার রোধে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বুয়েট) আগামী শনিবার (১৫ জানুয়ারি) সশরীরে ক্লাস-পরীক্ষা বন্ধ ঘোষণা করেছে কর্তৃপক্ষ। ওই দিন থেকে নতুন নির্দেশনা না আসা পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক পর্যায়ের সব ক্লাস-পরীক্ষা বন্ধ থাকবে।

বুধবার (১২ জানুয়ারি) বুয়েটের রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ড. মো. ফোরকান উদ্দিন সাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়, মঙ্গলবার (১১ ডিসেম্বর) অনুষ্ঠিত একাডেমিক কাউন্সিলের ৪৭৪তম অধিবেশনের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী স্নাতক পর্যায়ে জুলাই ২০২১ টার্মের সব লেভেল/টার্মের শিক্ষার্থীদের থিউরি ক্লাস, ক্লাস টেস্ট এবং ল্যাবরেটরি ক্লাস্ট আগামী ১৫ জানুয়ারি থেকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত অনলাইনে অনুষ্ঠিত হবে।

বিজ্ঞপ্তিতে কেন্দ্রীয় মনিটরিং কমিটি, ডিন, সব অনুষদের ডিনসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে এ বিষয়ে অবগতির জন্য আদেশ জানানো হয়।


আরও খবর



রাষ্ট্রপতিকে আওয়ামী লীগের ৪ প্রস্তাব

প্রকাশিত:সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২ | ৩৩০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

নির্বাচন কমিশন (ইসি) গঠনের লক্ষ্যে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের সঙ্গে বৈঠক করেছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের প্রতিনিধি দল।

সোমবার (১৭ জানুয়ারি) বিকেল ৪টার দিকে প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার নেতৃত্বে প্রতিনিধি দলটি বঙ্গভবনে পৌঁছায়। সন্ধ্যা ৫টা ১০ মিনিটে বৈঠক শেষে বের হন তারা।

বৈঠকে রাষ্ট্রপতিকে চারটি প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে বলে ব্রিফিংয়ে জানান আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

প্রস্তাবগুলো হলো-

১. সংবিধানের ১১৮ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী রাষ্ট্রপতি প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও অন্যান্য নির্বাচন কমিশনারদের নিয়োগ করবেন।

২. তাদের নিয়োগের ক্ষেত্রে রাষ্ট্রপতি যেভাবে উপযুক্ত বিবেচনা করবেন, সেই প্রক্রিয়ায় তিনি তাদের নিয়োগদান করবেন।

৩. প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও অন্যান্য নির্বাচন কমিশনার নিয়োগের লক্ষ্যে সংবিধানের অনুচ্ছেদ ১১৮-এর বিধান সাপেক্ষে একটি উপযুক্ত আইন প্রণয়ন করা যেতে পারে।

৪. সুষ্ঠু, অবাধ, নিরপেক্ষ ও স্বচ্ছ নির্বাচনের স্বার্থে সব নির্বাচনে অধিকতর তথ্যপ্রযুক্তির ব্যবহার নিশ্চিত করতে হবে।

১০ সদস্যের প্রতিনিধি দলের অন্যান্যরা হলেন- আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য আমির হোসেন আমু, তোফায়েল আহমেদ, সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য বেগম মতিয়া চৌধুরী, শেখ ফজলুল করিম সেলিম, ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক, লে. কর্নেল (অব.) মুহাম্মদ ফারুক খান, জাহাঙ্গীর কবির নানক, আব্দুর রহমান।

গত ২০ ডিসেম্বর থেকে পরবর্তী নির্বাচন কমিশন গঠনের জন্য রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে সংলাপ করছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।

প্রথম দিনে সংসদের বিরোধী দল জাতীয় পার্টির সঙ্গে আলোচনা করেন রাষ্ট্রপতি। এছাড়া ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ, সংসদের বিরোধী দল জাতীয় পার্টি, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক জোট (জাসদ), বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি, গণফোরামসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দল অংশ নিয়েছে।

বঙ্গভবনে আমন্ত্রণ পাওয়া দলগুলোর মধ্যে বেশিরভাগ রাজনৈতিক দল অংশ নিলেও বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি), বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি), ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ, বাংলাদেশ সমাজতান্ত্রিক দল (বাসদ), এলডিপি, মুসলীম লীগ, জেএসডি ও বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টি রাষ্ট্রপতির সংলাপে অংশ নেয়নি।

অংশগ্রহণকারী দলগুলোর মধ্যে কয়েকটি দল সার্চ কমিটির মাধ্যমেই পরবর্তী নির্বাচন কমিশন গঠনের প্রস্তাব দিয়ে এসেছে রাষ্ট্রপতির কাছে। সার্চ কমিটির জন্য নামের তালিকাও দিয়ে এসেছে কয়েকটি দল।

প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে কাউন্সিল গঠন করে নির্বাচন কমিশনার নিয়োগেরও প্রস্তাব এসেছে রাজনৈতিক দলগুলোর কাছ থেকে।

এছাড়া প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে নির্বাচনকালীন সরকার; সব রাজনৈতিক দলের সদস্যদের নিয়ে নির্বাচনকালীন সরকার; নির্বাচন কমিশনার নিয়োগের জটিলতা ও অবিশ্বাস দূর করতে আইন প্রণয়নসহ বেশ কিছু প্রস্তাব দিয়েছে অংশগ্রহণকারী দলগুলো।

অন্যদিকে রাষ্ট্রপতির সংলাপে অংশগ্রহণ না করা দলগুলো এ আলোচনা প্রক্রিয়াকে লোক দেখানো বলে মন্তব্য করেছে।

২০১৭ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি শপথ নেওয়া সিইসি কে এম নূরুল হুদার নেতৃত্বাধীন বর্তমান নির্বাচন কমিশনের মেয়াদ শেষ হচ্ছে আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারি। সার্চ কমিটির মাধ্যমেই প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা, নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার, রফিকুল ইসলাম, কবিতা খানম ও শাহাদাত হোসেন চৌধুরীকে বাছাই করে বর্তমান নির্বাচন কমিশনার গঠন করা হয়।


আরও খবর



ভোটকেন্দ্রে টাকাসহ চেয়ারম্যান প্রার্থীর ভাই আটক

প্রকাশিত:বুধবার ০৫ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ০৫ জানুয়ারী ২০২২ | ৫৭৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ভোট কেন্দ্রের ভেতরে মো. কারিফ (৩৮) নামে এক পোলিং এজেন্টকে নগদ টাকাসহ পাওয়ায় এক মাসের কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

বুধবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে সদর উপজেলার নাটাই উত্তর ইউনিয়নের একটি ভোটকেন্দ্র থেকে তাকে আটক করা হয়। দণ্ডপ্রাপ্ত কারিফ ওই ইউনিয়নের স্বতন্ত্র প্রার্থী আনারস প্রতীকের হালিম শাহ লিল মিয়ার ছোট ভাই ও পোলিং এজেন্ট।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সামিন সারোয়ার জানান, তল্লাশিকালে পোলিং এজেন্টের কাছে নগদ ২৬ হাজার ৮০০ টাকা পাওয়া যায়। তিনি এই টাকা দিয়ে নির্বাচনকে প্রভাবিত করার চেষ্টা করেছেন। তাই তাকে এক মাসের কারাদণ্ড প্রদান করা হয়েছে।

নিউজ ট্যাগ: ব্রাহ্মণবাড়িয়া

আরও খবর



বিদেশি পর্যবেক্ষকদের জন্য উন্মুক্ত থাকবে আগামী সংসদ নির্বাচন

প্রকাশিত:বুধবার ১৯ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১৯ জানুয়ারী ২০২২ | ৩৪০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন বিদেশি পর্যবেক্ষকদের জন্য উন্মুক্ত থাকবে বলে মার্কিন বিদায়ী রাষ্ট্রদূত আর্ল মিলারকে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন।

বুধবার (১৯ জানুয়ারি) রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় ড. মোমেনের সঙ্গে সাক্ষাতে যান মার্কিন বিদায়ী রাষ্ট্রদূত। এ সময় এ কথা বলেন মোমেন।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, ড. মোমেন রাষ্ট্রদূত মিলারকে চলমান ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের পাশাপাশি সদ্য অনুষ্ঠিত নারায়ণগঞ্জের সিটি করপোরেশন নির্বাচনের বিষয়ে ব্রিফ করেন। তিনি জানান, নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু হয়েছে এবং ভোটারের সংখ্যাও বেশি ছিল।

মোমেন-মিলার সাক্ষাতে মানবাধিকারের ক্ষেত্রে প্রশিক্ষণ কর্মসূচির আয়োজনসহ এ বিষয়ে ঢাকা ও ওয়াশিংটনের সহযোগিতার উপায় নিয়ে আলোচনা করেন। এ প্রসঙ্গে রাষ্ট্রদূত জানান, যুক্তরাষ্ট্র নিয়মিত সংলাপের মাধ্যমে মানবাধিকার সংক্রান্ত বিষয়ে বাংলাদেশের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করতে চায়।

তারা দুই বন্ধুত্বপূর্ণ দেশের মধ্যে বিদ্যমান চমৎকার দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ককে আরও বাড়ানোর উপায় নিয়েও আলোচনা করেন। বিদায়ী রাষ্ট্রদূত আশাবাদ ব্যক্ত করেন যে, তার উত্তরসূরি তথা পরবর্তী রাষ্ট্রদূত দুই দেশের মধ্যে অর্থনৈতিক সহযোগিতাকে আরও এগিয়ে নিতে অবদান রাখবেন।

উভয় পক্ষ আশাবাদ ব্যক্ত করেছে যে, ঢাকা ও ওয়াশিংটনের মধ্যে আগামী মাসে ধারাবাহিক সংলাপ ও সফর বিনিময় হবে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী রাষ্ট্রদূতকে তার মেয়াদে বাংলাদেশে সক্রিয় কাজের জন্য ধন্যবাদ জানান। বিশেষ করে, যুক্তরাষ্ট্র থেকে টিকা সহায়তার পাওয়ার বিষয়টি উল্লেখ করেন মোমেন।

ড. মোমেন দেশের দক্ষিণাঞ্চলে উপকূলীয় বাঁধ পুনরুদ্ধার এবং আরও উন্নয়নে বাংলাদেশকে সহায়তা করার মার্কিন সরকারকে ধন্যবাদ জানান।

মার্কিন রাষ্ট্রদূত জানান, ঢাকায় তার কর্মজীবনের সেরা সময়। তিনি পররাষ্ট্রমন্ত্রী এবং পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে সব ধরনের সহযোগিতা ও সমর্থনের জন্য ধন্যবাদ জানান।


আরও খবর



রোহিঙ্গা শিবির থেকে ৪ কোটি টাকার আইস-ইয়াবা উদ্ধার

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১১ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১১ জানুয়ারী ২০২২ | ৩৪০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

কক্সবাজার টেকনাফ উপজেলার রোহিঙ্গা শিবির থেকে ৬৫ হাজার ইয়াবা ও আধা কেজি ক্রিস্টাল মেথ বা আইস জব্দ করা হয়েছে। এর আনুমানিক বাজারমূল্য প্রায় চার কোটি টাকা। এ ঘটনায় রোহিঙ্গা নারী ও পুরুষকেও আটক করেছে পুলিশ। 

আটকরা হলেন টেকনাফ ২৪নং রোহিঙ্গা ক্যাম্পের মৃত আবুল বাশারের ছেলে একরাম উদ্দীন (২৩) ও উখিয়া বালুখালী ১৮নং এইচ ব্লক রোহিঙ্গা ক্যাম্পের মৃত ফারুকের স্ত্রী হাসিনা বেগম (৩০)।

টেকনাফ মডেল থানার ওসি মো. হাফিজুর রহমান গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, রাতে গোপন খবর পেয়ে অভিযানে নামে পুলিশ। এ সময় সাবরাং মৌলভীপাড়া পাকা রাস্তার ওপর থেকে ৬০ হাজার পিস ইয়াবা ও টেকনাফ সদর ইউনিয়নের পুরাতন পল্লানপাড়ার বেগমের বাড়ি থেকে পাঁচ হাজার এবং আধা কেজি আইস জব্দ করা হয়। এ সময় এক নারী ও এক পুরুষকে আটক করতে সক্ষম হয় পুলিশ।

জব্দকৃত ৬৫ হাজার পিস ইয়াবা ও অর্ধ কেজি (আদা কেজি) আইসের আনুমানিক বাজারমূল্য প্রায় চার কোটি টাকা। আটক দুজনকে আইনি প্রক্রিয়া শেষে কক্সবাজার জেলা আদালতে পাঠানো হবে।


আরও খবর



আজকের মধ্যে শাবিপ্রবির উপাচার্যকে সরানোর দাবি সংসদে

প্রকাশিত:রবিবার ২৩ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৩ জানুয়ারী ২০২২ | ২৮০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিবিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) উপাচার্যকে আজকের মধ্যে সরিয়ে দিতে দাবি উঠেছে জাতীয় সংসদে। আজ রোববার জাতীয় সংসদের অধিবেশনে পয়েন্ট অব অর্ডারে দাঁড়িয়ে বিরোধী দল জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য কাজী ফিরোজ রশিদ ও পীর ফজলুর রহমান এ দাবি করেন।

তাঁরা বলেন, শিক্ষার্থীরা তাঁদের যৌক্তিক কারণেই আন্দোলন করছেন। তাঁদের ওপর যে হামলা হয়েছে। এতে আমরা নিন্দা জানাই। তিনি আইয়ুব খান ও মোনায়েম খানের মতো শিক্ষার্থীদের ওপর পুলিশ লেলিয়ে দিয়েছেন। উপাচার্যকে আজেকের মধ্যে প্রত্যাহার করে শিক্ষার্থীদের ক্লাসে ফেরার পরিবেশ সৃষ্টি করার জন্য প্রধানমন্ত্রী ও শিক্ষামন্ত্রীর প্রতি অনুরোধ জানান।

কাজী ফিরোজ রশিদ বলেন, গত কয়েদিন ধরে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীরা ভাইস চ্যাঞ্জেলারের বিরুদ্ধে, হাউজ টিউটরের বিরুদ্ধে আন্দোলন করে যাচ্ছেন পদত্যাগের দাবিতে। অনশনে থাকা শিক্ষার্থীদের মধ্যেয় ১৬ জন এরই মধ্যে হাসপতালে ভর্তি হয়েছে।

তিনি বলেন, এতে কারো টনক নড়ছে না। শিক্ষামন্ত্রী বলেছিলেন, তোমাদের দাবি দাওয়া রেখে ঢাকা আসো আমার সঙ্গে আলোচনা করতে। আমরা সবাই ছাত্র আন্দোলন করে এসেছি, আন্দোলনের মাঠ ছেড়ে কখনও কোনো ছাত্ররা কারো সঙ্গে দেখা করতে ঢাকা আসবে না আমরা জানি। মন্ত্রীর উচিত ছিলো ওখানে ডাবল মাস্ক পরে যাওয়া। মোনায়েম খান বহুবার আমাদের বঙ্গভবনে ডেকেছেন।

জাপার এ সাংসদ বলেন, আমরা তখন ছাত্র ছিলাম, আমরা বিয়ের দাওয়াত পেতাম না, আমাদের মিলাদের দাওয়াতও দিতো না। কিন্তু বঙ্গবভবনের দাওয়াতও কিন্তু আমরা প্রত্যাখান করেছি। আমরা কখনও কোনো আন্দোলন করতে গিয়ে বঙ্গভবনের দাওয়াতে যাইনি। ছাত্ররা কেন আসবে আপনার কাছে। প্রত্যেকটা ছাত্র আন্দোলন এদেশে হয়েছে যৌক্তিকভাবে। যখনই যারা সরকারের থাকে সেই আন্দোলনকে তাঁরা অযৌক্তিক মনে করে।

তিনি বলেন, উপাচার্য কোনো স্থায়ী পদ না যে, সে চলে গেলে ওই বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ হয়ে যাবে। একটা উপাচার্যকে সরাতে গিয়ে ছাত্ররা যদি অনশন করে এর চেয়ে দুঃখজনক কিছু নেই। বুঝতে হবে তাঁর ওপরে ছাত্রদের কোনো আস্থা নেই, বিশ্বাস নেই, কোনো ভালোবাসা নেই, শ্রদ্ধাবোধ নেই এবং থাকা উচিত না।

ফিরোজ রশীদ বলেন, তাঁর যদি বিন্দুমাত্র আত্মসম্মানবোধ থাকতো তিনি অবশ্যই এখান থেকে সরে আসতেন। তিনি জোর করে বসে আছেন পুলিশ ঘেরাও করে। এখানেই শেষ নয়, ছাত্ররা গিয়েছিলেন হাইজস টিউটরের সঙ্গে দেখা করতে, পারে নাই। ছাত্রদের সঙ্গে খুব খারাপ আচরণ করেছেন হাউজ টিউটর। সেখান থেকেই ঘটনার উৎপত্তি। তখন ছাত্রছাত্রীরা ভিসির কাছে গিয়েছিলো, ভিসি তাঁদের সরিয়ে দিয়েছে, কথা বলেননি। তারপরেই তাঁরা আন্দোলন করলো। আন্দোলন করার পরই পুলিশ ডেকে আনলো।

সাবেক এ ছাত্রনেতা বলেন, এটা কি আইয়ুব, মোনায়েম খানের আমল না কি যে, কথায় কথায় পুলিশ আনবেন। লাঠিপেটা করলো, কাঁদানে গ্যাস মারলো আমরা দেখলাম। কেন এটার উৎপত্তি হলো, কোনো ছাত্র আন্দোলনকে ছোট করে দেখা উচিত না। আমি মনে করি অবিলম্বে আর কোনো তদন্ত রিপোর্ট নয়, কারো সঙ্গে আলাপ-আলোচনা নয়, শিক্ষামন্ত্রী, প্রধানমন্ত্রী আছেন, উপাচার্যকে আজকের মধ্যেই ওখান থেকে প্রত্যাহার করে নিয়ে আসেন, ছাত্রদের ক্লাসে ফিরে যেতে সহায়তা করেন।

জাপার আরেক সাংসদ পীর ফজলুর রহমান বলেন, শাবিপ্রবিতে লাগাতার আন্দোলন চলছে। শিক্ষার্থীরা ভিসির সঙ্গে আলাপ করতে গেলে চার্জ গ্রেনেড হামলা, লাঠিপেটা করা হয়েছে। ছাত্রদের ওপর আক্রমণ করার কারণেই ভিসির পদত্যাগের দাবিতে তাঁরা আন্দোলন শুরু করে। বিশ্ববিদ্যালয়ের অভিভাবক হিসেবে ভিসি কোন আলোচনা না করার কারণে শিক্ষার্থীরা আমরণ অনশনে গিয়েছে।

তিনি বলেন, অনশনে অসুস্থ হয়ে শিক্ষার্থীরা হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। কিন্তু ভিসি আত্মসম্মান বিসর্জন দিয়ে নির্লজ্জের মতো পদে আছেন। যে প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা ভিসিকে চায় না সেখানে তিনি লক্ষ্মীন্দরের বাসার মত সুরক্ষা নিয়ে বসে আছেন। তিনি পদত্যাগ করবেন না। তিনি শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলবেন না। স্বেচ্ছায় পদত্যাগ করতে না চাইলে সরকারের উচিত আজকের মধ্যে তাঁকে অব্যহতি দেওয়া।


আরও খবর