আজঃ রবিবার ২১ এপ্রিল ২০২৪
শিরোনাম

ব্র্যাকের সকল প্রতিষ্ঠান ও পণ্য বয়কটের ঘোষণা

প্রকাশিত:বুধবার ২৪ জানুয়ারী 20২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২৪ জানুয়ারী 20২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

সারা দেশে ব্র্যাকের সকল প্রতিষ্ঠান ও পণ্য বয়কটের ঘোষণা দিবে শিক্ষার্থীরা। দেশের ৯২ শতাংশ মুসলমানরা শুধু ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় নয় ব্র্যাক সংশ্লিষ্ট সকল প্রতিষ্ঠান বয়কট করতে বাধ্য হবে। সোশ্যাল মিডিয়াতে ঝড় উঠে গিয়েছে সপ্তম শ্রেণী শরীফ শরীফার গল্প নিয়ে। এমনকি প্রচুর আলোচনা হচ্ছে বয়কট বিকাশ এ বিষয়ে নিয়ে।

গত তিনদিন ধরে ফেসবুকসহ বিভিন্ন ধরনের প্ল্যাটফর্ম গুলোতে একটাই কথা উঠেছে বয়কট বিকাশ এবং বয়কট ব্রাক নিয়ে। আর ইতিমধ্যে সারা বাংলার মানুষ জেনে গেছে কিন্তু যারা জানেন নি তাদের জন্য এই প্রতিবেদনটি গুরুত্বপূর্ণ। কারণ সমৃদ্ধি সময়ে ঘটনা প্রায় আন্তর্জাতিক পর্যায়ে চলে গিয়েছে। হঠাৎ করে কেন ব্র্যাকের সকল পণ্য বর্জন করছে সাধারণ মানুষেরা আর কেনই বা বিশ্ববিদ্যালয় এত সমালোচনার শিকার হচ্ছে।

দুই দফা দাবিতে মেনে না নেওয়ায় ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ে আন্দোলরত শিক্ষার্থীরা ক্লাস-পরীক্ষা বর্জনের পাশাপাশি সারাদেশে ব্র্যাকের সকল পণ্য ও সেবা বয়কটের ডাক দিয়েছেন।

মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে রাজধানীর মেরুল বাড্ডাস্থ বিশ্ববিদ্যালয়টির স্থায়ী ক্যাম্পাসে মূল ফটকের সামনে এক ব্রিফিংয়ে এসব কথা জানানো হয়। আন্দোলনকারীদের পক্ষে মারুফ রহমান এ ঘোষণা দেন।

এসময় তিনি বলেন, আমরা ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বসেছিলাম। কিন্তু আমাদের দাবিগুলো মেনে নেয়া হয়নি। তাই আমরা ক্লাস-পরীক্ষা বর্জনের পাশাপাশি সারাদেশ সব বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্র্যাক বয়কটের (প্রতিষ্ঠানটির সকল পণ্য ও সেবা) ডাক দিলাম।

এর আগে দুপুর ১২টার থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের খণ্ডকালীন শিক্ষক আসিফ মাহতাবকে কেন চাকরিচ্যুত করা হয়েছে তার বিষয়ে স্পষ্ট ব্যাখ্য ও ট্রান্সজেন্ডার ইস্যুতে বিশ্ববিদ্যালয়টির স্পষ্ট অবস্থান কী তা বিবৃতির মাধ্যমে জানানোর দাবিতে মূল ফটকে অবস্থান নেন শিক্ষার্থীরা। মানববন্ধনে প্রতিবাদকারীরা বিভিন্ন প্ল্যাকার্ড প্রদর্শন করে।

প্ল্যাকার্ডে শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন দাবি উল্লেখ করেন, শরিফ থেকে শরিফা মানিনা মানবো না, আমাদের এই বাংলায় ট্রান্সজেন্ডারের ঠাঁই নেই ট্রান্সজেন্ঠার আর হিজড়া এক না, এক না, নো টু এলজিবিটিকিউ, তোমার আমার বাংলায় ট্রান্সজেন্ডারের ঠাঁই নেই, নো টু রেইবো টেরোরিস্ট, ডাচ ব্র্যাক সাপোর্ট এলজিবিটিকিউ ? উই ব্র্যাকিয়ানস ডোনট সাপোর্ট এলজিবিটিকিউ. উই ডো নোট প্রমোট এলজিবিটিকিউ, সমকামিতার বিরুদ্ধে লড়াই করবো একসাথে আমার সোনার বাংলায় ট্রান্সজেন্ডারের ঠাঁই নেই এসময় বিভিন্ন স্লোগান দেয় শিক্ষার্থীর।

পরে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের পক্ষে কয়েকজন এসে আন্দোলনকারীদের ভেতরে গিয়ে আলোচনার প্রস্তাব দিলেও তারা রাজি হয়নি। এসময় আন্দোলনকারীরা নানান স্লোগান দিয়ে সেখানে অবস্থান করতে দেখা গেছে। এদিকে, বিকেলে সাড়ে ৫টার দিকে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের তিন সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল বিশ্ববিদ্যালয়ের ভেতরে গিয়ে কর্তৃপক্ষের সঙ্গে দুই ঘণ্টাব্যাপী আলোচনায় বসেন।

এসময় প্রতিনিধি দলের নেতৃত্বে ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মুনতাসির মামুন। এসময় বাকি শিক্ষার্থীরা মূল ফটকের সামনে অবস্থান করছিলেন। আন্দোলনকারীরা জানিয়েছে, ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ তাদের সঙ্গে আলোচনায় দাবি দুটির পক্ষে ও বিপক্ষে সন্তুষ্টিমূলক কোনো জবাব দিতে পারেনি।

অর্থাৎ, দাবি দুটি নিয়ে মাঝামাঝি অবস্থান বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। এ কারণে সবার সঙ্গে (শিক্ষার্থী) আলোচনা করে এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

--সপ্তম শ্রেণী শরীফ শরিফা গল্প-- ঘটনাটি ঘটেছে মূলত সপ্তম শ্রেণীর একটি পাঠ্য প্রস্তুত গল্প থেকে। এখানে একটি যোগ্য গল্প হচ্ছে এটি ট্রান্সজেন্ডারকে কেন্দ্র করে দেখা হয়েছে। আর এই গল্পকে কেন্দ্র করে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক আসিফ মাহতাব উৎসব এক অনুষ্ঠানে বলেন আপনারা এই বই কিনবেন তারপর প্রথম দুই পেজ ছিড়ে দিয়ে আবার তাদের এই বইটি বিক্রি করতে বলবেন। তিনি প্রতিবাদ জানানোর কথা বলেছিলেন। এ বিষয় নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়াতে ব্যাপক আলোচনা হয়েছে।

তিনি প্রতিদিনের মতো ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় ক্লাস নিয়ে বাসা ফিরেছেন এবং রাতের দিকে তাকে ফোন করে জানিয়ে দেয়া হয়েছে তাকে আর আসতে হবে না ক্লাস নেওয়ার জন্য। ঘটনাটি তিনি ফেসবুকে শেয়ার করেন এবং এরপর থেকেই মানুষ বিকাশ বয়কট করা শুরু করে এবং বয়কট বিকাশ নামের স্লোগান দিতে থাকেন।

বিভিন্ন স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীসহ সারা বাংলাদেশের মানুষ এখন একটাই স্লোগান দিচ্ছে ব্র্যাকের সকল পণ্য বয়কট করার জন্য। ইতিমধ্যে অনেকের দোকানপাটে বিকাশ বন্ধ করে দিচ্ছে এবং অনেকে এর প্রতিবাদ জানাচ্ছে। তবে ব্র্যাকের অফিসিয়াল ভাবে কোন ধরনের তথ্য বা আপডেট পাওয়া যায়নি এ পর্যন্ত। তারা সপ্তম শ্রেণী শরিফ শরীফার গল্প প্রতিবাদমূলক এরকম স্লোগান দিচ্ছে।


আরও খবর



মা হওয়ার খবরে মুখ খুললেন পরিণীতি চোপড়া

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০২ এপ্রিল 2০২4 | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০২ এপ্রিল 2০২4 | অনলাইন সংস্করণ
বিনোদন ডেস্ক

Image

বিশাল আয়োজনে রাজকীয় ধারায় বিয়ে হয় বলিউড অভিনেত্রী পরিণীতি চোপড়া ও রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব রাঘব চাড্ডার। বিয়ের বছর না গড়াতেই গুঞ্জন রটে পরিণীতি মা হতে চলেছেন। এবার অভিনেত্রী নিজেই মুখ খুললেন ঘটনাটি নিয়ে।

মা হওয়ার খবর রটলে অভিনেত্রী বারবার এটাকে গুজব বলে উড়িয়ে দিয়েছেন। তবু যেন বিষয়টি নিয়ে বাতাস দিয়ে যাচ্ছেন নেটিজেনরা। এমন পরিস্থিতিতে অভিনেত্রী সোশ্যাল মিডিয়াতে একটি ভিডিও পোস্ট করে এ বিষয়ে তার প্রতিক্রিয়া জানান।

এসব বিষয় নিয়ে জল ঘোলা হলে, অভিনেত্রী তার ফেসবুকে লিখেছেন, কাফতান ড্রেস মানেই গর্ভবতী! ওভারসাইজড টি-শার্ট মানেই গর্ভবতী।

বেবিবাম্প লুকানোর জন্যই তিনি ঢিলেঢালা পোশাক পরছেন। এই গুজবে বিরক্ত হয়েই তিনি ভিডিওটি পোস্ট করেছেন এবং জামাকাপড় সম্পর্কে তার পছন্দের কথা সবাইকে জানিয়েছেন।

গতবছর সেপ্টেম্বর মাসে পরিণীতির বিয়ে হয়। বছর না গড়াতেই এমন খবর ভেসে বেড়ালে তিনি চুপচাপই ছিলেন কিন্তু বিষয়টি চরমে উঠে গেলে তিনি তার বক্তব্য সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেছেন।

এ বছর অর্থাৎ ২০২৪ -এ মা হতে চলেছেন অনেক অভিনেত্রী। এর মধ্যে রণবীর সিং ও দীপিকা পাডুকোন জানিয়ে দিয়েছেন তাদের সন্তান আসার কথা। তাছাড়া অভিনেত্রী ইয়ামি গৌতমও মা হতে চলেছেন বলে জানা গেছে। 

নিউজ ট্যাগ: পরিণীতি চোপড়া

আরও খবর



সন্ধ্যায় জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:সোমবার ২৫ মার্চ ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৫ মার্চ ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে সোমবার (২৫ মার্চ) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রীর প্রেস উইং থেকে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বাংলাদেশ টেলিভিশন ও বাংলাদেশ বেতারের পাশাপাশি বেসরকারি টেলিভিশন এবং রেডিও স্টেশনগুলো তার এ ভাষণ একযোগে সম্প্রচার করবে।

আজ ভয়াল ২৫ মার্চ, জাতীয় গণহত্যা দিবস। বাঙালি জাতির জীবনে ১৯৭১ সালের এই দিন শেষে এক বিভীষিকাময় ভয়াল কালরাত নেমে এসেছিল।

ওই দিন মধ্যরাতে বর্বর পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী তাদের পূর্বপরিকল্পিত অপারেশন সার্চ লাইট-এর নীলনকশা অনুযায়ী বাঙালি জাতির কণ্ঠ চিরতরে স্তব্ধ করে দেওয়ার ঘৃণ্য লক্ষ্যে রাজধানী ঢাকাসহ সারা দেশে নিরস্ত্র বাঙালির ওপর অত্যাধুনিক অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে ঝাঁপিয়ে পড়ে।

বাঙালির স্বাধীনতার আকাঙ্ক্ষা মুছে দেওয়ার চেষ্টায় ১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ গণহত্যা শুরু করেছিল পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী। তারপর নয় মাসের সশস্ত্র যুদ্ধের মধ্য দিয়ে এসেছিল বাংলাদেশের স্বাধীনতা। ১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ দিবাগত রাতে ব্যাপক গণহত্যা চালিয়ে বাঙালি জাতিকে নিশ্চিহ্ন করার জন্য পাকিস্তানের সামরিক বাহিনী যে সশস্ত্র অভিযান পরিচালনা করে, তারই নাম দেওয়া হয়েছিল অপারেশন সার্চলাইট।


আরও খবর



রিজার্ভ বাড়ল ৫১ কোটি ডলার

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৫ এপ্রিল ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৫ এপ্রিল ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
অর্থ ও বাণিজ্য ডেস্ক

Image

রপ্তানি আয় ও প্রবাসীদের পাঠানো রেমিটেন্সের পালে ভর করে দেশের অর্থনীতির সবচেয়ে উদ্বেগজনক সূচক বিদেশি মুদ্রার সঞ্চয়ন বা রিজার্ভ গত এক সপ্তাহে বেশ খানিকটা বেড়েছে। সপ্তাহ ব্যবধানে নিট রিজার্ভ বেড়েছে ৫০ কোটি ৯৪ লাখ ৭০ হাজার ডলার। গতকাল বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রতিবেদনে রিজার্ভের এ হিসাব তুলে ধরা হয়।

প্রতিবেদন অনুযায়ী, আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের (আইএমএফ) হিসাব পদ্ধতি অনুযায়ী বর্তমানে নিট রিজার্ভের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে এক হাজার ৯৯৬ কোটি ৫৭ লাখ ১০ হাজার ডলার। এক সপ্তাহে আগে তা ছিল এক হাজার ৯৪৫ কোটি ৫৮ লাখ ৪০ হাজার ডলার।

গত দুই বছরের বেশি সময় ধরে বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভে ঝোড়ো বাতাস বইছিল। যে হারে রিজার্ভ কমছিল, সে হারে বাড়ছিল না। ফলে ক্রমাগত কমছিল বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ। গত দুই মাস ধরে সে অবস্থার কিছুটা উন্নতি শুরু হয়েছে। বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ কমার সঙ্গে সঙ্গে আবার তা পূরণ হয়ে যাচ্ছে। এরই ধারাবাহিকতায় এক সপ্তাহে প্রায় ৫১ কোটি ডলার বাড়ল।

নিট রিজার্ভের পাশাপাশি বৈদেশিক মুদ্রায় গঠিত বিভিন্ন তহবিলসহ মোট রিজার্ভও বেড়েছে। বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য বলছে, সর্বশেষ মোট রিজার্ভের পরিমাণ বেড়ে দাঁড়িয়েছে দুই হাজার ৫২৯ কোটি ৭৬ লাখ ডলারে। এক সপ্তাহ আগে ছিল দুই হাজার ৪৮১ কোটি ১৯ লাখ ৯০ হাজার ডলার। এক সপ্তাহে বাড়ল ৪৮ কোটি ৫৬ লাখ ২০ হাজার ডলার।

গত মার্চ মাস শেষে আইএমএফের শর্ত অনুযায়ী নিট বা প্রকৃত রিজার্ভ রাখতে পারেনি বাংলাদেশ। আইএমএফ বাংলাদেশকে ৪ দশমিক ৭ বিলিয়ন ডলার যে ঋণ দিয়েছে, তার শর্ত অনুযায়ী মার্চ শেষে বাংলাদেশ ব্যাংকে প্রকৃত (নিট) রিজার্ভ থাকার কথা ছিল ১৯ দশমিক ২৬ বিলিয়ন ডলার। কিন্তু প্রকৃত রিজার্ভ ছিল ১৫ বিলিয়ন ডলারের মতো।


আরও খবর



ময়মনসিংহে দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে প্রাণ গেল ২ জনের

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৬ এপ্রিল ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ এপ্রিল ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
ময়মনসিংহ প্রতিনিধি

Image

ময়মনসিংহের তারাকান্দায় দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে দুইজন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও ২৫ জন।

মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ৮টার দিকে ময়মনসিংহ-তারাকান্দা সড়কের কোদালধর বাজারের রামচন্দ্রপুর এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

তারাকান্দা থানার ওসি ওয়াজেদ আলী গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পের এসআই জাহাঙ্গীর আলম বলেন, তারাকান্দায় দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে এখন পর্যন্ত হাসপাতালে অন্তত ১০-১২ জনকে আনা হয়েছে। এদের মাঝে ছয়জনকে ভর্তি করা হয়েছে।

নিউজ ট্যাগ: ময়মনসিংহ

আরও খবর



রাজধানীতে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে দগ্ধ ৬

প্রকাশিত:শুক্রবার ১২ এপ্রিল ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১২ এপ্রিল ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

রাজধানীর মিরপুরে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে এক পরিবারের ছয়জন দগ্ধ হয়েছেন। শুক্রবার (১২ এপ্রিল) ভোর ৪টার দিকে মিরপুরের ভাসানটেক ১৩ নম্বর কালবার্ট রোড এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

দগ্ধরা হলেন মেহরুন্নেছা (৬৫), সূর্য বানু (৩০), লিজা (১৮), লামিয়া (৭), সুজন (৯) ও মো. লিটন (৫২)। এরমধ্যে মেহরুন্নেসার ৪৭ শতাংশ, সূর্য বানু ৮২ শতাংশ, লামিয়া ৫৫ শতাংশ, মো. লিটন ৬৭ শতাংশ, লিজার ৩০ শতাংশ এবং সুজনের ৪৩ শতাংশ দগ্ধ হয়েছে।

জানা গেছে, পরিবার নিয়ে ওই বাড়ির নিচতলায় ভাড়া থাকেন ফার্নিচার ব্যবসায়ী লিটন মিয়া। শুক্রবার ভোরে মশার কয়েল জ্বালাতে গেলে ঘরের মধ্যে গ্যাস সিলিন্ডারের লিকেজ থেকে জমে থাকা গ্যাসের বিস্ফোরণ হয়। এতে নারী-শিশুসহ ওই পরিবারের ৬ জন দগ্ধ হয়। পরে তাদেরকে দ্রুত উদ্ধার করে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের আবাসিক চিকিৎসক ডা. তরিকুল ইসলাম জানান, দগ্ধদের জরুরি বিভাগের অবজারভেশনে রাখা হয়েছে। তাদের সবার অবস্থা আশঙ্কাজনক।


আরও খবর