আজঃ মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সংঘর্ষ: ইউপি চেয়ারম্যানসহ গ্রেপ্তার ৩৮

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৪ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৪ নভেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
মোঃ রাসেল আহমেদ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া

Image

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদরে কালিসীমা গ্রামে দুই পক্ষের সংঘর্ষের ঘটনায় ইউপি চেয়ারম্যানসহ উভয়পক্ষের ৩৮ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

সোমবার (১৩ নভেম্বর) রাতে আদালতের মাধ্যমে গ্রেফতারকৃতদের কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে। এর আগে দুপুর থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো: আসলাম হোসাইন জানান, সংঘর্ষে ঘটনায় উভয় পক্ষের ১৫ জন নারী ও ২৩ জন পুরুষসহ ৩৮ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদেরকে ১৫১ ধারায় আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। বর্তমানে এলাকায় পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। এছাড়া তাদের বিরুদ্ধে পুলিশের পক্ষ থেকে একটি মামলা প্রক্রিয়াধীন। এবং উভয়পক্ষ থেকে মামলা এলে সেগুলো গ্রহণ করে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আরও পড়ুন>> ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় দুই পক্ষের সংঘর্ষে আহত ১০

প্রসঙ্গত, পূর্ব বিরোধের জের ধরে জেলা পরিষদের সদস্য বাবুল মিয়ার পক্ষের লোকজন ও আরজু মেম্বারের পক্ষের লোকজনদের মধ্যে রোববার সন্ধ্যায় ও সোমবার দুপুরে কয়েক দফা সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ সময় ১০জন আহতসহ বেশকিছু বাড়িঘর ভাংচুরের শিকার হয়। পরে পুলিশ রাবার বুলেট ও টিয়ারসেল নিক্ষেপ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।


আরও খবর
ঝিনাইদহ জেলা কারাগারে কয়েদির মৃত্যু

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




মিয়ানমারের মর্টারশেলে বিধ্বস্ত বীর মুক্তিযোদ্ধার বসতঘর

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
বান্দরবান প্রতিনিধি

Image

আবারও মিয়ানমারের ছোড়া একটি মর্টারশেল নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুম সীমান্তের অভ্যন্তরে বিস্ফোরিত হয়েছে। এতে কেউ হতাহত না হলেও এক বীর মুক্তিযোদ্ধার ঘর বিধ্বস্ত হয়েছে।

মঙ্গলবার (০৬ ফেব্রুয়ারি) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে ঘুমধুম উচ্চবিদ্যালয়ের পাশে মুক্তিযোদ্ধা নুরুল ইসলামের বাড়িতে এসে মর্টারশেলটি পড়ে। বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল ইসলামে ছেলে মনিরুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

মনিরুল ইসলাম জানান, সকাল সাড়ে ৯টার দিকে বসতবাড়িতে একটি মর্টারশেল বিকট শব্দে বিস্ফোরিত হয়। এ সময় বসতঘর ও গাছ ক্ষতিগ্রস্ত হয়। প্রচণ্ড শব্দে এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। তবে এতে কেউ আহত হননি। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে বিজিবি সদস্যরা এসে মর্টারশেলের অংশ নমুনা হিসেবে নিয়ে যায়।

এর আগে সোমবার দুপুরে নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুম ইউপির ৪ নম্বর ওয়ার্ডের জলপাইতলি এলাকায় তুমব্রু সীমান্তে মিয়ানমার থেকে ছোড়া মর্টারশেলের আঘাতে বাংলাদেশিসহ দুজন নিহত হয়েছেন। এতে ঘটনাস্থলেই এক রোহিঙ্গা শ্রমিক (৫৫) নিহত হন। আহত অবস্থায় হাসপাতালে নেওয়ার পথে মারা যান হোসেন আরা। তিনি স্থানীয় ব্যবসায়ী বাদশা মিয়ার স্ত্রী।


আরও খবর
ঝিনাইদহ জেলা কারাগারে কয়েদির মৃত্যু

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




এক মাছের দাম চার লাখ টাকা!

প্রকাশিত:সোমবার ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
সাতক্ষীরা প্রতিনিধি

Image

সুন্দরবনের সাতক্ষীরা রেঞ্জে ধরা পড়েছে ২৫ কেজি ৩৬০ গ্রাম ওজনের জাভাভোল নামের একটি মাছ। এটির দাম চাওয়া হচ্ছে চার লাখ টাকা।

গতকাল রবিবার সন্ধ্যায় মাছটি নিয়ে জেলেরা লোকালয়ে আসলে উৎসুক জনতা ভিড় জমায়।

সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার বুড়িগোয়ালিনী গ্রামের আব্দুস সালাম নামের এক জেলে জানান, সুন্দরবনের মালঞ্চ নদীর ফিরিঙ্গি খালে শনিবার রাতে শুকুর আলীর জালে মাছটি ধরা পড়ে।

শুকুর আলী সাংবাদিকদের জানান, মাছটির ওজন ২৫ কেজি ৩৬০ গ্রাম। তিনি ৪ লাখ টাকায় মাছটি বিক্রি করবেন। এখন পর্যন্ত ব্যাপারীরা মাছটির দাম বলেছেন ৩ লাখ ৭৫ হাজার টাকা।

স্থানীয় মাছ ব্যবসায়ীরা জানান, জাভাভোল মাছ সহসা মেলে না। এছাড়া এই মাছের রয়েছে ঔষধি গুণ। এজন্য এ মাছের দাম বেশি। মাছ ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে ওষুধ উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান এই মাছ কিনে নিয়ে যায়।

এই মাছের বৈজ্ঞানিক নাম প্রোটোনিবিয়া ডায়াকানথুস। এই মাছ মূলত সিঙ্গাপুর, ইন্দোনেশিয়া, থাইল্যান্ড, মালয়েশিয়া এলাকায় পাওয়া যায়।


আরও খবর
ঝিনাইদহ জেলা কারাগারে কয়েদির মৃত্যু

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




মা-মেয়েকে দলবদ্ধ ধর্ষণ : প্রধান আসামি আ.লীগ নেতা গ্রেফতার

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
জেলা প্রতিনিধি

Image

নোয়াখালীর সুবর্ণচরে মা-মেয়েকে দলবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনায় করা মামলার প্রধান আসামি আওয়ামী লীগ নেতা আবুল খায়ের প্রকাশ মুন্সি মেম্বারকে (৫০) গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার (৬ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে সদরের কাদির হানিফ ইউনিয়ন থেকে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) ও চরজব্বার থানা পুলিশ যৌথ অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করে।

গ্রেফতার আবুল খায়ের প্রকাশ মুন্সি মেম্বার চরওয়াপদা ইউনিয়নের চরকাজী মোখলেছ গ্রামের মৃত গোলাপের রহমানের ছেলে। তিনি চরওয়াপদা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের বর্তমান সভাপতি এবং ৫ নম্বর ওয়ার্ডের সাবেক ইউপি সদস্য।

নোয়াখালী পুলিশ সুপার মো. আসাদুজ্জামান আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ভুক্তোভোগী নারীর দায়ের করা মামলার প্রধান আসামি আবুল খায়ের মুন্সি মেম্বারকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকি আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।

এর আগে দুপুরে ভুক্তোভোগী নারী (৩০) বাদী হয়ে সূবর্ণচরের চরজব্বর থানায় মা-মেয়েকে দলবদ্ধ ধর্ষণ ও নগদ টাকাসহ স্বর্ণালঙ্কার লুটের ঘটনায় মামলা করেছেন। এতে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি আবুল খায়ের প্রকাশ মুন্সি মেম্বারকে প্রধান আসামি করা হয়। মামলায় অপর আসামিরা হলেন, চর কাজী মোখলেছ গ্রামের মৃত বশির আহম্মদের ছেলে মো. হারুন (৪২) ও অপরজন অজ্ঞাত।

এদিকে মঙ্গলবার বিকেলে ভুক্তোভোগী মা-মেয়ের চিকিৎসা ও ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য ২৫০ শয্যার নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের গাইনি সার্জারি বিভাগে ভর্তি করা হয়েছে।

হাসপাতালের জরুরি বিভাগের মেডিকেল কর্মকর্তা ডা. আবদুল মন্নান শাকিল মা-মেয়েকে ভর্তির বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, নির্যাতিতা মা-মেয়ে খুবই অসুস্থ। তাদের চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। ডাক্তারি পরীক্ষা শেষে বিস্তারিত জানানো হবে।

এ বিষয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ ও অপস্) বিজয়া সেন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। তিনি সাংবাদিকদের বলেন, এলাকাবাসীর বক্তব্য অনুযায়ী প্রধান আসামি আবুল খায়ের মুন্সি মেম্বারের স্বভাব-চরিত্র ভালো নয়। তাকে আটক করা হয়েছে। বাকি আসামিদের গ্রেফতারদের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

এর আগে সোমবার (৫ ফেব্রুয়ারি) রাত ২টায় বাড়িতে মা-মেয়েকে একা পেয়ে সিঁদকেটে একজন দরজা খুলে দেয়। পরে আরও দুইজন ঘরে ঢুকে তিন সন্তানের জননী (৩০) ও তার পঞ্চম শ্রেণিতে পড়ুয়া মেয়ের (১২) ওপর নির্যাতন চালায়। পরে ৯৯৯-এ কল পেয়ে চরজব্বর থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ভুক্তভোগীদের উদ্ধার করে।

ভুক্তভোগী নারীর অভিযোগ, স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা আবুল খায়ের মুন্সি মেম্বার দীর্ঘদিন থেকে তাকে উত্ত্যক্ত করে আসছিলেন। মাঝে মধ্যে টেলিফোন করে কুপ্রস্তাব দিতেন। কথা না শুনলে খারাপ পরিণতির হুমকি দিতেন। সোমবার রাতে পুরুষহীন বাড়িতে সিঁদকেটে ঘরে ঢুকে হাত-মুখ বেঁধে মাকে দুজন এবং মেয়ের অপরজন ধর্ষণ করেন। পরে মা-মেয়ের নাকে কানের স্বর্ণালঙ্কার ও নগদ টকা নিয়ে আসামিরা চলে যান।

নির্যাতনের শিকার ওই নারীর স্বামী (৪২) বলেন, আমরা গরিব মানুষ। দিনমজুরি করে দিনযাপন করি। কয়েকমাস আগে ওই এলাকায় পাঁচ শতক জমি কিনে বাড়ি করি। আসামিরা খুবই খারাপ প্রকৃতির। আমি এ জঘন্যতম ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে দোষীদের ফাঁসি চাই।

চর ওয়াপদা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবদুল মন্নান বলেন, মা-মেয়েকে ধর্ষণের ন্যাক্কাজনক ঘটনায় দায়ী ব্যক্তিদের ফাঁসির দাবি জানাচ্ছি। আওয়ামী লীগ সভাপতি আবুল খায়ের মুন্সি মেম্বারের বিষয়টি সূবর্ণচর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. চৌধুরীকে জানানো হয়েছে।

২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বর একাদশ সংসদ নির্বাচনের ভোটের রাতে নোয়াখালীর সুবর্ণচরের চরবাগ্গ্যা গ্রামের এক গৃহবধূকে (৪০) সংঘবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ব্যাপক সমালোচনা শুরু হয় দেশজুড়ে। সেই মামলার রায় ঘোষণা করা হয় সোমবার (৫ ফেব্রুয়ারি)। রায়ে সাবেক মেম্বার রুহুল আমিনসহ ১০ আসামিকে মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দেন আদালত। এ ছাড়া মামলার আরও ছয় আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়। একই সঙ্গে প্রত্যেককে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে আরও দুই বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দেন বিচারক। সেই রায় ঘোষণার দিনগত রাতে এমন ঘটনায় এলাকাবাসী উদ্বেগ প্রকাশ করেছে।


আরও খবর
ঝিনাইদহ জেলা কারাগারে কয়েদির মৃত্যু

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




বাগেরহাটে নববধূর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার

প্রকাশিত:শনিবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
বাগেরহাট প্রতিনিধি

Image

বাগেরহাটের চিতলমারীতে পূজা বিশ্বাস (১৮) নামে এক নববধূর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। শনিবার (১৭ ফেব্রুয়ারী) সকালে পুলিশ তার মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য বাগেরহাট সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করে।

পূজা বিশ্বাস চিতলমারী উপজেলার হিজলা ইউনিয়নের মাঝিপাড়া এলাকার গৌতম প্রাত্রের (২৫) স্ত্রী ও কলাতলা ইউনিয়নের মেলারকুল গ্রামের ভবানী বিশ্বাসের মেয়ে। মাত্র পাঁচ দিন আগে তার বিয়ে হয়েছিল।

পূজা বিশ্বাসের ভাই বিপ্লব বিশ্বাস জানান, গত ১২ এপ্রিল রাতে হিন্দুধর্মীয় মতে হিজলা ইউনিয়নের মাঝিপাড়া এলাকার অর্জুন পাত্রের ছেলে গৌতম পাত্রের সাথে তার ছোট বোন পূজা বিশ্বাসের বিয়ে হয়। রীতি অনুযায়ী ১৫ ফেব্রুয়ারী তাদের বাড়ি বোন ও ভগ্নিপতি বেড়াতে যায়। ১৬ ফেব্রুয়ারী রাতের খাবার খেয়ে পূজা ও তার স্বামী ঘুমিয়ে পড়ে। এদিন রাত ১২ টার পর ভগ্নিপতি গৌতম পাত্র ঘুম ভেঙ্গে গেলে দেখেন পূজা ঘরে নেই। বিষয়টি তাদের পরিবারের লোকজনদের জানালে খোঁজাখুঁজির এক পর্যায়ে বাড়ির পিছনে আম গাছের ডালে পরণের শাড়ি দিয়ে ফাঁস লাগানো অবস্থায় তার বোনের মরদেহ পাওয়া যায়। পরে পুলিশ এসে তার মরহে উদ্ধার করে।

চিতলমারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ ইকরাম হোসেন জানান, মৃত্যুর আসল কারণ জানার জন্য নববধূর মরদেহ মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে।


আরও খবর
ঝিনাইদহ জেলা কারাগারে কয়েদির মৃত্যু

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




ওয়াশিংটনে ফের ইসরায়েলি দূতাবাসের সামনে গায়ে আগুন

প্রকাশিত:সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

যুক্তরাষ্ট্রের রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসিতে অবস্থিত ইসরায়েলি দূতাবাসের সামনে এক ব্যক্তি নিজের গায়ে আগুন ধরিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন। গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তবে হাসপাতালে নেওয়ার আগেই আগুনে ওই ব্যক্তির শরীরের অনেকটাই পুড়ে গেছে বলে জানিয়েছেন উদ্ধারকর্মীরা।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, রবিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) স্থানীয় সময় বেলা একটার দিকে এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে উদ্ধারকর্মীরা দ্রুত ঘটনাস্থলে যান এবং ওই ব্যক্তির গায়ের আগুন নেভান।

আত্মহত্যার চেষ্টাকারী ওই ব্যক্তির নাম-পরিচয় সম্পর্কে কিছুই জানায়নি পুলিশ। ধারণা করা হচ্ছে, গাজায় ইসরায়েলি হামলার প্রতিবাদে ওই ব্যক্তি গায়ে আগুন দিয়েছেন।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ইসরায়েলি কূটনৈতিক মিশনের সামনে এ ধরনের আত্মহত্যার চেষ্টা এবারই প্রথম নয়। এর আগে গত ডিসেম্বরে ফিলিস্তিনি সমর্থক এক ব্যক্তি জর্জিয়া রাজ্যের ইসরায়েলি কনস্যুলেটের সামনে গায়ে পেট্রল ঢেলে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছিলেন। ওই ঘটনাকে ‌রাজনৈতিক প্রতিবাদের উগ্রবাদী পদক্ষেপ বলে অভিহিত করেছিল পুলিশ।

ঘটনার পর পুলিশ জানিয়েছিল, আত্মহত্যার চেষ্টাকারী ওই ব্যক্তির পাশেই একটি পেট্রলের বোতল ও একটি ফিলিস্তিনি পতাকা পাওয়া গেছে। আগুন দেওয়ার পর ওই ব্যক্তিকে বাঁচাতে গিয়ে একজন নিরাপত্তারক্ষীও আহত হয়েছিলেন। পরে দুজনকেই হাসপাতালে নেওয়া হয়।

তবে এবার যিনি আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন, তার আশপাশে সে ধরনের কিছু পাওয়া যায়নি। ওয়াশিংটন পুলিশ জানিয়েছে, ওই ব্যক্তির উদ্দেশ্য ঠিক কী ছিল, সেটি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

এদিকে এক বিবৃতিতে ইসরায়েলের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে জানানো হয়েছে, আত্মহত্যার চেষ্টা করা ওই ব্যক্তির সঙ্গে দূতাবাসের কোনো কর্মীর পরিচয় বা সম্পর্ক নেই।

ঘটনার সময় দূতাবাসের কাছেই একটি গাড়ি রাখা ছিল। গাড়িটিতে বোমা থাকতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছিল। পরে বোমা নিষ্ক্রিয়কারী ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে গাড়িটিতে তল্লাশি চালায়। যদিও গাড়িতে বিপজ্জনক কোনোকিছুই পাওয়া যায়নি।

ইসরায়েলি দূতাবাসের একজন মুখপাত্র মার্কিন গণমাধ্যম নিউইয়র্ক টাইমসকে নিশ্চিত করেছে, এ ঘটনায় তাদের কোনো কর্মী আহত হয়নি। তবে ঘটনার পর দূতাবাস এলাকার নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত ৭ অক্টোবর দক্ষিণ ইসরায়েলে হামাসের বন্দুকধারীদের হামলার পর গাজায় তাদের অভিযান শুরু করে ইসরায়েল। হামাসের হামলায় ১২শ ব্যক্তি নিহত হয়। জিম্মি করা হয় ২৪০ জনকে। পরবর্তী সময়ে গাজায় ইসরায়েলি সামরিক অভিযানে প্রায় ৩০ হাজার মানুষ নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছে হামাস পরিচালিত স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

গাজার মোট জনসংখ্যার প্রায় অর্ধেক, এক মিলিয়নেরও বেশি বাস্তুচ্যুত ফিলিস্তিনি আশ্রয় নিয়েছে রাফাহ শহরে। মিশর সীমান্তবর্তী এই শহরে এর আগে বাস করতো মাত্র ২ লাখ ৫০ হাজার মানুষ। বাস্তুচ্যুতদের মধ্যে অনেকেই অস্থায়ী আশ্রয়কেন্দ্রে বা তাঁবুতে বসবাস করছে। আশ্রয় শিবিরের ভয়াবহ পানি ও খাদ্য সংকট দেখা দিয়েছে। এ ঘটনায় দেশটিতে বসবাসকারী ফিলিস্তিনি সমর্থকরা ক্ষোভ ও হতাশা প্রকাশ করেছেন বলে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।


আরও খবর
বিশ্ববাজারে আবারো কমেছে জ্বালানি তেলের দাম

মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪