আজঃ শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪
শিরোনাম
ঢাকার ভাসানটেক সরকারি কলেজে

বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন ও জাতীয় শিশুদিবস পালিত

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৭ মার্চ ২০২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৭ মার্চ ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

ঢাকার ভাসানটেক সরকারি কলেজে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১০৩তম জন্মদিন ও জাতীয় শিশুদিবস ১৭ মার্চ ২০২৩, শুক্রবার যথাযথ মর্যাদায় পালন করা হয়। দিনের অনুষ্ঠানসূচির মধ্যে ছিলো সূর্যোদয়লগ্নে যথাযথ সম্মানের সাথে জাতীয় পতাকা উত্তোলন, বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি এবং বাংলাদেশের হৃদয় হতে স্মারক ম্যুরালে পুষ্পস্তবক অর্পণ, শেখ রাসেল দেয়ালিকায় দেয়াল পত্রিকা উন্মোচন।

এছাড়াও কলেজের স্বাধীনতা মিলনায়তনে আয়োজন করা হয় আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের। সভার শুরুতে সকলে দাঁড়িয়ে জাতীয় সংগীত পরিবেশন করেন।

অনুষ্ঠানে শিক্ষার্থীদের বক্তব্য এবং কবিতা আবৃত্তি, সংগীত ও নৃত্য পরিবেশনা, শিক্ষকদের আলোচনা এবং প্রধান অতিথি অধ্যক্ষ মহোদয় ও সভাপতির বক্তৃতা এবং বিভিন্ন প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ করা হয়।

দ্বিতীয় পর্বে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে ছিলো দেশাত্মবোধক সংগীত ও নৃত্য পরিবেশনা। সবশেষে বঙ্গবন্ধু এবং তাঁর পরিবারের শহীদ সদস্যসহ দেশ ও জাতির কল্যাণে দোয়াও করা হয়।

আলোচনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকার ভাসানটেক সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক মাহমুদা খাতুন, বিশেষ অতিথি ছিলেন শিক্ষক পরিষদের সম্পাদক মোহাম্মদ মামুন রেজা।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন কমিটির আহ্বায়ক এবং দর্শন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. মো: বজলুর রহমান রফিক। শিক্ষার্থীরা ছাড়াও আলোচনা পর্বে বঙ্গবন্ধুর জীবনের নানা দিক নিয়ে গঠনমূলক বক্তৃতা করেন বাংলা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক আতিয়া খন্দকার, উদ্ভিদবিদ্যা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মো: আব্দুল হাই।

সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জ্যোতির্ময় মহাপুরুষ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১০৩তম জন্মবার্ষিকীতে তাঁর অমর স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানিয়ে আলোচনায় অংশ নিয়ে বক্তাগণ বলেন, বাঙালি এবং বাংলাদেশের কল্যাণ কামনাই ছিল বঙ্গবন্ধুর সারাজীবনের আরাধ্য। বাংলাদেশের পটভূমিকায় তিনি একক কোন ব্যক্তি নন, শুধু একটি নামও নন, সমগ্র বাঙালির সমষ্টি তিনি, সমগ্র বাংলার ইতিহাসও তিনি। বাঙালি এবং বাংলাদেশকে তিনি ধারণ করেছিলেন তাঁর সমস্ত সত্তায়। তাই তো হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। একই সাথে নিপীড়িত মানুষের নেতা,গণমানুষের নেতা হিসেবে বঙ্গবন্ধুর নাম বিশ্বব্যাপী অত্যন্ত সমাদৃত। স্বাধীন বাংলাদেশের জন্ম দিয়ে তার খ্যাতি ছড়িয়ে আছে বিশ্বময়। বিশ্বনেতাদের চোখে তিনি হিমালয়সম।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় অধ্যক্ষ অধ্যাপক মাহমুদা খাতুন বলেন, বঙ্গবন্ধু হলেন সেই নেতা যিনি বাঙালির অতীত, বর্তমান এবং ভবিষৎকে তাৎপর্যমণ্ডিত করেছেন। ঐতিহ্যে স্থির থেকে বাঙালির আধুনিক পরিচয়কে বহুমাত্রিক পূর্ণতা দান করেছেন বঙ্গবন্ধু। তাই বাঙালি,বাংলাদেশ আর বঙ্গবন্ধুকে আলাদা করে দেখার সুযোগ নেই। বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ সমার্থক শব্দের নাম।

তিনি আরো বলেন, মনেপ্রাণে খাঁটি বাঙালি ছিলেন বঙ্গবন্ধু। তাঁর যাপিত জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে পরিচয় রয়েছে বাঙালিয়ানার। জীবনব্যাপী বাঙালিয়ানারই সাধনা করে গেছেন বঙ্গবন্ধু। জীবন যাপনের মধ্য দিয়েও বাঙালি হিসেবে তাঁর নিজস্বতার পরিচয় সুস্পষ্ট হয়। আমাদের বাঙালিত্বের জীবন সাধনায়ও তিনি তাই নিত্য অনুসরণীয়, অনন্য অনুকরণীয় ব্যক্তিত্ব।

সভাপতির ভাষণদানকালে ড. মো: বজলুর রহমান রফিক বলেন, দার্শনিক শোপেনহাওয়ার বলেছিলেন সমগ্র বিশ্বজগত মানুষের ইচ্ছার প্রতিচ্ছবি। আমাদের আজকের বাংলাদেশ; বঙ্গবন্ধু, তথা সমগ্র জাতির ইচ্ছা বা কর্মের প্রতিচ্ছবি। এখন এটা স্পষ্ট যে, বঙ্গবন্ধুর দর্শন, কর্মকাণ্ড  আমাদেরই ইতিহাস, আমাদের ঐতিহ্য এবং একইসাথে ভবিষ্যতের সকল দেশপ্রেমের মাণক।


আরও খবর
জাবির ‘ডি’ ইউনিটের ফল প্রকাশ

বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




আনসারের মৌলিক প্রশিক্ষণ সমাপনী কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
মো: আফসার খাঁন, কালিয়াকৈর (গাজীপুর)

Image

বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর সাধারণ আনসার মৌলিক প্রশিক্ষণ  সমাপনী কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোববার সকালে সফিপুর আনসার ও ভিডিপি একাডেমীর ইয়াদ আলী প্যারেড গ্রাউন্ডে কুচকাওয়াজে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে সালাম গ্রহণ করেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জননিরাপত্তা বিভাগের সিনিয়র সচিব মো. মোস্তাফিজুর রহমান।

এ সময় তার সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন, বাহিনীর অতিরিক্ত মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. নাজিম উদ্দিন, ভারপ্রাপ্ত কমান্ড্যান্ট নূরুল হাসান ফরিদীসহ উপমহাপরিচালক ও বাহিনীর অন্যান্য ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, কর্মচারীরা। এর আগে প্রধান অতিথি সুসজ্জিত খোলা সবুজ জিপে  প্রতিটি কন্টিনজেন্ট পরিদর্শন করেন। পরে প্যারেড কমান্ডার  সেফাউল হোসেনের নেতৃত্বে প্যারেড ছয় সারিতে মার্চ পাস্ট করে প্রধান অতিথিকে অভিবাদন জানায়।

প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে আনসার বাহিনীর ভূয়সি প্রশংসা করে বলেন, বর্তমানে সারাদেশে ৫ হাজারের অধিক  প্রতিষ্ঠানে সাধারণ আনসার সদস্যরা অঙ্গীভূত হয়ে দেশের জননিরাপত্তায় অবদান রাখছেন। এছাড়াও জাতীয় সংসদ নির্বাচনসহ স্থানীয় সরকারের সকল স্তরের নির্বাচন, বিভিন্ন ধর্মীয় উৎসব, বর্ষবরণ, শপিং মল, বাণিজ্য মেলা ও বই মেলা, রেল স্টেশন, ট্রাফিক কন্ট্রোল, বিশেষায়িত হাসপাতালসহ প্রভৃতি ক্ষেত্রে সাধারণ আনসার সদস্যরা জননিরাপত্তা ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় দায়িত্ব পালন করছে।

পরে শ্রেষ্ঠ প্রশিক্ষার্থীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন প্রধান অতিথি। মোট ৭৯৩ জন প্রশিক্ষণার্থীর মধ্যে ড্রিলে শ্রেষ্ঠত্বের পুরস্কার অর্জন করেন ইকবাল হোসেন, ফায়ারিংয়ে সেরা আবু নাঈম সোহান। আর সব মিলিয়ে চৌকস প্রশিক্ষণার্থীর পুরস্কার লাভ করেন নোমান হোসেন।

নিউজ ট্যাগ: কালিয়াকৈর

আরও খবর
৯ ছাত্রীর চুল কাটার ঘটনায় শিক্ষিকা বরখাস্ত

বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




শরীরে ম্যাগনেশিয়ামের ঘাটতি হলে কী হয়

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
জীবন ধারা ডেস্ক

Image

ম্যাগনেমিয়াম শরীরের জন্য অতি প্রয়োজনীয় একটি খনিজ। বিভিন্ন শারীরিক ক্রিয়াকলাপে এই খনিজটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। তারপরও শরীরে এর অভাব প্রায়ই দেখা যায়। সামগ্রিক স্বাস্থ্য এবং সুস্থতা বজায় রাখার জন্য শরীরে ম্যাগনেশিয়ামের ঘাটতি হয়েছে কীনা তা সনাক্ত করা প্রয়োজন। শরীরে ম্যাগনেশিয়ামের ঘাটতি হলে কয়েকটি রখ্ষণ দেখা দেয়। যেমন-

পেশি ক্র্যাম্প : পেশির সক্রিয়তা এবং সংকোচনের জন্য ম্যাগনেসিয়াম অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। শরীরে এর ঘাটতি হলে পেশিতে ক্র্যাম্প দেখা দেয়। ঘন ঘন পেশিতে ক্রাম্প হলে বুঝতে হবে শরীরে ম্যাগনেশিয়ামের ঘাটতি হয়েছে।

ক্লান্তি এবং দুর্বলতা : শরীরে ম্যাগনেশিয়ামের ঘাটতি হলে ক্লান্তি এবং দুর্বলতা দেখা দেয়। আপনি যদি প্রায়ই অলস বোধ করেন বা প্রতিদিনের কাজকর্ম করা কঠিন মনে করেন তাহলে তা ম্যাগনেশিয়ামের অভাবে হতে পারে।

অনিয়মিত হৃৎস্পন্দন : ম্যাগনেমিয়ামের ঘাটতি হলে অনিয়মিত হৃৎস্পন্দন হতে পারে। আপনি যদি হৃৎপিণ্ডে ধড়ফড় বা অনিয়ম লক্ষ্য করেন, তাহলে স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞের সাথে পরামর্শ করা গুরুত্বপূর্ণ।

বমি বমি ভাব এবং ক্ষুধা হ্রাস: হজমসংক্রান্ত সমস্যা যেমন বমি বমি ভাব এবং ক্ষুধা হ্রাস ম্যাগনেশিয়ামের অভাবে হতে পারে। এই খনিজটি পরিপাকতন্ত্রের কার্যকারিতা ঠিক রাখে। আপনি যদি ঘন ঘন গ্যাস্ট্রিকের সমস্যায় ভোগেন তাহলে তা ম্যাগনেশিয়ামের ঘাটতির কারণে হতে পারে।

অস্বাভাবিক ক্যালসিয়াম স্তর : ম্যাগনেসিয়াম এবং ক্যালসিয়াম হাড়ের স্বাস্থ্য এবং স্নায়ুর কার্যকারিতা বজায় রাখতে কাজ করে। শরীরে এই খনিজগুলির ভারসাম্যহীনতা হলে পেশির ক্র্যাম্পসহ বিভিন্ন সমস্যা হতে পারে। শরীরের সামগ্রিক খনিজের ভারসাম্যের জন্য ম্যাগনেসিয়াম এবং ক্যালসিয়ামের মাত্রা পরীক্ষা করা গুরুত্বপূর্ণ।


আরও খবর
২৯ ফেব্রুয়ারি: ইতিহাসের এই দিনে

বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

আজকের রাশিফল: বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




ভালোবাসা দিবসে ম্যাডাম ওয়েবের অ্যাকশন

প্রকাশিত:শনিবার ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
বিনোদন ডেস্ক

Image

ফিফটি শেডস অব গ্রে খ্যাত হলিউড তারকা ডাকোটা জনসন। বিশ্ব ভালোবাসা দিবস সামনে রেখে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন। কারণ ১৪ ফেব্রুয়ারি ভালোবাসা দিবসের দিন মুক্তি পাচ্ছে তার নতুন সিনেমা ম্যাডাম ওয়েব। সিনেমাটির প্রচারে ব্যস্ত সময় পার করছেন ডাকোটা।

মার্ভেলের সিনেমা ম্যাডাম ওয়েব মূলত স্প্যাইডারম্যানের স্পিন অব সিরিজ। তারকায় ভরা এ সিনেমায় দেখানো হবে স্প্যাইডারম্যান ও ভেনমের মধ্যকার লড়াই। ইতোমধ্যে সিনেমার সব ধরনের কাজ সম্পন্ন হয়েছে।

সম্প্রতি সিনেমাটি নিয়ে বিবিসি রেডিওর সাক্ষাৎকারে অংশ নেন ডাকোটা। সেখানে বলেন, প্রথমবারের মতো সুপারহিরো গল্পে অভিনয় করলাম। কাজটি করে আমি আনন্দিত। মার্ভেলের সঙ্গে এটাই আমার প্রথম কাজ। তাই অফারটি যখন আসে আমি রাজি হই। আমার চরিত্রের নাম সিনেমার নামে, ম্যাডাম ওয়েব; বিষয়টি আমার কাছে দুর্দান্ত লেগেছে। বেশ কিছু দৃশ্যের শুটিংয়ে আমাদের কো-আর্টিস্টরা আহতও হয়েছেন। আমিও সামান্য ইনজুরিতে পড়েছিলাম। তবে কাজের অভিজ্ঞতা দারুণ। কাজটি আমার ক্যারিয়ারে স্মরণীয় করে রাখতে নিজের সর্বোচ্চটা দেওয়ার চেষ্টা করছি। বাকি কথা সিনেমা মুক্তির পর দর্শক বলবে।

ম্যাডাম ওয়েব নির্মাণ করছেন এস জে ক্লার্কসন। এর প্রধান আরেকটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন অ্যাডাম স্কট।

এ ছাড়া বিভিন্ন চরিত্রে দেখা যাবে এমা রবার্টস, ইসাবেলা মার্চেডন জিল হেন্সি, জসিয়া ম্যামেট, তাহের রহিম, মাইক ইপস, মাইক ব্যাশ, অস্টিন জে রায়ান ও মিচেল ম্যালভেস্তির মতো তারকাকে।


আরও খবর
টেইলর সুইফট ইফেক্টে আক্রান্ত সিঙ্গাপুর

বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

শাকিব ‘রাজকুমার’ হলে আমি রাজা: জায়েদ খান

বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




জয়পুরহাটে হত্যা মামলায় একজনের যাবজ্জীবন

প্রকাশিত:বুধবার ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
সুজন কুমার মন্ডল, জয়পুরহাট

Image

জয়পুরহাটে হত্যা মামলায় সুমন মিয়া নামে একজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তাকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। বুধবার দুপুরে অতিরিক্ত দায়রা জজ-২ আদালতের বিচারক আব্বাস উদ্দীন এ রায় দেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত সুমন মিয়া জয়পুরহাট সদর উপজেলার পলিকাদোয়া গ্রামের সুজাউলের মেয়ের জামাই। তার বাবার নাম নুরুন্নবী।

মামলার বিবরণে জানা গেছে, দণ্ডপ্রাপ্ত সুমন মিয়া পলিকাদোয়া গ্রামে ঘর জামাই থাকতেন। এ ব্যাপারে একই গ্রামের মৃত মহিম উদ্দিনের ছেলে আমির হোসেন আসামী সুমনকে তাচ্ছিল্য করেন। এ নিয়ে তাদের মধ্যে মনোমালিন্য সৃষ্টি হয়। ২০০৮ সালের ২৮ আগস্ট বিষয়টি নিয়ে আমির আসামী সুমনের শশুর বাড়িতে যান। সেখানে আসামীর সাথে তার তর্ক-বিতর্ক হয়। এরই এক পর্যায়ে সুমন ভিটটিমের ঘাড়ের কাছে একটি ঘুষি মারেন। সে সময় স্থানীয়রা এগিয়ে এসে তাদের গন্ডগোল থামিয়ে আমিরকে কিছু দূর নিয়ে যাবার পর সে পড়ে যায় এবং সেখানেই মারা যান।

এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী জোসনা বেগম বাদী হয়ে জয়পুরহাট সদর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। এ মামলার দীর্ঘ শুনানি শেষে বিজ্ঞ আদালত এ রায় দেন।


আরও খবর
৯ ছাত্রীর চুল কাটার ঘটনায় শিক্ষিকা বরখাস্ত

বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




‘ভবনে ছিল একটি সিঁড়ি, শ্বাসরুদ্ধ হয়ে বেশিরভাগ মানুষের মৃত্যু’

প্রকাশিত:শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক

Image

কাচ্চি ভাই রেস্টুরেন্ট ভবনের দ্বিতীয় তলায় কাপড়ের দোকান ছিল। আমাদের দেখা মতে ভবনের অন্যান্য ফ্লোরে রেস্টুরেন্ট ছিল। যেগুলোতে আমরা গ্যাস সিলিন্ডার দেখেছি। যে কারণে আগুনটা দ্রুত ছড়িয়েছে এবং দাউদাউ করে জ্বলেছে।

রাজধানীর বেইলি রোডের কাচ্চি ভাই রেস্টুরেন্ট ভবনে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসার পর রাত দেড়টার দিকে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. মাইন উদ্দিন।

আগুনে দগ্ধ হওয়ার চেয়ে বেশিরভাগ মানুষ শ্বাসরুদ্ধ হয়ে মারা গেছেন বলে জানান তিনি।

ভবনে কোনো অগ্নিনিরাপত্তা ব্যবস্থা ছিল না এমন অভিযোগ প্রসঙ্গে ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. মাইন উদ্দিন বলেন, দ্বিতীয় তলা ছাড়া ভবনটার প্রতিটি ফ্লোরের সিঁড়িতে ছিল সিলিন্ডার। যেটা খুবই বিপজ্জনক ব্যাপার। কারণ, আগুন লাগলে সিলিন্ডার বিস্ফোরিত হয়, যা ভয়ংকর ও বিপজ্জনক। ভবনটা মনে হয়েছে অনেকটা আগুনের চুল্লির মতো। আমরা তদন্ত করে দেখছি ভবনটা অত্যন্ত বিপজ্জনক বা ঝুঁকিপূর্ণ ছিল। এ ভবনে মাত্র একটি সিঁড়ি। আমরা এখনও উদ্ধার অভিযান ও তল্লাশি চালাচ্ছি।

আগুনে দগ্ধ না হয়ে মানুষ শ্বাসরুদ্ধ হয়ে অর্থাৎ অক্সিজেনের অভাবে মারা গেছেন বা অবচেতন হয়েছেন। প্রত্যেকটি অগ্নিদুর্ঘটনার পর তদন্ত হয়। এক্ষেত্রেও তদন্ত হবে। চুলা থেকে অথবা গ্যাস সিলিন্ডার থেকে আগুনের সূত্রপাত হতে পারে।

ঘটনাস্থল থেকে কতজনকে জীবিত ও মৃত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, কাচ্চি ভাই রেস্টুরেন্ট ভবনে লাগা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার পর ঘটনাস্থল থেকে তিনজনের মরদেহ এবং অবচেতন অবস্থায় ৪২ জনকে উদ্ধার করা হয়েছে। অবচেতন অবস্থায় উদ্ধার ৪২ জনকে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তাদের মৃত্যুর বিষয়টি চিকিৎসক নিশ্চিত করবেন।

পরবর্তীতে স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. সামন্ত লাল সেন জানান, ভয়াবহ এ অগ্নিকাণ্ডে ৪৩ জনের মৃত্যু হয়েছে।

অবচেতন অবস্থায় হাসপাতালে পাঠানো ৪২ জনের মধ্যে চার শিশু ও ২১ নারী ছিলেন। বাকিরা পুরুষ। পাশাপাশি জীবিত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে ৭৫ জনকে। আমরা আবারও ভবনটির ওপর থেকে নিচ এবং নিচ থেকে ওপর পর্যন্ত তল্লাশি করছি। ভবনের কোনায় বা সিঁড়িতে কেউ পড়ে থাকতে পারেন’— বলেন ফায়ার সার্ভিসের মহাপরিচালক।

তিনি আরও বলেন, আগুন নিয়ন্ত্রণে আমাদের ১৩টি ইউনিট ঘটনাস্থলে কাজ করেছে। ফায়ার সার্ভিসকে সহযোগিতা করেছে র‌্যাব, বিজিবি, আনসারসহ অন্যান্য বাহিনীর সদস্যরা।


আরও খবর
বেইলি রোডে আগুনে নিহত বেড়ে ৪৫

শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪