আজঃ শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪
শিরোনাম

বিচারককে জুতা নিক্ষেপ করলেন আসামি

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৮ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৮ নভেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
রাহুল সরকার, চট্টগ্রাম ব্যুরো

Image

চট্টগ্রামের একটি আদালতের কাঠগড়া থেকে বিচারককে জুতা নিক্ষেপ করেছে এক আসামি। মঙ্গলবার (২৮ নভেম্বর) দুপুর ১২টার দিকে চট্টগ্রাম বিভাগীয় সাইবার ট্রাইব্যুনাল আদালতে এই চাঞ্চল্যকর ঘটনা ঘটেছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে ওই ট্রাইব্যুনালের পাবলিক প্রসিকিউটর মেজবাহ উদ্দিন জানান, দুপুর ১২টার দিকে একটি মামলার শুনানির জন্য এজলাসে বসেন বিচারক মোহাম্মদ জহিরুল কবীর।

এ সময় আসামির গারদে (কাঠগড়া) উপস্থিত থাকা আসামি মনির খান বিচারকের উদ্দেশ্যে পর পর দুটি জুতা নিক্ষেপ করেন। জুতা বিচারকের গায়ে পড়েছে বলেও জানান পিপি মিজবাহ।

ঘটনার আকস্মিকতায় হতভম্ব হয়ে যান বিচারক। এ সময় আদালতে পিপি মেজবাহ উদ্দিনসহ একাধিক আইনজীবী উপস্থিত ছিলেন বলে জানা গেছে।

এদিকে এ ঘটনায় পুলিশ বাদি হয়ে নগরের কোতায়ালি থানায় একটি মামলা দায়ের করবেন বলে জানিয়েছেন পিপি মেজবাহ উদ্দিন।

আদালত সূত্র জানা যায়, বিচারককে জুতা নিক্ষেপকারী আসামির নাম মো. মনির খান ওরফে মাইকেল (৩২)। তিনি ব্রাক্ষণবাড়িয়া জেলার নাসির নগর থানার গোকর্ন গ্রামের গোলাপ খাঁর ছেলে।

২০২১ সালের ২২ জানুয়ারি ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন লঙ্ঘন করে দুটি ভিডিও লাইভ শেয়ার করেন নাসির। ওই ভিডিওতে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, তৎকালীন রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ, সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ ও বাংলাদেশ পুলিশসহ রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের নিয়ে কটুক্তি করার পাশাপাশি তাদের অশ্রাব্য ভাষায় গালিগালাজ করেন।

পরে এ ঘটনায় তাকে আটক করে তার বিরুদ্ধে ব্রাক্ষণবাড়িয়া জেলার নাসির নগর থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করেন নাসির নগর থানার এসআই তপু সাহা। তদন্ত  শেষে ২০২১ সালের ২০ জুন মনির খান ওরফে মাইকেলকে অভিযুক্ত করে সাইবার ট্রাইব্যুনালে চার্জশিট জমা দেন নাসির নগর থানার ওসি (তদন্ত) আ স ম অতিকুর রহমান।

এদিকে এ ঘটনায় চরম ক্ষুব্ধ হন রাষ্ট্রপক্ষের ওই মামলা পরিচালনাকারী পিপি মেজবাহ উদ্দিন। তিনি ঘটনা সংঘটিত হওয়ার পর পর মামলা পরিচালনার দায় থেকে অব্যাহতি চেয়ে সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোহাম্মদ জহিরুল কবীরের কাছে তাৎক্ষণিক ক্ষমা প্রার্থনা করেন।


আরও খবর
৯ ছাত্রীর চুল কাটার ঘটনায় শিক্ষিকা বরখাস্ত

বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




বায়ুদূষণের তালিকায় ঢাকা আজ শীর্ষে

প্রকাশিত:শনিবার ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

বায়ুদূষণের তালিকায় শীর্ষ অবস্থানে উঠে এসেছে রাজধানী ঢাকা। শনিবার (৩ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৮টা ৩২ মিনিটে বায়ুর মান পর্যবেক্ষণকারী সংস্থা এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্সের (আইকিউএয়ার) সূচক থেকে জানা গেছে এ তথ্য।

তালিকার শীর্ষে অবস্থান করা ঢাকার বায়ুর মানের স্কোর হচ্ছে ২৭৪। এর অর্থ দাঁড়ায় এখানকার বায়ু খুবই অস্বাস্থ্যকর পর্যায়ে রয়েছে। তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে চীনের শেনিয়াং। এই শহরটির দূষণ স্কোর ১৯০ অর্থাৎ এখানকার বায়ুর মান অস্বাস্থ্যকর। এরপরে রয়েছে মিয়ানমারের ইয়াঙ্গুন। সেখানকার বায়ুর মানও অস্বাস্থ্যকর। চতুর্থ অবস্থানে রয়েছে ভারতের কলকাতা। এরপর পাকিস্তানের করাচি। 

আরও পড়ুন>> বিশ্বে ২০৫০ সালের মধ্যে ক্যানসার বাড়বে ৭৭ শতাংশ : ডব্লিউএইচও

স্কোর শূন্য থেকে ৫০ এর মধ্যে থাকলে বায়ুর মান ভালো বলে বিবেচিত হয়। ৫১ থেকে ১০০ হলে মাঝারি বা সহনীয় ধরা হয় বায়ুর মান। সংবেদনশীল গোষ্ঠীর জন্য অস্বাস্থ্যকর হিসেবে বিবেচিত হয় ১০১ থেকে ১৫০ স্কোর। ১৫১ থেকে ২০০ পর্যন্ত অস্বাস্থ্যকর হিসেবে বিবেচিত হয়। স্কোর ২০১ থেকে ৩০০ হলে খুবই অস্বাস্থ্যকর বলে বিবেচনা করা হয়। এছাড়া ৩০১-এর বেশি হলে তা দুর্যোগপূর্ণ বলে বিবেচিত হয়।


আরও খবর
বেইলি রোডে আগুনে নিহত বেড়ে ৪৫

শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪




টিসি দেওয়ার হুমকি দিয়ে বিয়ে করেছে মুশতাক: তিশার মা

প্রকাশিত:বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

খন্দকার মুশতাক আহমেদ ও সিনথিয়া ইসলাম তিশার অসম বিয়ে নিয়ে চলছে নানা আলোচনা-সমালোচনা। ৬০ বছরের মুশতাককে নিজেদের ১৮ বছরের মেয়ে তিশার জামাই হিসেবে কিছুতেই মেনে নিতে পারছে না তার পরিবার। তিশার বাবা সাইফুল ইসলাম প্রথম থেকেই মুশতাক আহমেদের বিরুদ্ধে নানা আভিযোগ তুলছিলেন। এবার এ বিষয়ে মুখ খুললেন তিশার মা। তিনি বলেন, টিসি দেওয়ার হুমকি দিয়ে বিয়ে করেছে মুশতাক।

মঙ্গলবার (২০ ফেব্রুয়ারি) ফেসবুক লাইভে এসে তিশার মা বলেন, তিশাকে ব্লাকমেইল করেছেন খন্দকার মুশতাক আহমেদ। তাকে জিম্মি করে কাবিননামায় স্বাক্ষর নিয়েছেন তিনি। তাকে যে বিয়ে করেছে এর সাক্ষী কাজী ছাড়া আর কেউ নেই।

তিনি বলেন, তিশা এখন যা বলছে সব শেখানো কথা। এখন মুশতাক নিজে বাঁচতে তিশাকে হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করছে। মুশতাক ভালো করেই জানে যে, তিশা একবার মুখ খুললে তার (মুশতাক) খবর আছে। তিশা আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করছে কিন্তু তাকে (তিশা) মুশতাক কোনোভাবেই যোগাযোগ করতে দিচ্ছে না। তিশা অনেক ভীতু মেয়ে এবং সহজ সরল। তাকে যেভাবে পরিচালনা করছে সেভাবে সে পরিচালিত হচ্ছে।

তিশার মা বলেন, তিশাকে জোর করে কাবিননামায় স্বাক্ষর নিয়েছে। খন্দকার মুশতাকের বিচার ও শাস্তি চাই। আমার মেয়েকে জিম্মি করে কাবিননামায় সই দিতে বলে মুশতাক। কিন্তু আমার মেয়ে সই দিবে না, তখন বলে যে তোমার ছবি ভিডিও ইন্টারনেটে ছেড়ে দেব। টিসি দিয়ে স্কুল থেকে বের করে দেব। আমি গভর্নিং বডির সদস্য; প্রিন্সিপাল আমার ক্লোজ, এটা তো জানোই। বাধ্য হয়ে তিশা সই করে। এটাকে আমি বিয়ে বলব না।


আরও খবর
বেইলি রোডে আগুনে নিহত বেড়ে ৪৫

শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪




মুক্তি পেলেন বিএনপি নেতা প্রিন্স

প্রকাশিত:শনিবার ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক

Image

বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স জামিনে মুক্ত হয়েছেন। শনিবার (১০ ফেব্রুয়ারি) দুপুর ১টায় কাশিমপুর কারাগার থেকে মুক্তি পান তিনি।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিএনপির মিডিয়া সেলের সদস্য শায়রুল কবির খান।

তিনি জানান, সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স কারাগার থেকে বের হয়ে সরাসরি কলাবাগানের বাসভবনে যান।

এর আগে গত বছরের ৪ নভেম্বর বাড্ডার এক আত্মীয়ের বাসা থেকে সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্সকে গ্রেফতার করে পুলিশ।


আরও খবর



যৌন নির্যাতনের কথা এখনো ভুলতে পারেননি ভূমি পেডনেকর

প্রকাশিত:সোমবার ০৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ০৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
বিনোদন ডেস্ক

Image

বলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে ক্যামেরার পেছনে দীর্ঘদিন কাজের পর হঠাৎ করেই নায়িকা হিসেবে দেখা দিয়েছিলেন ভূমি পেডনেকর। সহকারী পরিচালক হিসেবে দীর্ঘ ছয় বছর কাজ করেছিলেন যশরাজ ফিল্মসে। প্রতিষ্ঠানটিতে অভিনেতা-অভিনেত্রী নির্বাচনের দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি। কিন্তু শিল্পী বাছাই করতে এসে হঠাৎ করেই একদিন নিজেই অভিনেত্রী বনে যান ভূমি।

ইন্ডাস্ট্রিতে এখন প্রতিষ্ঠিত অভিনেত্রী হলেও এক সময় যৌন হেনস্থার শিকার হতে হয়েছিল ভূমিকে। আর সেই তিক্ত অভিজ্ঞতার কথা এখনো ভুলতে পারেননি তিনি। কী হয়েছিল তার সঙ্গে, যা এখনো ভুলতে পারেননি এ অভিনেত্রী।

টাইমস অব ইন্ডিয়ার খবর, ভূমির বয়স তখন মাত্র ১৪ বছর। সদ্যই কৈশোরে পা রেখেছেন। পরিবারের সঙ্গে মেলায় ঘুরতে গিয়েছিলেন। আর সেখানেই যৌন হেনস্থার শিকার হতে হয়েছিল তাকে।

অভিনেত্রীর ভাষ্যমতে, পরিবারের সবার সঙ্গে ঘুরতে গিয়েছিলাম মেলায়। ভিড়ের মধ্যে আমার নিতম্বে কেউ হাত দেয়, চিমটি কাটে। আমাকে বারবার স্পর্শ করতে থাকে। পেছনে বারবার ফিরে তাকালেও কে এমনটা করছে, সেটা বুঝতে পারছিলাম না। ক্রমাগত আমাকে স্পর্শ করতে থাকে। আমি ভাষা হারিয়ে ফেলেছিলাম। আর সেই ঘটনা আমার কাছে দুঃস্বপ্নের মতো। যা এখনো ভুলতে পারিনি।

২০১৫ সালে আয়ুষ্মান খুরানার বিপরীতে দম লগা কে হাইশা সিনেমায় দেখা যায় ভূমিকে। এরপর ধারাবাহিকভাবে টয়লেট: এক প্রেমকথা, শুভ মঙ্গল সাবধান, লাস্ট স্টোরিজ, সোনচিড়িয়া, ষাঁড় কি আঁখ, বালা, পতী, পত্নী অওর ওহ, বধাই দো সিনেমায় দেখা যায় তাকে।

এছাড়া গত বছর তার অভিনীত দ্য লেডি কিলারথ্যাঙ্ক ইউ ফর কামিং সিনেমা মুক্তি পায়। তবে এর একটাও সফল হয়নি। আর শিগগিরই নেটফ্লিক্সে মুক্তি পেতে যাচ্ছে তার ভক্ষক। এতে একজন সাংবাদিকের চরিত্রে দেখা যাবে তাকে।

নিউজ ট্যাগ: ভূমি পেডনেকর

আরও খবর
টেইলর সুইফট ইফেক্টে আক্রান্ত সিঙ্গাপুর

বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

শাকিব ‘রাজকুমার’ হলে আমি রাজা: জায়েদ খান

বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




নির্বাচন বাতিল চেয়ে পাকিস্তানের সুপ্রিমকোর্টে আবেদন

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

পাকিস্তানর জাতীয় নির্বাচন বাতিল চেয়ে দেশটির সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করা হয়েছে। আবেদন গ্রহণ করে শুনানির জন্য অনুমোদন দিয়েছেন আদালত। প্রধান বিচারপতি কাজী ফয়েজ ইসার নেতৃত্বাধীন তিন সদস্যের বেঞ্চ এই শুনানি কার্যক্রম পরিচালনা করবেন। পাকিস্তানি সংবাদমাধ্যম জিও নিউজের এক প্রতিবেদন থেকে এই তথ্য জানা যায়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ৩০ দিনের মধ্যে নতুন করে নির্বাচন দেওয়ার দাবি জানিয়ে আলী খান নামের এক নাগরিক আবেদন করেছেন। আবেদনে পাকিস্তানের নির্বাচন কমিশন (ইসিপি) ও কেন্দ্রীয় সরকারকে বিবাদী করা হয়েছে।

৮ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানে সাধারণ পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ৬০ ঘণ্টা পর প্রকাশিত ফলে দেখা যায়, স্বতন্ত্র প্রার্থীরা পেয়েছেন ১০২টি আসন, পাকিস্তান মুসলিম লিগ-নওয়াজ (পিএমএল-এন) ৭৪টি এবং পাকিস্তান পিপলস পার্টি (পিপিপি) ৫৪টি। এ ছাড়া মুত্তাহিদা কওমি মুভমেন্ট পাকিস্তান (এমকিউএম) ১৭ আসনে জয়ী হয়েছে। অন্য দলগুলো পেয়েছে ১৭টি আসন। পাকিস্তানে সরকার গঠনের জন্য প্রয়োজন ১৩৪ আসন। কিন্তু কোনো দলই এই সংখ্যায় না পৌঁছানোয় জোট সরকার গঠনের পদক্ষেপ নেন দেশটির রাজনীতিবিদরা।

তবে এই নির্বাচনের স্বচ্ছতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে পিটিআই, পিপিপি, জামায়াতে ইসলামি ও জমিয়াত উলেমা-ই-ইসলাম ফজল (জেইউআই-এফ) এর মতো দলগুলো।  যুক্তরাষ্ট্রও পাকিস্তানি কর্তৃপক্ষকে নিরপেক্ষ ও স্বাধীন কমিশন গঠন করে নির্বাচনের অভিযোগ নিয়ে তদন্তের আহ্বান জানিয়েছে। 


আরও খবর