আজঃ শনিবার ২৯ জানুয়ারী ২০২২
শিরোনাম

বিবাহবহির্ভূত সম্পর্কে বাধার জেরেই খুলনায় ৩ খুন

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১১ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১১ জানুয়ারী ২০২২ | ৬২০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

প্রায় আড়াই মাস পর খুলনার কয়রায় আলোচিত তিন খুনের রহস্য উদঘাটন করেছে পুলিশ। প্রতিবেশী নারীর বিবাহবহির্ভূত সম্পর্কে বাধা দেওয়ার জেরে পরিকল্পিতভাবে প্রথমে স্ত্রী, মেয়েকে হাত-পা বেঁধে ধর্ষণের পর স্বামীসহ তিন জনকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। পরে লাশ গুমের জন্য পাশের পুকুরে ফেলে দেয় খুনিরা। খুলনা জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মাহবুব হাসান সোমবার (১০ জানুয়ারি) তার সম্মেলন কক্ষে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানিয়েছেন।

প্রেস ব্রিফিংয়ে জানানো হয়, চাঞ্চল্যকর এ মামলার অন্যতম আসামি আবদুর রশিদ গাজী ও জিয়াউর রহমানসহ মোট ১৪ জনকে এ পর্যন্ত গ্রেফতার করা হয়েছে। ঘটনার পর রশিদ গাজী পলাতক ছিলেন। তাকে ৮ জানুয়ারি যশোর থেকে গ্রেফতার করা হয়। পরে আরও ছয় জনকে পৃথক স্থান থেকে গ্রেফতার করা হয়। এর মধ্যে রশিদ গাজী আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে রশিদ গাজী জানান, একই গ্রামের মো. জিয়াউর রহমান ও রাজিয়া সুলতানার বিবাহবহির্ভূত সম্পর্কে হাবিবুল্লাহ বাধা হয়ে দাঁড়ান। সুলতানার স্বামী কুদ্দুস গাজী খুলনা শহরে কাঁচামালের ব্যবসার সুবাদে বাড়িতে কম যাতায়াত করেন। এ সুযোগে জিয়ার সঙ্গে সুলতানার সম্পর্ক হয়। সুলতানা হাবিবুল্লার প্রতিবেশী হওয়ায় তার চোখে বিষয়টি ধরা পড়ে। এ কারণে তিনি তাদের সম্পর্কের মধ্যে বাধা হয়ে দাঁড়ান। ঘটনার বছর খানেক আগে জিয়াকে হাতেনাতে ধরে ফেলার পর সুলতানা ক্ষিপ্ত হয়ে হাবিবুল্লাকে বটি দিয়ে কোপ দেন। পরে এ ঘটনা এলাকায় জানাজানি হলে জিয়া হাবিবুল্লার ওপর আরও ক্ষিপ্ত হন। বিভিন্ন সময় সে হাবিবুল্লাকে শায়েস্তা করতে বিভিন্ন পরিকল্পনা করতে থাকেন। পরে জিয়া ও রশিদের নেতৃত্বে গত ২৫ অক্টোবর রাত ১২টার দিকে দুর্বৃত্তরা ওই বাড়িতে গিয়ে প্রথমে হাবিবুল্লাহ, তার স্ত্রী ও মেয়ের হাত-পা বাঁধে। এরপর মা-মেয়েকে ধর্ষণের পর তিন জনকে কুপিয়ে হত্যা করে লাশ পুকুরে ফেলে দেয়। হত্যাকাণ্ডে কমপক্ষে ছয়জন সরাসরি অংশ নেয়।

পুলিশ সুপার বলেন, বিকৃত যৌন লালসা, প্রতারণামূলক আর্থিক লেনদেন ও বিবাহবহির্ভূত সম্পর্কের ঘটনায় দলবদ্ধভাবে হত্যাকাণ্ডটি সংঘটিত হয়। গ্রেফতারদের মধ্যে ছয় জনকে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

এখন পর্যন্ত মামলায় গ্রেফতার হয়েছেন মো. জিয়াউর রহমান জিয়া, রাজিয়া সুলতানা, শামসুর রহমান, মো. সাইফুল ইসলাম বাবলু, আল আমিন হোসেন, আসলাম সরদার, আবদুল ওহাব ওরফে হক, তাসলিমা, শামীমুল ইসলাম অঞ্জন, আব্দুর রশিদ গাজী ও মোস্তফা কামাল।

উল্লেখ্য, গত ২৬ অক্টোবর বামিয়া গ্রামের হাবিবুর রহমান ওরফে হাবিবুল্লাহ, তার স্ত্রী বিউটি বেগম ও মেয়ে হাবিবা সুলতানা টুনির লাশ বাড়ির পাশের পুকুর থেকে উদ্ধার করে পুলিশ। ওই দিন সন্ধ্যায় নিহত হাবিবুল্লার মা কোহিনুর খানম বাদী হয়ে অজ্ঞাতদের আসামি করে কয়রা থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলাটি প্রথমে কয়রা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আসাদুল ইসলামকে তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয়। পরে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ওসি উজ্জ্বল কুমার দত্ত আলোচিত মামলার তদন্তের দায়িত্ব পান। পাশাপাশি জেলা পুলিশের ট্রেনিং অ্যান্ড আইটি শাখার ইনচার্জ এজাজ শফি মামলাটির ছায়া তদন্ত অব্যাহত রাখেন।

নিউজ ট্যাগ: খুলনা

আরও খবর



বিচারকাজ আবারও ভার্চুয়ালি হবে: প্রধান বিচারপতি

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৮ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৮ জানুয়ারী ২০২২ | ৩৮৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

দেশে করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় আবারও ভার্চুয়ালি বিচারকাজ পরিচালনা করতে হবে বলে জানিয়েছেন প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী

মঙ্গলবার (১৮ জানুয়ারি) সকালে আপিল বিভাগে বিচারকাজ শুরুতেই প্রধান বিচারপতি একথা বলেন।

প্রধান বিচারপতি বলেন, চারিদিকে যেভাবে করোনার সংক্রমণ বৃদ্ধি পাচ্ছে তাতে ভার্চুয়ালি যেতে হবে। হাইকোর্ট বিভাগের ১৩ বিচারপতি করোনা আক্রান্ত। সুপ্রিম কোর্টের অনেক স্টাফও করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। এমন পরিস্থিতিতে শারীরিক উপস্থিতিতে কোর্টের কার্যক্রম চালানো কঠিন হয়ে যাবে। এদিকে নিম্ন আদালতের অনেক বিচারকও করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এসময় ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিশ্বজিৎ দেবনাথ বলেন, অ্যাটর্নি জেনারেল ও আইন কর্মকর্তাদের মধ্যেও বেশ কয়েকজন করোনায় আক্রান্ত।


আরও খবর



ওমিক্রনে আক্রান্তদের চিকিৎসায় আরও ২ ওষুধ অনুমোদন ডব্লিউএইচওর

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৪ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৪ জানুয়ারী ২০২২ | ৪৫৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

করোনাভাইরাসের সবচেয়ে সংক্রামক ধরন হিসেবে স্বীকৃত ওমিক্রনে আক্রান্তদের চিকিৎসায় আরও দুটি ওষুধের অনুমোদন দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। এই ওষুধগুলো হলো বারিটিসিনিব এবং অপরটির নাম সট্রোভিম্যাব।

বারটিসিনিব ওষুধটি এতদিন ব্যবহার হতো বাত বা বাতজ্বরে আক্রান্তদের চিকিৎসায় ব্যবহার করা হতো। ডব্লিউএইচওর বিশেষজ্ঞ প্যানেলের মতে, যদি কোভিডে গুরুতর অসুস্থ রোগীদের চিকিৎসায় কর্টিকসটারয়েডস নামের ওষুধের সঙ্গে বাত ও বাতজ্বরের ওষুধ ব্যবহার করা হয়, সেক্ষেত্রে রোগীদের ভেন্টিলেশনের ঝুঁকি কমার পাশাপাশি মৃত্যুর শঙ্কাও হ্রাস পায়।

অন্যদিকে সট্রোভিম্যাব একপ্রাকার সিনথেটিক অ্যান্টিবডি। তীব্র শ্বাসকষ্ট কমানোর জন্য এই অ্যান্টিবডি এতদিন রোগীদের ক্ষেত্রে ব্যবহার করে আসছিলেন চিকিৎসকরা।

শুক্রবার এ সম্পর্কিত এক বিবৃতিতে ডব্লিউএইচওর পক্ষ থেকে বলা হয়, যারা বয়স্ক, রোগ প্রতিরোধক্ষমতা কম কিংবা ডায়াবেটিসের মতো কোনো রোগে ভুগছেন, তাদের করোনায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে যাওয়ার ঝুঁকি কমাতে বিশেষজ্ঞরা সিনথেটিক অ্যান্টিবডি চিকিৎসাপদ্ধতি সট্রোভিম্যাবের সুপারিশ করেছেন।

তবে করোনা সংক্রমিত যাদের হাসপাতালে চিকিৎসা নেওয়ার ঝুঁকি কম, তাদের ক্ষেত্রে সট্রোভিম্যাব প্রয়োগের খুব বেশি প্রয়োজন আছে বলে মনে করছে না বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার বিশেষজ্ঞ প্যানেল। পাশাপাশি, ওমিক্রনের মতো করোনার নতুন ধরনের বিরুদ্ধে এটি কতটা কার্যকর হবে, সে বিষয়ে এখনও পুরোপুরি নিশ্চিত নয় ডব্লিউএইচও।

২০২১ সালে করোনাভাইরাসের তিনটি চিকিৎসাপদ্ধতি বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার অনুমোদন পেয়েছে। গত বছরের সেপ্টেম্বরে করোনাভাইরাস সংক্রমিত গুরুতর অসুস্থ ব্যক্তিদের চিকিৎসায় কর্টিকসটারয়েডস ওষুধের অনুমোদন দেয় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। কর্টিকসটারয়েডের দাম কম এবং করোনাজনিত গুরুতর অসুস্থতার ক্ষেত্রে এটি বেশ কার্যকর।

তার আগে ২০২১ সালের জুলাইয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার অনুমোদন পায় আর্থ্রাইটিসের আরও দুটি ওষুধ টসিলিজুম্যাব ও সেরিলোম্যাব। তবে এসব ওষুধ থেকে নতুন অনুমোদন পাওয়া বারিসিটিনিব কিছুটা আলাদা।

গত বছরের সেপ্টেম্বরে সিনথেটিক অ্যান্টিবডি চিকিৎসাপদ্ধতি রেজেনিরন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার অনুমোদন পেয়েছে। বলা হচ্ছে, একই ধরনের রোগীদের ক্ষেত্রে একইভাবে কার্যকর হবে সট্রোভিম্যাব।

এদিকে, ২০২১ সালের ২৪ নভেম্বর দক্ষিণ আফ্রিকায় প্রথম শনাক্ত হয় ওমিক্রন। তার পর থেকে অকল্পনীয় দ্রুতগতিতে বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়তে থাকে এই ভাইরাসটি। ডব্লিউএইচওর তথ্য অনুযায়ী, এখন পর্যন্ত বিশ্বের ১৩০টিরও বেশি দেশে শনাক্ত হয়েছে ওমিক্রনে আক্রান্ত রোগী।

আন্তর্জাতিক জীবাণুবিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, সার্স-কোভ-২ বা মূল করোনাভাইরাসের তুলনায় ওমিক্রনের সংক্রমণ ক্ষমতা ৭০ গুণ বেশি। বর্তমানে করোনাভাইরাসের রূপান্তরিত ধরণগুলোর মধ্যে সবচেয়ে সংক্রামক ধরনের স্বীকৃতি পেয়েছে এই ভাইরাসটি।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার উদ্বেগজনক ধরনের’ তালিকায় স্থান পাওয়া ওমিক্রনের প্রভাবে পৃথিবীজুড়েই বাড়ছে করোনার দৈনিক সংক্রমণ। ইউরোপের বিভিন্ন দেশ ও যুক্তরাষ্ট্রে প্রতিদিন লক্ষাধিক রোগী শনাক্ত হচ্ছেন করোনা পজিটিভ হিসেবে।

আন্তর্জাতিক জীবাণুবিশেষজ্ঞরা অবশ্য বলেছেন, অতি উচ্চ মাত্রার সংক্রামক ভাইরাস হলেও করোনার অতি সংক্রামক ধরন ডেল্টাসহ অন্যান্য রূপান্তরিত ধরন এবং মূল করোনাভাইরাসের তুলনায় কম প্রাণঘাতী।


আরও খবর



মৃত্যুর আগ মুহূর্তে সাবেক স্কুল শিক্ষকের হাতের আঙুলের ছাপ নেয়ার অভিযোগ

প্রকাশিত:সোমবার ০৩ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ০৩ জানুয়ারী ২০২২ | ৯১৫জন দেখেছেন

Image

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি:

কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরীতে সবার অজান্তে মৃত্যুর আগ মুহূর্তে রবিন্দ্রনাথ সরকার নামের এক অবসরপ্রাপ্ত স্কুল শিক্ষকের হাতের আঙুলের ছাপ নেয়ার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ওই এলাকায় চাঞ্চল্যের  সৃষ্টি হয়েছে।

ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার হাসনাবাদ ইউনিয়নের খামার হাসনাবাদ সেনপাড়া এলাকায়। এ ঘটনায় সোমবার (৩ জানুয়ারি) নাগেশ্বরী থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছেন মৃতের পুত্রবধূ অঞ্জনা রানী।

এতে জানা যায় গতকাল রোববার ওই ব্যাক্তি অসুস্থ হয়ে পড়লে স্বজনরা তার শারিরীক সেবা যত্ন করার সময় দেখতে পায় তার ২ হাতের বৃদ্ধাঙুলিতে কালির ছাপ লাগানো। এ বিষয়ে পরিবারের লোকজন নাগেশ্বরী থানায় অভিযোগ করতে গেলে সন্ধ্যায় খবর পান তার মৃত্যু হয়েছে। বিষয়টি চারদিকে ছড়িয়ে পড়লে উৎসুক জনতা ওই বাড়িতে ভিড় জমায়।

পরিবারের অভিযোগ একটি কুচক্রি মহল তাদের ক্ষয়ক্ষতি এবং সম্পদ আত্মসাতের উদ্দেশ্যে এই কান্ড ঘটিয়েছে। আর যে কারণে তার এই মৃত্যু হয়েছে। তাই এর সুষ্ঠু তদন্তসহ বিচার দাবি করেছেন পরিবারের লোকজন। অব. স্কুল শিক্ষক মৃত রবিন্দ্রনাথ রায়ের কৃষ্ণা চন্দ্র (৪৬) ও রত্না সেন (৪০) নামের ২ মেয়ে রয়েছে এবং রঞ্জু কুমার সরকার নামের এক ছেলে ছিলেন। তিনি এক বছর আগে মারা যান। তার স্ত্রী অঞ্জনা রানী শ্বশুর শাশুড়ির সংসারে ২ মেয়েকে নিয়ে থাকেন।

মৃত রবিন্দ্রনাথ সরকারের স্ত্রী ললিতা সরকার (৬৫) জানায়, রোববার তার স্বামী অসুস্থ থাকাবস্থায় নাগেশ্বরী পৌরসভার চামটারপাড় সুখাতি এলাকার জোগেন মোক্তার নামের এক ব্যাক্তি তাকে দেখতে আসেন। তখন তাদের ঘরে কেউ ছিলো না। পরে বের হওয়ার সময় দেখেন তিনি ঘর থেকে বের হয়ে যাচ্ছেন। এ সময় বাড়ির পূত্রবধূর কাছ থেকে পান সুপাড়ি চাইলে তিনি তা খেয়ে চলে যান। পরে তার পুত্রবধূ অঞ্জনা রানী তার শ্বশুরের হাতে পায়ে তেল মালিশ করতে গিয়ে দেখেন ২ হাতের বৃদ্ধাঙ্গুলিতে কালির ছাপ। এটি দেখে হতবাক হয়ে যান তিনি। পরে ওই জোগেন মোক্তারকে ডাকলে তিনি বিষয়টি অস্বিকার করেন।

পুত্রবধূ অঞ্জনা রানী বলেন, আমি বাবার শরিরে পরিচর্যার জন্য তেল মালিশ করতে গিয়ে দেখি তার আঙ্গুলে কালির ছাপ। কে বা কারা এটি করেছে আমাদের জানা নেই। তবে যেই করুক আমাদের ক্ষতি করার জন্য কিংবা সম্পদ হাতিয়ে নেয়ার উদ্দেশ্যে করেছে।

পরে বিষয়টি অভিযোগের জন্য থানায় গেলে সন্ধ্যায় খবর পাই বাবা মারা গেছে। এ খবর পেয়ে তৎক্ষনাৎ বাড়ি ফিরে আসি। যাতে ভবিষ্যতে আমাদের কোনো ক্ষতি না হয় এ জন্য আমি প্রশাসনসহ সকলের সহযোগিতা কামনা করছি।

এ ব্যাপারে হাসনাবাদ ইউনিয়নেন নবনির্বাচিত ইউপি চেয়ারম্যান মো. নুরুজ্জামান সরকার বলেন, আমি খবর পাওয়ার পর সরেজমিনে গিয়ে দেখি ঠিকই তার হাতের আঙুলে ছাপ। তাই পরিবারের লোকজনকে নিয়ে থানায় জিডি করা হয়েছে।

নাগেশ্বরী থানার ওসি (তদন্ত) পলাশ চন্দ্র জানান, এ ব্যাপারে একটি জিডি করেছেন ওই ব্যাক্তির পুত্রবধূ। বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নিউজ ট্যাগ: কুড়িগ্রাম

আরও খবর



দিনাজপুরে আবাসিক হোটেল থেকে যুবকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৮ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৮ জানুয়ারী ২০২২ | ৩৩০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

দিনাজপুরের বিরামপুরে রজনীগন্ধা নামের একটি আবাসিক হোটেল থেকে মাইদুল ইসলাম তানিম নামের এক যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

মৃত মাইদুল ইসলাম তানিম (২৭), পাবনা জেলার সাথিয়া উপজেলার কাশিনাথপুর ইউনিয়নের পাইকর গ্রামের মৃত কুদ্দুস আলীর ছেলে।

মঙ্গলবার সাড়ে ১১টার সময় বিরামপুর পৌরশহরের রজনীগন্ধা আবাসিক হোটেলের ১০নং কক্ষ থেকে ওই যুবকের লাশ উদ্ধার করা হয়।

বিরামপুর থানার ওসি সুমন কুমার মহন্ত বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, মাইদুল ইসলাম তানিম একটি বেসরকারী  কোম্পানিতে চাকুরি করেন এমন তথ্য দিয়ে গত ৮ জানুয়ারি রজনীগন্ধা আবাসিক হোটেলের ১০নং কক্ষটি ভাড়া নেন। মঙ্গলবার সকালে ভাড়া নিতে রুমের পাশে দরজায় গিয়ে ডাকাডাকি করেও তার কোন সাড়া শব্দ না পেয়ে হোটেলে ম্যানেজার বিরামপুর থানা পুলিশকে খবর দেয়। পরে পুলিশের একটি টিম সেখানে গিয়ে ওই কক্ষের দরজা ভেঙ্গে ভিতরে যুবকের ঝুলন্ত মরদেহ দেখতে পায়। পরে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।


আরও খবর
হিলি স্থলবন্দরে আমদানি রফতানি বন্ধ

বুধবার ২৬ জানুয়ারী ২০২২




নওগাঁয় প্রতিবন্ধী শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে অভিযুক্ত গ্রেপ্তার

প্রকাশিত:বুধবার ১৯ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১৯ জানুয়ারী ২০২২ | ৪৯৫জন দেখেছেন

Image

নওগাঁ প্রতিনিধি:

নওগাঁর মান্দায় প্রতিবন্ধী এক শিশু শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের ঘটনায় অবশেষে অভিযুক্ত আশরাফুল ইসলাম সুটকাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

গত মঙ্গলবার সন্ধ্যার পর অভিযান চালিয়ে উপজেলার নুরুল্লাবাদ উচ্চ বিদ্যালয় সংলগ্ন এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। ঘটনায় ওই শিশুটির বাবা বাদি হয়ে মঙ্গলবার রাতেই থানায় মামলা দায়ের করেন। গত ৬ জানুয়ারি উপজেলার কাঁশোপাড়া ইউনিয়নের একটি গ্রামে ধর্ষণের এ ঘটনা ঘটে। তবে এ মামলায় ধর্ষণের ঘটনাটি ধামাচাপা দেওয়াসহ সালিশের মাধ্যমে নিষ্পত্তি করে দেওয়া মাতবরদের আসামী করা হয়নি। এ নিয়ে স্থানীয় জনমনে নানা প্রশ্নের জন্ম দিয়েছে।

এদিকে বুধবার দুপুরে নওগাঁ আইন ও সালিশ কেন্দ্রের চার সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। এ দলের প্রতিনিধি শহিদুল ইসলাম শহীদ বলেন, স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে ঘটনার সত্যতা পাওয়া গেছে। ধর্ষণের ঘটনা সালিশযোগ্য বিষয় নয়। যেসব ব্যক্তিরা ঘটনাটি ধামাচাপা দিতে সালিশ করেছেন তাঁরাও একই অপরাধে অপরাধী। এদেরও আইনের আওতায় এনে বিচার করা দরকার।

ন্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত ৬ জানুয়ারি প্রথম শ্রেণির শিক্ষার্থী প্রতিবন্ধী এক শিশু ধর্ষণের শিকার হয়। ঘটনাটি ধামাচাপা দিতে ৯ জানুয়ারি রাতে গ্রামের আনোয়ারা বিবির বাড়িতে সালিশের আয়োজন করেন স্থানীয় মাতবরেরা। সালিশে ধর্ষণের কথা স্বীকার করায় অভিযুক্ত আশরাফুল ইসলাম সুটকাকে জুতাপেটাসহ আট হাজার টাকা জরিমানা করেন।

মান্দা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শাহিনুর রহমান বলেন, ধর্ষণের ঘটনায় শিশুটির বাবা বাদি হয়ে একজনকে আসামী করে মামলা করেছেন। ভিকটিমের ডাক্তারী পরীক্ষা নওগাঁ হাসপাতালে সম্পন্নসহ আসামীকে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। ধর্ষণের ঘটনা ধামাচাপা দিতে সালিশের আয়োজক মাতবরদের কেন আসামী করা হয়নি জানতে চাইলে ওসি বলেন, শিশুটির বাবা শুধু একজনের বিরুদ্ধে মামলা করেন। তাই অন্য কাউকে আসামী করা হয়নি।


আরও খবর
মোটরসাইকেলে ট্রাকের ধাক্কায় নিহত-৪

সোমবার ২৪ জানুয়ারী ২০২২