আজঃ বুধবার ২৫ মে ২০২২
শিরোনাম

বগুড়ায় স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে প্রভাষক গ্রেপ্তার

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৩ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৩ মে ২০২২ | ৭০৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বগুড়ার ধুনটে দশম শ্রেণির এক স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে মুরাদুজ্জামান মুকুল নামে এক প্রভাষককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়ার পর বৃহস্পতিবার রাতে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। তিনি গত কয়েক মাস যাবৎ ঐ ছাত্রীকে বিভিন্ন সময় ভয়ভীতি দেখিয়ে ধর্ষণ করে আসছিলেন।

গ্রেপ্তারকৃত মুকুলের বাড়ি উপজেলার এলাঙ্গী ইউনিয়নের শৈলমারী গ্রামে। মুকুল ধুনটের জালশুকা হাবিবুর রহমান কলেজের ইসলামের ইতিহাস বিভাগের প্রভাষক। 

মামলা সূত্রে জানা গেছে, গ্রেপ্তার মুকুল ধুনট পৌর এলাকার দক্ষিণ অফিসারপাড়া এলাকার একটি বাসার নিচতলায় ভাড়া থাকতেন। ঐ বাড়ির মালিকের দুই বছর বয়সী ছেলে খেলাধুলা করতে প্রায়ই মুরাদুজ্জামানের ফ্ল্যাটে যাওয়া-আসা করতো। সেই সুবাদে বাড়ির মালিকের বড় মেয়ে দশম শ্রেণির ছাত্রীও সেখানে যেত।

এদিকে মুকুলের স্ত্রীও স্কুলের শিক্ষিকা হওয়ায় তিনি বাড়িতে থাকতেন না। এই সুযোগে মুকুল কয়েক মাস আগে মেয়েটিকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করেন। সে সময় ধর্ষণের ভিডিও চিত্র ধারণ করে রাখেন। এরপর ওই ভিডিওটি ফেসবুকে ভাইরাল করে দেওয়ার হুমকি দিয়ে একাধিকবার ধর্ষণ করেন মুকুল।

সর্বশেষ বৃহস্পতিবারও মেয়েটিকে ধর্ষণের চেষ্টা সে চিৎকার দিলে তার খালা সেখানে উপস্থিত হলে মুকুল কৌশলে পালিয়ে যান। এরপর মেয়েটি তার পরিবারের কাছে সম্পূর্ণ ঘটনা খুলে বললে তার মা বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার রাতে ধুনট থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন। পরে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে।

ধুনট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কৃপা সিন্ধু বালা ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, স্কুলছাত্রীর মা বাদী হয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ দিলে মামলার আসামিকে আটক করা হয়। এরপর অভিযোগটি মামলা হিসেবে নথিভূক্ত করে তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। আগামীকাল তাকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হবে।


আরও খবর



বাংলাবাজার-শিমুলিয়া নৌরুটে লঞ্চ চলাচল স্বাভবিক

প্রকাশিত:বুধবার ০৪ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ০৪ মে ২০২২ | ৪২০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

আবহাওয়া কিছুটা স্বাভাবিক হলে বুধবার (৪ মে) সকাল সাড়ে ৮ থেকে বাংলাবাজার-শিমুলিয়া রুটে লঞ্চ ও স্পিডবোট চলাচল স্বাভাবিক হয়েছে। এর আগে ঝড়ো বাতাস ও বৃষ্টির কারণে সকাল সাড়ে ৬টা থেকে বন্ধ ছিল নৌযান চলাচল।

বিআইডব্লিউটিএর বাংলাবাজার লঞ্চঘাট সূত্র এ তথ্য জানিয়েছে।

ঘাট সূত্রে জানা গেছে, ভোরে বৃষ্টির সঙ্গে বাতাস বইতে থাকলে উত্তাল হয়ে ওঠে পদ্মা নদী। এছাড়াও কালবৈশাখী ঝড়ের আভাস থাকায় দুর্ঘটনা এড়াতে নৌরুটের সব লঞ্চ ও স্পিডবোট চলাচল বন্ধ রাখে কর্তৃপক্ষ। সকাল সাড়ে ৮টার দিকে বাতাস ও বৃষ্টি কমে এলে নৌযান চলাচল শুরু করে।

বিআইডব্লিউটিএর বাংলাবাজার লঞ্চঘাটের ট্রাফিক ইন্সপেক্টর আক্তার হোসেন বলেন, ভোরে আকাশ মেঘাচ্ছন্ন হয়ে ঝড়ো বাতাস ও বৃষ্টি শুরু হয়। এ কারণে দুই ঘণ্টার মতো নৌযান চলাচল বন্ধ থাকে। আবহাওয়া স্বাভাবিক হলে সকাল সাড়ে ৮টার দিকে লঞ্চ-স্পিডবোট চলাচল শুরু করে।


আরও খবর



বাংলাদেশে করোনার চতুর্থ ঢেউয়ের আশঙ্কা কম

প্রকাশিত:বুধবার ২৭ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ২৭ এপ্রিল ২০২২ | ৪৭০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের চতুর্থ ঢেউ আসার আশঙ্কা খুবই কম বলে জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশনের (সিডিসি) কান্ট্রি ডিরেক্টর নিলি কায়ডোস। বুধবার (২৭ এপ্রিল) রাজধানীর গুলশান আমেরিকান সেন্টারে বাংলাদেশের সঙ্গে ইউএস সিডিসির পার্টনারশিপ নিয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, প্রতিবেশী দেশ ভারত, চীনসহ যুক্তরাষ্ট্র এবং কয়েকটি ইউরোপীয় দেশে করোনাভাইরাসের চতুর্থ ঢেউ এলেও বাংলাদেশে এই ঢেউ আসার আশঙ্কা খুবই কম। যদি নতুন করে আসে তাও ছোট পরিসরে হতে পারে।

তারপরও সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়ে নিলি কায়ডোস বলেন, একটি মহামারি নিয়ন্ত্রণে থাকার অর্থ এই নয় যে আমরা অন্য মহামারি থেকে নিরাপদ। ভাইরাসের একক বাহক থেকে নতুন আরেকটি মহামারি শুরু হতে পারে। তাই আমাদের এমন কোনো ঘটনা শনাক্ত করা, প্রতিরোধ করা এবং মোকাবিলায় প্রস্তুত থাকতে হবে।

তিনি বলেন, আগামীতে কোভিড-১৯ মহামারি চলাকালীন জনস্বাস্থ্য বিষয়ে আমাদের অর্জনগুলোকে কাজে লাগাতে হবে এবং সংক্রামক রোগের বিস্তার প্রতিরোধে বাংলাদেশের সামর্থ্য জোরদার করা অব্যাহত রাখতে হবে। বাংলাদেশে জনস্বাস্থ্য বিষয়ক জনবল তৈরি অব্যাহত রাখতে হবে, নতুন ও উদীয়মান জীবাণু শনাক্ত করতে পরীক্ষাগার ও নজরদারি ব্যবস্থা শক্তিশালী করার পাশাপাশি জনস্বাস্থ্য সংক্রান্ত সব ধরনের জরুরি পরিস্থিতি মোকাবিলায় প্রয়োজনীয় অবকাঠামো ও দক্ষতা গড়ে তুলতে হবে।

তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশে করোনা টিকাদান ব্যবস্থা ভালো ছিল। এছাড়া এদেশের মানুষের করোনা বা অন্যান্য রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা অনেক ভালো। এই কারণে বাংলাদেশ করোনা নিয়ন্ত্রণে ভালো অবস্থানে রয়েছে। তবে এটা আমার ব্যক্তিগত অভিমত; এ বিষয়ে যথাযথ জানতে আরও গবেষণা প্রয়োজন।

তিনি বলেন, ডায়রিয়া-কলেরা এখানে (বাংলাদেশে) সিজনাল। এটা একবার নিয়ন্ত্রণ সম্ভব হয় না। তবে ডায়রিয়ার ভ্যাকসিন প্রদানের হারে বাংলাদেশ এগিয়ে।

বিশ্বজুড়ে অ্যান্টিবায়োটিক ব্যবহারজনিত সমস্যা আশঙ্কাজনক হারে বাড়ছে উল্লেখ করে সচেতন হওয়ার পরামর্শ দিয়ে নিলি কায়ডোস বলেন, এটি কোভিড-১৯ এর মতো মহামারির তুলনায় অনেক ধীরগতিতে বিকশিত হওয়া একটি মহামারি। তবে এটি কম গুরুত্বপূর্ণ নয়। অ্যান্টিবায়োটিক এক ধরনের হুমকি, যা বোঝা দরকার এবং মানুষ, প্রাণিসম্পদ ও পরিবেশে একে নিয়ন্ত্রণ করা দরকার; তাই এই বিষয়টি অনেক জটিল। এটি বাংলাদেশ সরকার ও যুক্তরাষ্ট্রের জন্য অগ্রাধিকারমূলক একটি বিষয়।

বাংলাদেশের সঙ্গে সিডিসির দীর্ঘ কাজের ইতিহাস সফলতার ইতিহাস উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমাদের অনেকগুলো যৌথ প্রকল্প বাংলাদেশি জনগণের জীবনে ইতিবাচক প্রভাব রাখার পাশাপাশি বিশ্বের বাকি মানুষের জীবনকেও প্রভাবিত করেছে।

নিলি কায়ডোস বলেন, আমরা স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়, আইসিডিডিআর,বি এবং অন্যান্য অংশীদারদের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ ও সহযোগিতামূলক কর্মকাণ্ড আগামী দিনগুলোতেও অব্যাহত রাখার প্রত্যাশা রাখি।


আরও খবর



ঢাকায় অবৈধ ইটভাটার অর্ধেকেরও বেশি সচল

প্রকাশিত:সোমবার ১৬ মে ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৬ মে ২০২২ | ৩২৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ঢাকা জেলায় ১১৬টি অবৈধ ইটভাটা ধ্বংসের লক্ষ্য নিয়ে চলতি বছরের শুরু থেকে অভিযানে নামে পরিবেশ অধিদপ্তর ঢাকা জেলা। সাড়ে পাঁচ মাস শেষে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত ৪৪টি ইটভাটায় অভিযান সম্পন্ন করে পরিবেশ অধিদপ্তর। পরিসংখ্যান-মতে, এখন পর্যন্ত ঢাকায় অর্ধেকের বেশি অবৈধ ইটভাটা চালু রয়েছে। ইটভাটায় অভিযানের পর কোনো রকম তদারক করছে না পরিবেশ অধিদপ্তর। ফলে বন্ধের পরও নতুন করে চালু হচ্ছে ইটভাটাগুলো। পরিবেশ দূষণ রোধে অধিদপ্তরের তদারকি জোরদার করার মাধ্যমে অবৈধ ইটভাটা বন্ধ রাখার দাবি জানিয়েছেন পরিবেশবিদরা।

ঢাকা ছাড়াও আশপাশের পাঁচ জেলায় ৩১৯টি অবৈধ ইটভাটা রয়েছে। ইটভাটাগুলো বন্ধ করার জন্য পরিবেশ আইনবিদ অ্যাডভোকেট মনজিল মোরসেদ হাইকোর্টে রিট করলে গত ১ মার্চ ঢাকা জেলার সব অবৈধ ইটভাটা ধ্বংসের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। ১৫ দিনের মধ্যে আদেশ বাস্তবায়নের সময়সীমা বেঁধে দিলেও বেশির ভাগ ভাটাই দিব্যি চলছে। পরিবেশ অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী ঢাকায় এখনো অবৈধ ৭২টি ইটভাটা সচল রয়েছে। পরিবেশ আইনের তোয়াক্কা না করে লোকালয় ও ফসলি জমির পাশে গড়ে উঠেছে এসব ভাটা। ভাটার কালো ধোঁয়ায় জনস্বাস্থ্যের পাশাপাশি ফসল ও গাছপালার ক্ষতি হচ্ছে। পরিবেশ ও জনস্বাস্থ্যের জন্য হুমকি বিবেচনায় এসব ভাটাকে অবৈধ ঘোষণা করা হয়।

অবৈধ ইটভাটা ধ্বংস করতে তত্পর পরিবেশ অধিদপ্তর। প্রায় প্রতিদিনই অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। তবে সক্ষমতার অভাবে কার্যকারিতা হারাচ্ছে এসব অভিযান। সূত্রমতে, ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে ইটভাটা ভেঙে দেয়া ও জরিমানা আদায়ের পরের দিনই আবার সেগুলো চালু হয়ে যাচ্ছে। বিষয়টি স্বীকার করেছেন পরিবেশ অধিদপ্তরের ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তাও। তিনি  বলেন, আমাদের সক্ষমতায় মারাত্মক অভাব রয়েছে। ১০০টি অবৈধ ইটভাটায় অভিযান করতে অন্তত বছরখানেক সময় লেগে যায়। এ সময়ের মধ্যে যেখানে অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে সেখানের অবস্থা পর্যবেক্ষণের সুযোগ আর হয় না। ফলে ওইসব এলাকায় উচ্ছেদ-জরিমানার পর পরই ফের অবৈধভাবে চলতে থাকে ইটভাটাগুলো।

পরিবেশ অধিদপ্তরের অভিযানের পরও কেরানীগঞ্জেও অবৈধ ইটভাটাগুলো চলছে। সম্প্রতি কেরানীগঞ্জের ঘোষকান্দা, ব্রাহ্মণগাঁও, জাজিরা, রাজেন্দ্রপুর ও বাঘৈর এলাকায় সরেজমিনে দেখা গিয়েছে, অবৈধ ভাটায় ইট পুড়িয়ে পরিবেশ দূষণ চলছে। পোড়ানো হচ্ছে কাঠ। আবাসিক এলাকা এমনকি ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কের পাশে রাজেন্দ্রপুরের বাঘৈর এলাকায় ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের উত্তর পাশে পাঁচটি ইটভাটা চলছে। একাধিকবার পরিবেশ অধিদপ্তর অভিযান পরিচালনা করলেও এখনো চলছে ভাটাগুলো। বাংলাদেশ ইট প্রস্তুতকারক মালিক সমিতির সাবেক মহাসচিব মো. আবু বকর  বলেন, কেরানীগঞ্জে বেশির ভাগ ভাটা বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। বন্ধ করে দেয়ার পরও অনেক ইটভাটা সচল রয়েছে।

ভাটায় অভিযান প্রসঙ্গে পরিবেশ অধিদপ্তরের ঢাকা জেলার উপপরিচালক জহিরুল ইসলাম  বলেন, সামর্থ্য অনুযায়ী আমরা অবৈধ ভাটার বিরুদ্ধে অভিযান চালিয়ে ব্যবস্থা নিচ্ছি। ফায়ার সার্ভিস, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীসহ সবার সমন্বয়ে আমাদের এ কাজ করতে হয়। তাই সবার সহযোগিতা না পেলে অভিযান পরিচালনা করাটা জটিল হয়ে পড়ে।

ভাটা বন্ধের পর চালু করা প্রসঙ্গে জহিরুল ইসলাম বলেন, এ ব্যাপারে স্থানীয় প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধিদের সহযোগিতা ছাড়া পুরো বিষয়টি নিয়ন্ত্রণ সম্ভব নয়। আমরা তো ভেঙে আগুন নিভিয়ে দিয়ে আসি। এরপর তারা শুরু করলে, সে তথ্য না পাওয়া পর্যন্ত আসলে কিছুই করার থাকে না। তাছাড়া যাদের সহযোগিতা করার কথা, অনেক সময় বারবার বলেও তাদের সহযোগিতা পাওয়া যায় না।

ইটভাটা বন্ধ ও বায়ুদূষণ রোধে স্থানীয় প্রশাসনের ভূমিকা সন্তোষজনক নয় বলে মন্তব্য করেছেন মানবাধিকার ও পরিবেশবাদী সংগঠন হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশের সভাপতি সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মনজিল মোরসেদ। তিনি বলেন, পরিবেশ অধিদপ্তরের সার্বিক সক্ষমতা সন্তোষজনক নয়। তাছাড়া কোথাও অভিযানের পর সেখানের পরবর্তী পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করে না পরিবেশ অধিদপ্তর। ফলে জরিমানা ও ভেঙে দেয়ার পরও ইটভাটাগুলো বন্ধ রাখা যাচ্ছে না।

নিউজ ট্যাগ: পরিবেশ অধিদপ্তর

আরও খবর



গলাচিপায় গাছের সঙ্গে বেঁধে কিশোরকে নির্যাতন, আটক ৩

প্রকাশিত:শনিবার ১৪ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ১৪ মে ২০২২ | ৫২০জন দেখেছেন

গলাচিপা (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি:

পটুয়াখালীর গলাচিপায় চুরির অপবাদে মুন্না (১৬) নামের এক কিশোরকে লোহার শিকলে বেঁধে নির্যাতনের অভিযোগে তিনজনকে গ্রেফতার করেছে গলাচিপা থানা পুলিশ।

গতকাল শুক্রবার রাতে উপজেলার বোয়ালিয়া এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়। আটককৃতরা হলো ওই কিশোরের মামী মমতাজ (৪৫), মামাতো বোন তানিয়া (৩০) ও প্রতিবেশী শামিম (৪০)। এঘটনায় ওই কিশোরের সৎ মা হাসিনা বেগম বাদী হয়ে গলাচিপা থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। ঘটনার মূলহোতা হজরত আলী এখনও পলাতক রয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মুন্নার বাবা ও মা ঢাকায় ছিলেন। গত ৯ মে তার মামার বাসা থেকে ৮৫ হাজার টাকা চুরির অপবাদে ওই কিশোরকে শিকল দিয়ে গাছে বেঁধে তিনদফা মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন করে হজরত আলী। এসময় আশপাশে দাড়িয়ে থাকা লোকজন বিষয়টি দেখে ভিডিও করেন। কেউই এঘটনার প্রতিবাদ করেনি। এ ঘটনায় একটি ভিডিও গতকাল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হলে নড়েচড়ে বসে প্রশাসন। ঘটনার পর থেকে ওই কিশোর নিখোঁজ রয়েছে।

গলাচিপা থানার ওসি শওকত আনোয়ার জানান, বাকি আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত আছে। ওই কিশোরকে উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।


আরও খবর



বিটিভির বিশেষ অনুষ্ঠান জয়তু বুদ্ধ সাসনং

প্রকাশিত:রবিবার ১৫ মে ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ১৫ মে ২০২২ | ১৮০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব বুদ্ধ পুর্ণিমা উপলক্ষে সাদিকুল ইসলাম নিয়োগী পন্নীর প্রযোজনায় বাংলাদেশ টেলিভিশনে নির্মিত হয়েছে বিশেষ অনুষ্ঠান জয়তু বুদ্ধ সাসনং

ধর্মীয় সংগীত,নাচ ও নাটিকার মাধ্যমে অনুষ্ঠানটি সাজানো হয়েছে। অনুষ্ঠানে গৌতম বুদ্ধের জীবনের একটি অংশ তুলে ধরা হয়েছে নাটিকার মাধ্যমে। ধর্মীয় সংগীতে ক্লোজআপ ওয়ান তারকা খ্যাত শিল্পী নিশিতা বড়ুয়া ছাড়াও অনুষ্ঠানে ধর্মরাজিক ললিতকলা একাডেমির প্রায় দুই শতাধিক শিল্পী অংশগ্রহণ করেছেন।

বাংলাদেশ টেলিভিশনের নিজস্ব স্টুডিওতে অনুষ্ঠানটি ধারণ করা হয়েছে। অনুষ্ঠানের গ্রন্থণা ও পরিকল্পনায় ছিলেন ড. সুমন কান্তি বড়ুয়া। রবিবার (১৫ মে) রাত ৮টা ৪০ মিনিটে বাংলাদেশ টেলিভিশন (বিটিভি) ও বিটিভি ওয়ার্ল্ডে অনুষ্ঠানটি একযোগে প্রচারিত হবে।


আরও খবর