আজঃ সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

বগুড়া–৪ আসনে হিরো আলমের মনোনয়নপত্র বাতিল

প্রকাশিত:রবিবার ০৩ ডিসেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:রবিবার ০৩ ডিসেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
বগুড়া প্রতিনিধি

Image

বগুড়া-৪ (কাহালু-নন্দীগ্রাম) আসনে বাংলাদেশ কংগ্রেসের প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দেওয়া আলোচিত ইউটিউবার আশরাফুল হোসেন আলম ওরফে হিরো আলমের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে। হলফনামাসহ আনুষঙ্গিক কাগজপত্রে স্বাক্ষর না করাসহ নানা ত্রুটির কারণে আজ রোববার যাচাই-বাছাই শেষে তাঁর মনোনয়নপত্র বাতিল ঘোষণা করা হয়েছে।

জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং অফিসার মো. সাইফুল ইসলাম বলেন, হিরো আলম দলীয় প্রার্থী হয়ে মনোনয়নপত্র জমা দিলেও মনোনয়নপত্রে দলের নাম উল্লেখ করেননি। দলীয় মনোনয়নের মূল কপি জমা না দিয়ে ফটোকপি জমা দিয়েছেন। আবার স্বতন্ত্রভাবে নির্বাচন করতে হলে মনোনয়নপত্রের সঙ্গে ১ শতাংশ ভোটারের স্বাক্ষর জমা দিতে হয়, সেটাও ছিল না। এ ছাড়া হলফনামায় হিরো আলম স্বাক্ষরই দেননি। আবার হলফনামার সঙ্গে সম্পদ বিবরণীর ফরমও ছিল না। এসব নানা ত্রুটির কারণে হিরো আলমের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে। তিনি চাইলে আপিল করতে পারবেন।

গত বৃহস্পতিবার বিকেলে রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে হিরো আলমের পক্ষে তাঁর ব্যক্তিগত সহকারী সুজন রহমান মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। রিটার্নিং কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম তাঁর মনোনয়নপত্র গ্রহণ করেন। এর এক দিন আগে বুধবার বাংলাদেশ সুপ্রিম পার্টির নেতৃত্বাধীন বাংলাদেশ জনদলের (বিজেডি) থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতার কথা জানিয়েছিলেন হিরো আলম। তবে ২৪ ঘণ্টা যেতে না যেতেই তিনি সিদ্ধান্ত বদলে বাংলাদেশ কংগ্রেসের প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দেন।

বাংলাদেশ কংগ্রেসের নেতৃত্বাধীন জাতীয় জোটের ছয় দলের মধ্যে আছে গণ-অধিকার পার্টি (পিআরপি), বাংলাদেশ বেকার সমাজ (বাবেস), বাংলাদেশ পিপলস পার্টি, বাংলাদেশ গ্রিন পার্টি ও বাংলাদেশ সৎ সংগ্রামী ভোটার পার্টি। জাতীয় জোটের নির্বাচনী প্রতীক ডাব।

হিরো আলম বলেন, দুবাই সফরের কারণে মনোনয়নপত্র দাখিলের আগে ভালোভাবে যাচাই করা সম্ভব হয়নি। ব্যক্তিগত সহকারীর মাধ্যমে মনোনয়নপত্র দাখিল করায় হলফনামাসহ কয়েকটি কাগজে স্বাক্ষর ছাড়াই মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিলেন। এখন মনোনয়নপত্র বাতিলের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আগামীকাল সোমবার আপিল করবেন। প্রার্থিতা ফিরে পেতে শেষ পর্যন্ত হাইকোর্টে যেতে হলেও যাবেন।

হিরো আলম আরও বলেন, বগুড়াসহ বিভিন্ন জায়গায় স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করেছেন। তখন ১ শতাংশ ভোটারের সমর্থন-সংবলিত স্বাক্ষর নিয়ে নানা ষড়যন্ত্র হয়েছে। এ জন্য এবার দলীয় মনোনয়নে নির্বাচন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। সেই অনুযায়ী বাংলাদেশ কংগ্রেস থেকে ডাব প্রতীকে লড়তে বগুড়া-৪ আসনে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।

জেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, বগুড়া-৪ আসনে মোট ভোটার ৩ লাখ ২৮ হাজার ৪৬৯ জন। গত ১ ফেব্রুয়ারি বগুড়া-৪ (কাহালু ও নন্দীগ্রাম) ও বগুড়া-৬ (সদর) আসনের উপনির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী (একতারা প্রতীক) হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন হিরো আলম। এর মধ্যে বগুড়া-৪ আসনে ১৪-দলীয় জোটের অন্যতম শরিক জাসদের এ কে এম রেজাউল করিমের কাছে ৮৩৪ ভোটে হেরে যান তিনি।

হিরো আলমের মনোনয়নপত্র বাতিলের বিষয়টি নিশ্চিত করে জেলার জ্যেষ্ঠ নির্বাচন কর্মকর্তা মাহমুদ হাসান বলেন, হলফনামায় স্বাক্ষর না করেই মনোনয়নপত্র দাখিল করায় বগুড়া-৪ আসনে বাংলাদেশ কংগ্রেসের প্রার্থী হিরো আলমের মনোনয়নপত্র বাতিল হয়েছে।


আরও খবর
ঝিনাইদহ জেলা কারাগারে কয়েদির মৃত্যু

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




বিশ্ব ইজতেমায় চলছে দ্বিতীয় দিনের বয়ান

প্রকাশিত:শনিবার ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

টঙ্গীর তুরাগ নদীরতীরে বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বের দ্বিতীয় দিনের বয়ান চলছে। আজ শনিবার ফজরের নামাজের পর দেশ-বিদেশের লাখো মুসল্লির উদ্দেশ্যে পবিত্র কোরআন-হাদিসের আলোকে শুরু হয় এই বয়ান।

টঙ্গীর ইজতেমা ময়দান এর মধ্যে কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে গেছে। আগামীকাল রবিবার আখেরি মোনাজাতের মধ্যদিয়ে শেষ হবে এবারের ইজতেমা।

দুদিন ধরে সার্বক্ষণিক ইবাদত-বন্দেগিতে নিয়োজিত রয়েছেন মুসল্লিরা। প্রতিদিন ফজর থেকে এশা পর্যন্ত ঈমান, আমল, আখলাক ও দ্বীনের পথে মেহনতের ওপর আমবয়ান অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

শনিবার ফজরের পর বয়ান করেন ভারতের মাওলানা সাঈদ বিন সাদ, বাংলা তরজমা করেন মুফতি ওসামা ইসলাম। সকাল সাড়ে ১০টায় তালিমে হালকা মোয়াল্লেমদের সঙ্গে কথা বলবেন ভারতের মাওলানা আব্দুল আজিম। জোহরের নামাজের পর বয়ান করবেন ভারতের মাওলানা শরিফ। বাংলা তরজমা করবেন মাওলানা মাহমুদুল্লাহ।

আসরের নামাজের পর বয়ান করবেন পাকিস্তানের মাওলানা ওসমান। বাংলা তরজমা করবেন মাওলানা আজিম উদ্দিন। বয়ানের পর যৌতুকবিহীন বিবাহ পড়ানো হবে।

মাগরিবের নামাজের পর বয়ান করবেন ভারতের মুফতি ইয়াকুব। বাংলা তরজমা করবেন মাওলানা মনির বিন ইউসুফ।

এছাড়া আগামীকাল রবিবার ফজরের পর বয়ান করবেন ভারতের মুফতি মাকসুদ। বাংলা তরজমা করবেন মাওলানা আব্দুল্লাহ। বয়ানের পরই হেদায়েতের কথা ও দোয়া পরিচালনা করবেন ভারতের মাওলানা ইউসুফ বিন সাদ। বয়ান বাংলায় তরজমা করবেন মাওলানা মনির বিন ইউসুফ।

বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বের মিডিয়া সমন্বয়কারী মোহাম্মদ সায়েম বলেন, আগামীকাল সকাল ১০টা থেকে সাড়ে ১০টার মধ্যে আখেরি মোনাজাত অনুষ্ঠিত হতে পারে।

২ ফেব্রুয়ারি শুরু হয়ে ৪ ফেব্রুয়ারি আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব শেষ হয়। মাঝে ৪ দিন বিরতি দিয়ে ৯ ফেব্রুয়ারি দিল্লির নিজামুদ্দিন মারকাযের অনুসারী (মাওলানা সাদপন্থি) মুসল্লিরা বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বে অংশ নিচ্ছেন। ১১ ফেব্রুয়ারি আখেরি মোনাজাতের মাধ্যমে এবারের বিশ্ব ইজতেমার পরিসমাপ্তি ঘটবে।


আরও খবর
ঝিনাইদহ জেলা কারাগারে কয়েদির মৃত্যু

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




পাপুয়া নিউগিনিতে জাতিগত সহিংসতায় নিহত ৬৪

প্রকাশিত:সোমবার ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

পাপুয়া ‍নিউগিনির পার্বত্য অঞ্চলে জাতিগত সহিংসতার ঘটনার কমপক্ষে ৬৪ জন নিহত হয়েছে। এতে এনগা প্রদেশের লোকজনের ওপর এলোপাতাড়ি গুলি চালানো হয়। বলা হচ্ছে, এই অতর্কিত হামলা গত কয়েক বছরের মধ্যে সবচেয়ে ভয়াবহ। খবর বিবিসির।

অবৈধ আগ্নেয়াস্ত্রের কারণে সংঘর্ষ আরও তীব্র আকার ধারণ করেছে। রাজধানী পোর্ট মোরেসবি থেকে প্রায় ৬০০ কিলোমিটার (৩৭৩ মাইল) উত্তর-পশ্চিমের ওয়াবাগ শহরের কাছে মরদেহ উদ্ধার করছে পুলিশ।

রয়্যাল পাপুয়া নিউ গিনি কনস্ট্যাবুলারির ভারপ্রাপ্ত সুপার জর্জ কাকাসের বরাত দিয়ে অস্ট্রেলিয়ান ব্রডকাস্টিং কর্পোরেশন (এবিসি) বলছে, এনগাতে এখন পর্যন্ত এটাই সবচেয়ে বড় হামলার ঘটনা। এর আগে এমন ঘটনা দেখা যায়নি। 

আরও পড়ুন>> ইসরায়েলি দখলদারিত্বের বিরুদ্ধে আজ ঐতিহাসিক শুনানি

তিনি বলেন, আমরা সবাই বিধ্বস্ত, আমরা সবাই মানসিকভাবে চাপে আছি। এটা বোঝানো সত্যিই কঠিন। পুলিশ ঘটনাস্থলের বেশ কিছু ভিডিও এবং ফুটেজ পেয়েছে। সেখানে একটি লাশ বোঝাই ট্রাক দেখা গেছে।

দেশটিতে প্রায়ই জমি এবং সম্পদ ভাগাভাগিকে কেন্দ্র করে জাতিগত দ্বন্দ্বের সূত্রপাত হয়। এর আগে গত বছরের জুলাই মাসে এনগা প্রদেশে তিন মাসের লকডাউন জারি করা হয়। সেই সময় পুলিশ কারফিউ এবং ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছিল।


আরও খবর



আজ থেকে বিমানবন্দর সড়কে বাড়বে যানজট

প্রকাশিত:সোমবার ২৯ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৯ জানুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

বাংলাদেশের প্রথম আন্ডারগ্রাউন্ড মেট্রোরেলের ম্যাস র‌্যাপিড ট্রানজিট লাইন-১ এর কাজ সোমবার (২৯ জানুয়ারি) থেকে শুরু হবে। এজন্য বিমানবন্দর সড়কে তীব্র যানজট হতে পারে। তাই হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের যাত্রীদের পর্যাপ্ত সময় হাতে নিয়ে বের হতে হবে।

এদিকে ফ্লাইটের নির্ধারিত সময়ের চার ঘণ্টা আগে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে উপস্থিত থাকার নির্দেশনা দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। সোমবার (২৯ জানুয়ারি) বিমানবন্দরের ওয়েবসাইটে দেখা যায়, বহির্গমন যাত্রীদের গেটে প্রবেশ, চেক-ইন কার্যক্রম বা লাগেজ বুকিং ও বোর্ডিং কার্ড সংগ্রহ, ইমিগ্রেশন, প্রি-বোর্ডিং সিকিউরিটি সম্পন্ন এবং বহির্গমন লাউঞ্জে অবস্থান নিয়ে নানা পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। সেখানে ফ্লাইটের নির্ধারিত সময়ের চার ঘণ্টা আগে যাত্রীকে বিমানবন্দরে উপস্থিত থাকতে বলা হয়েছে।

রোববার (২৮ জানুয়ারি) মেট্রোরেল পরিচালনাকারী প্রতিষ্ঠান ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেডের (ডিএমটিসিএল) প্রজেক্ট (লাইন-১) এর প্রকল্প পরিচালক মো. আবুল কাসেম ভূঁঞা সই করা বিশেষ ট্রাফিক নির্দেশনায় এই পথের যাত্রীদের যথেষ্ট সময় হাতে নিয়ে চলাচলের অনুরোধ জানিয়েছে।

বিশেষ ট্রাফিক নির্দেশনায় বলা হয়েছে, জনসাধারণের অবগতির জন্য জানানো যাচ্ছে যে, ঢাকা মহানগরী ও তৎসংলগ্ন পার্শ্ববর্তী এলাকার যানজট নিরসনে ও পরিবেশ সংরক্ষণে অত্যাধুনিক গণপরিবহন হিসেবে বাংলাদেশের সর্বপ্রথম আন্ডারগ্রাউন্ড মেট্রোরেল এমআরটি লাইন-৬ নির্মাণের লক্ষ্যে ঢাকা ম্যাস র‌্যাপিড ট্রানজিট ডেভেলপমেন্ট প্রজেক্ট (লাইন-১) এর প্রকল্পের কাজ চলমান। প্রকল্পের প্রস্তাবিত বিমানবন্দর, বিমানবন্দর টার্মিনাল-৩ এবং খিলক্ষেত স্টেশন এলাকায় আগামী ২৯ জানুয়ারি রাত ১০টা থেকে বিশেষ ব্যবস্থাপনায় পরিষেবা লাইন স্থানান্তরের কার্যক্রম গ্রহণ করা হবে।

এমতাবস্থায়, পরিষেবা লাইন স্থানান্তরের কার্যক্রম চলাকালীন এয়ারপোর্ট রুটে যানজট সৃষ্টির হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। ওই করিডরে চলাচলরত সকল জনসাধারণ ও পরিবহনকে যথেষ্ট সময় নিয়ে বের হওয়ার জন্য এবং প্রয়োজনে সম্ভাব্য বিকল্প পথ ব্যবহারের জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ করা হচ্ছে।


আরও খবর
ছুটির দিনেও ঢাকার বায়ু ‌‘অস্বাস্থ্যকর’

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




বিসিবির কেন্দ্রীয় চুক্তির তালিকা প্রকাশ, তামিমসহ বাদ পড়লেন যারা

প্রকাশিত:সোমবার ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
ক্রীড়া প্রতিবেদক

Image

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) পূর্ব নির্ধারিত কার্যনির্বাহী পর্ষদের সভা আজ অনুষ্ঠিত হয় মিরপুরে। দেশের ক্রিকেটের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ দিন ছিল আজ। এদিন তিন ফরম্যাটেরের নতুন অধিনায়ক, প্রধান নির্বাচক ও নতুন কেন্দ্রীয় চুক্তির বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়।

সভা শেষে অধিনায়ক, নির্বাচক ও ২১ সদস্যের নতুন কেন্দ্রীয় চুক্তির তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে বিসিবির পক্ষ থেকে। ক্রিকেটারদের কেন্দ্রীয় চুক্তির তালিকায় জায়গা পাওয়া ২১ জনের কেবল পাঁচজনই রয়েছেন তিন সংস্করণে। অনুমিতভাবেই চুক্তিতে নেই তামিম ইকবালের নাম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদকে রাখা হয়েছে কেবল ওয়ানডেতে। এছাড়া চোটে থাকায় চুক্তিতে নেই ইবাদত হোসেন।

সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় কেন্দ্রীয় চুক্তিতে থাকা ক্রিকেটারদের নাম ঘোষণা করা হয়। সেখানে অবশ্য খুব বেশি চমক নেই। সিনিয়র ক্রিকেটারদের মধ্যে কেবল সাকিবই আছেন তিন সংস্করণের চুক্তিতে।

তিন সংস্করণের চুক্তিতে আছেন পাঁচ ক্রিকেটার। তারা হলেন : সাকিব আল হাসান, লিটন দাস, মেহেদী হাসান মিরাজ, নাজমুল হোসেন শান্ত ও শরিফুল ইসলাম।

ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টির চুক্তিতে আছেন : তাওহিদ হৃদয়, তাসকিন আহমেদ, মুস্তাফিজুর রহমান ও হাসান মাহমুদ।

শুধু টেস্টের চুক্তিতে আছেন : মুমিনুল হক সৌরভ, তাইজুল ইসলাম, মাহমুদুল হাসান জয়, জাকির হাসান, নাঈম হাসান ও সৈয়দ খালেদ আহমেদ।

শুধু ওয়ানডের চুক্তিতে আছেন : মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ও তানজিম হাসান সাকিব। 

শুধু টি-টোয়েন্টির চুক্তিতে আছেন : নুরুল হাসান সোহান, নাসুম আহমেদ ও শেখ মেহেদী হাসান।


আরও খবর



আওয়ামী লীগেই থাকতে চায় স্বতন্ত্ররা: ওবায়দুল কাদের

প্রকাশিত:সোমবার ২৯ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৯ জানুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

দ্বাদশ সংসদে স্বতন্ত্র সংসদ সদস্যদের নিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, স্বতন্ত্ররা আওয়ামী লীগেই থাকতে চায়।

তিনি বলেন, তারা (স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য) সরকারের গঠনমূলক সমালোচনা করতে পারবেন। এই একটা বিষয় আমাদের সংসদ নেতা, দলের সভাপতি পরিষ্কারভাবে বলেছেন।

রোববার রাতে গণভবনে স্বতন্ত্র সংসদ সদস্যদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর বৈঠক শেষে ওবায়দুল কাদের এসব কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, দ্বাদশ জাতীয় সংস নির্বাচন উপলক্ষে আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীক ও স্বতন্ত্র প্রার্থীদের বিভিন্ন মার্কার কিছু সংঘাত, সহিংসতা, অন্তকলহ এসব বিষয় রয়েছে। কোথাও কোথাও বিচ্ছিন্নভাবে অবাঞ্চিত ঘটনা ঘটছে। এটা আর হতে দেয়া যাবে না, নেত্রী আমাদেরকে বলেছেন। তারা (স্বতন্ত্র) দাবি করেছে আওয়ামী লীগেই থাকতে চায়। ভিন্ন কোনো নামে পরিচয় দিতে গেলে আমাদের বিবেক-আবেগ আহত হয়। নিজেরা নিজেদের মধ্যে অন্তকলহ বিবেদ মিটিয়ে ফেলতে হবে। নির্বাচন ইশতেহার বাস্তবায়নে সবাই ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে।

তিনি বলেন, নারী সংরক্ষিত আসনের ব্যাপারে সংসদ নেতা শেখ হাসিনা যাদেরকে মনোনীত করবেন তাদের প্রতি স্বতন্ত্রদের সমর্থন থাকবে, তারা এটা ব্যক্ত করেছেন।

স্বতন্ত্র এমপিরা কোন হুইপের আওতায় থাকবে জানতে চাইলে ওবায়দুল কাদের বলেন, চিফ হুইপ সংসদ নেতার সঙ্গে আলাপ করে সিদ্ধান্ত নেবেন।


আরও খবর