আজঃ সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

বায়ুদূষণের শীর্ষে আজ ঢাকা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৫ ডিসেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৫ ডিসেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

বায়ুদূষণের শীর্ষে আজ রাজধানী ঢাকা। মঙ্গলবার (৫ ডিসেম্বর) সকাল ৮টা ৫৩ মিনিটে বায়ুর মান পর্যবেক্ষণকারী সংস্থা এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্সের (আইকিউএয়ার) সূচক থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

বায়ুদূষণের তালিকায় শীর্ষে থাকা ঢাকার স্কোর হচ্ছে ১৮৬ অর্থাৎ এখানকার বায়ু অস্বাস্থ্যকর পর্যায়ে রয়েছে। এরপর দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে ভারতের দিল্লি এবং শহরটির স্কোর ১৮১। এর অর্থ সেখানকার বায়ুর মানও অস্বাস্থ্যকর পর্যায়ে রয়েছে।

তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে চীনের শেনইয়াং। শহরটির স্কোর ১৭৭ অর্থাৎ অর্থাৎ সেখানকার বায়ুর মানও অস্বাস্থ্যকর।

স্কোর শূন্য থেকে ৫০ এর মধ্যে থাকলে বায়ুর মান ভালো বলে বিবেচিত হয়। ৫১ থেকে ১০০ হলে মাঝারি বা সহনীয় ধরা হয় বায়ুর মান। সংবেদনশীল গোষ্ঠীর জন্য অস্বাস্থ্যকর হিসেবে বিবেচিত হয় ১০১ থেকে ১৫০ স্কোর। ১৫১ থেকে ২০০ পর্যন্ত অস্বাস্থ্যকর হিসেবে বিবেচিত হয়। স্কোর ২০১ থেকে ৩০০ হলে খুবই অস্বাস্থ্যকর বলে বিবেচনা করা হয়। এছাড়া ৩০১-এর বেশি হলে তা দুর্যোগপূর্ণ বলে বিবেচিত হয়।

এদিকে দক্ষিণ এশিয়ায় বায়ুদূষণ দিনদিন আরও ভয়ংকর হয়ে উঠছে। এতে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে কোটি কোটি মানুষের জীবন। গবেষণা বলছে, বৈশ্বিক বায়ুদূষণের হটস্পট হয়ে উঠেছে দক্ষিণ এশিয়া। বর্তমানে বিশ্বের সবচেয়ে দূষিত চারটি দেশ এবং দূষণের শীর্ষে থাকা ১০ শহরের মধ্যে নয়টির অবস্থানই এ অঞ্চলে।


আরও খবর
খারাপ হয়েছে ঢাকার বায়ু

শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪




মাদ্রাসা ভাঙাকে কেন্দ্র করে সহিংসতা, নিহত ৪

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

মাদ্রাসা ভাঙাকে কেন্দ্র করে উত্তরাখণ্ডের হলদোয়ানিতে সহিংসতা ও গুলিতে চারজন নিহত হয়েছে এবং আহত হয়েছে ২৫০ জন। এ ঘটনার জেরে হলদোয়ানিতে কার্ফিউ জারি করা হয়েছে এবং সহিংসতা হলেই গুলির নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া বন্ধ রাখা হয়েছে সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। শহরে এখনো যথেষ্ট উত্তেজনা আছে এবং ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

পুলিশ জানিয়েছে, একটি বেআইনি মাদ্রাসা ভাঙা হচ্ছিল। মাদ্রাসা-সংলগ্ন একটি মসজিদও আছে। প্রশাসন জানিয়েছে, ওই মাদ্রাসা ও মসজিদ বেআইনি। বানভুলপুরা থানার কাছে ওই মাদ্রাসা আদালতের নির্দেশে ভাঙা হচ্ছিল বলে পুলিশ ও প্রশাসনের দাবি।

পুলিশের সঙ্গে সরকারি কর্মকর্তারা যখন মাদ্রাসা ভাঙতে যান, তখনই সহিংসতা শুরু হয়। পুলিশকে লক্ষ্য করে পাথর ছোড়া হয়। পরিস্থিতি রীতিমতো উত্তেজক হয়ে ওঠে। সংঘর্ষে প্রায় একশ পুলিশ কর্মী আহত হন। কয়েকজন সরকারি কর্মকর্তারও আঘাত লাগে। পুরসভার কর্মী ও সাংবাদিকরাও সহিংসতার মধ্যে পড়ে যান।

পুলিশ প্রথমে কাঁদানে গ্যাস ছোড়েন কিন্তু পরে থানার সামনে রাখা কয়েকটি গাড়ি, ২০টি মোটরসাইকেল ও একটি পুলিশের বাসে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়, এরপর গোলাগুলি শুরু হয়। মুখ্যমন্ত্রী পুস্কর সিং ধামি বলেছেন, আদালতের নির্দেশের পর বেআইনি কাঠামো ভাঙার জন্য টিম পাঠানো হয়। কিন্তু ওই এলাকায় কিছু অসামাজিক মানুষ পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে আরও পুলিশ ও কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। পৌরসভা  কমিশনার পঙ্কজ উপাধ্যায় দাবি করছেন, পৌরসভা ওই বেআইনি কাঠামো সিল করে দিয়েছিল। তার আশপাশের তিন একর জমিও সিজ করা হয়েছে।

নৈনিতালের জেলাশাসক বন্দনা সিং জানিয়েছেন, হাইকোর্টের নির্দেশেই জবরদখল হওয়া জমি উদ্ধার করতে অভিযান চলছে। অনেকে হাইকোর্টে আবেদন জানিয়েছিলেন। কয়েকজনকে হাইকোর্ট বাড়তি সময় দিয়েছে, কয়েকজনকে দেয়নি। যেখানে বাড়তি সময় দেয়া হয়নি, সেখানে পুরসভা ও পিডাব্লিউডি বেআইনি নির্মাণ ভাঙছে। উত্তরাখণ্ডই হলো ভারতের প্রথম রাজ্য যেখানে অভিন্ন দেওয়ানি বিধি চালু করা হচ্ছে।


আরও খবর



গাজায় ২৪ ঘণ্টায় আরও ১১৭ ফিলিস্তিনি নিহত

প্রকাশিত:রবিবার ১১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

ফিলিস্তিনের অবরুদ্ধ গাজায় ইসরাইলের হামলায় গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১১৭ জন ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। এ নিয়ে চারমাসেরও বেশি সময় ধরে চলা এই সংঘাতে গাজায় নিহতের সংখ্যা ২৮ হাজার ছাড়ালো। খবর রয়টার্সের।

শনিবার (১০ ফেব্রুয়ারি) হামাস নিয়ন্ত্রিত গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, গেল বছরের  ৭ অক্টোবর থেকে এখন পর্যন্ত ইসরাইলের হামলায় গাজায় ২৮ হাজার ৬৪ জন ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। আর আহত হয়েছেন ৬৭ হাজার ৬১১ জন।

চারমাসেরও বেশি সময় ধরে হামাসের হামলার পাল্টা জবাবে গাজায় হামলা চালাচ্ছে দখলদার ইসরাইলি সেনারা। এ সময়ে ৭০ শতাংশেরও বেশি বাড়িঘর ধ্বংস করেছে তারা। আর তাদের হামলার ভয়ে উপত্যকাটির ২৩ লাখ বাসিন্দার মধ্যে ৮৫ শতাংশ বাসিন্দাই বাস্তুচ্যুত হয়েছেন।

বর্তমানে ১০ লাখের বেশি ফিলিস্তিনি সীমান্তবর্তী শহর রাফাহতে আশ্রয় নিয়েছেন। কিন্তু সেখানেও রেহাই নেই তাদের। গাজা ধ্বংস করার পর এখন রাফাহতেও হামলা জোরদার করেছে ইসরাইল। রাফাহতে রমজান মাস শুরুর আগে অভিযান শেষ করার তাগিদ দিয়েছেন ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু। বৃহস্পতিবার (৮ ফেব্রুয়ারি) যুদ্ধকালীন মন্ত্রীসভার বৈঠকে নেতানিয়াহু এমন কথা বলেন।

শুক্রবার (৯ ফেব্রুয়ারি) ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রীর দফতর একটি বিবৃতি প্রকাশ করে। এতে বলা হয়, রাফাহ থেকে সব বেসামরিক ফিলিস্তিনিকে সরিয়ে নিতে সেনাবাহিনীকে পরিকল্পনা প্রণয়নের নির্দেশ দিয়েছেন নেতানিয়াহু। নেতানিয়াহু হুমকি দিয়েছেন, রাফাহতে শিগগিরই প্রবেশ করবে সেনারা। তাদের দাবি, সশস্ত্র গোষ্ঠী হামাসের সর্বশেষ ব্যাটালিয়নটি এখন রাফাহতে অবস্থান করছে।


আরও খবর



ঝিনাইদহ-১ আসনের সংসদ সদস্য পদ হাইকোর্টে স্থগিত

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আদালত প্রতিবেদক

Image

ঝিনাইদহ-১ আসনের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মো. আব্দুল হাইকে বিজয়ী ঘোষণা করে ইসির গেজেট স্থগিত করেছেন হাইকোর্ট। দুই মাসের জন্য এই স্থগিতাদেশ দেওয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১ ফেব্রুয়ারি) বিচারপতি এ কে এম আসাদুজ্জামানের একক হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট মজিবুর রহমান।

এর আগে ভোটগ্রহণ ও ভোট গণনায় অনিয়ম ও কারচুপির অভিযোগে ঝিনাইদহ-১ আসনের এমপি পদের গেজেট স্থগিত চেয়ে ইলেকশন পিটিশন দায়ের করেন ওই আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী নজরুল ইসলাম দুলাল।

গত ৭ জানুয়ারি দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনের বেসরকারি ফলে ঝিনাইদহ-১ (শৈলকূপা) নৌকার প্রার্থী আব্দুল হাইকে বিজয়ী ঘোষণা করেন রিটার্নিং কর্মকর্তা।

ফল অনুযায়ী এই আসনে আব্দুল হাই পেয়েছেন ৯৪ হাজার ৩৭৯ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী নজরুল ইসলাম দুলাল (ট্রাক প্রতীক) পেয়েছেন ৮০ হাজার ৫৪৭ ভোট।

আসনের মোট ভোটার সংখ্যা ৩ লাখ ৬ হাজার ৩৩৬ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১ লাখ ৫৩ হাজার ৫৭৭ জন, নারী ভোটার ১ লাখ ৫২ হাজার ৭৫৯ জন। এখানে কেন্দ্রের সংখ্যা মোট ১১৭টি।


আরও খবর



জাতীয় নারী ক্রিকেট দলের সাবেক খেলোয়াড় অপহরণ মামলায় জেলহাজতে

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
জেলা প্রতিনিধি

Image

জাতীয় নারী ক্রিকেট দলের সাবেক খেলোয়াড় লিজাকে বরিশালে এক নারী অপহরণের অভিযোগে জেলহাজতে প্রেরণ করেছেন আদালত। তার বিরুদ্ধে সমকামিতারও অভিযোগ করেছে ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্যরা।

মঙ্গলবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে বরিশাল সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বেগম সুমাইয়া রিজভী মৌরী তার জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে জেলহাজতে প্রেরণের নির্দেশ দেন। একইসাথে ভিকটিমকে সেভ হোমে পাঠানোর নির্দেশ দেন। আদালতের বেঞ্চ সহকারী মো. ফেরদৌস বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি আরও জানান, লিজা বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের অধীনে উইমেন টাইগার্স এর সাবেক সদস্য এবং বর্তমানে একজন জিম ট্রেইনার।

মামালার বিবরণ ও বাদী সূত্রে জানা গেছে, মুলাদীর বাহাদুরপর গ্রামের একটি মেয়ের সাথে গতবছর ফেসবুকে লিজার পরিচয় হয়।

এরপর তারা একে অপরের প্রতি আকৃষ্ট হয়ে পড়ে। এর ফলে পারিবারিক কলহ দেখা দিলে বাহাদুরপর গ্রামের মেয়েটির স্বামীর সাথে তালাক হয়ে যায়। পরে একাধিকবার লিজার সাথে বাড়ি থেকে বের হয়ে ঢাকায় বসবাস করে।

গত ২৫ জানুয়ারি আবারো সে লিজার সাথে চলে যায়। এই ঘটনায় লিজার মা বাদী হয়ে আদালতে মামলা দায়ের করেন। স্বজনরা এই ঘটনার সুষ্ঠু বিচার দাবি করেন। মামলার প্রেক্ষিতে ঢাকা থেকে লিজাকে আটক এবং অন্য মেয়েকে উদ্ধার করে পুলিশ।


আরও খবর



সকালে খালি পেটে ঘি খেলে কী হয়?

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
জীবন ধারা ডেস্ক

Image

রান্নায় স্বাদ বাড়াতে ঘিয়ের জুড়ি নেই। অনেকে গরম ভাতে এক চামচ ঘি খেতে পছন্দ করেন।  কিন্তু কখনও খালি পেটে ঘি খাওয়ার কথা ভেবেছেন?অনেকের হয়তো জানা নেই, সকালে খালি পেটে এক চামচ ঘি খেলে মিলবে নানা উপকারিতা। প্রতিদিন এক চামচ ঘি খেলে হৃৎপিণ্ড থেকে ত্বক সব সুস্থ ও সুন্দর থাকে। বিশেষজ্ঞদের মতে, ঘিয়ের উপকারিতা পেতে গেলে এটি সকালে খালি পেটেই খাওয়া উচিত।

পুষ্টিবিদরা বলছেন, ঘিয়ের মধ্যে স্যাচুরেটেড ফ্যাট নেই। তাই এটি সকালে খেলে সারাদিন শক্তিতে ভরপুর থাকা যায়। তাছাড়া ঘি সহজপাচ্য এবং দ্রুত বিপাক হয়। তাই খালি পেটে ঘি খেলে হজমের গোলমাল হওয়ার কোনও সম্ভাবনা নেই।

ঘিয়ের মধ্যে এ, ই এবং ডি-এর মতো ভিটামিন রয়েছে। এসব পুষ্টি সামগ্রিকভাবে স্বাস্থ্য উন্নত করতে এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে তুলতে সাহায্য করে। এতে যেমন রোগের ঝুঁকি কমে, তেমনই হাড় শক্তিশালী হয় এবং ত্বকের স্বাস্থ্য ভালো থাকে।

সকালবেলা খালি পেটে ঘি খেলে, এতে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডনেট দেহের অক্সিডেটিভ চাপ কমায় এবং ফ্রি র‍্যাডিকেলের সঙ্গে লড়াই করে শরীরকে সুস্থ রাখে। শুধু তাই নয়, এভাবে ঘি খেলে শারীরিক প্রদাহ এবং দীর্ঘস্থায়ী রোগের ঝুঁকি কমে।

ঘিয়ের গ্লাইসেমিক সূচক কম। তাই সকালে খালি পেটে ঘি খেলে রক্তে শর্করার মাত্রা বেড়ে যাওয়ার কোনও সম্ভাবনা নেই। বরং, সারাদিন এনার্জিতে ভরপুর থাকতে পারবেন। পাশাপাশি এটি অন্ত্রের স্বাস্থ্যকে ভাল রাখে। এতে হজমজনিত সমস্যা দূর হয়।

ঘিয়ের মধ্যে ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিড রয়েছে, যা হৃদরোগের ঝুঁকি কমায়। তাছাড়া এক চামচ করে ঘি খেলে কোলেস্টেরলের মাত্রাও বাড়ে না। কিন্তু এতে ক্যালোরির পরিমাণ বেশি। তাই ১ চামচের বেশি না খাওয়াই ভাল।

সকালবেলা খালি পেটে ঘি খেলে এর পুষ্টিগুণ সবচেয়ে ভাল মাত্রায় পাওয়া যায়। আপনি টোস্টে মাখন বা জ্যামের বদলে ঘি ব্যবহার করতে পারেন। এমনকি ওটমিলেও ঘি মিশিয়ে খেতে পারেন। 

নিউজ ট্যাগ: খালি পেটে ঘি

আরও খবর
নারীর জন্য প্রয়োজনীয় পাঁচ ভিটামিন

রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

২৩ ফেব্রুয়ারি : ইতিহাসে আজকের এই দিনে

শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪