আজঃ সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

বাংলাদেশের বিপক্ষে শেষ রক্ষা হলো দক্ষিণ আফ্রিকার

প্রকাশিত:শনিবার ০৯ ডিসেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:শনিবার ০৯ ডিসেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
ক্রীড়া প্রতিবেদক

Image

সিরিজের তৃতীয় ও শেষ টি-টোয়েন্টি ম্যাচে জয় পেয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা। তাতে বাংলাদেশের বিপক্ষে শেষ রক্ষা হলো দলটির। এ দিকে সিরিজ জয়ের সুযোগ হাতছাড়া হলো নিগার সুলতানা জ্যোতিদের। আপাতত ১-১ ড্রয়ে টি-টোয়েন্টি সিরিজ শেষ হলো দল দুটির।

শুক্রবার (৮ ডিসেম্বর) রাত ১০টায় তৃতীয় ও শেষ টি-টোয়েন্টি ম্যাচে মুখোমুখি হয় বাংলাদেশ ও দক্ষিণ আফ্রিকা। ম্যাচটিতে টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে মাত্র ৯৪ রান করে বাংলাদেশ। জবাবে ১৫.২ ওভারে ২ উইকেট হারিয়ে জয় তুলে নেয় দক্ষিণ আফ্রিকা।

এর আগে প্রথম ম্যাচটি জিতেছিল বাংলাদেশ। দ্বিতীয় ম্যাচটি ভেসেছে বৃষ্টিতে। ফলে শেষ ম্যাচে জয় পেলে সিরিজ জয় হতো টাইগ্রেসদের। কিন্তু সেই লক্ষ্য পূরণ হলো না দলটির। তাই ড্র নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হচ্ছে সফরকারীদের।

এ দিন ব্যাটিংয়ে নেমে ভালো শুরু পায়নি বাংলাদেশ। দলীয় ৪ রানে বিদায় নেন ওপেনার মুর্শিদা খাতুন (৭ বলে ২ রান)। পরের বলেই সাজঘরে ফেরেন সোবহানা মোস্তারি। তিনি রানের খাতা খুলতেই পারেননি। ১৭ রানে আউট হন আরেক ওপেনার শামীমা সুলতানা।

৩ উইকেট হারানোর পরে ইনিংস মেরামতের দায়িত্ব নেন লতা মণ্ডল ও অধিনায়ক নিগার সুলতানা জ্যোতি। দুজনে টিকে থাকার চেষ্টা করলেও রানে অনেক ধীরগতি দেখা যায়। ব্যক্তিগত ১১ রান করে আউট হন জ্যোতি। তার আগে লতার সঙ্গে ৫৫ বলে মাত্র ২৯ রানের জুটি গড়েন।

এরপরে লতা ও স্বর্ণা আক্তার মিলে রানের গতি বাড়ানোর চেষ্টা করেন। তাদের জুটি থেকে আসে ৩১ বলে ৪৬ রান। ৬২ বলে ৪২ রান করে আউট হন লতা। আর শেষ বলে রান আউটের শিকার হন ১৬ বলে ২৩ রান করা স্বর্ণা। শেষ পর্যন্ত বাংলাদেশের সংগ্রহ দাঁড়ায় ৯৪ রানে। দক্ষিণ আফ্রিকার পক্ষে সর্বোচ্চ ২টি করে উইকেট নেন মাসাবতা ক্লাস ও আয়ন্দা হুলুবি।

৯৫ রানের জবাবে ব্যাটিংয়ে নেমে উড়ন্ত সূচনা পায় দক্ষিণ আফ্রিকা। দলীয় ৩৫ রানে ওপেনার তাজমিন ব্রিটস (১৩ বলে ১৭ রান) বিদায় নিলেও আরেক ওপেনার ও অধিনায়ক লরা ওলভার্ড (৪৯ বলে ৪৯ রান) ছিলেন শেষ পর্যন্ত অপরাজিত। এ দিকে ৫২ রানে বাংলাদেশ আরও একটি উইকেটের দেখা পেলেও শেষ পর্যন্ত স্বাগতিকদের আর আটকাতে পারেনি। ২৮ বল হাতে রেখে ৮ উইকেটের জয় তুলে নেয় দক্ষিণ আফ্রিকা।


আরও খবর
হাথুরুসিংহেকে ‘শোকজ’ করবেন পাপন!

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




দেশীয় শিল্পের উন্নয়নে বিকাশ ঘটাতে হবে : এনবিআর চেয়ারম্যান

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
চট্টগ্রাম প্রতিনিধি

Image

চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন চেম্বার অব কমার্স এ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (সিএমসিসিআই) আয়োজিত প্রাক-বাজেট আলোচনা সভা ২০২৪-২০২৫ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) বিকালে হোটেল আগ্রাবাদের ইছামতি হলে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যান আবু হেনা মো: রহমাতুল মুনিম। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের সদস্য গ্রেড-১ (কাস্টমস নীতি ও আইসিটি) মো: মাসুদ সাদিক, সদস্য (করনীতি) এ.কে.এম বদিউল আলম।

সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন সিএমসিসিআই’র সহ-সভাপতি এ.এম. মাহবুব চৌধুরী, কাস্টমস ও ভ্যাট এবং আয়কর বিভাগের কমিশনারবৃন্দ, সিএমসিসিআই পরিচালক ও সদস্যবৃন্দ এবং ইলেক্ট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ।

জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যান আবু হেনা মো. রহমাতুল মুনিম বলেছেন, কর হার কমানো, কর প্রদান সহজীকরণ ও ফাঁকির প্রবণতা বন্ধ করা আমাদের লক্ষ্য। আমরা সে পথে ধাপে ধাপে এগোচ্ছি। অনুশীলন করছি। আপনারা আস্থা রাখতে পারেন, চেষ্টা অব্যাহত থাকবে। আমরা ব্যবসা বাণিজ্যের সমস্যা চিহ্নিত করার চেষ্টা করেছি। যুক্তিসঙ্গত প্রস্তাবনা অবশ্যই বিবেচনা করা হবে। দেশীয় শিল্পের উন্নয়নে বিকাশ ঘটাতে হবে।

সিএমসিসিআই’র পক্ষে সূচনা বক্তব্য পাঠ করেন সিএমসিসিআই সভাপতি খলিলুর রহমান। লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, সংসদ নির্বাচনে বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পুনরায় ক্ষমতাসীন হওয়ার পরই আমরা ব্যবসায়ী শ্রেণী নতুন করে স্বপ্ন দেখতে শুরু করি। তার ঘোষিত ২০৪১ সালের মধ্যে স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে আমাদের সকলকে নিজ ক্ষেত্র থেকে এখন থেকেই কাজ শুরু করতে হবে। বিশ্ব অর্থনীতির টাল-মাটাল অবস্থার মধ্যেও দেশের অর্থনীতি এখনও সমুন্নত রয়েছে। বিভিন্ন প্রকল্পের সঠিক বাস্তবায়ন হলে দেশের অর্থনীতি আরও সমৃদ্ধি লাভ করবে, যা দেশের সীমানা ছাড়িয়ে বিদেশেও দেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করবে। পদ্মা সেতু, ঢাকা মেট্রোরেল, চট্টগ্রামস্থ কর্ণফুলী টানেল ইত্যাদি ব্যবহারের মাধ্যমে। যা দেশের রাজস্ব আয় বৃদ্ধির পাশাপাশি জনগনের জীবনযাত্রার মানোন্নয়নেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে।

তিনি আরও বলেন, আমরা ব্যবসায়ীরা শুধুমাত্র নিজের ব্যবসায়িক দিক চিন্তা না করে সামাজিক দায়বদ্ধতার লক্ষ্যে দেশের সাধারণ জনগনের জীবন জীবিকার মান যাতে আরও সহজলভ্য হয় সেদিকেও নজর দিতে হবে। দেশে পর্যাপ্ত মজুদ থাকার পরও কিছু ব্যবসায়ীর অধিক মুনাফা লাভের আশায় নিত্য প্রয়োজনীয় কিছু পণ্যের দাম বেড়ে চলছে, সে ব্যাপারে সরকারের সংশ্লিষ্ট বিভাগকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণে আপনার মাধ্যমে অনুরোধ জানাচ্ছি।

২০২৪-২৫ ইং সালের প্রস্তাবিত বাজেটে আয়কর আইন, ভ্যাট এবং কাস্টমস আইনের বিধানকে আরও সহজ, গতিশীল ও করদাতা বান্ধব করার জন্য খাতওয়ারী সুপারিশ করা হলো- বর্তমান আয়কর আইনে, তৈরী পোষাক শিল্পের মোট রপ্তানী প্রাপ্তির কর হার ১% হতে কমিয়ে .২৫% করা হলে দেশের  গুরুত্বপূর্ণ শিল্পখাতকে ধ্বংসের হাত থেকে বাঁচাতে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে। ইনল্যান্ড কনটেইনার ডিপো (আইসিডি) দেশের অপার সম্ভাবনাময় আই.সি.ডি সেবা খাতের জন্য উৎসে অগ্রিম কর ৮% হতে কমিয়ে ৫% করার প্রস্তাব করছি।

বর্তমানে বিদ্যমান কোম্পানীর নূন্যতম কর হার (লাভ-ক্ষতি নির্বিশেষে .৬০% টাকা) যাহা মৌলিক আয়কর আইন ও ন্যায় বিচারের পরিপন্থী। নূন্যতম কর হারের বিধান বাতিল করা দরকার। প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানীর বিদ্যমান কর হার ২৭.৫০% কর হতে কমিয়ে ২৫% করার বিধান করা। রপ্তানীমূখী শিল্প প্রতিষ্ঠানগুলোকে ভ্যাট নিরীক্ষার নামে অহেতুক হয়রানী বন্ধের কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করা। দেশের ইস্পাত শিল্পে বিদ্যমান উৎসে অগ্রিম ভ্যাট হার ৩% হতে কমিয়ে ১% হারে উন্নীত করা। ভ্যাট প্রত্যার্পন সহজ ও করদাতা বান্ধব করা। ভ্যাট আপীলাত ট্রাইবুনালে মামলা দায়েরের ক্ষেত্রে ২০% হারে কর পরিশোধের বিদ্যমান বিধান কমিয়ে ৫% এ নির্ধারন করা। বিভিন্ন এস.আর.ও এর বিপরীতে কাস্টমস্ কর্তৃপক্ষের চাহিদা মোতাবেক ভ্যাটের বিভাগীয় কর্মকর্তা হতে প্রত্যয়নপত্র ইস্যু করার নামে হয়রানিমূলক কার্যক্রম কমিয়ে আনা। হোম কনজাম্পশন বন্ডেড প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে বন্ডের আমদানি প্রাপ্যতা থাকা সত্ত্বেও বন্ডেড সুবিধা ব্যতিরেকে কাস্টমস্ কমিশনারের অধীনে ক্যাশ ডিউটি দিয়ে পণ্য আমদানি করার প্রক্রিয়া বন্ধ করা। এ্যালুমিনিয়াম এ্যালয় যার চুক্তির আওতাধীন এইস.এস.কোড. ৭৬০১.২০.৯০ করলে আমদানি সহজীকরণ হবে।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্ষমতা গ্রহণের পরেই দেশ জুড়ে শুরু হয়েছে উন্নয়নের মহোৎসব। অর্থনীতি, ব্যবসা-বাণিজ্য, যোগাযোগ ব্যবস্থা, শিক্ষা-স্বাস্থ্য, মানব সম্পদ উন্নয়ন, প্রযুক্তি, খেলাধুলা, পর্যটন, সমুদ্র অর্থনীতি, বিদ্যুৎ-জ্বালানি ইত্যাদি সর্ব ক্ষেত্রেই সাফল্যের সঙ্গে উন্নয়ন করে চলেছেন। পদ্মা সেতু, মেট্রোরেল, কর্ণফুলী নদীর তলদেশে নির্মিত বঙ্গবন্ধু টানেল নির্মাণ হয়েছে। অনেক উন্নয়নমূখী পরিকল্পনা বাস্তবায়নের অপেক্ষায় রয়েছে তা কার্যকর হলে দেশের অর্থনীতি আরও সমৃদ্ধি করবে বলে আমি বিশ্বাস করি। এ ধরনের উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখা সহ বিদেশেও দেশের ভাবমূর্তি আরও উচ্চতর শিখরে নিয়ে যাবে।


আরও খবর
ঝিনাইদহ জেলা কারাগারে কয়েদির মৃত্যু

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




ভাষা রক্ষার মাধ্যমেই একটি জাতি উন্নত জীবন পেতে পারে : প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ভাষা ও সংস্কৃতি রক্ষার মাধ্যমেই একটি জাতি উন্নত জীবন পেতে পারে। বুধবার (২১ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে তিনি এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আজ একুশে ফেব্রুয়ারি, মহান শহীদ দিবস এবং আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। আমাদের মাতৃভাষা রক্ষায় যারা আত্মোৎসর্গ করেছে সেই শহীদদের প্রতি আমি আমার শ্রদ্ধা জানাচ্ছি। বাঙালি জাতি রক্ত দিয়ে ভাষার মর্যাদা দিয়ে গেছে। আর সেই দিবসটি হচ্ছে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। অর্থাৎ, মাতৃভাষা সংরক্ষণের প্রচেষ্টা। 

আরও পড়ুন>> বহুভাষার সংস্কৃতির মেলবন্ধন শান্তির পৃথিবী গড়বে : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

তিনি বলেন, আমাদের মাতৃভাষায় কথা বলার অধিকারটুকু কেড়ে নেওয়ার চেষ্টা করা হয়েছিল। এ ছাড়া একটা বিজাতীয় ভাষা আমাদের উপর চাপিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করা হয়।

তিনি আরও বলেন, মাতৃভাষার আন্দোলন শুরু হয়েছিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের তখনকার আইন বিভাগের ছাত্র বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান উদ্যোগ নেন, তিনি ছাত্র সংগঠন গড়ে তোলেন। বাংলাদেশ ছাত্রলীগ প্রতিষ্ঠা করেন। আরও কয়েকটি প্রগতিশীল সংগঠনকে নিয়ে ভাষা সংগ্রাম পরিষদ গঠন করেন।

শেখ হাসিনা বলেন, জাতির পিতার উদ্যোগের ফলে এবং তার নেতৃত্বে ভাষা আন্দোলনের পথ দিয়েই আমরা আমাদের স্বাধিকার পেয়েছি, স্বাধীনতা পেয়েছি। স্বাধীন জাতি হিসেবে আত্মমর্যাদা পেয়েছি। দক্ষিণ এশিয়ার একমাত্র বাংলাদেশ হচ্ছে একটি ভাষার রাষ্ট্র। আমাদের মহান নেতা জাতির পিতার নেতৃত্বে আমরা এই মর্যাদা অর্জন করেছি।


আরও খবর



তালাবদ্ধ ফ্ল্যাটে পড়ে ছিল মা-বাবা ও মেয়ের গলাকাটা লাশ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ৩০ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ৩০ জানুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
তাড়াশ প্রতিনিধি

Image

সিরাজগঞ্জের তাড়াশে একটি আবাসিক ভবনের ফ্ল্যাট বাসা থেকে স্কুলপড়ুয়া মেয়েসহ স্বামী-স্ত্রীর গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। সোমবার রাত ২টার দিকে তালাবদ্ধ ওই ফ্ল্যাটে গিয়ে তালা ভেঙে ঢুকে বাসার মালিক বিকাশ সরকার, স্ত্রী স্বর্ণা সরকার ও তদের মেয়ে তুষি সরকারের গলাকাটা মরদেহ শনাক্ত করে পুলিশ।

তাড়াশ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. নুরে আলম এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন। পুলিশ পরিদর্শক নুরে আলম মঙ্গলবার সকাল ৮টার দিকে জানান, তিনিসহ পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে রয়েছেন। 

আরও পড়ুন>> বিদ্রোহীদের গুলিতে জান্তার হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত, নিহত ৫

পুলিশ জানায়, রোববার বিকাল থেকে তাড়াশ পৌর সদরের বারোয়ারী বটতলা এলাকার বিকাশ সরকারকে তাঁর আত্মীয়স্বজন ফোনে পাচ্ছিল না। পরে সোমবার রাত পর্যন্ত ফোন রিসিভ না হওয়ায় আত্মীয়স্বজন পৌর সদরের বারোয়ারী বটতলায় তিনতলা ভবনে তাঁর ফ্ল্যাটে যান। সেখানে ফ্ল্যাটটি তালাবদ্ধ অবস্থায় দেখতে পেয়ে স্বজনরা স্থানীয় সাংবাদিকদের সহায়তায় পুলিশকে খবর দেয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে তালা ভেঙে ঘরে ঢুকে দেখতে পায়, একটি কক্ষে বাসার মালিক বিকাশ সরকার (৪৫) আরেকটি কক্ষে স্ত্রী স্বর্ণা সরকার (৩৮) ও তাড়াশ সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী তুষি সরকারের (১৫) গলাকাটা মরদেহ পড়ে আছে।

পুলিশ পরিদর্শক মো. নুরে আলম বলেন, এটি একটি পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড। তবে এখন পর্যন্ত হত্যাকাণ্ডের কারণ জানা যায়নি। পুলিশের একাধিক টিম ঘটনা অনুসন্ধানে কাজ করছে।


আরও খবর
ঝিনাইদহ জেলা কারাগারে কয়েদির মৃত্যু

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




বিপিএলে সর্বোচ্চ রানের স্কোর রংপুরের

প্রকাশিত:শনিবার ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
ক্রীড়া প্রতিবেদক

Image

রংপুর রাইডার্স ছেড়ে চলে গেছেন বাবর আজম, আজমতুল্লাহ ওমরজাই। তাদের পরিবর্তে নতুন তিন বিদেশি ক্রিকেটারকে নিয়ে মাঠে নেমেছে রংপুর। জিমি নিশাম, রেজা হেনড্রিকস, ইমরান তাহিরকে নিয়ে মাঠে নেমেই পজিটিভ শুরু পেয়েছে রংপুর। চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের বিপক্ষে বিশাল সংগ্রহ পেয়েছে উত্তরবঙ্গের দলটি।

শনিবার (১০ ফেব্রুয়ারি) মিরপুর শেরে বাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস জিতে ব্যাট করতে নামে রংপুর। প্রথমে ব্যাট করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৩ উইকেট হারিয়ে ২১১ রান সংগ্রহ করে নুরুল হাসান সোহানের দল।

টস জিতে ব্যাট করতে নেমে দলকে ভালো শুরু এনে দুই ওপেনার রনি তালুকদার ও রেজা হেনড্রিকস। উদ্বোধনী জুটিতে ৬১ রান সংগ্রহ করেন এই দুই ব্যাটার। এরপর ১৭ বলে ২৪ রান করে আউট হন রনি।

রনির বিদায়ের পর ক্রিজে আসা সাকিব আল হাসানকে সঙ্গে নিয়ে রানের চাকা সচল রাখেন হেনড্রিকস। ৬০ রানের জুটি গড়েন হেনড্রিকস ও সাকিব। সাবলীল ব্যাটিংয়ে ফিফটি তুলে নেন হেনড্রিকস।

এরপর দ্রুতই জোড়া উইকেট হারায় রংপুর। সাকিব ১৬ বলে ২৭ ও হেনড্রিকস ৪১ বলে ৫৮ রান করে সাজঘরে ফিরে যান। এই দুই ব্যাটারের বিদায়ের পর জিমি নিশামকে সঙ্গে নিয়ে ঝড়ো ব্যাটিং করতে থাকেন সোহান।

আগ্রাসী ব্যাটিংয়ে ফিফটি তুলে নেন নিশাম। শেষ পর্যন্ত ২০ ওভারে ৩ উইকেট হারিয়ে ২১১ রানের পুঁজি পায় রংপুর। নিশাম ২৬ বলে ৫১ ও সোহান ২১ বলে ৩১ রানে অপরাজিত থাকেন। চট্টগ্রামের পক্ষে সালাউদ্দিন শাকিল নেন ২টি উইকেট।


আরও খবর
হাথুরুসিংহেকে ‘শোকজ’ করবেন পাপন!

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




ডিএনসিসির ১০ কর্মকর্তাকে বদলি

প্রকাশিত:সোমবার ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

প্রশাসনিক কাজের স্বার্থে ১০ জন প্রকৌশলীকে নিজ দপ্তর থেকে অন্য দপ্তরে বদলি করেছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি)।

সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সচিব মোহাম্মদ মাসুদ আলম ছিদ্দিক জানিয়েছেন, সিটি করপোরেশনের প্রশাসনিক কাজের স্বার্থে এবং যথাযথ কর্তৃপক্ষের অনুমোদনক্রমে কর্মকর্তাদের বদলি করা হয়েছে।

বদলি হওয়া ১০ কর্মকর্তার মধ্যে ডিএনসিসির অঞ্চল ৩ এর নির্বাহী প্রকৌশলী ফারুক হাসান মো. আল মাসুদকে অঞ্চল-৯ এর নির্বাহী প্রকৌশলী (পুর), অঞ্চল-৯ এর নির্বাহী প্রকৌশলী সাইফুদ্দিন মানিককে অঞ্চল-৩ এর নির্বাহী প্রকৌশলী ও অঞ্চল-৮ এর নির্বাহী প্রকৌশলী ইশতিয়াক মাহমুদকে অঞ্চল-১ এর নির্বাহী প্রকৌশলী হিসেবে বদলি করা হয়েছে।

এ ছাড়া ট্রাফিক ইঞ্জিনিয়ারিং সার্কেলের সহকারী প্রকৌশলী হারুন অর রশিদকে অঞ্চল-৮ এ, অঞ্চল-৩ এর সহকারী প্রকৌশলী শফিকুল ইসলামকে অঞ্চল-৯ এ, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের সহকারী প্রকৌশলী খন্দকার এনামুল কবীরকে অঞ্চল-৩ এর সহকারী প্রকৌশলীর দায়িত্ব, ট্রাফিক ইঞ্জিনিয়ারিং সার্কেলের উপসহকারী প্রকৌশলী সুজা উদ্দিন মামুনকে অঞ্চল-৩ এর উপ সহকারীর দায়িত্ব, ট্রাফিক ইঞ্জিনিয়ারিং সার্কেলের উপসহকারী প্রকৌশলী সুরুজ্জামানকে অঞ্চল-২ এর উপসহকারী প্রকৌশলীর দায়িত্ব, অঞ্চল-৭ এর সম্পত্তি বিভাগের দায়িত্বে থাকা উপসহকারী প্রকৌশলী ফয়জুল্লাহ ভূঁইয়াকে ট্রাফিক ইঞ্জিনিয়ারিং সার্কেলের দায়িত্ব এবং অঞ্চল-৮ এ সম্পত্তি বিভাগে সংযুক্ত থাকা উপসহকারী প্রকৌশলী সোহেল রানাকে ট্রাফিক ইঞ্জিনিয়ারিং সার্কেলের উপসহকারী প্রকৌশলীর দায়িত্ব দিয়ে বদলি করা হয়েছে।

ডিএনসিসির সচিব মোহাম্মদ মাসুদ আলম ছিদ্দিক একটি অফিস আদেশ জারি করে এই বদলি করেন।


আরও খবর
ছুটির দিনেও ঢাকার বায়ু ‌‘অস্বাস্থ্যকর’

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪