আজঃ মঙ্গলবার ২৮ জুন ২০২২
শিরোনাম

বাগেরহাটে জনগণ পুলিশ সংঘর্ষে আহত ২৫, আটক ১২

প্রকাশিত:সোমবার ২০ জুন ২০22 | হালনাগাদ:সোমবার ২০ জুন ২০22 | ৩৩০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বাগেরহাটের চিতলমারীতে এক কলেজ শিক্ষার্থী ফেসবুকে আপত্তিকর পোস্ট দেওয়ায় প্রতিবাদ ও বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে বিক্ষুব্ধ জনতা। পরে চিতলমারী থানায় প্রবেশ করতে চাইলে বাধা দিলে পুলিশের সঙ্গে তাদের সংঘর্ষ হয়। এতে ১২ পুলিশ সদস্যসহ অন্তত ২৫ জন আহত হয়।

সোমবার (২০ জুন) দুপুরে চিতলমারী থানার সামনে এ ঘটনা ঘটে। আহত ব্যক্তিদের অধিকাংশকে চিতলমারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় অন্তত ১২ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

পুলিশ জানায়, চিতলমারী উপজেলার শেরেবাংলা কলেজের একাদশ শ্রেণির এক ছাত্রী কয়েক দিন আগে ফেসবুক আইডি থেকে মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.)-কে কটূক্তি ও অবমাননা করে পোস্ট দেয় এবং ভিডিও ভাইরাল করে। এ ঘটনার পর এলাকায় উত্তেজনা দেখা দিলে রোববার (১৯ জুন) রাতে ওই ছাত্রীকে আটক করে পুলিশ। থানাহাজতে রেখে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করছিল পুলিশ।

সোমবার (২০ জুন) দুপুরে হঠাৎ স্থানীয় জনতা পোস্টকারীর বিচারের দাবিতে মিছিল করে এবং থানায় প্রবেশের চেষ্টা করে। তখন পুলিশ বাধা দিলে সংঘর্ষে রূপ নেয়।

এ সময় বিক্ষুব্ধ জনতা ইটপাটকেল নিক্ষেপ শুরু করলে বিক্ষুব্ধ জনতাকে সামাল দিতে পুলিশও ২৪ রাউন্ড গুলি ছোড়ে। এতে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মাহমুদ হোসেনের গাড়ি, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার গাড়ি ও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার গাড়ি, ৪টি মোটরসাইকেল ও থানার কাচের জানালা ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

বাগেরহাটের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রাসেলুর রহমান বলেন, আইন হাতে তুলে নেওয়ার জন্য চেষ্টা করে বিক্ষুব্ধ জনতা। তাদের বাধা দিলে সংঘর্ষে রূপ নেয়। এতে ১২ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে। এ ঘটনায় আমরা ১২ জনকে আটক করা হয়েছে। আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।


আরও খবর



রাষ্ট্রীয় খরচে হজে যাচ্ছেন ২৫৪ জন

প্রকাশিত:রবিবার ১২ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ১২ জুন ২০২২ | ৪০০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

এবছর রাষ্ট্রীয় খরচে হজে যাচ্ছেন ২৫৪ জন। সরকার ঘোষিত প্যাকেজ-২ এ উল্লেখিত প্যাকেজ মূল্যের সুযোগ সুবিধা দিয়ে (প্লেন ভাড়া ছাড়া) তাদেরকে হজে পাঠানো হচ্ছে।

রোববার (১২ জুন) ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের হজ-১ শাখার উপসচিব আবুল কাশেম মুহাম্মদ শাহীন স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে এ তথ্য জানা গেছে।

এসব হজযাত্রীদের মধ্যে বঙ্গভবন, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন, ঢাকাসহ সারাদেশের বিভিন্ন মসজিদের ইমামসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মুসল্লিরা রয়েছেন।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, রাষ্ট্রীয় খরচে হজপালনকারী প্রত্যেককে প্লেনের টিকিট বাবদ ১ লাখ ৪০ হাজার টাকা পে-অর্ডার করে জমা দিতে হবে। পে-অর্ডার জমা না দিলে তার ভিসা প্রক্রিয়া স্থগিত থাকবে। এছাড়াও তাদের সম্ভাব্য ফ্লাইট ৭ জুলাইয়ের পর থেকে পরিচালিত হবে।

হজযাত্রীদের আবশ্যিকভাবে প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্য পরীক্ষা ও ভ্যাকসিন/টিকা গ্রহণ করে ই-হেলথ সনদ নিতে হবে। তাদের পাসপোর্টের মেয়াদ ২০২৩ সালের ৪ জানুয়ারি পর্যন্ত থাকতে হবে। 

তালিকায় থাকা সরকারি কর্মকর্তা/কর্মচারী যারা রয়েছেন তারা সৌদি আরবে অবস্থানের সময়ে নিজ নিজ কর্মস্থল থেকে বাংলাদেশের স্থানীয় মুদ্রায় যথারীতি বেতন ও ভাতা প্রাপ্য হবেন।

রাষ্ট্রীয় খরচে হজ পালনকারী প্রত্যেক হজযাত্রীকে কোরবানির খরচ বাবদ আনুমানিক ৮১০ (আটশত দশ) সৌদি রিয়াল পৃথকভাবে সঙ্গে নিতে হবে।


আরও খবর



ঈদে দীপ্ত টিভিতে ৫ বাংলা সিনেমা

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৪ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৪ জুন ২০২২ | ২৮০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

দেশের ৫৩ প্রেক্ষাগৃহে শুক্রবার (১৭ জুন) মুক্তি পেয়েছে সৈকত নাসির পরিচালিত সাইকো থ্রিলার সিনেমা তালাশ। মুক্তির মাস না পেরুতেই এটি আসছে টেলিভিশনে।  কোরবানির ঈদের বিশেষ আয়োজনে সিনেমাটি দেখাবে দীপ্ত টিভি। এ ছবিতে প্রথমবার জুটি বেঁধে অভিনয় করেছেন শবনম বুবলী ও আদর আজাদ। সিনেমাটিতে আরও আছেন আসিফ আহসান খান, মাসুম বাশার, মিলি বাশার, যোজন মাহমুদ প্রমুখ।

দীপ্ত টিভি জানায়, শুধু তালাশ নয়, এবারের ঈদুল আজহার সাত দিনের বিশেষ আয়োজনের মধ্যে থাকছে পাঁচ বাংলা সিনেমার ওয়ার্ল্ড টিভি প্রিমিয়ার।

এগুলো হলো- ঈদের দিন তৌকীর আহমেদের পরিচালনায় স্ফুলিঙ্গ। এতে অভিনয় করেছেন শ্যামল মাওলা, পরীমণি, মম প্রমুখ। ঈদের দ্বিতীয় দিন তালাশ। ঈদের তৃতীয় দিন রেজওয়ান শাহরিয়ার সুমিতের পরিচালনায় নোনা জলের কাব্য। অভিনয় করেছেন তিতাস জিয়া, তাসনুভা তামান্না, ফজলুর রহমান বাবু, শতাব্দী ওয়াদুদ প্রমুখ। ঈদের চতুর্থ দিন থাকছে ইফতেখার শুভর মুখোশ। অভিনয় করেছেন মোশাররফ করিম, পরীমণি, রোশন, ইরেশ যাকের, আজাদ আবুল কালাম। ঈদের পঞ্চম দিন থাকছে তৌকীর আহমেদের হালদা। অভিনয় করেছেন জাহিদ হাসান, মোশাররফ করিম, নুসরাত ইমরোজ তিশা, ফজলুর রহমান বাবু। এগুলো প্রচারিত হবে দুপুর ১টায়।


আরও খবর



করোনা: আরও একজনের মৃত্যু, শনাক্ত ১৩১৯

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৩ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৩ জুন ২০২২ | ২৭০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

দেশে ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন এক হাজার ৩১৯ জন। এই সময়ের মধ্যে মৃত্যু হয়েছে একজনের। ফলে মোট মারা যাওয়ার সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৯ হাজার ১৩৫ জনে।

আর মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৯ লাখ ৬০ হাজার ৫২৮ জনে। শনাক্তের হার ১৪ দশমিক ৩২ শতাংশ। বৃহস্পতিবার (২৩ জুন) স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে পাঠানো করোনাবিষয়ক নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ২৪ ঘণ্টায় করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন ১২৭ জন। এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ১৯ লাখ ৬ হাজার ২৩২ জন।

২৪ ঘণ্টায় ৯ হাজার ২১৮টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়। পরীক্ষা করা হয় ৯ হাজার ২১৪টি নমুনা। পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার ১৪ দশমিক ৩২ শতাংশ। মহামারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত মোট শনাক্তের হার ১৩ দশমিক ৭৫ শতাংশ।

২০২০ সালের ৮ মার্চ দেশে প্রথম ৩ জনের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। এর ১০ দিন পর ওই বছরের ১৮ মার্চ দেশে এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রথম একজনের মৃত্যু হয়। ২০২১ সালের ৫ ও ১০ আগস্ট দুদিন সর্বাধিক ২৬৪ জন করে মারা যান।

নিউজ ট্যাগ: করোনাভাইরাস

আরও খবর



ভাত দিয়েই তৈরি করুন মচমচে পাকোড়া

প্রকাশিত:সোমবার ২৭ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৭ জুন ২০২২ | ১৭০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

পাকোড়া খেতে কে না পছন্দ করেন। বিশেষ করে অতিথি আপ্যায়ন থেকে শুরু করে বিকেলের নাস্তায় পাকোড়া না হলে চলে না অনেকেরই। বিভিন্ন উপকরণ দিয়ে তৈরি করা যায় পাকোড়া। তবে চাইলে খুব সহজে ভাত দিয়ে ঝটপট ঘরেই তৈরি করে নিতে পারেন ভাতের পাকোড়া। জেনে নিন ঝটপট রেসিপি-

উপকরণ: ভাত ১ কাপ, লবণ স্বাদমতো, ডিম ১টি, পেঁয়াজ কুচি ২ টেবিল চামচ, কাঁচা মরিচ কুচি ১ টেবিল চামচ, মুরগির মাংস সেদ্ধ আধা কাপ, মরিচের গুঁড়া আধা চা চামচ, কর্নফ্লাওয়ার ২ চা চামচ, টমেটো সস ১ টেবিল চামচ ও তেল পরিমাণমতো।

পদ্ধতি: প্রথমে ভাতের সাথে সামান্য লবণ ও ডিম ভালো করে মেখে নিন। এরপর একটি বাটিতে পেঁয়াজ, মরিচ, ধনেপাতা কুচি, মরিচের গুঁড়া ও সেদ্ধ মুরগির মাংস ছড়িয়ে নরম করে ভাতের সঙ্গে মেখে নিন। এরপর র্কনফ্লাওয়ার ও টমেটো সস মিশিয়ে আবারও মেখে নিন। এবার চুলায় তেল গরম করে নিন। তারপর ভাতের মিশ্রণ থেকে পাকোড়ার সাইজে তৈরি করে নিন। তারপর ডুবো তেলে পাকোড়াগুলো ছেড়ে দিন। এপিঠ ওপিঠ ভালো করে উল্টে বাদামিরঙা করে ভেজে নিন পাকোড়াগুলো। ব্যাস তৈরি হয়ে যাবে ভাতের মচমচে পাকোড়া। এবার টমোটো সস দিয়ে পরিবেশন করুন ভাতের পাকোড়া।

নিউজ ট্যাগ: পাকোড়া

আরও খবর
বিফ সাসলিক তৈরির রেসিপি

সোমবার ২৭ জুন ২০২২




বাড়ে দূষণ কমে বাজেট!

প্রকাশিত:শনিবার ০৪ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০৪ জুন ২০২২ | ৩৪০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বাংলাদেশে উন্নয়নে দৃশ্যচিত্রের উন্নতি হলেও অবনতি হয়েছে পবিবেশকে সুরক্ষা রাখার সক্ষমতা। প্রতি বছর উন্নয়নের জন্য সব খাতে বাজেট বাড়ানো হলেও বাজেট বাড়ে না পরিবেশ খাতে। অথচ দেশের সমৃদ্ধির ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে পরিবেশ। প্রতি বছর পরিবেশ দূষণের কারণে হাজার হাজার মানুষের মৃত্যু হয়। জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবের পাশাপাশি পরিবেশ দূষণের কারণেও স্বাস্থ্যগত ঝুঁকিপূর্ণ থাকে দেশ। ২০২০ সালে এনভায়রনমেন্টাল পারফরমেন্স ইনডেক্স (ইপিআই) অনুযায়ী, বিশ্বের চরম ঝুঁকিপূর্ণ ১৮০টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান ছিল একেবারে তলানিতে অর্থাৎ ১৮০তম। অথচ এ অবস্থায়ও বিগত বছরগুলোতে পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের জন্য বাজেটে বরাদ্দ কমেছে। প্রতি বছর বাজেটে পরিবেশকে গুরুত্বে না দেয়ায় ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন বিভিন্ন পরিবেশ সংগঠন ও বিশেষজ্ঞরা।

তারা বলছেন দেশে এখনো পরিবেশকে মনে করা হয় ক্রসকাটিং বিষয়। কিন্তু সারা বিশ্বে পরিবেশ এখন একটা প্রধান বিবেচ্য বিষয়। পরিবেশকে প্রাধান্য দিয়ে চিন্তা করার নীতি-নির্ধারণী পর্যায়ে যে মনস্তাত্ত্বিক পরিবর্তন, সেটি দেখা যেতে পারত বাজেট থেকে। বিগত বছরগুলোয় পরিবেশের জন্য যে বাজেট বরাদ্দ করা হয়েছে, তা অন্যান্য মন্ত্রণালয়ের বাজেটের তুলনায় খুবই কম। পরিবেশের ক্ষতির কারণে আমাদের অর্থনীতিতে যে পরিমাণ নেতিবাচক প্রভাব আছে সেটা যদি বিবেচনা করা হয়, তাহলে পরিবেশ সংরক্ষণের জন্য পরিবেশ মন্ত্রণালয়কে আরো সক্ষমতা সম্পন্ন করা প্রয়োজন। পরিবেশ রক্ষায় নানামুখী উদ্যোগ বাস্তবায়নে চলতি অর্থবছরে এ মন্ত্রণালয়ের বাজেট বরাদ্দ বাড়ানোর পরামর্শও দেন তারা।

বাজেট বিশ্লেষণে দেখা যাচ্ছে, গত পাঁচটি অর্থবছরে বাজেটের আকার বাড়লেও বরাদ্দ খুব একটা বাড়েনি পরিবেশ মন্ত্রণালয়ের। সবশেষ ২০২১-২০২২ অর্থবছরের বাজেটে পরিবেশ মন্ত্রণালয়ের জন্য বরাদ্দ ছিল ১ হাজার ২২১ কোটি টাকা। যা এর আগের অর্থবছরের (২০২০-২০২১) চেয়ে ২৫ কোটি টাকা কম। ২০২০-২০২১ অর্থবছরে এ মন্ত্রণালয় বাজেট বরাদ্দ পেয়েছিল ১ হাজার ২৪৬ কোটি টাকা। এর আগের অর্থবছরে (২০১৯-২০২০) এ বরাদ্দ ছিল ১ হাজার ৪৯৬ কোটি টাকা। ২০১৬-২০১৭ অর্থবছরে পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয়ের জন্য বাজেট বরাদ্দ রাখা হয়েছিল ১ হাজার ৮৫০ কোটি টাকা। পরের অর্থবছরে (২০১৭-২০১৮) তা ৭৩১ কোটি টাকা কমিয়ে করা হয় ১ হাজার ১১৯ কোটি টাকা। তবে ২০১৮-২০১৯ অর্থবছরে এ মন্ত্রণালয়ের জন্য ১৫০ কোটি টাকা বরাদ্দ বাড়িয়ে ১ হাজার ২৭০ কোটি টাকা করা হয়।

সবুজ আন্দোলনের চেয়ারম্যান বাপ্পি সরদার বলেন, অন্তত ২০ হাজার কোটি টাকা যেন পরিবেশের জন্য বরাদ্দ দেয়া হয়। নবায়নযোগ্য জ্বালানি গবেষণা ও উৎপাদনে এ বরাদ্দের ৩০ ভাগ ব্যবহার করা যেতে পারে। পাশাপাশি সবুজায়ন বাড়ানোর জন্য সারাদেশে ১০ কোটি গাছ লাগানোর পরিকল্পনা করা যেতে পারে। পরিবেশ খাতের উন্নয়নের অন্যতম শর্তই হচ্ছে পর্যাপ্ত গবেষণাগার। যার মাধ্যমে জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকিগুলো আমরা চিহ্নিত করতে পারব ও সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নিতে পারব।

কৃষির ওপর জলবায়ু পরিবর্তনের যে প্রভাব, তা থেকে উত্তরণ ও আগাম ফসল প্রস্তুতিতে বরাদ্দের অর্থ প্রয়োজন পড়বে। ভৌগোলিকভাবে বাংলাদেশ একটি দুর্যোগপূর্ণ দেশ। জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকিতে থাকা দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশের প্রথম সারিতে অবস্থান। অর্থনৈতিক উন্নয়নের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে শিল্পায়ন বাড়লেও ছোট হয়ে আসছে নদ-নদী ও খাল-বিল। উজাড় হচ্ছে বনভূমি, দূষিত হচ্ছে বাতাস। বায়ুদূষণে রাজধানী ঢাকা বিশ্বের দূষিত শহরগুলোর তালিকায় প্রথম থেকে পঞ্চম সারিতে উঠানামা করছে। আবার কোনো সময় হুট করেই শীর্ষে চলে আসে। যা নগরীবাসীর জন্য স্বাস্থ্যের ব্যাপক ঝুঁকি তৈরি করেছে। আক্রান্ত হচ্ছে নানা রোগে। ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে উচ্চ আয়ের দেশে উন্নীত করার যে পরিকল্পনা করা হয়েছে, টেকসই পরিবেশ-বান্ধব ও জলবায়ু সহনশীল উন্নয়ন এবং পরিবেশ রক্ষার বিষয়গুলো সঠিক মূল্যায়ন ও প্রয়োগ করা না গেলে সেই অভীষ্ট লক্ষ্যে পৌঁছানো সম্ভব নয় এমন প্রশ্ন ঘুরপাক খাচ্ছে সাধারণ মহলে।

আবদুল্লাহ আল নাঈম। ঢাকার একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভূগোল ও পরিবেশ নিয়ে পড়াশোনা করেন। বিগত কয়েক বছর ধরে পরিবেশ নিয়ে কাজও করছেন একটি পরিবেশ সংগঠনে। পরিবেশে বাজেট নিয়ে তার সঙ্গে কথা বললে তিনি বলেন, পরিবেশ সুরক্ষা এমনি একটি কাজ, এর সঙ্গে জড়িয়ে আছে অনেক কিছু। এটি সুরক্ষায় সর্বদায় আমাদের সবাইকে সচেতন ও সংঘবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে। পরিবেশে যে বাজেট আমরা লক্ষ করছি সেটা পরিবেশের ক্ষেত্রে সেটা সামান্য। এটা দিয়ে পরিবেশ সুরক্ষায় শতভাগ মনিটরিং করা হয়তো সম্ভব হয় না। আমরা চাই, সরকার এ বিষয়ে আরো জোরালোভাবে নজর দিক। এবং জলবায়ু পরিবর্তনসহ পরিবেশ দূষণে সব কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণ করুক।

জানতে চাইলে পরিবেশ অধিদফতরের সাবেক অতিরিক্ত মহাপরিচালক কাজী সারওয়ার ইমতিয়াজ হাশমী বলেন, পরিবেশের বাজেট অবশ্যই বাড়ানো উচিত। বিগত সময়ে যখন বাজেট কম ছিল তখন পরিবেশে বাজেট হিসেবে ঠিক ছিল। মাঝেও বাজেট বাড়ানো হয়েছিল। বর্তমানে যে বাজেট রয়েছে তার থেকে বাজেট বাড়লে মাঠ পর্যায়ে পরিবেশ সুরক্ষায় মনিটরিংটা একটু বৃদ্ধি পাবে। আমরা সব সময়ই বলব, পরিবেশ রক্ষায় সর্বদায় সব পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে।

পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) যুগ্ম সম্পাদক ও স্টামফোর্ড ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশের বায়ুমণ্ডলীয় দূষণ অধ্যয়ন কেন্দ্র (ক্যাপস) পরিচালক অধ্যাপক ড. আহমেদ কামরুজ্জামান মজুমদার বলেন, আমাদের দেশে যখন বাজেটের পরিমাণ ১ লাখ ছিল তখন পরিবেশে বাজেটের পরিমাণ ভালো ছিল। এখন আবার সেটা লক্ষ করা যায় না। দিন দিন বাজেটের পরিমাণ বৃদ্ধি পাচ্ছে, কিন্তু পরিবেশের বাজেটের পরিমাণ বাড়ছে না। সবশেষ ২০২০-২০২১ অর্থবছরের বাজেটের চেয়ে ২০২১-২০২২ বাজেট কমেছে ২৫ কোটি। পরিবেশে বাজেট বাড়ানো খুবই জরুরি। পরিবেশের ভেতরে অন্যান্য জিনিসগুলো এমনভাবে দেয়া হচ্ছে যেগুলো আসলে পরিবেশের না। উন্নয়ন কর্মকাণ্ড বা অবকাঠামোর বরাদ্দকে পরিবেশে দেয়া হচ্ছে। আমরা চাচ্ছি, যথাযথভাবে যেন পরিবেশের জন্য টেকসই বাজেট বরাদ্দ দেয়া হয়।


আরও খবর