আজঃ মঙ্গলবার ২৮ জুন ২০২২
শিরোনাম

আসছে সাবিলা নূরের ‘রঙিলা ফানুস ২’

প্রকাশিত:বুধবার ২২ জুন 20২২ | হালনাগাদ:বুধবার ২২ জুন 20২২ | ৩০০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

গেল বছরের কোরবানির ঈদে সিএমভির ব্যানারে মুক্তি পেয়েছিল শিহাব শাহীনের রঙিলা ফানুস। সাবিলা নূর অভিনীত সেই নাটকটি ইউটিউবে কোটি ভিউ হয়েছে অনেক আগেই। নতুন খবর হলো, এবারের কোরবানিতে একই নির্মাতা হাজির হচ্ছেন রঙিলা ফানুস ২ নিয়ে। এবারও প্রধান চরিত্রে অভিনয় করছেন আগের নায়িকা সাবিলা নূর। সঙ্গে আছেন তৌসিফ মাহবুব।

যথারীতি এবারের নাটকটিও রচনা করেছেন জান্নাতুল ফেরদৌস লাবণ্য। শুটিং শেষ হয়েছে সম্প্রতি। চলছে সম্পাদনার কাজ। শিহাব শাহীন জানান, নাটকটির নাম ও প্রধান অভিনেত্রী একই হলেও গল্পটি খানিক আলাদা।

নির্মাতা বলেন, আগেরটির মতো এটিও সিচুয়েশনাল কমেডি নাটক। দর্শকের বিনোদনকে মাথায় রেখেই বানানো। তবে সমাজের নিম্ন আয়ের সুবিধাবঞ্চিত মানুষের অদ্ভুত সব স্বপ্ন আর সেটি বাস্তবায়নের প্রয়াস নিয়ে এবারের গল্পটি সাজানো হয়েছে। প্রযোজক এসকে সাহেদ আলী পাপ্পু জানান, ঈদ আয়োজনে নাটকটি উন্মুক্ত হবে সিএমভির ইউটিউব চ্যানেলে।

নিউজ ট্যাগ: সাবিলা নূর

আরও খবর



আজ বিশ্ব তামাকমুক্ত দিবস

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ৩১ মে ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ৩১ মে ২০২২ | ৪৭০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বিশ্ব তামাকমুক্ত দিবস আজ। তামাক চাষ, তামাকজাত পণ্য উৎপাদন, ব্যবহার ও তামাকের বর্জ্য পরিবেশের জন্য কতটা ক্ষতিকর এ বিষয়ে জনগণ ও নীতিনির্ধারণী পর্যায়ে সচেতনতা সৃষ্টিতে প্রতি বছর ৩১ মে পালন করা হয় দিবসটি। বাংলাদেশ সরকার ২০৪০ সালের মধ্যে দেশকে তামাকমুক্ত ঘোষণা করার রোডম্যাপ হাতে নিয়েছে।

এ বছর বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা দিবসটির প্রতিপাদ্য নির্ধারণ করেছে টোব্যাকো: থ্রেট টু আওয়ার এনভায়রনমেন্ট (তামাক: পরিবেশের জন্য হুমকি)। এছাড়াও বাংলাদেশে দিবসটি পালিত হতে যাচ্ছে তামাকমুক্ত পরিবেশ, সুস্বাস্থ্যের বাংলাদেশ এই প্রতিপাদ্য নিয়ে।

এক জরিপে দেখা যায়, বাংলাদেশে ৩৫ দশমিক ৩ শতাংশ প্রাপ্তবয়স্ক জনগোষ্ঠী তামাক ব্যবহার করে। দেশে তামাকজনিত রোগে প্রতি বছর ১ লাখ ৬১ হাজারের বেশি মানুষ মারা যায়।

তামাক কোম্পানি বছরে ৮৪ মিলিয়ন টন কার্বন-ডাই-অক্সাইড নি‍র্গমণ, ৬ ট্রিলিয়ন সংখ্যক সিগারেট শলাকা উৎপাদনের জন্য ২২ বিলিয়ন টন পরিমাণ পানি অপচয় করে।

এছাড়াও ৬০ কোটি বৃক্ষ নিধনের মাধ্যমে জলবায়ু পরিবর্তন, প্রাকৃতিক সম্পদ বিনষ্ট ও ইকোসিস্টেমে ব্যাপক ক্ষতিসাধন করছে। দিবসটি উপলক্ষে বাংলাদেশ সরকার ও বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনগুলো জনসচেতনতা মূলক নানা উদ্যোগ হাতে নিয়েছে।

এছাড়াও বাংলাদেশ ক্যানসার গবেষণা ইনস্টিটিউট ও হাসপাতাল এ দিবসটি উপলক্ষে এক আলোচনা সভার আয়োজন করছে।


আরও খবর



আবারো ৬ শূন্যের বিশ্বরেকর্ড বাংলাদেশের

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৭ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৭ জুন ২০২২ | ৪৩০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে বাংলাদেশের প্রথম ইনিংসে ৭ ব্যাটারকেই এক অঙ্কের ঘরে মাঠ ছাড়তে হয়েছে। এই সাতজনের ছয়জনই আবার ডাক (০) মেরেছেন। এর আগে শ্রীলংকা এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে এমন লজ্জার রেকর্ড রয়েছে বাংলাদেশের।

ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে বাংলাদেশের প্রথম ইনিংস ১০৩ রানেই গুটিয়ে যায়। ১০ ব্যাটারের মধ্যে মাত্র তিনজন দুই অঙ্কের রানের দেখা পান।  বাকি সাত ব্যাটারের মধ্যে এক অঙ্কের ঘরে মাঠ ছেড়েছেন ছয়জন।

টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে ৫টি দলের এক ইনিংসে ৬ ব্যাটারের ডাক মারার ঘটনা রয়েছে। সেগুলো হলো- পাকিস্তান, ভারত, বাংলাদেশ, সাউথ আফ্রিকা ও নিউজিল্যান্ড। তবে লজ্জাটা সবচেয়ে বেশি বাংলাদেশের। কারণ, বাংলাদেশের সঙ্গে ৩ বার এমন ঘটনা ঘটেছে। তাও আবার ব্যাক টু ব্যাক ২ টেস্টে। বাংলাদেশ ছাড়া বিশ্বের আর কোনো দলই একাধিকবার এমন পরিস্থিতির মুখোমুখি হয়নি।

মজার বিষয় হলো প্রতিপক্ষকে সবেচেয়ে বেশি এমন লজ্জাজনক পরিস্থিতিতে ফেলেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। এখন পর্যন্ত ক্যারিবীয়রা দুই দলকে তিনবার এমন বাজে পরিস্থিতির সামনে দাঁড় করিয়েছে। তিনবারের ভেতর দুবার বাংলাদেশ। ১৯৮০ সালে প্রথম দল হিসেবে এই রেকর্ডের দাবিদার হয় পাকিস্তান। প্রতিপক্ষ ছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ।


আরও খবর



দুই বাসের রেষারেষিতে রিকশা চালকের মৃত্যু

প্রকাশিত:সোমবার ২০ জুন ২০22 | হালনাগাদ:সোমবার ২০ জুন ২০22 | ৩১০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

নারায়ণগঞ্জে দুই বাসের প্রতিযোগিতায় ফারুক মিয়া (৪০) নামে এক রিকশাচালক মারা গেছেন। রোববার (১৯ জুন) বিকেল ৫টার দিকে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডে এ দুর্ঘটনা ঘটেছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নারায়ণগঞ্জ ট্রাফিক বিভাগের পুলিশ পরিদর্শক (প্রশাসন) মো. আব্দুল করিম শেখ।

নিহত ফারুক ফতুল্লার মাসদাইর এলাকার খানকার মোড়ের মৃত সাঈদ উদ্দিনের ছেলে। এ ঘটনায় ঘাতক বাস দুটিকে ও একজন চালক ও একজন হেলপারকে আটক করা হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, মৌমিতা ও বাঁধন পরিবহনের দুটি বাস এক অপরকে ওভারটেক করতে বার বার চেষ্টা করছিলেন। এ সময় দুটি বাসের মাঝে চাপা পড়ে রিকশাচালক ঘটনাস্থলেই মারা যায়।

নারায়ণগঞ্জ ট্রাফিক বিভাগের পুলিশ পরিদর্শক (প্রশাসন) মো. আব্দুল করিম শেখ বলেন, মৌমিতা ও বাঁধন পরিবহনের বাসের বেপরোয়া গতিতে ওভারটেকিং করার ফলে এই দুর্ঘটনা ঘটেছে। ঘটনাস্থলে ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশ গিয়ে বিষয়টি খতিয়ে দেখেছে। আইন অনুযায়ী মামলা করা হবে। ঘাতক বাস দুটি ও একজন বাসচালক ও হেলপারকে আটক করা হয়েছে।

নিউজ ট্যাগ: সড়ক দুর্ঘটনা

আরও খবর



মেসি আছে বলেই আমরা বিশ্বকাপের দাবিদার: মার্টিনেজ

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৩ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৩ জুন ২০২২ | ৩৮৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

আর যা-ই হোক না হোক, কাতার বিশ্বকাপই যে লিওনেল মেসির শেষ বিশ্বকাপ হতে যাচ্ছে, তা নিশ্চিত। আগামী ২৪ জুনই ৩৫তম জন্মদিনের কেক কাটবেন, আগামী নভেম্বরে শুরু হতে যাওয়া বিশ্বকাপই মেসির শিরোপা নিয়ে বিশ্বমঞ্চ ছেড়ে যাওয়ার শেষ সুযোগ। সে পথে এবার কি আত্মবিশ্বাসের জোরও একটু বেশি আর্জেন্টিনার?

হওয়ারই কথা। গত বছরের জুলাইয়ে ২৮ বছরের শিরোপাখরা ঘুচিয়ে কোপা আমেরিকা জিতেছেন মেসিরা, তা-ও ব্রাজিলের ফুটবলতীর্থ মারাকানায় নেইমারের ব্রাজিলকেই হারিয়ে। এর ১১ মাস পর গত পরশু ইংল্যান্ডের ফুটবল-তীর্থ ওয়েম্বলিতে আবার আর্জেন্টিনার শিরোপার উল্লাস, এবার ইউরোপ আর দক্ষিণ আমেরিকার আন্তঃমহাদেশীয় শ্রেষ্ঠত্বসূচক লা ফিনালিসিমা’ জয়ের পথে হারিয়েছে গত বছরের জুলাইয়ে একই দিনে ইউরো জেতা ইতালিকে।

তবে মেসির বিশ্বকাপ স্বপ্নে সবচেয়ে বড় শক্তি সম্ভবত তাঁর সতীর্থরাই। একে তো আর্জেন্টিনা দল হিসেবে অনেকটা গুছিয়ে উঠেছে, তার ওপর এই দলটার সবাই-ই যেন মেসিকে কিছু এনে দিতে চোয়ালবদ্ধ। গোলকিপার এমিলিয়ানো মার্তিনেজের কথায়ও তা পরিষ্কার। তাঁর সোজা কথা, মেসির জন্য আর্জেন্টিনার সবাই সিংহের মতো লড়বে।

২০১৮ বিশ্বকাপে কিলিয়ান এমবাপ্পের ফ্রান্সের কাছে ৪-৩ গোলে শেষ ষোলোতে যখন বিদায় নেন মেসি, ধরে নেওয়া হয়েছিল, হয়তো সেটিই তাঁর শেষ বিশ্বকাপ। কিন্তু এরপর লিওনেল স্কালোনি দায়িত্ব নিয়ে আস্তে আস্তে আর্জেন্টিনা দলের খোলনলচেই বদলে ফেলেছেন।

মেসি-দি মারিয়াদের মতো তারকাদের সঙ্গে লো সেলসো, দি পলদের মতো তরুণ প্রতিভাবানদের নিয়ে আর্জেন্টিনা এখন ভারসাম্যপূর্ণ একটা দল। তার চেয়েও আর্জেন্টাইনদের কাছে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সম্ভবত এটি যে এই আর্জেন্টিনা আগের মতো পুরোপুরি মেসিনির্ভর’ কৌশলে খেলে না।

তবে মেসির জন্য খেলে। দি পল, লো সেলসোদের কথায় সেটি এর আগেও অনেকবার উঠে এসেছে। নতুন করে একটু অন্যভাবে কথাটা বলেছেন এমিলিয়ানো মার্তিনেজও, এক বছর আগেও আমরা কিছুই ছিলাম না। এখন শিরোপা জিতেছি বলেই সবাই ভাবতে শুরু করেছে, আমরা বিশ্বকাপের অন্যতম ফেবারিট হয়ে গেছি। তবে আমরা সব সময়ই বিশ্বকাপের জন্য ফেবারিটদের তালিকায় থাকব, কারণ আমাদের দলে বিশ্বের সেরা খেলোয়াড় (মেসি) আছে। ওর জন্য আমরা সবাই সিংহের মতো লড়ব।’

স্কালোনির অধীনে ধীরে ধীরে গুছিয়ে উঠতে থাকার পথচলায় আর্জেন্টিনার গত ১১ মাসে দুই শিরোপার পেছনে এমিলিয়ানো মার্তিনেজেরও বড় অবদান। গোলপোস্ট তো আর্জেন্টিনার সোনালি প্রজন্মের দলেরও বড় দুর্বলতা ছিল, গত জুনে আকাশি-সাদা জার্সিতে অভিষেকের পর থেকে গোলপোস্টে মার্তিনেজ বড় ভরসার নামই হয়ে উঠেছেন।

প্রতিপক্ষ বল কেড়ে নিতে চাপ তৈরি করলে তিনি কীভাবে সামলাবেন, সেটি নিয়ে এখনো সংশয় আছে, তবে গোল ঠেকানোতে এমিলিয়ানো এই সময়ে আলোচিত গোলকিপারদের একজন। কোপা আমেরিকা জয়ের পথে কলম্বিয়ার বিপক্ষে সেমিফাইনালে টাইব্রেকারে দুটি শট ঠেকিয়ে সেই যে পাদপ্রদীপের আলোয় এসেছেন, এর পর থেকে এমিলিয়ানো এই আর্জেন্টিনা দলের অপরিহার্য অংশ।

সেই এমিলিয়ানো মার্তিনেজের কথা তো গুরুত্বের সঙ্গে নিতেই হয়! তবে এমিলিয়ানোর পরের কথাটা আর্জেন্টিনার প্রতিদ্বন্দ্বীরা হয়তো ভালো চোখে নেবেন না।

আর্জেন্টিনার লা ফিনালিসিমা জয়কে বড় শিরোপা হিসেবে দেখা হবে কি না, সে নিয়ে অনেকের সংশয় আছে। ইউরোপের ক্লাব ফুটবলে উয়েফা সুপার কাপের’ মতোই টুর্নামেন্টটা, দুই শিরোপাজয়ীর মধ্যে সেরা নির্ধারণী। কিন্তু এক ম্যাচের টুর্নামেন্ট বলে অনেকে এটিকে তত গুরুত্ব দিতে রাজি নন। আর্জেন্টিনার প্রতিদ্বন্দ্বীরা তো মোটেই রাজি নন।

তবে এ নিয়ে প্রশ্নে এমিলিয়ানো মার্তিনেজের যুক্তি, আমাদের কাছে এটা একটা ফাইনালই, আনুষ্ঠানিকভাবে উয়েফার স্বীকৃতি পাওয়া ফাইনাল হিসেবেই দেখছি এটিকে। আর এই শিরোপা আমাদের আত্মবিশ্বাস আরও বাড়িয়ে দিচ্ছে।’

ফিনালিসিমায় আর্জেন্টিনার প্রতিপক্ষ ইতালি বিশ্বকাপে সুযোগ পায়নি, এ নিয়েও আর্জেন্টিনার শিরোপা জয় নিয়ে ফোঁড়ন কাটেন অনেকে। তবে এখানেও এমিলিয়ানো মার্তিনেজের যুক্তি, মানুষ হয়তো বলে যে আমরা ইউরোপের অসাধারণ কোনো দলের বিপক্ষে খেলিনি। তবে ওরা ইউরো জিতেছে। আমরা দেখিয়েছি আমরা যে কারও সঙ্গে লড়াই করতে পারি।’


আরও খবর



ইউক্রেন যুদ্ধ বহু বছর স্থায়ী হতে পারে: জেনস স্টলটেনবার্গ

প্রকাশিত:রবিবার ১৯ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ১৯ জুন ২০২২ | ২৬৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ইউক্রেনে চলমান যুদ্ধ বহু বছর স্থায়ী হতে পারে বলে সতর্ক করে দিয়েছেন ন্যাটো প্রধান জেনস স্টলটেনবার্গ। ন্যাটো মহাসচিব বলেন, আমাদের অবশ্যই বছরের পর বছর ধরে এর জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে। ইউক্রেনের সমর্থনে আমাদের দুর্বল হওয়া উচিত নয়, এমনকি যদি এ জন্য আমাদের উচ্চমূল্যও দিতে হয়, এটি কেবল সামরিক সহায়তার ক্ষেত্রে নয়- জ্বালানি ও খাদ্যের মূল্য বৃদ্ধির কারণ হলেও এই দীর্ঘস্থায়ী যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে।

রোববার প্রকাশিত জার্মান সংবাদপত্র বিল্ডকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি এসব কথা বলেন। জেনস স্টলটেনবার্গ বলেন, ইউক্রেনীয় সেনাদের কাছে অত্যাধুনিক অস্ত্র সরবরাহ রাশিয়ার নিয়ন্ত্রণ থেকে তার পূর্ব অঞ্চল ডনবাসকে মুক্ত করার সুযোগ বাড়িয়ে দেবে।

এর আগে স্টলটেনবার্গ বলেছিলেন যে, চলতি মাসের শেষের দিকে মাদ্রিদে অনুষ্ঠিতব্য ন্যাটো শীর্ষ সম্মেলন ইউক্রেনের জন্য একটি সহায়তা প্যাকেজ দিতে সম্মত হবে বলে আশা করা হচ্ছে। যা দেশটিকে পুরানো সোভিয়েত-যুগের অস্ত্র থেকে ন্যাটোর স্ট্যান্ডার্ড গিয়ারে নিয়ে যেতে সাহায্য করবে।

এদিকে, শুক্রবার কিয়েভ সফরকারী ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনও দীর্ঘ যুদ্ধের জন্য প্রস্তুতি নেওয়ার কথা বলেন।

জনসন লন্ডনের সানডে টাইমস-এ এক মতামতে জানিয়েছিলেন, এর অর্থ এটা নিশ্চিত করা যে, "ইউক্রেন তার দেশে আক্রমণকারীর চেয়ে দ্রুত অস্ত্র, সরঞ্জাম, গোলাবারুদ এবং প্রশিক্ষণ গ্রহণ করছে।"

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, "সময় গুরুত্বপূর্ণ ফ্যাক্টর এবং সবকিছুই নির্ভর করবে ইউক্রেনীয়দের তাদের মাটি রক্ষা করার ক্ষমতা রাশিয়ার আক্রমণের ক্ষমতা পুনঃরায় বৃদ্ধি করার চেয়ে দ্রুততর করতে পারবে কিনা, তার ওপর।" সূত্র- রয়টার্স।


আরও খবর