আজঃ সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

আজকের রাশিফল: শনিবার ০২ ডিসেম্বর ২০২৩

প্রকাশিত:শনিবার ০২ ডিসেম্বর 2০২3 | হালনাগাদ:শনিবার ০২ ডিসেম্বর 2০২3 | অনলাইন সংস্করণ
জীবন ধারা ডেস্ক

Image

আজ নতুন কী ঘটতে চলেছে? আজ কি আপনার জন্য ভাল কিছু অপেক্ষা করে আছে? কেমন থাকবে আপনার আর্থিক অবস্থা? নাকি খারাপ কিছুর অপেক্ষা করে আছে আপনার ভাগ্যে। বিখ্যাত জ্যোতিষীর দ্বারা বিশ্লেষণের পর আজকের দিন নিয়ে ভবিষ্যত গণনা জানুন আপনার আজকের রাশিফলে।

মেষ: নিজের মনকে অশান্ত হতে দেবেন না। আপনি মানসিক অস্থিরতা বোধ করবেন, আপনি চারপাশের জিনিসগুলি নিয়ে হতাশ হবেন, যার কারণে আপনি আপনার কাজ এবং দায়িত্ব থেকে বিভ্রান্ত হতে পারেন।

বৃষ: যৌন ব্যবসায় অংশীদারদের থেকে সতর্ক থাকুন। আপনি পেশা, শান্তি বা শিক্ষার সন্ধানে বর্তমান স্থান থেকে স্থানান্তর করার পরিকল্পনা করতে পারেন। আপনার পিতামাতার স্বাস্থ্যের বিষয়েও আপনাকে সতর্ক থাকতে হবে।

মিথুন: মনোবল বজায় রাখার চেষ্টা করুন। আপনি বুদ্ধিবৃত্তিক বিষয়গুলির দিকে ঝুঁকতে পারেন, আপনি সাহিত্য, বর্তমান সংবাদ বা আর্থিক খবরে আগ্রহী হতে পারেন, আপনি সামাজিক সংবাদ সম্পর্কে গসিপিং উপভোগ করতে পারেন।

কর্কট: অস্থাবর সম্পত্তি চুরির আশঙ্কা আছে। আপনি আপনার ক্যারিয়ার তৈরি করতে উচ্চ শিক্ষার কথাও ভাবতে পারেন। কিন্তু সন্তানদের শিক্ষা আপনাকে বিরক্ত করতে পারে। সমাজে আপনার সুনাম বৃদ্ধি পাবে।

সিংহ: ঘটমান কাজের পরিবর্তন থেকে উপকৃত হবেন। আপনি কিছু প্রভাবশালী ব্যক্তির সাথে দেখা করবেন, যারা আপনাকে পেশাদার ফ্রন্টে ভাল অবস্থানে বৃদ্ধি পেতে সহায়তা করতে পারে। আপনি আপনার ব্যবসায় নতুন উদ্ভাবন বাস্তবায়ন করতে পারেন।

কন্যা: শান্তির জন্য দান ও দাতব্যকাজে শ্রম দান করুন। শিক্ষার্থীদের তাদের পড়াশোনার প্রতি মনোযোগী থাকার পরামর্শ দেওয়া হয়, যেকোনো ধরনের চেহারা এবং গ্ল্যামার তাদের লক্ষ্য অর্জনে ব্যর্থতার দিকে নিয়ে যেতে পারে।

তুলা: তর্ক হতে পারে এমন বিতর্কিত বিষয় এড়িয়ে চলুন। আপনার প্রতিপক্ষ এবং গোপন শত্রুরা নিয়ন্ত্রণে থাকবে। পুরানো স্বাস্থ্য সংক্রান্ত সমস্যাগুলি এখন দূর হবে বলে আশা করা হচ্ছে। আপনি আপনার বাড়ি সংস্কার বা নির্মাণের সিদ্ধান্ত নিতে পারেন।

বৃশ্চিক: কর্মক্ষেত্রে পদোন্নতির সম্ভাবনা আছে। আপনি আপনার পরিবারের মান বজায় রাখার জন্য প্রত্নবস্তু, কিছু সৃজনশীল জিনিস কিনতে পারেন। এই সময়ে পুরানো দাম্পত্য কলহের সমাধান হতে পারে।

ধনু: পরিবারে সমস্যার সম্মুখীন হতে পারেন। চাকরিজীবীরা ভালো খবর পেতে পারেন। ভাগ্যের সাহায্যে কর্মক্ষেত্রে সাফল্য পাবেন। একজন অবিবাহিত ব্যক্তির সত্যিকারের জীবনসঙ্গীর সাথে দেখা হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

মকর: বিবাহিত জীবনে ভালো কিছু হবার পরিস্থিতি তৈরি হতে পারে। প্রেমিক দম্পতি তাদের সম্পর্ককে বিয়েতে রূপান্তর করার পরিকল্পনা করতে পারেন। আপনি আপনার চাকরিতে পদোন্নতি পাওয়ার আশাও করবেন।

কুম্ভ: ভালোবাসায় একটি সুন্দর মোড় আসবে। নিকটাত্মীয়দের জমি-সম্পত্তি সংক্রান্ত বিবাদ এখন মীমাংসা করার মতো অবস্থায় থাকবে। সম্পত্তি সম্পর্কিত বিনিয়োগগুলি অর্থ ক্ষতিতে পরিণত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

মীন: স্বাস্থ্যের খাতিরে অযথা চিৎকার করবেন না। নতুন বিনিয়োগগুলি কয়েক দিনের জন্য স্থগিত করতে হবে। সামান্য বিনিয়োগের পরে আপনার ভাল লাভের সম্ভাবনাও থাকবে। আপনি সুখ এবং আনন্দ অনুভব করবেন।


আরও খবর
নারীর জন্য প্রয়োজনীয় পাঁচ ভিটামিন

রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

২৩ ফেব্রুয়ারি : ইতিহাসে আজকের এই দিনে

শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




বাংলাকে জাতিসংঘের দাপ্তরিক ভাষা করতে হবে : পরিবেশমন্ত্রী

প্রকাশিত:বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তনমন্ত্রী সাবের হোসেন চৌধুরী বলেছেন, বাংলা ভাষাকে জাতিসংঘের অন্যতম দাপ্তরিক ভাষা করতে হবে। ভাষাভাষী জনসংখ্যার দিক দিয়ে বাংলা পৃথিবীর সপ্তম বৃহত্তম ভাষা।

আজ বুধবার (২১ ফেব্রুয়ারি) শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের পক্ষে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ভাষা শহীদদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন পরিবেশমন্ত্রী।

মন্ত্রী বলেন, বিশ্বব্যাপী ভাষা অধিকার আন্দোলনে বাংলা ভাষা সংগ্রামীরাই অনুপ্রেরণা জুগিয়েছেন। ভাষা শহীদদের ত্যাগ ও বিসর্জন বিশ্বের কাছে অমূল্য। তাঁদের আত্মত্যাগের প্রেরণায় বাংলাদেশ আজ স্বাধীন ও গণতান্ত্রিক দেশ হিসেবে বিশ্বে মাথা উঁচু করে দাড়িয়েছে। 

আরও পড়ুন>> সাম্প্রদায়িকতার বিষবৃক্ষ মুলোৎপাটনই আজকের দিনের অঙ্গীকার: ওবায়দুল কাদের

পরিবেশমন্ত্রী বলেন, ভাষা শহীদেরা বাংলা ভাষাকে কেবল অন্যতম রাষ্ট্রভাষা হিসেবে প্রতিষ্ঠাই করেননি, বরং আমাদের জাতীয়তাবোধ এবং মর্যাদা প্রতিষ্ঠার অতুলনীয় অবদান রেখেছেন। তাঁরা বাঙালি জাতির ঐক্য ও সংহতি দৃঢ় করেছেন এবং মাতৃভাষার প্রতি ভালোবাসা ও সম্মানের বীজ বপন করেছেন। তাঁদের প্রতি সম্মান প্রদর্শন করতে বাংলা ভাষা ও সংস্কৃতির প্রতি শ্রদ্ধাশীল হতে হবে। সর্বস্তরে মাতৃভাষার প্রসার ঘটাতে হবে। ভাষা শহীদদের স্মৃতি ধারণ করে পরিবেশ সুরক্ষায় সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে।

এসময় অন্যান্যের মধ্যে মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. ফারহিনা আহমেদ, অতিরিক্ত সচিব (প্রশাসন) ইকবাল আব্দুল্লাহ হারুন, অতিরিক্ত সচিব (পরিবেশ) ড. ফাহমিদা খানম, বনশিল্প উন্নয়ন করপোরেশনের চেয়ারম্যান মো. নাসির উদ্দিন আহমেদ, বন অধিদপ্তরের প্রধান বনসংরক্ষক মো. আমীর হোসাইন চৌধুরী এবং পরিবেশ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক কাজী আবু তাহেরসহ মন্ত্রণালয় ও অধীন দপ্তরসমূহের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর
জানুয়ারিতে সড়ক দুর্ঘটনায় ৪৮৬ মৃত্যু

রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




এবার প্রেমের টানে নারায়ণগঞ্জে ছুটে এলেন দক্ষিণ আফ্রিকার তরুণী

প্রকাশিত:সোমবার ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
জেলা প্রতিনিধি

Image

প্রেমের কোনো দেশ-কাল-পাত্র নেই। প্রেমের কারণে সাত সমুদ্র তের নদী পার হয়ে যুগে যুগে অনেকেই ছুটে এসেছে তার প্রিয় মানুষটির কাছে। প্রেমের টানে সমাজ-সংসারের সব প্রতিবন্ধকতাকে অতিক্রম করে প্রেমিক-প্রেমিকার মিলনের গল্প নতুন নয়। এবার এমনই এক ঘটনা ঘটেছে নারায়ণগঞ্জে। কোনো বাঁধাই আটকাতে পারেনি তাদের। প্রেমের টানে সুদূর দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে বাংলাদেশে ছুটে এসেছেন ফ্রান্সিসকো নামে এক তরুণী।

ফ্রান্সিসকো দক্ষিণ আফ্রিকার বাসিন্দা। বিয়ে করেছেন নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলার ত্রিবেণী এলাকার বিল্লাল হোসেন সাজ্জাদকে। বর্তমানে তারা এখানেই সংসার শুরু করেছেন।

সুদূর দক্ষিণ আফ্রিকায় ৮ বছর পূর্বে কাজের জন্য যান বিল্লাল হোসেন। সম্প্রতি দেশে ফিরেছেন তিনি। তাকে চমকে দিতে কিছুদিন পরেই বাংলাদেশে এসেছেন ফ্রান্সিসকো। পরে মুসলিম ধর্ম গ্রহণ করলে নাম রাখা হয় মনি হোসাইন। বিল্লাল হোসেন পরিবারের সম্মতিতে গত ১৯ ফেব্রুয়ারি ফ্রান্সিসকোকে বিয়ে করেন।

বিল্লাল হোসেন বলেন, আমার সঙ্গে কখনো ঝগড়া হয়নি। আমাকে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল, আমি বাংলাদেশে এসে পরলে সেও বাংলাদেশে চলে আসবে। সম্প্রতি আমি চলে আসলে ফ্রান্সিসকো চলে আসে।

এখন বিল্লাল হোসেন সাজ্জাদ তার বিদেশী বউকে নিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। পরিচিত করে দিচ্ছেন বাংলাদেশের গ্রাম, সংস্কৃতি আর পরিবেশের সঙ্গে। তার পরিবারের পাশাপাশি প্রতিবেশীরাও ফ্রান্সিসকোকে সাদরে গ্রহণ করে নিয়েছেন।

বিল্লাল সম্পর্কে তার স্ত্রী ফ্রান্সিসকো বলেন, সে খুবই ভালো ছেলে। তার পরিবারও খুব মিশুক। বাংলাদেশের আথিতেয়তায় আমি মুগ্ধ।


আরও খবর



‘টিবিতে আক্রান্ত ৯০ শতাংশ রোগী থেকে যায় শনাক্তের বাইরে’

প্রকাশিত:সোমবার ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
প্রেস বিজ্ঞপ্তি

Image

দেশে প্রতি বছর ৩৮ হাজার মানুষ টিবিতে মারা যাচ্ছেন। এমনকি ৯০ শতাংশ রোগী থেকে যায় শনাক্তের বাইরে। টিবি রোগ নির্ণয় কখনও খুব সহজ আবার কখনও খুবই কঠিন। ফলে রোগী ব্যবস্থাপনায় বিভিন্ন সময়ে অপ্রত্যাশিত ভুল এড়াতে শুধু এক্স-রে দেখে টিবির ওধুষ না দেওয়ার পরামর্শ বিশেষজ্ঞদের। পাশাপাশি সংশ্লিষ্ট সকল পরীক্ষার করিয়ে নিশ্চিত হয়ে তারপর ওষুধ দেওয়ার পরামর্শ দেন তারা।

 পিএইচএ গ্লোবাল সামিট-২০২৪ নয় দিনের সম্মেলনের দ্বিতীয় দিনে আজ সোমবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) ঢাকার ইউনাইটেড কনভেনশন সেন্টারে তাদের অভিজ্ঞতা বিনিময়ে এসব কথা বলেন বিশেষজ্ঞ ।

বিশেষজ্ঞ বলেন, টিবি শনাক্তে দক্ষ না হয়ে উপায় নেই। কারণ আরো অনেক রোগেরও উপসর্গ টিবির মত। তাই টিবি শনাক্তে চিকিৎকদের যথেষ্ঠ সতর্ক হতে হবে।

এছাড়া এক্স-রে, আল্ট্রাসাউন্ড, এমআরআই, সিটি স্ক্যান দ্বারা শরীরের যেকোনো অংশ কিভাবে ছোট ছোট অংশে ভাগ করে পযর্বেক্ষণ করা যায়, সেসব বিষয়গুলো রেডিওলজি কোর্সে উপস্থাপন করা হয়। রেডিওলোজির ব্যবহার নিয়ে যেসব ভুল ব্যাখ্যা আছে সেগুলো বিশ্লেষণ করে দেখিয়ে দেন বিশেষজ্ঞরা। রেডিওলজির পেশাগত ঝুঁকি এড়াতে কমীদের করনীয় সম্পর্কে নির্দেশনা দেন।

আল্টাস্নোগ্রাফির পদ্ধ এবং এর মাধ্যমে রোগ নিণয় সম্পর্কে ও দিক নির্দেশনা দেন। তারা বলেন, আল্টাস্নোগ্রাফি এক্সরের থেকে কম ঝুঁকির্পূণ। কার্ডেওভাসকুলার, এবডোমেন এবং লাং এর বিভিন্ন রোগ আল্টাস্নোগ্রামের মাধ্যমে সহজে শনাক্তের পদ্ধডু হাতে কলমে শেখান। প্রেজেন্টেশনে তারা কেইস স্টাডি বেইস অভিজ্ঞতা বিনিময় করেন। এমনকি হাতে কলমে প্রশিক্ষণ শেষে অংশগ্রহণকারীদের সনদ প্রদান করা হয়।

এই সেশনে প্ল্যানেটারি হেলথ একাডেমিয়া (পিএইচএ) এর চেয়ারপারসন ডা. তাসবিরুল ইসলাম, পিএইচএ এর রেডিওলজি ফ্যাকাল্টি লিড ডা. সাদিয়া সুলতানা, সিসিএম ফ্যাকাল্টি লিড অধ্যাপক আয়েশা শিকদার, কার্ডিয়াক হসপিটাল অ্যান্ড রিসাস সেন্টারের সহযোগী অধ্যাপক ডা. নুসরাত গফুর, ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের সহকারী অধ্যাপক ডা. হেনা খাতুন, এভার কেয়ার হাসপাতালের সিনিয়র কনসালটেন্ট ডা. জাফর ইকবাল পৃথক পৃথক বিষয়ে প্রেজেন্টেশন দেন।

এ দিনে হল-১ এ লন্ডন কোর রিভিউ এবং হল-২ এ ক্রিটিক্যাল কেয়ার ইন অবসটেট্রিকস, রেডিওলোজি কোর্স অনুষ্ঠিত হয়। এর আগে ১৮ ফেব্রুয়ারি রোববার সম্মেলন পূর্ব কোর্স শুরু হয়। এদিন লন্ডন কোর রিভিউ ও পিএএলএস কোর্স অনুষ্ঠিত হয়।

সম্মেলনের মূল পর্ব শুরুর আগে আগামী ৩ দিনে লন্ডন কোর রিভিউ, ক্রিটিক্যাল কেয়ার ইন অবসটেট্রিকস, সিস্টেমেটিক রিভিউ অফ মেডিক্যাল লিটারেচার, ইন্টারন্যাশনাল করফারেন্স অন প্রেডিয়াট্রিকস, মেকানিক্যাল ভেন্টিলেশন, হোমোডায়ালিস কোর্স, গ্যাস্ট্রোএন্টারোলজি ফরগাট এবং পেলভিক মোটিলিটি, ব্রেস্টক্যান্সার প্রিসেটরসিপ ফর ইয়াং অনকোলজিস্ট, কোর্স অন কউিনিকেশন স্কিল নিউরোরেডিওলোজি ওয়ার্কশপ, স্টাটিজিক কোর্স, মাস্টারক্লাস ইন লিভার ট্রান্সপ্লান্ট, আইআর ট্রোন্সপ্লান্ট হেপাটোলজি, ইনাগুরেশন প্রোগ্রাম অনুষ্ঠিত হবে। আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত এসব কোর্সে আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন চিকিৎসা বিজ্ঞানীর তাদের মতামত তুলে ধরবেন।

এই প্রথম বারের দেশে অনুষ্ঠিত হচ্ছে পিএইচএ গ্লোবাল সামিট ২০২৪। এ ধরনের আন্তর্জাতিক সম্মেলন শুধু বাংলাদেশে নয়; দক্ষিণ এশিয়ায় এই প্রথম। নয় দিনের এই সম্মেলনে দুই হাজারের অধিক বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক, গবেষক, শিক্ষাবিদ ও মেডিক্যাল শিক্ষাথী অংশ নিচ্ছেন।

স্পিকার হিসেবে রয়েছেন আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন ৫০ জন চিকিৎসা বিজ্ঞানী এবং দেশের ১০০ জনেরও অধিক খ্যাতিমান চিকিৎসা বিশেষজ্ঞ। নয় দিনের সম্মেলনে থাকছে ৩০ টির বেশি কোর্স এবং সাইন্টিফিক সেশন ।

আগামী ২৪ ও ২৫ ফেব্রুয়ারি ঢাকার শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের কাছে ইউনাইটেড কনভেনশন সেন্টারে সম্মেলনের মূল পর্ব অনুষ্ঠিত হবে। সম্মেলনের পরে ২৬ ও ২৭ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে আরো তিনটি কোর্স। দেশের বৃহৎ কয়েকটি চিকিৎসাসেবা প্রতিষ্ঠানে হতে যাওয়া লাইভ সেশনগুলো দেশি বিদেশি বিশেষজ্ঞদের কাছে নবীন চিকিৎসকগণ নানা জটিল বিষয়ে হাতে কলমে শেখার সুযোগ পাবেন।

ঢাকার ইউনাইটেড কনভেনশন সেন্টারে সামিটের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হবে আগামী ২৩ ফেব্রুয়ারি বিকাল ৫ টায়। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিতি থাকবেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. সামন্ত লাল সেন।

এই সম্মেলনে ইন্টারন্যাশনাল ডায়াবেটিস ফেডারেশন, ওয়ার্ল্ড হার্ট ফেডারেশন, আমেরিকান কলেজ অফ কার্ডিওলজি, রয়েল কলেজ অফ অবস্টেট্রিশিয়ানস অ্যান্ড গাইনোকোলজিস্ট, রয়েল কলেজ অফ ফিজিশিয়ানস লন্ডন, রয়েল কলেজ অফ ফিজিশিয়ানস এডিনবার্গ এর প্রেসিডেন্টবৃন্দ উপস্থিত থাকবেন।

নিউজ ট্যাগ: টিবি

আরও খবর



কানাডায় হকি খেলোয়াড়দের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
ক্রীড়া প্রতিবেদক

Image

প্রাথমিক অভিযোগের ছয় বছর পর নতুন তদন্তের হাত ধরে যৌন হয়রানির অপরাধে অভিযুক্ত হলেন কানাডার পাঁচজন আইস হকি খেলোয়াড়। তদন্তে এত বেশি সময় লাগার জন্য অভিযোগকারীর কাছে ক্ষমা চায় কানাডার পুলিশ।

অভিযুক্ত পাঁচ খেলোয়াড়ের মধ্যে চারজন বর্তমানে দেশের জাতীয় হকি লিগ খেলেন। সোমবার কানাডিয়ান পুলিশ নিশ্চিত করে যে মোট পাঁচজন আইস হকি খেলোয়াড়দের বিরুদ্ধে অভিযোগ এনেছে তারা। এই পাঁচ খেলোয়াড় ২০১৮ সালের জুনিয়র হকি দলের সদস্য ছিলেন।

২০১৮ সালের জুনে প্রথম এই অভিযোগের কথা প্রকাশ হয়। অভিযোগকারী নারী বলেন যে কানাডার ওন্টারিও রাজ্যের লন্ডন শহরের একটি হোটেলের কামরায় আইস হকি দলের সদস্যরা তাকে যৌন হেনস্থা করে। এই মামলাটি পুলিশ ২০১৯ সালে বাতিল করলেও ২০২২ সালে আবার সেই তদন্ত শুরু হয়। এই বিলম্বের জন্য পুলিশ সোমবার ক্ষমা চেয়েছে।

একটি সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ প্রধান থাই ট্রুয়োং বলেন, লন্ডন পুলিশ পরিষেবার তরফে তদন্তে এতটা সময় লাগার জন্য আমি ক্ষমা চাইছি নির্যাতিতার কাছে, তার পরিবারের কাছে। এত সময় লাগা উচিত হয়নি। আজকের পরিণতিতে পৌঁছাতে এত বছর কেটে যাওয়া ঠিক নয়। আমরা কথা দিচ্ছি, এবং আমি নিশ্চিত যে এমন আর হবে না।

যৌন হয়রানির অভিযোগ:

গত সপ্তাহে কর্তৃপক্ষের কাছে আত্মসমর্পণ করেন পাঁচ খেলোয়াড়কার্টার হার্ট, মাইকেল ম্যাকলয়েড, ক্যাল ফুট, ডিলন ডুব ও অ্যালেক্স ফর্মেন্টন। এদের মধ্যে চারজন বর্তমানে দেশটির জাতীয় হকি লিগের খেলোয়াড়, কিন্তু এখন ছুটিতে। ফর্মেন্টন খেলেন সুইজারল্যান্ডে।

তাদের প্রত্যেকের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির একটি অভিযোগ ছাড়াও ম্যাকলয়েডের বিরুদ্ধে রয়েছে অপরাধে সহযোগিতা করার আরেকটি অভিযোগ। পাঁচজনই সকল অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

লন্ডন শহরে সাংবাদিকদের সঙ্গে ৪৫মিনিট কথা বলেন পুলিশ প্রধান ট্রুয়োং। কেন প্রথমে বাতিল করার পর আবার তিন বছর পর তদন্ত শুরু করা হলো, সেবিষয়ে কোনো তথ্য দেননি তিনি।

ডিটেকটিভ সার্জেন্ট ক্যাথরিন ডান, যিনি যৌন হয়রানি ও শিশু নির্যাতন বিভাগে কর্মরত, তিনি ২০২২ সাল থেকে পুনরায় শুরু হওয়া তদন্তের ভার নেন। তার মতে, ২০১৯ সালে শেষ হওয়া তদন্তের সময় নতুন প্রামাণ্য তথ্য হাতে ছিল না।

এই তদন্তে অভিযোগ দায়ের করার জন্য যৌক্তিক ও সম্ভাব্য কারণ ছিল তাদের কাছে, যার ফলে দোষী সাব্যস্ত হলে অভিযুক্তদের কারাবাস করতে হতে পারে। সোমবার শুরু হয়ে এই মামলা চলবে ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত।

জাতীয় ফেডারেশন হকি কানাডা একটি বিবৃতিতে জানায় যে তারা পুলিশের সঙ্গে সম্পূর্ণভাবে সহযোগিতা করছে। কিন্তু সাংবাদিক সম্মেলনে এক সাংবাদিক প্রশ্ন করেন যে প্রাথমিক তদন্তে কোনো ফেডারেশন নেতার সংযোগ পাওয়া গেছে কি না সেই প্রশ্নেরও উত্তর আসেনি।

হকি কানাডার প্রেসিডেন্ট ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ক্যাথরিন হেন্ডারসন বিবৃতিতে বলেন, হকি কানাডা স্বীকার করছে যে অতীতে কোনো পদক্ষেপ নিতে আমাদের দেরি হয়েছে।  কানাডার মানুষ আমাদের কাছে যে অর্থবহ পরিবর্তন আশা করেন, তার লক্ষ্যে আমাদের কাজ করতে হবে অবিলম্বে। যাতে করে, মানুষের আস্থা আমরা ফিরে পাই এবং সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হলো খেলার সময়ে ও অন্যত্র অংশগ্রহণকারীদের একটি নিরাপদ আবহাওয়া নিশ্চিত করা।


আরও খবর



সীমান্তে যেকোনো পরিস্থিতি মোকাবিলায় বিজিবি তৎপর রয়েছে : মহাপরিচালক

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

বিজিবি মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মোহাম্মদ আশরাফুজ্জামান সিদ্দিকী বলেছেন, সীমান্তে উদ্ভুত যেকোনো পরিস্থিতি মোকাবিলায় বিজিবি সদা তৎপর রয়েছে। বুধবার (৭ ফেব্রুয়ারি) বিজিবির কক্সবাজার রিজিয়নের আওতাধীন বাংলাদেশ-মায়ানমার সীমান্ত পরিদর্শনকালে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন।

বিজিবির কক্সবাজার ব্যাটালিয়নের (৩৪ বিজিবি) বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার তুমব্রু ও ঘুমধুম সীমান্ত এলাকা পরিদর্শন এবং সীমান্তে দায়িত্বরত বিজিবি সদস্যদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন তিনি। এসময় দেশের সার্বভৌমত্ব রক্ষায় সবাইকে সর্বোচ্চ পেশাদারিত্বের সঙ্গে দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি সীমান্তে উদ্ভূত যেকোনো পরিস্থিতি মোকাবিলায় তৎপর থাকার নির্দেশনা দেন। একই সঙ্গে তিনি অত্যন্ত দক্ষতা ও পেশাদারিত্বের সঙ্গে দায়িত্ব পালনের জন্য দায়িত্বরত সকল বিজিবি সদস্যের প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন।

পরবর্তীতে বিজিবি মহাপরিচালক মায়ানমারের রাখাইন রাজ্যে চলমান সংঘর্ষের জেরে প্রাণ বাঁচাতে সীমান্ত পেরিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় গ্রহণকারী মায়ানমার সীমান্তরক্ষী বাহিনী বর্ডার গার্ড পুলিশ (বিজিপি), মায়ানমার সেনাবাহিনী, ইমিগ্রেশন সদস্য, পুলিশ ও অন্যান্য সংস্থার সকল সদস্যদের খোঁজ খবর নেন এবং আহত অবস্থায় আগত ও হাসপাতালে চিকিৎসারত বিজিপি সদস্যদের সরেজমিনে দেখতে যান।

সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে বিজিবি মহাপরিচালক বলেন, সীমান্ত পরিস্থিতি সম্পূর্ণ বিজিবির নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। আমরা প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা মেনে ধৈর্য ধারণ করে, মানবিক থেকে এবং আন্তর্জাতিক সুসম্পর্ক বজায় রেখে পরিস্থিতি মোকাবিলার সর্বোচ্চ চেষ্টা করে যাচ্ছি। পরিস্থিতি যাই হোক না কেন, অবৈধভাবে আর একজনকেও বাংলাদেশে ঢুকতে দেয়া হবে না। দেশ মাতৃকার সার্বভৌমত্ব রক্ষায় সীমান্তে উদ্ভুত যেকোনো পরিস্থিতি মোকাবিলায় বিজিবি সর্বোচ্চ ত্যাগ স্বীকারে প্রস্তুত রয়েছে বলেও তিনি দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

পরিদর্শনকালীন বিজিবি মহাপরিচালকের সঙ্গে বিজিবি সদর দপ্তরের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ, কক্সবাজার রিজিয়ন কমান্ডার, রামু সেক্টর কমান্ডার ও কক্সবাজার ব্যাটালিয়নের অধিনায়কসহ বিজিবির অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, মায়ানমারের অভ্যন্তরে চলমান সংঘর্ষের জেরে এখন পর্যন্ত মায়ানমার সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিজিপি), মায়ানমার সেনাবাহিনী, পুলিশ, ইমিগ্রেশন সদস্য ও অন্যান্য সংস্থার ২৬৪ জন সদস্য বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে। বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) তাদেরকে সম্পূর্ণ নিরস্ত্রীকরণ করে নিরাপদ আশ্রয়-প্রশ্রয় এবং আহতদের চিকিৎসাসেবা দিয়ে যাচ্ছে।


আরও খবর