আজঃ রবিবার ০৫ ডিসেম্বর ২০২১
শিরোনাম

আইটি শিল্পের উন্নয়নে একসাথে কাজ করবে বাংলাদেশ-উজবেকিস্তান: প্রতিমন্ত্রী

প্রকাশিত:সোমবার ১৫ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ১৫ নভেম্বর ২০২১ | ৪৭৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

হাই-টেক ম্যানুফ্যাকচারিং, গবেষণা এবং উদ্যোক্তা উন্নয়নে একসাথে কাজ করবে আইটি পার্ক, উজবেকিস্তান ও বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষ। এলক্ষ্যে আজ (শনিবার) বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে এক অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানের মাধ্যমে এক সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়। বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের পক্ষে ব্যবস্থাপনা পরিচালক (রুটিন দায়িত্ব) সৈয়দ জহুরুল ইসলাম এবং আইটি পার্ক, উজবেকিস্তানের পক্ষে প্রতিষ্ঠানটির এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর ইব্রাগিমভ ফারখোদ যাইরোভিচ (Mr. IBRAGIMOV Farkhod Zairovic) সমঝোতা স্মারকে স্বাক্ষর করেন। সমঝোতা স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, সম্প্রতি আমরা মাত্র চার বছরে উজবেকিস্তান কীভাবে উদ্ভাবনের ক্ষেত্রে এগিয়ে গেলো তা দেখতে ও জানতে তাশখন্দের ইনোভেশন সেন্টার পরিদর্শন করি। তখন তাশখন্দে উজবেকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর ডিজিটাল টেকনোলজি উপদেষ্টা অলিমজন ইমারাভ ও উদ্ভাবনী উন্নয়নমন্ত্রী ইব্রোখিম ওয়াই আবদুর আখমনভের সঙ্গে বৈঠককালে জানতে পারি তারা গবেষণা ও উদ্ভাবনের ক্ষেত্রে ব্যাপক গুরুত্ব দিচ্ছে এবং এবং ইতিমধ্যে তারা এক্ষেত্রে ১০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগও পেয়েছে।

তিনি বলেন, এই সমঝোতার মাধ্যমে আইটি পার্ক, উজবেকিস্তান বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের সাথে আইটি/আইটিইএস, হাই-টেক ম্যানুফ্যাকচারিং সুবিধা, নীতি ও কৌশল উন্নয়ন, গবেষণা ও উদ্ভাবন এবং উদ্যোক্তা উন্নয়নে যৌথভাবে কাজ করবে। বাংলাদেশে দক্ষতা উন্নয়ন সম্পর্কিত জিটুজি সহযোগিতার ক্ষেত্রে বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের সাথে সরাসরি কাজ করবে আইটি পার্ক, উজবেকিস্তান। এছাড়া সমঝোতার ফলে আন্তর্জাতিক বাজারে প্রবেশের ক্ষেত্রে দুদেশে গড়ে ওঠা স্টার্টআপ কালচার পারস্পরিক অংশীদারিত্ব ও সহযোগিতার ভিত্তিতে এক সাথে কাজ করতে পারবে এবং উভয় দেশ ও প্রতিষ্ঠানের স্টার্টআপদের জন্য একটি যৌথ ফান্ডিং (তহবিল) প্লাটফর্ম গঠনের জন্যও প্রতিষ্ঠান দুটি একযোগে কাজ করবে। উভয় দেশের উদীয়মান স্টার্টআপদের জন্য প্রশিক্ষণ-ইনকিউবেশন-মেন্টরিং সুবিধা প্রদান করা হবে। এর আওতায় উদীয়মান প্রযুক্তিতে (যেমন: সাইবার সিকিউরিটি, এআই, ব্লকচেইন, মেশিন লার্নিং ইত্যাদি) দক্ষতা বাড়ানোর জন্য যুবক-সরকারী কর্মকর্তা এবং শিল্প বিশেষজ্ঞদের জন্য যৌথ প্রযুক্তিভিত্তিক দক্ষতা উন্নয়ন কর্মসূচি গ্রহণ করা হবে।

উল্লেখ্য, গত সেপ্টেম্বরে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ বিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান এবং আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলকের নেতৃত্বে বাংলাদেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের ব্যবসায়ীদের একটি প্রতিনিধিদল তাসখন্দে উজবেকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর ডিজিটাল টেকনোলজি উপদেষ্টা অলিমজন ইমারাভ ও উদ্ভাবনী উন্নয়নমন্ত্রী ইব্রোখিম ওয়াই আবদুর আখমনভের সঙ্গে বৈঠক করেন। তখন বাংলাদেশ থেকে তথ্যপ্রযুক্তি বা আইটি এবং আইটি এনাবল সেবা নিতে আগ্রহ দেখায় উজবেকিস্তান। অন্যদিকে বাংলাদেশ দেশটির গবেষণা ও উন্নয়নে অংশ নিতে আগ্রহ প্রকাশ করে। এ লক্ষ্যে দেশ দুটি শিগগিরই একটি সমঝোতা স্মারকে সই করার বিষয়ে তখন একমত পোষণ করে। এরই অংশ হিসেবে আজ এই সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হলো। সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে আইটি পার্ক-উজবেকিস্তান, আইসিটি বিভাগ ও বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। 


আরও খবর
বিজয়ের মাসেই ফাইভ-জি

বুধবার ০১ ডিসেম্বর ২০২১




আফ্রিকা থেকে আসা ২৪০ জন নিখোঁজ : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ৩০ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ৩০ নভেম্বর ২০২১ | ৩৬৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের দক্ষিণ আফ্রিকান ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনে কাঁপছে বিশ্ব। এ অবস্থায় আফ্রিকা থেকে দেশে আসা ২৪০ জনের কোন খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক এমপি।

মন্ত্রী বলেন, ডেল্টার চেয়েও বেশি ঝুঁকিপূর্ণ করোনার নতুন ধরন ওমিক্রন। ওমিক্রনের সংক্রমণ রোধে সরকার সতর্ক অবস্থানে আছে। তবে দুঃখের বিষয় গত এক মাসে ২৪০ জন আফ্রিকা থেকে এসেছেন। এখন তাদের খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। তাদের ফোনও বন্ধ।

মঙ্গলবার (৩০ নভেম্বর) দুপুরে সচিবালয়ে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে মন্ত্রী এই তথ্য জানান

তিনি বলেন, আফ্রিকা মহাদেশ থেকে আসতে নিরুৎসাহিত করা হচ্ছে। যদি আসে তাহলে ১৪ দিনের কঠোর কোয়ারেন্টাইন অবশ্যই মানতে হবে। কর্তৃপক্ষকে বলবো, বিদেশ থেকে যারা আসবে, তাদের যেন মনিটরিং করা হয়।

জাহিদ মালেক বলেন, সীমান্তে কঠোর কড়াকড়ি আরোপ করা হবে। সব জেলায় চিঠি দেওয়া হবে। সংক্রমণ ঠেকাতে সব ধরনের সামাজিক রাজনৈতিক অনুষ্ঠান সীমিত করতে হবে।

তবে দেশের করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় আগের চেয়ে সক্ষমতা বেড়েছে বলেও জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী।


আরও খবর



অল্পের জন্য রক্ষা পেলেন নোরা

প্রকাশিত:বুধবার ১৭ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ নভেম্বর ২০২১ | ৫৫৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বলিউডে আইটেম গান বলতেই এখন নোরা ফাতেহির নাম চলে আসে সবার আগে। দিলবার দিলবার গানে তিনি বাজিমাৎ করেছিলেন। তার বেলি ড্যান্সে মেতেছিল নেট দুনিয়া। পরপর বেশ কয়েকটি আইটেম গানে তার কোমর দোলানো জনপ্রিয়তা পেয়েছে।

আবারও নিজের নাচের তালে দর্শকের হৃদয়ে কম্পন ধরিয়েছেন নোরা। এ গানের নাম কুসু কুসু। কয়েক দিন আগেই প্রকাশ্যে এসেছে গানটি। এটি রয়েছে মুক্তি প্রতীক্ষিত সিনেমা সত্যমেভ জয়তে ২তে।

এই গানের দৃশ্যেও খোলামেলা সাজে নেচেছেন নোরা ফাতেহি। সেই পোশাকের কারণেই বিপাকে পড়তে হয়েছে তাকে। শুটিংয়ের অভিজ্ঞতা জানিয়ে নোরা জানান, এই গানের জন্য একটি বিশেষ পোশাকে সেজেছিলেন তিনি। তাতে একটি ওড়না আটকানো ছিল পিঠের সঙ্গে। যার অন্য প্রান্ত জোড়া ছিল গলার হারের সঙ্গে। ওড়নার মধ্যে পাথরের নানা কারুকাজ থাকায় সেটার ওজনও ছিল বেশ। নাচের সময় সেই ওড়নার টান খাওয়ার সঙ্গে নোরার গলায়ও ফাঁস লেগে যায়।

নোরা বলেন, মনে হচ্ছিল, আমার গলায় যেন দড়ি পেঁচিয়ে হিঁচড়ে টেনে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে! নাচের সময়ে বহু ছোটখাটো বিপদ ঘটে। কখনও হাঁটুতে আঘাত লেগে রক্ত ঝরে। কখনও বা পায়ের পাতায় খোঁচা লাগে। কিন্তু কুসু কুসু গানের শুটিংয়ে যা ঘটেছে, তা আমার জীবনের সবচেয়ে ভয়াবহ ঘটনা।’’

তবে বিপদ ঘটার আগেই নাচের স্টেপ থামিয়ে নিজেকে সামলে নেন নোরা। এভাবে থেমে থেমে ছয় ঘণ্টার মতো ওই পোশাকে শুটিং করেছিলেন অভিনেত্রী।

এদিকে ইউটিউবে ইতোমধ্যে কুসু কুসু গানটি ঝড় তুলেছে। মাত্র এক সপ্তাহে গানটিতে ভিউ হয়েছে ৫৫ মিলিয়নের বেশি। 

 

নিউজ ট্যাগ: নোরা ফাতেহি

আরও খবর



বেসরকারি বাসে ‘হাফ পাস’ চালুর বিষয়ে বৈঠক আজ

প্রকাশিত:শনিবার ২৭ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ২৭ নভেম্বর ২০২১ | ৬০৮০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বেসরকারি মালিকানাধীন বাস-মিনিবাসে শিক্ষার্থীদের হাফ ভাড়ার বিষয়ে আলোচনার জন্য আজ শনিবার (২৭ নভেম্বর) বৈঠক হবে। বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ-বিআরটিএ-তে পরিবহন মালিক এবং শ্রমিক ফেডারেশনের নেতাদের নিয়ে বৈঠকটি হওয়ার কথা রয়েছে।

গতকাল শুক্রবার সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এই বৈঠকের কথা জানিয়ে বলেন, সামাজিক দায়বদ্ধতা এবং শিক্ষার্থীদের দাবির প্রতি সংবেদনশীল থেকে পরিবহন মালিকরা ইতিবাচক সিদ্ধান্ত নেবেন বলে আশা করছি।

ওবায়দুল কাদের জানান, দাবির পরিপ্রেক্ষিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সারাদেশে বিআরটিসি বাসের ভাড়া শিক্ষার্থীদের জন্য শতকরা ৫০ ভাগ কমানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। আগামী ১ ডিসেম্বর থেকে এই সিদ্ধান্ত কার্যকর হওয়ার পর শিক্ষার্থীরা হাফ ভাড়ায় বিআরটিসি বাসে যাতায়াত করতে।

শিক্ষার্থীদের টানা বিক্ষোভের মুখে বৃহস্পতিবার এই ইস্যু নিয়ে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের সাথে পরিবহন মালিক-শ্রমিকদের বৈঠক হয়। তবে শিক্ষার্থীদের অর্ধেক ভাড়া কার্যকর করা হবে কি না, সে বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত ছাড়াই ওই বৈঠক শেষ হয়।

নিউজ ট্যাগ: হাফ পাস

আরও খবর



কর্মসংস্থান সৃষ্টি করতে ১২৭৫ কোটি টাকা দেবে এডিবি

প্রকাশিত:সোমবার ২৯ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ২৯ নভেম্বর ২০২১ | ৩৫০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বাংলাদেশে কর্মসংস্থান সৃষ্টির জন্য ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের সহায়তা করবে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি)। এজন্য ১৫ কোটি ডলার ঋণ দিচ্ছে সংস্থাটি। বাংলাদেশি মুদ্রায় এ অর্থের পরিমাণ প্রায় ১ হাজার ২৭৫ কোটি টাকা (প্রতি ডলার ৮৫ টাকা ধরে)।

সোমবার (২৯ নভেম্বর) শেরেবাংলা নগরে অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগে (ইআরডি) এ সংক্রান্ত ঋণচুক্তি সই হয়েছে। সরকারের পক্ষে ইআরডি সচিব ফাতিমা ইয়াসমিন ও এডিবির পক্ষে সংস্থাটির কান্ট্রি ডিরেক্টর এডিমং গিনটিং চুক্তিতে সই করেন।

দেশের তরুণ, বিদেশফেরত কর্মী এবং করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত গ্রামীণ উদ্যোক্তা বিশেষ করে কুটির, মাইক্রো ও ক্ষুদ্র নারী উদ্যোক্তাদের (সিএমএসই) জন্য ঋণ দিচ্ছে সংস্থাটি। বাংলাদেশ ব্যাংক এ ঋণ দেশের ৩০ হাজার সিএমএসই উদ্যোক্তাদের মাঝে বিতরণ করবে। কর্মসংস্থান সৃষ্টি সহজতর করা এবং দুর্বল জনগোষ্ঠীকে মহামারির প্রভাব থেকে পুনরুদ্ধার করতে এ অর্থায়ন করা হচ্ছে।

এছাড়া গ্রামাঞ্চলে মানুষের আয় কমে গেছে এবং কৃষি ছাড়া অন্যান্য কর্মসংস্থানের সুযোগও কমে গেছে। পাশাপাশি গ্রামীণ উদ্যোক্তারাও মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন করোনার প্রভাবে। এসব জনগোষ্ঠীকে সহায়তা করা হবে।

এডিবির এ অর্থে কোভিড-১৯ মহামারির কারণে ক্ষতিগ্রস্ত ৩০ হাজার কুটির, মাইক্রো এবং ছোট আকারের উদ্যোগকে সহায়তা করা হবে। যুব, প্রত্যাবর্তনকারী অভিবাসী শ্রমিক এবং গ্রামীণ জনগোষ্ঠী দ্বারা পরিচালিত কুটির, মাইক্রো এবং ছোট আকারের উদ্যোগের জন্য বাংলাদেশকে এ অর্থায়ন করা হবে। ঋণের এ অর্থে করোনাভাইরাসে ক্ষতিগ্রস্ত বিশেষ করে নারী উদ্যোক্তাদের সহায়তা করা হবে।

ইআরডি সচিব বলেন, এডিবির ঋণ কোভিড-১৯ মহামারির সংকট মোকাবিলায় সহায়তা করবে। ক্ষতিগ্রস্তদের আর্থ-সামাজিক পুনরুদ্ধারে সহায়তা করার জন্য সরকারের প্রচেষ্টাকে এগিয়ে নেবে।

এডিবি কান্ট্রি ডিরেক্টর গিনটিং বলেন, এডিবির এ প্রয়াস নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে সহায়তা করবে। একটি ব্যাপক কর্মপরিকল্পনা তৈরি করে সিএমএসমইকে অর্থায়ন করা হবে। ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীকে সংকট মোকাবিলায় সহায়তা করা হবে। এক কথায় করোনা সংকটে পড়া মানুষকে সহায়তা করতেই ঋণ দিচ্ছে এডিবি।

প্রকল্পটির আওতায় ২০২৫ সালের মধ্যে কমপক্ষে ৪৫ হাজার কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরি করবে। অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধারে সহায়তার জন্য নারীদের অগ্রাধিকার দেওয়া হবে। নারীদের জন্য ২০ শতাংশ ঋণ নির্ধারণ করা হয়েছে। কর্মসূচির আওতায় ৯০ হাজার মানুষকে প্রযুক্তিগত প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে।

নিউজ ট্যাগ: এডিবি

আরও খবর
আলেশা মার্টের কার্যক্রম বন্ধ ঘোষণা

বৃহস্পতিবার ০২ ডিসেম্বর 2০২1




সুশান্তের পাঁচ আত্মীয় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৬ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ নভেম্বর ২০২১ | ৫৬৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর ধাক্কা এখনও সামলে উঠতে পারেনি পরিবার। এর মাঝেই পরিবারের উপর শোকের পাহাড় ভেঙে পড়ল। মঙ্গলবার সকালে বিহারের লাখিসারাইতে সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ হারালেন সুশান্তের পাঁচ আত্মীয়। দুর্ঘটনায় প্রয়াতদের মধ্যে একজন সুশান্তের বড় দুলাভাই। এছাড়াও সুশান্তের দুই ভাগ্নের মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছে ভারতীয় একাধিক সংবাদমাধ্যম।

হলসি থানা এলাকায় একটি ট্রাক এবং একটি মাইক্রোবাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে এই দুর্ঘটনাটি ঘটেছে। মাইক্রোবাসে ছিলেন সুশান্তের পরিবারের সদস্যরা। সকাল সোয়া ছয়টায় ঘটে এই ভয়ঙ্কর দুর্ঘটনা, পরিবারের পাঁচ সদস্য ছাড়াও ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয়েছে গাড়ির চালকের, গুরুতর আহত আরও ৪ জন।

দুর্ঘটনায় প্রাণ হারানো ছয় জনের দেহ ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে, অন্যদিকে আহতদের পাটনা হাসপাতালে চিকিত্সার জন্য নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

জানা যায়, মৃতদের সকলেই পরিবারের এক সদস্যের শেষকৃত্যে যোগ দিতে পাটনা গিয়েছিলেন, সেখান থেকে অনুষ্ঠানে জামুইখেরা ফেরার পথে ঘটে ভয়ঙ্কর দুর্ঘটনা।

মৃতের তালিকায় লালজিত সিং, ভাগিনা নেমানি সিং, রামচন্দ্র সিং এবং মগিনা দেবী, অনীতা দেবী-র নাম রয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীদের দাবি, ভোরবেলায় গাড়ির গতি অনিয়ন্ত্রিত ছিল, পাশাপাশি কুয়াশা থাকায় কিছু বুঝে উঠতে পারার আগেই ঘটে যায় এই দুর্ঘটনা।

 


আরও খবর
করোনায় আরও ৭ হাজারের বেশি মৃত্যু

শনিবার ০৪ ডিসেম্বর ২০২১