আজঃ মঙ্গলবার ০৫ মার্চ ২০২৪
শিরোনাম

আদালত থেকে পালিয়ে ভারত যাওয়ার সময় গ্রেপ্তার

প্রকাশিত:রবিবার ১০ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:রবিবার ১০ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
হবিগঞ্জ প্রতিনিধি

Image

হবিগঞ্জ আদালত প্রাঙ্গন থেকে হাতকড়াসহ পালিয়ে যাওয়া মাদক ব্যবসায়ী রাজুকে তিনদিন পর গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। সিলেটের কোম্পানীগঞ্জে বাংলাদেশ-ভারত সীমান্ত থেকে ভারত পালিয়ে যাওয়ার সময় তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মাধবপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রকিবুল ইসলাম।

গত ৩১ আগস্ট বৃহস্পতিবার ভোররাতে মাধবপুর থানার হরষপুর রেল স্টেশন বাজার এলাকা থেকে রাজুকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব-৯।

সে উপজেলার শিবরামপুর গ্রামের মো. চাঁন বাদশা মিয়ার ছেলে। রাজু একজন পেশাদার মাদক কারবারি। সে সীমান্ত এলাকা থেকে মাদক এনে পুরো জেলায় ছড়িয়ে দিতো। গ্রেপ্তারের সময় তার কাছ থেকে ২৬৪ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার করে।

গ্রেপ্তারের পর মাধবপুর থানা পুলিশ রাজুর বিরুদ্ধে মামলা দিয়ে আদালতে ৫ দিনের রিমান্ড আবেদন করে।

গত বৃহস্পতিবার রিমান্ড শুনানির ছিলো। এ সময় পুলিশ তাকে আদালতে নিয়ে যাওয়ার পর হাতকড়াসহ পালিয়ে যায় রাজু।

শনিবার বিকালে রাজুর বাড়িতে তল্লাশী চালিয়ে হাতকড়াটি উদ্ধার করে পুলিশ।


আরও খবর



সাবেক এমপির গাড়িতে ফেনসিডিল

প্রকাশিত:রবিবার ১১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি

Image

সিরাজগঞ্জে বঙ্গবন্ধু সেতু এলাকা থেকে ঢাকাগামী সাবেক সংসদ সদস্যের (এমপি) শুল্কমুক্ত গাড়ি থেকে ৪৪২ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করেছে র‌্যাব-১২। এ সময় গাড়ি থেকে সুজন (২৯) নামের এক যুবককে আটকের পর গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। তার বাড়ি চাঁদপুরের মতলব থানার এখলাসপুর গ্রামে।

আজ রবিবার দুপুরে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানান র‌্যাব-১২-এর অধিনায়ক মো. মারুফ হোসেন। এর আগে গতকাল শনিবার দুপুরে অভিযান চালিয়ে ওই গাড়ি থেকে মাদকের চালানটি জব্দ করা হয়।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, শনিবার দুপুরে সিরাজগঞ্জ বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম থানার গোলচত্বর মহাসড়কে চেকপোস্ট বসিয়ে একটি গাড়িতে (রেজিস্ট্রেশন নম্বর ঢাকা মেট্রো-ঘ-০২-২৯১৫) তল্লাশি চালানো হয়। এ সময় গাড়ির তেলের ট্যাংক থেকে ৪৪২ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করা হয়। সেখানে সুজনের কাছ থেকে নগদ টাকা, একটি মোবাইল ফোন ও গাড়িটি জব্দ করা হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়, গ্রেপ্তার সুজন দীর্ঘদিন ধরে বড় বড় মাদকের চালান সিরাজগঞ্জসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় সরবরাহ করে আসছিলেন। তার বিরুদ্ধে বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম থানায় একটি মামলা হয়েছে। তবে জব্দ হওয়া গাড়িটি সাবেক কোন এমপির, তা জানায়নি র‌্যাব।


আরও খবর



আজ রোজ ডে : কোন রঙের গোলাপের কী অর্থ

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
জীবন ধারা ডেস্ক

Image

ফেব্রুয়ারির ৭ তারিখ শুরু হয়ে যায় প্রেমের সপ্তাহ। শেষ হয় গিয়ে ১৪ ফেব্রুয়ারি বিশ্ব ভালোবাসা দিবসে। এর আগে একেকদিন একেক দিবস। ৭ তারিখ যেমন রোজ ডে। এইদিন হলো প্রিয় মানুষটিকে গোলাপ দেওয়ার দিন। আমাদের হৃদয়ে লুকিয়ে থাকা ভালোবাসার প্রকাশে গোলাপের ভূমিকা অস্বীকার করার উপায় নেই। একেক রঙের গোলাপ একেক ধরনের অনুভূতি প্রকাশ করে। চলুন, জেনে নেওয়া যাক-

১. সাদা গোলাপ : সাদা মানেই পবিত্রতার এক রূপ। অনেক দেশে বিয়ের সময় কনের হাতে রাখা হয় সাদা গোলাপ। কারণ এই ফুলকে মনে করা হয় নতুন শুরুর প্রতীক। এটি কারও অনুপস্থিতিতে তাকে অনুভব করাও বোঝায়। তাই প্রিয় মানুষটিকে মনে পড়লে আর এই মুহূর্তে তার কাছে যাওয়ার সুযোগ না থাকলে তার ঠিকানায় পাঠিয়ে দিতে পারেন একগুচ্ছ সাদা গোলাপ।

২. লাল গোলাপ: লাল গোলাপ কীসের প্রতীক সেকথা আর আলাদা করে বলে দিতে হবে না নিশ্চয়ই? অসংখ্য কবির লেখা কবিতায়, গীতিকারের লেখা গানে, লেখকের লেখা গল্প কিংবা উপন্যাসে প্রেমের প্রতীক হিসেবে এসেছে লাল গোলাপের কথা। এই গোলাপ ভালোবাসা, মুগ্ধতা, বিশ্বস্ততা, সৌন্দর্যের প্রতীক। প্রেম নিবেদনের ক্ষেত্রে লাল গোলাপের আবেদন কখনো পুরনো হবে না।

৩. হলুদ গোলাপ: গোলাপ মানেই সুন্দর। হলুদ রঙের গোলাপ আসলে কীসের প্রতীক? এটি আসলে প্রেমেরও আগের ধাপ, অর্থাৎ বন্ধুত্বের প্রতীক। হৃদয়ে আনন্দ উপচে পড়লে একগুচ্ছ হলুদ গোলাপ দিতে পারেন বন্ধুর হাতে। আবার কারও আরোগ্য কামনায়ও এই গোলাপ উপহার দেওয়া যায়। কারণ এটি সুস্থতারও প্রতীক।

৪. গোলাপি গোলাপ: প্রেমের ভাষা যে কেবল লাল গোলাপই তুলে ধরে, তা কিন্তু নয়। গোলাপী রঙের গোলাপও এক্ষেত্রে কম যায় না। আপনার মনের ভাষা মুখে না বলতে পারলে প্রিয় মানুষটির হাতে তুলে দিন একগুচ্ছ গোলাপি রঙের গোলাপ। এটি কৃতজ্ঞতা, স্বীকৃতি, ভালোবাসার প্রতীক। আবার প্রিয় বন্ধুর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশের গোলাপি রঙের গোলাপ দিতে পারেন।

৫. কমলা গোলাপ : কমলা গোলাপ ব্যবহার করা হয় হৃদয়ের আবেগ, উৎসাহ, উদ্দীপনা বোঝাতে। নিজের সঙ্গী কিংবা মনের মানুষকে কোনো বিষয়ে সমর্থন দেওয়ার জন্য এই গোলাপ উপহার দিতে পারেন। কমলা রঙের গোলাপ উপহার দেওয়ার অর্থ হলো আপনি তার সঙ্গী হয়ে আছেন। এতে সে স্বপ্ন জয়ের পথে আরও দৃঢ় পায়ে এগিয়ে যেতে পারবে।


আরও খবর
মজাদার ফুলকপির বিরিয়ানি

সোমবার ০৪ মার্চ ২০২৪




টেলিটকের এমডিসহ সাতজনের বিরুদ্ধে মামলা

প্রকাশিত:বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আদালত প্রতিবেদক

Image

বাংলাদেশ সাবমেরিন কেবল কোম্পানি লিমিটেড ও টেলিটকের এমডি এবং বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের সাবেক কমিশনারসহ দুই প্রতিষ্ঠানের ঊর্ধ্বতন আট কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। দুর্নীতি ও অনিয়মের কারণে সহজ শর্তে জাইকার ১৬৪ কোটি ৫২ লাখ টাকার ঋণ থেকে সরকারকে বঞ্চিত করার অভিযোগে এই মামলা দায়ের করা হয়েছে।

দুদকের উপ-পরিচালক (জনসংযোগ) আকতারুল ইসলাম জানান, মঙ্গলবার দুদকের সহকারী পরিচালক মুহাম্মদ জয়নাল আবেদীন বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন।

আসামিরা হলেন- বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের সাবেক কমিশনার আমিনুল হাসান, বাংলাদেশ সাবমেরিন কেবল কোম্পানি লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও বিটিসিএলের সাবেক পরিচালক-১ মশিউর রহমান, বিটিসিএলের টিএনডি প্রকল্পের সাবেক ডিই-৫ মো. আতাউর রহমান, টেলিটকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. শাহাব উদ্দিন, বাংলাদেশ সাবমেরিন কেবল কোম্পানি লিমিটেডের বর্তমান মহাব্যবস্থাপক ও বিটিসিএলের সাবেক পরিচালক মো. আজম আলী, বিটিসিএলের সাবেক পরিচালক মাকসুদুর রহমান আকন্দ, বিটিসিএলের বর্তমান প্রকল্প পরিচালক অশোক কুমার মন্ডল এবং বিটিসিএলের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক মাহফুজ উদ্দিন আহমদ। আসামিদের বিরুদ্ধে দণ্ডবিধির ৪০৯, ৪২০, ৪৬৮, ৪৭১, ৫১১, ১০৯ ধারা এবং ১৯৪৭ সালের দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনের ৫(২) ধারায় অভিযোগ আনা হয়েছে।

মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, আসামিরা পরস্পর যোগসাজশে অর্পিত দায়িত্ব যথাযথভাবে পালন না করে সরকারি ক্ষমতার অপব্যবহারে সরকারকে আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছেন। আসামিরা টেলিকমিউনিকেশন নেটওয়ার্ক ডেভেলপমেন্ট (টিএনডি) প্রজেক্ট টেন্ডার প্রক্রিয়ায় সর্বনিম্ন দরদাতাকে বাদ দিয়ে নিজেদের পছন্দের ঠিকাদারকে কাজ পাইয়ে দেওয়ার অসৎ উদ্দেশ্যে কাজ করেছেন। এ কাজে তারা প্রাকযোগ্যতা মূল্যায়নের নির্ণায়ক পরিবর্তন, মূল দরপত্র আহ্বানের দুই মাস পর প্রাক্কলন নির্ধারণসহ ক্রয় আইন-বিধি ও জাইকার গাইডলাইন অনুসরণ না করে অহেতুক কালক্ষেপণ করেছেন। যে কারণে আগ্রহ হারিয়ে ২০১৫ সালের ৭ মে মাত্র ০.০১ শতাংশ সহজ শর্তের সুদে ১৬৪ কোটি ৫২ লাখ ১৫ হাজার টাকার ঋণ-প্রস্তাব ফেরত নিয়ে যায় দাতা সংস্থা জাইকা। এর মাধ্যমে দেশকে বড় একটি ঋণ সুবিধা থেকে বঞ্চিত করা হয়েছে এবং দেশের আর্থিক ক্ষতিসাধন করা হয়েছে।


আরও খবর



যুক্তরাষ্ট্রে সড়ক দুর্ঘটনায় বাংলাদেশি দম্পতি নিহত

প্রকাশিত:রবিবার ১১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে সড়ক দুর্ঘটনায় দুই বাংলাদেশি নিহত হয়েছেন। দেশটির স্থানীয় সময় শুক্রবার (৯ ফেব্রুয়ারি) রাতে বিন হ্যাম্পটন থেকে ফেরার পথে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন হাফিজ ও সাকি আহমেদ। গুরুতর আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন তাদের দুই ছেলে-মেয়ে।

নিউইয়র্ক স্টেট পুলিশ জানিয়েছে, নিউইয়র্কের অরেঞ্জ কাউন্টিতে একটি অপরাধীর গাড়ির ধাওয়া করছিল পুলিশ। এ সময় দুষ্কৃতকারীদের গাড়ির সঙ্গে হাফিজ দম্পতির গাড়ির ধাক্কা লাগে। এতে ঘটনাস্থলেই নিহত হন দুজন।

ময়নাতদন্ত শেষে তাদের লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। এ ঘটনায় বাংলাদেশি কমিউনিটিতে নেমে এসেছে শোকের ছায়া।


আরও খবর



বাংলাদেশসহ যেসব দেশে পেঁয়াজ রপ্তানির অনুমতি দিলো ভারত

প্রকাশিত:সোমবার ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
কূটনৈতিক প্রতিবেদক

Image

বাংলাদেশসহ কয়েকটি দেশে পেঁয়াজ রপ্তানির অনুমতি দিয়েছে ভারত। দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুপারিশে সরকার-টু-সরকার (জিটুজি) ভিত্তিতে এ অনুমোদন দেয়া হয়েছে। সোমবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) বাণিজ্যভিত্তিক প্রভাবশালী ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইকোনমিক টাইমসের এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানা গেছে।

বিষয়টির সঙ্গে সংশ্লিষ্ট নয়াদিল্লি সরকারের এক কর্মকর্তা বলেন, দ্বিপক্ষীয় উদ্দেশে সীমিত পরিমাণে পেঁয়াজ রপ্তানির অনুমতি দেয়া হয়েছে। তবে মসলাজাতীয় পণ্যটি রপ্তানিতে আরোপিত নিষেধাজ্ঞা সম্পূর্ণ প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়নি।

আরেক ব্যক্তি বলেন, বাংলাদেশসহ শ্রীলঙ্কা, মাউরিশিয়াস, বাহরাইন, ভুটান ও নেপালে সীমিত পরিমাণ পেঁয়াজ রপ্তানির অনুমতি দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। তবে কত মেট্রিক টন পণ্যটি রপ্তানি করা হবে-এ নিয়ে স্পষ্ট কিছু জানায়নি তারা।

বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহৎ পেঁয়াজ রপ্তানিকারক ভারত। ২০২৩ সালের ডিসেম্বরে রান্নাঘরের মুখ্য পণ্যটি রপ্তানিতে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে দেশটির সরকার। ২০২৪ সালের মার্চ পর্যন্ত তা বহাল রাখার কথা জানিয়েছিল তারা। দেশের অভ্যন্তরে ক্রমবর্ধমান মূল্য বৃদ্ধি নিয়ন্ত্রণ এবং পর্যাপ্ত সরবরাহ নিশ্চিত করতে এ পদক্ষেপ নেয়া হয়। ফলে প্রতিবেশী দেশগুলোতে পেঁয়াজের দর বেড়ে যায়।

নিউজ ট্যাগ: পেঁয়াজ রপ্তানি

আরও খবর