আজঃ সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

৮ ডিসেম্বর : ইতিহাসে এই দিনে

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৮ ডিসেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৮ ডিসেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

আজ ৮ ডিসেম্বর, ২০২৩ শুক্রবার। একনজরে দেখে নেওয়া যাক ইতিহাসের এ দিনে ঘটে যাওয়া উল্লেখযোগ্য ঘটনা, বিশিষ্টজনের জন্ম-মৃত্যুদিনসহ গুরুত্বপূর্ণ আরও কিছু বিষয়।

ঘটনাবলি :

১৬০৯ - ইউরোপের দ্বিতীয় পাবলিক লাইব্রেরি চালু হয়।

১৭৯৪ - হেরাল্ড অব রুটল্যান্ডের প্রথম সংখ্যা প্রকাশিত হয়।

১৮৬৮ - জাপানে শুউগুনদের একনায়ক শাসনের অবসান ঘটে এবং এরপর থেকে সেদেশে সাংস্কৃতিক, সামাজিক ও রাজনৈতিক সংস্কার প্রক্রিয়া শুরু হয়।

১৮৮১ - ভিয়েনার রিং থিয়েটার পুড়ে যায়।

১৯১৪ - আর্জেন্টিনার উপকণ্ঠে একটি দ্বীপপুঞ্জের কাছে ফাল্কল্যান্ড সাগরে বৃটিশ ও জার্মানীর মধ্যে বড় ধরণের যুদ্ধ সংঘটিত হয়েছিল।

১৯১৭ - ব্রিটেনের কাছে জেরুজালেমের আত্মসমর্পণ।

১৯১৮ - ব্রিটেন জেরুজালেম দখল করে।

১৯২৩ - যুক্তরাষ্ট্র ও জার্মানির মধ্যে বন্ধুত্ব চুক্তি হয়।

১৯৪১ - গ্রেট ব্রিটেন, অস্ট্রেলিয়া ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র জাপানের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করে।

১৯৪৬ - সংবিধান রচনার জন্য দিল্লিতে ভারতের গণপরিষদের প্রথম সভা হয়।

১৯৪৯ - চীনের জাতীয়তাবাদী নেতা চিয়াং কাইশেক মাওসেতুং এর নেতৃত্বে কমিউনিষ্ট দলের সমর্থকদের কাছে পরাজিত হওয়ার পর কিছু সংখ্যক সমর্থক নিয়ে তাইওয়ানে পালিয়ে যান।

১৯৫৮ - নিখিল আফ্রিকা গণ সম্মেলন ঘানার রাজধানী আক্রায় অনুষ্ঠিত হয় ।

১৯৭১ - ভারত পাকিস্তান যুদ্ধে ভারতীয় নৌবাহিনী পাকিস্তানের করাচী বন্দরে হামলা করে।

১৯৭১ - শেরপুরের নকলা পাক হানাদার মুক্ত হয়।

১৯৭৪ - গ্রীসে রাজতন্ত্র বিলুপ্ত হয়।

১৯৮৫ - দক্ষিণ এশীয় আঞ্চলিক সহযোগিতা সংস্থা [সার্ক] গঠিত হয়।

১৯৮৭ - ফিলিস্তিনে ইহুদি বসতকারী ইজরায়েলের সৈন্যরা গাজা সীমান্তে এক সড়ক দূর্ঘটনায় ৪ ফিলিস্তিনিকে হত্যা করে ও ৭ জনকে আহত করে। এর ফলে ইন্তিফাদা আন্দোলন শুরু হয়।

১৯৯১ - এই দিন রাশিয়া, বেলারুশ ও ইউক্রেইনের নেতারা একটি চুক্তির মাধ্যমে সোভিয়েত ইউনিয়ন বিলুপ্ত করেন এবং কমনওয়েলথ অব ইন্ডিপেন্ডেন্ট স্টেটস গঠন করেন।

১৯৯৬ - জাকার্তায় ওআইসি পররাষ্ট্রমন্ত্রী সম্মেলন শুরু হয়।

১৯৯৭ - ৪৫ বছর বয়স্ক জেনী হিপলি নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথগ্রহণ করেন এবং নিউজিল্যান্ডের ইতিহাসে প্রথম নারী প্রধানমন্ত্রী হন।

২০০৯ - বাগদাদে এক বোমা বিষ্ফোরণে ১২৭ জন নিহত ও ৪৪৮ জন আহত হয়।

জন্ম :

১৬২৬ - সুইডেনের রানি ক্রিশ্চিয়ানা।

১৮৩২ - নোবেলজয়ী [১৯০৩] নরওয়েজীয় কবি ও নাট্যকার বিওর্নস্টার্নে বিওর্নসন।

১৮৬৫ - জাক হাদামার্দ, ফরাসি গণিতবিদ।

১৯০০ - খ্যাতিমান নৃত্যশিল্পী উদয়শঙ্কর।

১৯১৩ - কমিউনিস্ট বুদ্ধিজীবী ও ইতিহাসবিদ চিন্মোহন সেহানবীশ।

১৯২৭ - ইংলিশ চ্যানেল বিজয়ী সাঁতারু ব্রজেন দাস।

১৯৪১ - জিওফ্রে চার্লস হার্স্ট, প্রাক্তন ইংরেজ ফুটবলার।

মৃত্যু :

১৫৬০ - সুইডেনের রাজা ফ্রেডরিক।

১৯০৩ - খ্যাতনামা বৃটিশ চিন্তাবিদ ও দার্শনিক হার্বাট স্পেনসার।

১৯২০ - শাইখুলহিন্দ হযরত মাওলানা মাহমুদ হোসাইন।

১৯৫৫ - জার্মান গণিতবিদ হেরমান ভাইল।

১৯৮০ - বিটলসের কিংবন্তী গায়ক, গীতিকার ও শান্তিকর্মী জন লেনন নিউ ইয়র্কে মার্ক ডেভিড চাপম্যান নামক মানসিক ভারসাম্যবিহীন এক ব্যক্তির গুলিতে নিহত হন।

১৯৮৬ - বাংলাদেশী সাহিত্যিক ও শিক্ষাবিদ আ ন ম বজলুর রশীদ।

১৯৯১ - মেলবোর্ন অলিম্পিক [১৯৫৬] তিন হাজার মিটার, পাঁচ হাজার মিটার ও ৬ মাইল দৌড় প্রতিযোগিতায় রেকর্ড সৃষ্টিকারী অ্যাথলিট গর্ডন পিরি।


আরও খবর
ইতিহাসে আজকের এই দিনে

শুক্রবার ২৬ জানুয়ারী ২০২৪

২৫ জানুয়ারি : ইতিহাসে আজকের এই দিনে

বৃহস্পতিবার ২৫ জানুয়ারী ২০২৪




বাংলাদেশ বিমান বাহিনী ও প্যাসিফিক এয়ারফোর্সের যৌথ অনুশীলন মহড়া শুরু

প্রকাশিত:সোমবার ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
প্রেস বিজ্ঞপ্তি

Image

সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের নির্দেশনা ও বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর ব্যবস্থাপনায় বাংলাদেশ বিমান বাহিনী ও যুক্তরাষ্ট্রের প্যাসিফিক এয়ার ফোর্সের অংশগ্রহণে ১০ (দশ) দিনব্যাপী এক্সারসাইজ কোপ সাউথ-২০২৪ শীর্ষক যৌথ মহড়া ১৯ ফেব্রুয়ারি (সোমবার) তারিখ হতে শুরু হয়েছে।

এ উপলক্ষে আজ বাংলাদেশ বিমান বাহিনী ঘাঁটি বঙ্গবন্ধুতে একটি উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। বঙ্গবন্ধু ঘাঁটির এয়ার অধিনায়ক এয়ার ভাইস মার্শাল মোঃ বদরুল আমিন, ওএসপি, বিইউপি, এনডিসি, এফএডব্লিউসি, পিএসসি উক্ত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন।  

এক্সারসাইজ কোপ সাউথ-২০২৪ এ মূলত আপদকালীন এবং প্রাকৃতিক দূর্যোগ মোকাবেলার পাশাপাশি বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর পরিবহণ বিমানগুলোর সর্বোচ্চ ব্যবহার নিশ্চিত করার উদ্দেশ্যে বিভিন্ন ধরণের অনুশীলন করা হবে। এই মহড়ায় বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর একটি সি-১৩০জে এবং প্যাসিফিক এয়ার ফোর্সের দুইটি সি-১৩০জে পরিবহন বিমান অংশগ্রহণ করছে।

এছাড়াও বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর একটি এএন-৩২ পরিবহন বিমানকে উক্ত মহড়ায় অংশগ্রহণের জন্য প্রস্তুত রাখা হয়েছে। এক্সারসাইজ কোপ সাউথ-২০২৪-এ বিমান বাহিনীর মোট ২৫০ জন সদস্য ও যুক্তরাষ্টের প্যাসিফিক এয়ার ফোর্সের ৭৮ জন সদস্য অংশ নিবেন।

বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর ১২ জন প্যারাট্রুপারের পাশাপাশি বাংলাদেশ সেনাবাহিনী হতে ৩০ জন (১১ জন ফ্রি ফলার ও ১৯ জন স্ট্যাটিক জাম্পার) ও বাংলাদেশ নৌবাহিনী হতে ৪০ জন প্যারাট্রুপার উক্ত মহড়ায় অংশগ্রহণ করবে।

এই মহড়ায় বাংলাদেশ বিমান বাহিনী এবং যুক্তরাষ্ট্রের প্যাসিফিক এয়ার ফোর্সের মধ্যে আন্তঃসক্ষমতা বৃদ্ধি, প্রশিক্ষণ বিনিময়, প্রশিক্ষণকালীন ব্যবহৃত বিভিন্ন যন্ত্রপাতির কার্য উপযোগিতা মূল্যায়ন এবং তার উন্নত ব্যবহারের পরামর্শ গ্রহণ, ভবিষ্যতে এই কার্যক্রমে বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর যে সকল যন্ত্রপাতির প্রয়োজন হবে তা নির্ণয় এবং পরিবহণ বিমানের উন্নত রক্ষণাবেক্ষণের বিভিন্ন কার্য পদ্ধতিসহ বিভিন্ন বিষয়ের উপর আলোকপাত করা হবে।


আরও খবর



গাজায় ছয় সপ্তাহের যুদ্ধবিরতির চেষ্টা করছে যুক্তরাষ্ট্র : বাইডেন

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেছেন, একটি বৃহত্তর চুক্তির অংশ হিসেবে গাজা উপত্যকায় কমপক্ষে ছয় সপ্তাহের যুদ্ধবিরতি নিয়ে আলোচনার জন্য যুক্তরাষ্ট্র কাজ করছে, যাতে জিম্মিদের মুক্তির বিষয়টিও থাকবে।

জর্ডানের বাদশাহ দ্বিতীয় আবদুল্লাহকে পাশে নিয়ে গতকাল সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) হোয়াইট হাউসে বাইডেন বলেন, ইসরায়েল ও হামাসের মধ্যে একটি জিম্মি চুক্তি নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র কাজ করছে, যা গাজায় অবিলম্বে কমপক্ষে ছয় সপ্তাহের যুদ্ধবিরতি এবং টেকসই শান্তি আনবে।

বাইডেন বলেন, মিসরীয় সীমান্তের কাছে দক্ষিণাঞ্চলীয় শহর রাফাহতে আশ্রয় নেওয়া বেসামরিক নাগরিকদের সুরক্ষিত করা দরকার। কারণ, ঘনবসতিপূর্ণ এই এলাকায় একটি স্থল অভিযান চালানোর পরিকল্পনা করছে ইসরায়েল। সেখানে ১০ লাখের বেশি ফিলিস্তিনি আশ্রয় নিয়েছেন এবং আটকা পড়েছেন।


আরও খবর



জয় হয়েছে জনগণের, জয় হয়েছে গণতন্ত্রের : রাষ্ট্রপতি

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ৩০ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ৩০ জানুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সম্পন্ন করায় নির্বাচন কমিশনসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন। তিনি বলেন, নির্বাচন কমিশনের সফলভাবে নির্বাচন পরিচালনার মাধ্যমে দেশে গণতান্ত্রিক শক্তি আরও সুদৃঢ় হয়েছে। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জয় হয়েছে দেশের জনগণের, জয় হয়েছে গণতন্ত্রের। মঙ্গলবার দ্বাদশ জাতীয় সংসদের প্রথম অধিবেশনে দেওয়া ভাষণের শুরুতে এসব কথা বলেন রাষ্ট্রপতি।

নির্বাচনে জয়-পরাজয় থাকবে উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি বলেন, জনগণের রায় মেনে নিয়ে গণতন্ত্রের ধারা অব্যাহত রাখাই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। দেশের গণতন্ত্রের জন্য দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষভাবে আয়োজন অত্যন্ত যুগান্তকারী ঘটনা, যা জাতীয় ও আন্তর্জাতিক অঙ্গনে ব্যাপক প্রশংসিত হয়েছে। আমার দৃঢ় বিশ্বাস দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জয় হয়েছে দেশের জনগণের, জয় হয়েছে গণতন্ত্রের।

তিনি বলেন, নির্বাচন ঘিরে একটি মহল সহিংসতা ও সংঘাত সৃষ্টি করে গণতন্ত্রের শান্ত-স্নিগ্ধ যাত্রাপথে বাধা সৃষ্টির অপচেষ্টা চালিয়েছিল। তাদের গণতন্ত্র বিরোধী ও সহিংস কর্মকাণ্ড সাময়িকভাবে জনগণকে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠার মধ্যে রাখলেও ভোটারদের ভোটদান থেকে বিরত রাখতে পারেনি। সাধারণ মানুষের স্বতঃস্ফূর্ত ও সক্রিয় অংশগ্রহণের জন্যই সরকার ও নির্বাচন কমিশনের সব পদক্ষেপ সার্থক হয়েছে। 

আরও পড়ুন>> দ্বাদশ জাতীয় সংসদের প্রথম অধিবেশন শুরু

তিনি আরও বলেন, নির্বাচন বর্জনকারী দলগুলো সম্পূর্ণ স্বাধীনভাবে তাদের রাজনৈতিক কর্মসূচি পালন করেছে। আমি আশা করি ভবিষ্যতে দেশের রাজনৈতিক দলগুলো সহিংসতা ও নৈরাজ্যের পথ পরিহার করে সাংবিধানিক অধিকার প্রতিষ্ঠা এবং জনগণ ও গণতন্ত্রের কল্যাণে অহিংস পন্থায় গঠনমূলক কর্মসূচি পালন করবে। সরকারও এক্ষেত্রে সংযত আচরণ করবে- এটাই সবার প্রত্যাশা।

১৯৭৫-এর ১৫ই আগস্টের বর্বর হত্যাকাণ্ড ইতিহাসে সবচেয়ে বেদনাদায়ক অধ্যায় উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি নিহত বঙ্গবন্ধু পরিবারের আত্মার মাগফিরাত ও শান্তি কামনা করেন।

মো. সাহাবুদ্দিন বলেন, ২০০১ সালের নির্বাচন পরবর্তী দেশে যে নৃশংস সহিংসতা হয়েছিল তা ছিল বাংলাদেশের ইতিহাসে একটি কলঙ্কজনক অধ্যায়। এর মাধ্যমে আমাদের হাজার বছরের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির ঐতিহ্যকে ভূলুণ্ঠিত করা হয়েছিল। কিন্তু ২০০৮ সালের নির্বাচনসহ পরবর্তীতে অনুষ্ঠিত সকল নির্বাচনে সহিংসতার পুনরাবৃত্তি থেকে মুক্তি পেয়েছি।

গণতন্ত্র ও উন্নয়নের নিষ্কণ্টক পথচলার জন্য রাজনৈতিক দলগুলো উদার ও গঠনমূলক মনোভাব নিয়ে জনগণের পাশে দাঁড়াবে এটাই দেশবাসীর প্রত্যাশা বলেও উল্লেখ করেন রাষ্ট্রপতি।


আরও খবর



রমজানে রাজধানীতে সুলভমূল্যে দুধ-ডিম-মাংস বিক্রি করবে সরকার

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

আসন্ন রমজানে রাজধানীর ২৫টি স্পটে সুলভমূল্যে দুধ, ডিম, মাংস, ড্রেসড ব্রয়লারসহ অন্যান্য খাদ্যপণ্য সরবরাহ করা হবে। গত রমজানের চেয়ে এবার পাঁচটি স্পট বাড়ানো হয়েছে। এসব পণ্যের দাম সহনীয় পর্যায়ে রাখা হবে।

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী মো. আব্দুর রহমান বৃহস্পতিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) রমজান মাস উপলক্ষে মন্ত্রণালয়ের করণীয় হিসেবে বিভিন্ন এজেন্ডার ওপর আলোচনাসভায় মন্ত্রী এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, আসন্ন রমজানে ঢাকা শহরে আরও নতুন পাঁচটি স্পট বাড়ানো হয়েছে। এসব পণ্য সুলভ মূল্যে বিপণন করা হবে।

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী বলেন, জনগণ যাতে রমজানে সুলভ মূল্যে প্রাণিজ পণ্য কিনতে পারে সেদিকে ব্যবসায়ীদের খেয়াল রাখতে হবে।

গত বছর রমজানে কার্যক্রমে গরুর মাংস প্রতি কেজি ৬৪০ টাকা, খাসির মাংস প্রতি কেজি ৯৪০ টাকা, ড্রেসড ব্রয়লার প্রতি কেজি ৩৪০ টাকা, দুধ প্রতি লিটার ৮০ টাকা এবং ডিম প্রতিটি ১০ টাকা মূল্যে বিক্রয় করা হয়। তবে এ বছর পণ্যগুলোর দাম এখনও নির্ধারণ করা হয়নি।

সঠিক মূল্যে পশুখাদ্য উপকরণ আমদানির ক্ষেত্রে ব্যবসায়ীদের সহযোগিতার জন্য বাণিজ্য মন্ত্রণালয়, কৃষি মন্ত্রণালয়, জাতীয় রাজস্ব বোর্ড, ট্যারিফ কমিশনসহ সংশ্লিষ্ট অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলোচনা করে ব্যবস্থা নিতে হবে বলে জানিয়েছেন মন্ত্রী।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. সেলিম উদ্দিন, অতিরিক্ত সচিব এটিএম মোস্তফা কামাল, কৃষি মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব শাহীন আখতার, প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ডা. মো. এমদাদুল হক তালুকদার।


আরও খবর



বিশ্ববাজারে সোনার দরপতন

প্রকাশিত:রবিবার ২৮ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৮ জানুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক

Image

বিশ্ববাজারে ধারাবাহিকভাবে কমছে সোনার দাম। গত ডিসেম্বরে রেকর্ড সৃষ্টি করার পর থেকেই বিশ্ববাজারে সোনার দাম কমতে দেখা যাচ্ছে। গত সপ্তাহেও পতনের মধ্যে ছিল সোনা। এতে এক মাসের ব্যবধানে বিশ্ববাজারে সোনার দাম প্রায় তিন শতাংশ কমে গেছে।

বিশ্ববাজারে সোনার দাম কমার মধ্যেই সম্প্রতি দেশের বাজারে সোনার দামে নতুন ইতিহাস সৃষ্টি হয়েছে। যদিও রেকর্ড দাম নির্ধারণের পরদিনই সোনার দাম কমানো হয়। দাম বাড়ানোর পরদিনই দাম কমানোর ঘটনা এর আগে দেশে কখনো ঘটেনি।

গত ১৮ জানুয়ারি সব থেকে ভালো মানের বা ২২ ক্যারেটের এক ভরি সোনার দাম ১ হাজার ৪০০ টাকা বাড়িয়ে নির্ধারণ করা হয় ১ লাখ ১২ হাজার ৪৪১ টাকা। ২১ ক্যারেটের এক ভরি সোনার দাম ১ হাজার ২৮৩ টাকা বাড়িয়ে ১ লাখ ৭ হাজার ৩০৯ টাকা নির্ধারণ করা হয়।

এছাড়া ১৮ ক্যারেটের এক ভরি সোনার দাম ১ হাজার ১৬৬ টাকা বাড়িয়ে ৯২ হাজার ২৯ টাকা নির্ধারণ করা হয়। আর সনাতন পদ্ধতির এক ভরি সোনার দাম ৯৩৩ টাকা বাড়িয়ে ৭৬ হাজার ৬৩২ টাকা নির্ধারণ করা হয়। দেশের বাজারে এটাই সোনার সর্বোচ্চ দাম। এ রেকর্ড দামে সোনা বিক্রি হয় শুধু ১৮ জানুয়ারি।

পরদিন অর্থাৎ ১৯ জানুয়ারি সব থেকে ভালো মানের বা ২২ ক্যারেটের এক ভরি সোনার দাম ১ হাজার ৭৫০ টাকা কমিয়ে নির্ধারণ করা হয় ১ লাখ ১০ হাজার ৬৯১ টাকা। ২১ ক্যারেটের এক ভরি সোনার দাম ১ হাজার ৬৩৩ টাকা কমিয়ে ১ লাখ ৫ হাজার ৬৭৬ টাকা নির্ধারণ করা হয়। এছাড়া ১৮ ক্যারেটের এক ভরি সোনার দাম ১ হাজার ৪৫৮ টাকা কমিয়ে ৯০ হাজার ৫৭১ টাকা নির্ধারণ করা হয়। আর সনাতন পদ্ধতির এক ভরি সোনার দাম ১ হাজার ১৬৬ টাকা কমিয়ে ৭৫ হাজার ৪৬৬ টাকা নির্ধারণ করা হয়। বর্তমানে দেশের বাজারে এ দামেই সোনা বিক্রি হচ্ছে।

দেশের বাজারে সোনার এ দাম নির্ধারণের পর থেকেই বিশ্ববাজারে সোনার দাম কমতে দেখা যাচ্ছে। গত এক সপ্তাহে প্রতি আউন্স সোনার দাম কমেছে ১০ দশমিক ৭৫ ডলার বা দশমিক ৫৩ শতাংশ। এর মাধ্যমে প্রতি আউন্স সোনার দাম কমে হয়েছে ২ হাজার ১৮ দশমিক ৩৮ ডলার। এ দরপতনের ফলে মাসের ব্যবধানে প্রতি আউন্স সোনার দাম কমেছে ৫৮ দশমিক ৭৮ ডলার বা ২ দশমিক ৮৩ ডলার।

এর আগে ডিসেম্বরের শুরুতে বিশ্ববাজারে সোনার দাম হু হু করে বাড়তে দেখা যায়। ৪ ডিসেম্বর লেনদেনের এক পর্যায়ে প্রতি আউন্স সোনার দাম রেকর্ড ২ হাজার ১২৪ দশমিক ৭৩ ডলারে উঠে যায়। সোনার এত দাম আগে বিশ্ববাসী আর দেখেনি।

অবশ্য এ রেকর্ড দাম হওয়ার পরপরই পতনের মধ্যে পড়ে সোনা। ওই দিনই প্রতি আউন্স সোনার দাম কমে ২ হাজার ২১ ডলারে চলে আসে। অর্থাৎ একদিনেই সোনার দাম ১০০ ডলারের ওপরে কমে যাওয়ার ঘণ্টা ঘটে। একদিনের মধ্যে সোনার দামে এমন উত্থান-পতনও আগে কখনো দেখা যায়। এরপর কয়েক দফা সোনার দাম ওঠা-নামা করলেও গত এক মাস ধরে পতনের মধ্যেই রয়েছে।


আরও খবর
২৪ দিনে প্রবাসী আয় ১৮ হাজার কোটি টাকা

রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪