আজঃ সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

২৬১ জনকে নিয়োগ দেবে কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তর

প্রকাশিত:বুধবার ২৫ অক্টোবর ২০২৩ | হালনাগাদ:বুধবার ২৫ অক্টোবর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সম্প্রতি জনবল নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তর। কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তর এবং অধিদপ্তরাধীন পলিটেকনিক/মনোটেকনিক ইনস্টিটিউটগুলো ও টেকনিক্যাল টিচার্স ট্রেনিং কলেজের ১৭ ক্যাটাগরির শূন্য পদে ২৬১ জনকে নিয়োগ দেবে।

আগ্রহী ও যোগ্য প্রার্থীরা অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন। ২২ অক্টোবর আবেদন শুরু হয়ে চলবে ১১ নভেম্বর পর্যন্ত।

পদের নাম ও সংখ্যা: উচ্চমান সহাকারী

পদসংখ্যা: ৯টি (গ্রেড-১৪)

শিক্ষাগত যোগ্যতা: স্নাতক পাস।

পদের নাম ও সংখ্যা: ইউডিএ-কাম-কম্পিউটার অপারেটর

পদসংখ্যা: ১টি (গ্রেড-১৪)

শিক্ষাগত যোগ্যতা: স্নাতক পাস।

পদের নাম ও সংখ্যা: ইউডিএ-কাম-ডেটা প্রসেসর

পদসংখ্যা: ২টি (গ্রেড-১৪)

শিক্ষাগত যোগ্যতা: স্নাতক পাস।

পদের নাম ও সংখ্যা: হিসাব রক্ষক

পদসংখ্যা: ১৪টি (গ্রেড-১৪)

শিক্ষাগত যোগ্যতা: বাণিজ্যে স্নাতক পাস।

পদের নাম ও সংখ্যা: সাঁট মুদ্রাক্ষরিক কাম-কম্পিউটার অপারেটর

পদসংখ্যা: ২টি (গ্রেড-১৪)

শিক্ষাগত যোগ্যতা: স্নাতক পাস।

পদের নাম ও সংখ্যা: লাইব্রেরিয়ান

পদসংখ্যা: ৫টি (গ্রেড-১৪)

শিক্ষাগত যোগ্যতা: স্নাতক পাস অথবা লাইব্রেরি সায়েন্সে ডিপ্লোমা।

পদের নাম: ইলেকট্রিশিয়ান-কাম-পাম্প-অপারেটর

পদসংখ্যা: ২টি (গ্রেড-১৪)

শিক্ষাগত যোগ্যতা: ইলেকট্রিক্যাল ট্রেডসহ উচ্চ মাধ্যমিক সার্টিফিকেট (ভকেশনাল)

পদের নাম ও সংখ্যা: ড্রাইভার (হেভী) (গ্রেড-১৫) এবং ড্রাইভার (লাইট) (গ্রেড-১৬) ১৬টি

শিক্ষাগত যোগ্যতা: অষ্টম শ্রেণি পাস এবং ড্রাইভার হেভীর ক্ষেত্রে বৈধ ড্রাইভিং লাইসেন্সসহ ভারী যানবাহন চালনায় পারদর্শী এবং ড্রাইভার লাইটের ক্ষেত্রে বৈধ ড্রাইভিং লাইসেন্সসহ হালকা যানবাহন চালনায় পারদর্শী।

পদের নাম: অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার মুদ্রাক্ষরিক

পদসংখ্যা: ২৫টি (গ্রেড-১৬)

শিক্ষাগত যোগ্যতা: এইচএসসি পাস।

পদের নাম: এলডিএ কাম ডেটা প্রসেসর

পদসংখ্যা: ৪টি (গ্রেড-১৬)

শিক্ষাগত যোগ্যতা: এইচএসসি পাস।

পদের নাম: হিসাব সহকারী

পদসংখ্যা: ৯টি (গ্রেড-১৬)

শিক্ষাগত যোগ্যতা: ব্যবসায় শিক্ষায় এইচএসসি পাস।

পদের নাম: ক্যাশিয়ার

পদসংখ্যা: ২টি (গ্রেড-১৬)

শিক্ষাগত যোগ্যতা: ব্যবসায় শিক্ষায় এইচএসসি পাস।

পদের নাম: সহকারী লাইব্রেরিয়ান কাম ক্যাটালগার

পদসংখ্যা: ৬টি (গ্রেড-১৬)

শিক্ষাগত যোগ্যতা: স্নাতক বা গ্রন্থাগার বিজ্ঞানে সনদ কোর্সে উত্তীর্ণ।

পদের নাম: ক্যাশ সরকার

পদসংখ্যা: ১২টি (গ্রেড-১৮)

শিক্ষাগত যোগ্যতা: এসএসসি পাস।

পদের নাম: ইলেকট্রিশিয়ান

পদসংখ্যা: ১টি (গ্রেড-১৮)

শিক্ষাগত যোগ্যতা: এসএসসি পাস।

পদের নাম: স্কিল্ডম্যান

পদসংখ্যা: ৯টি (গ্রেড-১৯)

শিক্ষাগত যোগ্যতা: গ্লাস ও সিরামিক ট্রেডে এসএসসি পাস (ভকেশনাল)।

পদের নাম: অফিস সহায়ক

পদসংখ্যা: ১৪২টি (গ্রেড-২০)

শিক্ষাগত যোগ্যতা: এসএসসি পাস।

বেতন স্কেল ও গ্রেড: ১০২০০-২৪৬৮০ টাকা (গ্রেড-১৪), ৯৭০০-২৩৪৯০ টাকা (গ্রেড-১৫), ৯৩০০-২২৪৯০ টাকা (গ্রেড-১৬), ৮৮০০-২১৩১০ টাকা (গ্রেড-১৮), ৮৫০০-২০৫৭০ টাকা (গ্রেড-১৯), ৮২৫০-২০০১০ টাকা (গ্রেড-২০)।

আবেদন ফি: ১ থেকে ১৩ নম্বর পদের জন্য টেলিটকের সার্ভিস চার্জসহ ২২৩ টাকা, ১৪ থেকে ১৭ নম্বর পদের জন্য সার্ভিস চার্জসহ ১১২ টাকা জমা দিতে হবে।

আবেদন প্রক্রিয়া: আগ্রহী প্রার্থীদের অনলাইনে ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আবেদন করতে পারবেন। আবেদন ও নিয়োগসংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য জানা যাবে এখানে


আরও খবর
সিটি গ্রুপে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ

সোমবার ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সিভিল বিভাগে চাকরি সুযোগ

বৃহস্পতিবার ০১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত হয়ে চিলির সাবেক প্রেসিডেন্ট নিহত

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

চিলির সাবেক প্রেসিডেন্ট সেবাস্তিয়ান পিনেরা হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত হয়ে নিহত হয়েছেন। বুধবার (০৭ ফেব্রুয়ারি) সংবাদমাধ্যম বিবিসি এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে। নিহত পিনেরা দুই মেয়াদে চিলির প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন। একইসঙ্গে তিনি একজন বিলেনিয়ার ব্যবসায়ীও ছিলেন।

বিবিসি তাদের প্রতিবেদনে জানিয়েছে, চিলির সাবেক প্রেসিডেন্ট সেবাস্তিয়ান পিনেরা ৭৪ বছর বয়সে হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় মারা গেছেন। দেশটির দক্ষিণাঞ্চলীয় শহর লাগো র‍্যাঙ্কোর কাছে একটি হ্রদে হেলিকপ্টারটি বিধ্বস্ত হয়। তবে দুর্ঘটনার পর এর অন্য তিনজন আরোহী বেঁচে গেছেন।

বিবিসি আরও বলছে, হেলিকপ্টার দুর্ঘটনার পর চিলির নৌবাহিনী এমন অঞ্চল থেকে সেবাস্তিয়ান পিনেরার মৃতদেহ উদ্ধার করে যেখানে তিনি প্রতি ফেব্রুয়ারিতে তার পরিবারের সাথে ছুটি কাটাতেন বলে স্প্যানিশ সংবাদপত্র এল পাইস জানিয়েছে।

এদিকে পিনেরার মৃত্যুতে তিন দিনের শোক ঘোষণা এবং রাষ্ট্রীয় অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া ঘোষণা করে চিলির প্রেসিডেন্ট ও পিনেরার বামপন্থি উত্তরসূরি গ্যাব্রিয়েল বোরিক। তিনি বলেছেন, আমরা সবাই চিলি এবং আমাদের এটিই স্বপ্ন দেখা উচিত। সেই স্বপ্ন মনে আঁকুন এবং একসাথে বাস্তবায়ন করা উচিত। সেবাস্তিয়ান পিনেরা যখন ২০১৮ সালের ১১ মার্চ দ্বিতীয় মেয়াদে প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন তখন এই কথাই বলেছিলেন। আমরা এই কঠিন সময়ে তার পরিবার এবং প্রিয়জনদের পাশে আছি।

এদিকে ব্রাজিলের বামপন্থি প্রেসিডেন্ট লুইজ ইনাসিও লুলা দা সিলভা বলেছেন, পিনেরার মৃত্যুতে তিনি বিস্মিত ও দুঃখিত। সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম এক্সে তিনি লিখেছেন, আমরা একসাথে ছিলাম, আমরা আমাদের দেশের মধ্যে সম্পর্ক জোরদার করার জন্য কাজ করেছি এবং যখন আমরা উভয়ই প্রেসিডেন্ট ছিলাম এবং যখন ছিলাম না তখনও আমরা সবসময় নিজেদের মধ্যে ভালো সংলাপ করেছি।

সংবাদমাধ্যম বিবিসি জনিয়েছে, পিনেরা তার নিজের হেলিকপ্টারটি উড়িয়েছিলেন। তবে দুর্ঘটনার সময় তিনি পাইলটের আসনে ছিলেন এমন কোনো তথ্য এখনো আনুষ্ঠানিকভাবে নিশ্চিত করা হয়নি।

রক্ষণশীল রাজনীতিবিদ সেবাস্তিয়ান পিনেরা ২০১০ সাল থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত প্রথম মেয়াদে চিলির প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন। এ সময় দেশের দ্রুত অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির জন্য তাকে কৃতিত্ব দেওয়া হয়েছিল।

আর বিদেশে তিনি সম্ভবত ২০১০ সালে আতাকামা মরুভূমির নিচে ৬৯ দিন ধরে আটকে থাকা ৩৩ জন খনি শ্রমিকের উদ্ধার তদারকির জন্য সবচেয়ে বেশি পরিচিত ছিলেন। সেসময় এই ঘটনাটি বিশ্বকে কার্যত আঁকড়ে ধরেছিল।

তবে পিনেরার দ্বিতীয় মেয়াদ ছিল ২০১৮ সাল থেকে গত বছর পর্যন্ত। তার এই দ্বিতীয় মেয়াদে দক্ষিণ আমেরিকার এই দেশটি সহিংস সামাজিক অস্থিরতার জেরে ক্ষতিগ্রস্ত হয়।


আরও খবর



মেট্রোরেলের সর্বনিম্ন ভাড়া ১০ টাকা করার দাবি

প্রকাশিত:রবিবার ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

মেট্রোরেলে হাফ পাসের দাবি জানিয়েছে শিক্ষার্থীরা। একই সঙ্গে সর্বনিম্ন ভাড়া ১০ টাকা করাসহ স্টুডেন্ট পাসের দাবিতে অবস্থান কর্মসূচি পালন করে তারা।

আজ রবিবার (৪ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর ফার্মগেট মেট্রোরেল স্টেশনের নিচে পূর্বঘোষণা অনুসারে মানববন্ধন আয়োজন করা হয়। পরে পুলিশি বাধার মুখে বিক্ষোভ মিছিল করে শাহবাগে জাদুঘরের সামনে অবস্থান নেয় শিক্ষার্থীরা।

মানববন্ধনে শিক্ষার্থীরা বলে, আমরা তো চাকবিজীবী নই। শিক্ষার্থীদের অর্থনৈতিক অবস্থা, চাহিদা ও সুযোগ-সুবিধার কথা বিবেচনায় রেখে যৌক্তিক সিদ্ধান্ত নিতে হবে ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কম্পানি লিমিটেড কর্তৃপক্ষকে।

মেট্রোরেলে হাফ পাস চাই আন্দোলনের সমন্বয়ক ও মুখপাত্র মুহাম্মদ প্রিন্স বলেন, মেট্রোরেল আইন ২০১৫-এর ১৮(২) ধারায় পরিচালনা ব্যয় ও জনসাধারণের আর্থিক সামর্থ্য বিবেচনায় ভাড়া নির্ধারণের কথা বলা হয়েছে। ছাড়া বিধিমালার ২২(খ) ধারায় গণপরিবহনের ভাড়া বিবেচনায় নেওয়ার কথা বলা হয়েছে।

অথচ ঢাকা মেট্রোর ২০ কিলোমিটারের ভাড়া ১০০ টাকা করা হয়েছে। ফলে মেট্রো রেল সাধারণ শিক্ষার্থীদের নাগালের বাইরে চলে গেছে।

মেট্রোরেলে হাফ পাস চাই আন্দোলনের যুগ্ম সমন্বয়ক আশরাফুল ইসলাম নির্ঝর বলেন, মেট্রোরেল পুরোপুরি চালু হলেও শিক্ষার্থীদের জন্য হাফ পাস চালু করা হয়নি। শিক্ষার্থীদের প্রতি রাষ্ট্রীয় ও সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে শুধু বাংলাদেশে নয়, প্রতিবেশী ভারতসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে গণপরিবহনে হাফ পাস পদ্ধতি চালু রয়েছে।


আরও খবর
ছুটির দিনেও ঢাকার বায়ু ‌‘অস্বাস্থ্যকর’

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




আজ বিশ্ব ডাল দিবস : জেনে নিন ডাল খাওয়ার উপকারিতা

প্রকাশিত:শনিবার ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বিশ্ব ডাল দিবস আজ শনিবার (১০ ফেব্রুয়ারি)। এ বছর দিবসটির প্রতিপাদ্য হলো ‌টেকসই আগামীর জন্য ডাল

বিশ্ব ডাল দিবস হলো একটি আন্তর্জাতিক দিবস যা জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থা (এফএও) দ্বারা বিশ্বব্যাপী খাদ্য হিসেবে ডালের (শুকনো মটরশুঁটি, মসুর, শুকনো মটর, ছোলা, লুপিন) গুরুত্বকে স্বীকৃতি দেওয়ার জন্য পালন করা হয়।

২০১৮ সালের ২০ ডিসেম্বর, জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের ৭০তম অধিবেশনে ডাল দিবস হিসেবে ২০১৯ সাল থেকে প্রতি বছর ১০ ফেব্রুয়ারিকে মনোনীত করা হয়েছে। তারিখটির লক্ষ্য বিশ্বব্যাপী ডাল বিভাগের সাথে যুক্ত কার্যকলাপ এবং তথ্যের প্রতি মনোযোগ আকর্ষণ করা।

চলুন দেখে নেওয়া যাক প্রতিদিন ডাল খাওয়ার উপকারিতা

আপনি ডাল পচ্ছন্দ করুন আর না করুন বাঙ্গালি হলে আপনার পাতে ডাল থাকবেই। হোক তা দু একদিন পর পর। মসুর থেকে মুগ সব ডাল আমাদের পচ্ছন্দ। প্রোটিন ও ফাইবারের গুরুত্বপূর্ণ উৎস হলো ডাল। আর প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় আপনি যদি ডাল রাখেন তাহলে আপনার অনেক সমস্যায় সমাধান হয়ে যাবে।

ওজন নিয়ন্ত্রণ : ডাল প্রোটিন এবং ফাইবারে সমৃদ্ধ। এটি ওজন  কমাতেও ভূমিকা রাখে। এতে করে উচ্চ ফ্যাটযুক্ত উপাদানগুলো আলাদা হয়ে যায়। অতএব ডাল খাওয়া আপনাকে সঠিক পরিমাণে শক্তি ও পুষ্টি দিতে পারে।  আবার ডাল খেলে ক্ষুধাও কমে।

স্বাস্থ্যকর কোষ : ডালে প্রোটিন, আয়রন ও ফোলেট থাকায় নিয়মিত ডাল খাওয়াও নিশ্চিত করে যে আপনার কোষগুলো মেরামত-পুনর্নবীকরণ প্রক্রিয়ার জন্য পর্যাপ্ত সুস্থ আছে। আয়রন রক্তাল্পতা হওয়ার ঝুঁকিও হ্রাস করতে পারে। প্রতিদিন ডাল খেলে অসুস্থ হওয়ার ঝুঁকিও হ্রাস পায়।

হার্টের সুস্থতা : ডাল হৃৎপিণ্ডের জন্য অত্যন্ত উপকারী। ডাল কোলেস্টরেল কমাতে সাহায্য করে সেই সাথে রক্তচাপও কমায়। প্রতিদিন ডাল খেলে কার্ডিওভাসকুলার রোগ হওয়ার ঝুঁকি হ্রাস পায়।

যা মনে রাখতে হবে : এটি সত্য যে ডাল অত্যন্ত পুষ্টিকর, তবে সেগুলোর সঠিক উপকারিতা আমরা পাচ্ছি কিনা সে বিষয়ে নিশ্চিত হতে হবে। উদাহরণস্বরূপ, ডালে আপনার খুব বেশি তেল ব্যবহার করা এড়ানো উচিত বা অতিরিক্ত লবণ ব্যবহারও এড়ানো উচিত। তড়কার জন্য প্রয়োজনে জলপাই তেল বা ঘি ব্যবহার করুন। স্বাদ বাড়াতে আপনি কিছু সবুজ মরিচ বা কালো মরিচ যোগ করতে পারেন। মূল কথা স্বাদ ও স্বাস্থ্যের মধ্যে ভারসাম্য করা।

২০১৯ সাল থেকে প্রতিবছর ১০ ফেব্রুয়ারি বিশ্বব্যাপী এ দিবস পালন করা হচ্ছে। তবে বাংলাদেশে গত বছর থেকে দিবসটি পালন করা হচ্ছে। দিবসটি উপলক্ষে কৃষি মন্ত্রণালয় শোভাযাত্রা ও সেমিনারের আয়োজন করেছে।

বিশ্ব ডাল দিবস খাদ্য নিরাপত্তা ও পুষ্টির লক্ষ্যে টেকসই খাদ্য উৎপাদনের অংশ হিসেবে ডালের পুষ্টিগত উপকারিতা সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধির সুযোগ প্রদান করার জন্য পালন হবে।

নিউজ ট্যাগ: বিশ্ব ডাল দিবস

আরও খবর
আজ বিশ্ব প্রতিশ্রুতি দিবস

সোমবার ০১ জানুয়ারী ২০২৪




সিরিয়ায় যুক্তরাষ্ট্রের হামলায় ১৮ ইরানপন্থি যোদ্ধা নিহত

প্রকাশিত:শনিবার ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

যুক্তরাষ্ট্র এবার ইরানের বিরুদ্ধে পাল্টা হামালা চালিয়েছে। মার্কিন হামলায় সিরিয়ায় ১৮ ইরানপন্থি যোদ্ধা নিহত হয়েছেন। এই হামলায় ইরানপন্থিদের ২৬টি গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনাও ধ্বংস করা হয়েছে। শনিবার (৩ ফেব্রুয়ারি) সিরিয়ার মানবাধিকার পর্যবেক্ষণকারী একটি গোষ্ঠী এই তথ্য নিশ্চিত করেছে। খবর এএফপির।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মার্কিন সামরিক বাহিনী শুক্রবার ইরাক ও সিরিয়ায় ইরানি বাহিনী এবং তেহরান সমর্থিত মিলিশিয়া গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে প্রতিশোধমূলক বিমান হামলা চালিয়েছে। গত সপ্তাহে সিরিয়া সীমান্তবর্তী জর্ডানের একটি সামরিক ঘাঁটিতে ড্রোন হামলার জবাবে যুক্তরাষ্ট্র এই হামলা চালাল।

এর আগে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এক বিবৃতিতে বলেছেন, আমাদের প্রতিক্রিয়া আজ থেকে শুরু হয়েছে। এটি (প্রতিক্রিয়া) আমাদের পছন্দের সময়ে এবং জায়গায় চলতে থাকবে।

তিনি আরও বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্র মধ্যপ্রাচ্য বা বিশ্বের অন্য কোথাও সংঘাত চায় না। তবে যারা আমাদের ক্ষতি করতে চায় তাদের সবাইকে এটি জানাতে হবে, আপনি যদি একজন আমেরিকানকেও ক্ষতি করেন তবে আমরা জবাব দেব।

এএফপির খবরে বলা হয়েছে, উত্তেজনার সাম্প্রতিক বৃদ্ধির পরও ওয়াশিংটন এবং তেহরান উভয়ই সর্বাত্মক যুদ্ধ এড়াতে চেয়েছে। আর তাই নিজেদের ওপর আরও হামলা এড়াতে পাল্টা হামলা চালানোর সময় তেহরানের সঙ্গে সরাসরি সংঘর্ষ এড়াতে ইরানের ভূখণ্ডে আঘাত করেনি যুক্তরাষ্ট্র। 

আরও পড়ুন>> প্রাসাদে ঢুকে রানিকে অপহরণ, রাজাকে গুলি করে হত্যা

মার্কিন সামরিক বাহিনীর সেন্ট্রাল কমান্ড (সেন্টকম) এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, হামলায় ইরানের ইসলামিক রেভল্যুশনারি গার্ড কর্পসের কুদস ফোর্স এবং সেইসঙ্গে তাদের সংশ্লিস্ট মিলিশিয়া গোষ্ঠীকে লক্ষ্য করে আমেরিকান বাহিনী ৮৫টিরও বেশি লক্ষ্যবস্তুতে হামলা করেছে। এই হামলায় বহু যুদ্ধবিমান অংশ নিয়েছে, যার মধ্যে যুক্তরাষ্ট্র থেকে উড়ে আসা দূরপাল্লার বোমারু বিমানও রয়েছে

সেন্টকম বলেছে, বিমান হামলায় ১২৫টিরও বেশি নির্ভুল অস্ত্র ব্যবহার করা হয়েছে। ইরানি বাহিনী ও তাদের সমর্থিত মিলিশিয়াদের যারা মার্কিন বাহিনীর ওপর হামলায় সহায়তা করেছিল তাদের কমান্ড অ্যান্ড কন্ট্রোল সেন্টার এবং গোয়েন্দা কেন্দ্রের পাশাপাশি রকেট, মিসাইল এবং ড্রোন স্টোরেজ অবকাঠামোতেও হামলা করা হয়েছে বলে জানিয়েছে সেন্টকম।

এদিকে সিরিয়ার মানবাধিকার পর্যবেক্ষণকারী ব্রিটেন-ভিত্তিক সংস্থা সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস জানিয়েছে, সিরিয়ার পূর্বাঞ্চলে যুক্তরাষ্ট্রের হামলায় অন্তত ১৮ জন ইরানপন্থি যোদ্ধা নিহত হয়েছেন।

পর্যবেক্ষণকারী এই সংস্থাটি এএফপিকে জানিয়েছে, দেইর এজর শহর থেকে ৬২ মাইল (১০০ কিলোমিটার) ইরাকি সীমান্তের কাছে আলবু কামালের কাছ পর্যন্ত বিস্তৃত পূর্ব সিরিয়ার বিশাল অংশে চলমান অভিযানে অস্ত্রের ডিপোসহ ইরানপন্থি গোষ্ঠীগুলোর আবাসস্থল হিসেবে ব্যবহৃত অন্তত ২৬টি গুরুত্বপূর্ণ স্থান ধ্বংস করা হয়েছে।


আরও খবর



বিশ্ববাজারে স্বর্ণের দাম আরও বাড়লো

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
অর্থ ও বাণিজ্য ডেস্ক

Image

যুক্তরাষ্ট্রের মুদ্রা ডলারের মান কমেছে। সেই সঙ্গে মধ্যপ্রাচ্যে উত্তেজনা বৃদ্ধি পেয়েছে। ফলে আন্তর্জাতিক বাজারে স্বর্ণের দাম আরও বেড়েছে। বৃহস্পতিবার (২২ ফেব্রুয়ারি) তা ১ সপ্তাহের বেশি সময়ের মধ্যে সর্বোচ্চ স্তরে উঠেছে। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের বরাত দিয়ে ব্যবসাভিত্তিক প্রভাবশালী সংবাদমাধ্যম নাসডাকের এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানা গেছে।

এতে বলা হয়, আগামী কয়েক দিনের মধ্যে অর্থনীতির আরও উপাত্ত প্রকাশ করবে যুক্তরাষ্ট্র। সেজন্য অপেক্ষা করছেন ব্যবসায়ীরা। কারণ, এর ওপর নির্ভর করছে কবে নাগাদ সুদের হার কমাবে দেশটির কেন্দ্রীয় ব্যাংক ফেডারেল রিজার্ভ (ফেড)। ফলে নিরাপদ আশ্রয় ধাতুটিতে বিনিয়োগে সতর্ক অবস্থানে রয়েছেন বিনিয়োগকারীরা।

এ প্রেক্ষাপটে আলোচ্য কার্যদিবসে স্পট মার্কেটে বৈশ্বিক বেঞ্চমার্ক স্বর্ণের দর বেড়েছে শূন্য দশমিক ১ শতাংশ। প্রতি আউন্সের মূল্য স্থির হয়েছে ২০২৬ ডলার ৭ সেন্টে। গত ৯ ফেব্রুয়ারির পর যা সবচেয়ে বেশি। একই কর্মদিবসে ফিউচার মার্কেটে মার্কিন বেঞ্চমার্ক স্বর্ণের দাম ঊর্ধ্বগামী হয়েছে শূন্য দশমিক ১ শতাংশ। আউন্সপ্রতি দর নিষ্পত্তি হয়েছে ২০৩৬ ডলার ৯ সেন্টে।

আলোচিত দিনে ডলার সূচক নিম্নমুখী হয়েছে। এ নিয়ে টানা ৪ কার্যদিবসে সূচকটি নিম্নগামী হলো। উল্লেখ্য, গ্রিনব্যাকের দরে নিম্নগামিতা হলে বুলিয়ন বাজার চাঙা হয়। অন্যান্য বিদেশি মুদ্রা ধারণকারীদের কাছে স্বর্ণের আকর্ষণ বাড়ে।

বিশ্বখ্যাত আর্থিক প্রতিষ্ঠান কেসিএম ট্রেডের প্রধান বাজার বিশ্লেষক টিম ওয়াটারার বলেন, এখন স্বর্ণের বিশ্ববাজারে মিশ্র প্রবণতা দেখা যাচ্ছে। সুদের হার কমাতে বিলম্ব করছে ফেড। আবার ভূরাজনৈতিক উদ্বেগ কমছে না। ফলে নিরাপদ আশ্রয় ধাতুটির দর বাড়ছে।


আরও খবর
২৪ দিনে প্রবাসী আয় ১৮ হাজার কোটি টাকা

রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪