আজঃ শনিবার ২৯ জানুয়ারী ২০২২
শিরোনাম

১৭ কেজি গাঁজাসহ সিরাজগঞ্জে মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১১ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১১ জানুয়ারী ২০২২ | ৩৪০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ঢাকা-বগুড়া মহাসড়কের সিরাজগঞ্জের বঙ্গবন্ধু সেতুর পশ্চিম গোল চত্বর এলাকায় মাদক বিরোধী অভিযান চালিয়ে ১৭ কেজি গাঁজাসহ আহছান উল্লাহ (২৭) নামে এক মাদককারবারীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন র‌্যাব-১২ এর সদস্যরা।

গ্রেফতারকৃত আহছান উল্লাহ লক্ষ্মীপুর জেলার বশিকপুর গ্রামের ইসমাইল হোসেনের ছেলে। আজ মঙ্গলবার সকালে র‌্যাব-১২র সহকারী পুলিশ সুপার (মিডিয়া অফিসার) মো. মোস্তাফিজুর রহমান এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

সহকারী পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আজ ভোর রাতে র‌্যাবের একটি চৌকস আভিযানিক দল বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম থানার গোল চত্বরের পুলিশ বক্সের সামনে এক মাদক বিরোধী অভিযান পরিচালনা করে ১৭ কেজি গাঁজাসহ ১ জন মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় তার নিকট থেকে মাদক ক্রয়-বিক্রয়ের কাজে ব্যবহৃত ২টি মোবাইল ফোন এবং নগদ ৫২০ টাকা জব্দ করা হয়।


আরও খবর



খুলনায় বিড়ি শ্রমিকদের মানববন্ধন

প্রকাশিত:বুধবার ১২ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১২ জানুয়ারী ২০২২ | ৫২৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

খুলনা প্রতিনিধি :

৫ দফা দাবিতে মানববন্ধন করেছে খুলনা জেলা বিড়ি শ্রমিক সংগ্রাম পরিষদ। বুধবার বেলা ১১টায় খুলনা প্রেসক্লাবের সামনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনে বিড়ির উপর শুল্ক কমানো, বিড়ির উপর অর্পিত ১০ শতাংশ অগ্রিম আয়কর প্রত্যাহার, বিড়ি শ্রমিকদের সপ্তাহে ৬দিন কাজের ব্যবস্থা, বহুজাতিক কোম্পানীর ষড়যন্ত্র বন্ধ ও কাস্টমস্ কর্তৃপক্ষকে আইনী প্রক্রিয়ায় নকল বিড়ি বন্ধে পদক্ষেপ নেওয়ার দাবি জানান শ্রমিকরা।

বাংলাদেশ বিড়ি শ্রমিক ফেডারেশনের যুগ্ম সম্পাদক হারিক হোসেনের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন খুলনা অঞ্চলের বিড়ি শ্রমিক সংগ্রাম পরিষদের আহ্বায়ক আব্দুস সালামা মুন্সী। মানববন্ধনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ বিড়ি শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি এমকে বাঙ্গালী। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ বিড়ি শ্রমিক ফেডারেশনের  সহ-সভাপতি আনোয়ার হোসেন, সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান, প্রচার সম্পাদক শামীম ইসলাম, খুলনা অঞ্চলের বিড়ি শ্রমিক নেতা আজাদ প্রমুখ।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, খুলনাসহ পার্শ্ববর্তী এলাকার বহু শ্রমিক বিড়ি কারখানায় কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করে। দেশের প্রাচীন শ্রমঘন বিড়ি শিল্পে সমাজের অসহায়, হতদরিদ্র, স্বামী পরিত্যক্তা, নদী ভাঙ্গন কবলিত জনগন, শারীরিক বিকলঙ্গসহ সুবিধা বঞ্চিত মানুষ কাজ করে পরিবার পরিচালনা করে। স্বাধীনতার পর এদেশের সাধারণ মানুষ ও অসহায় শ্রমিকদের কথা বিবেচনা করে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিড়ি শিল্পকে শুল্কমুক্ত ঘোষণা করেন। শ্রমবান্ধব প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০০৯-২০১০ অর্থবছরের বাজেট বক্তৃতায় বিড়িতে শুল্ক কমিয়ে সিগারেটে শুল্ক বৃদ্ধির নির্দেশনা দেন। কিন্তু ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকো কোম্পানী এদেশের কিছু দুর্নীতিগ্রস্থ আমলাকে ব্যবহার করে বিড়ির উপর চাপিয়ে দেওয়া হয় মাত্রাতিরিক্ত করের বোঝা। ফলে করের বোঝা সহ্য করতে না পেরে বিড়ি মালিকরা কারখানা বন্ধ করতে বাধ্য হচ্ছে। কারখানা বন্ধ হওয়ায় কর্ম হারিয়ে বেকার হয়ে পড়ছে বিড়ি শ্রমিকরা। অন্য কাজ না পেয়ে অনাহারে, অর্ধাহারে দিনাতিপাত করছে।

বক্তারা আরো বলেন, বিদেশী বহুজাতিক কোম্পানী এদেশের মানুষের ফুসফুস পুড়িয়ে বিদেশে টাকা পাচার করছে। অথচ ষড়যন্ত্রমূলকভাবে দেশীয় বিড়ি শিল্প ধ্বংস করা হচ্ছে। আমরা এষড়যন্ত্রের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। দেশীয় শিল্প বন্ধের ষড়যন্ত্র বন্ধ না হলে তীব্র আন্দোলনের হুমকি দেন বক্তারা।


আরও খবর
সুন্দরবনের খাল থেকে বাঘের মরদেহ উদ্ধার

শুক্রবার ২৮ জানুয়ারী ২০২২

সুন্দরবনের খাল থেকে বাঘের মরদেহ উদ্ধার

শুক্রবার ২৮ জানুয়ারী ২০২২




শেখ রাসেলের হোম ভেন্যু হাজার কোটি টাকার বসুন্ধরা ক্রীড়া কমপ্লেক্স

প্রকাশিত:বুধবার ২৬ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ২৬ জানুয়ারী ২০২২ | ৩৩০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

শেখ রাসেল ক্রীড়াচক্র লিমিটেডের হোম ভেন্যু হয়ে গেল হাজার কোটি টাকার বসুন্ধরা ক্রীড়া কমপ্লেক্স। আসন্ন প্রিমিয়ার লিগে তারা নিজেদের হোম ম্যাচগুলো খেলবে দেশের নব নির্মিত সর্বাধুনিক বসুন্ধরা ক্রীড়া কমপ্লেক্সের মাঠে।

প্রথমে শেখ রাসেল ক্রীড়াচক্রের কর্মকর্তাদের ভাবনায় ছিল সিলেট ও গোপালগঞ্জের কথা। এর আগে তারা একবার সিলেট জেলা স্টেডিয়ামকেও করেছিল নিজেদের হোম ভেন্যু। এবারো কর্মকর্তাদের মাথায় ঢাকার বাইরে যাওয়ার নানা ভাবনা ঘুরপাক খেলেও শেষমেষ তাদের দুশ্চিন্তামুক্ত করেছেন বসুন্ধরা গ্রুপের চেয়ারম্যান আহমেদ আকবর সোবহান। তিনি বসুন্ধরা ক্রীড়া কমপ্লেক্সকে লিগে হোম ভেন্যু হিসাবে ব্যবহারের অনুমতি দিয়েছেন শেখ রাসেল ক্রীড়াচক্রকে।

এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়ে শেখ রাসেল ক্রীড়াচক্রের চেয়ারম্যান সায়েম সোবহান আনভীর বলেছেন, এখন দেশের সর্বাধুনিক মাঠে ফুটবল লিগ খেলবে আমাদের ক্লাব দলটি। আশা করি, তাদের খেলার মান আরো বাড়বে এবং নতুন সাফল্য উপহার দিয়ে শেখ রাসেল ক্লাবকে তারা নিয়ে যাবে নতুন উচ্চতায়।“

২০১৫ সালে তিনি ক্লাবের দায়িত্ব নেওয়ার পর শেখ রাসেল রানার্স- আপ হয় ২০১৫-১৬ মৌসুমে। পরের বছর মাগুরায় জয় করেন বঙ্গবন্ধু কাপ ফুটবলের শিরোপা। তারা এবারো ভালো মানের দেশি-বিদেশী খেলোয়াড় নিয়ে দুর্দান্ত দল গড়েছে শিরোপা অর্জনের স্বপ্নে। বসুন্ধরা ক্রীড়া কমপ্লেক্সের মাঠ এবং তার আধুনিক সুযোগ-সুবিধা দেখে ফুটবল লিগের ভেন্যু হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন। প্রথমে সেটি ছিল কেবল বসুন্ধরা কিংসের হোম ভেন্যু। মঙ্গলবার তার সঙ্গে যোগ হয়েছে শেখ রাসেল ক্রীড়াচক্র। এর অনুমতি দানের জন্য শেখ রাসেলের ডিরেক্টর ইনচার্জ ইসমত জামিল আখন্দ লাভলু কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন বসুন্ধরা গ্রুপের চেয়ারম্যান আহমেদ আকবর সোবহানের কাছে, বসুন্ধরা গ্রুপের চেয়ারম্যান বসুন্ধরা ক্রীড়া কমপ্লেক্স স্থায়ীভাবে ব্যবহারের অনুমতি দেওয়ায় তার কাছে আমাদের ক্লাবের পক্ষ থেকে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। এখন থেকে এই মাঠে শেখ রাসেলের প্র্যাকটিস ও খেলা দুই-ই চলবে।“


আরও খবর
সাড়ে ৩ বছর নিষিদ্ধ ব্রেন্ডন টেলর

শুক্রবার ২৮ জানুয়ারী ২০২২




উখিয়ায় ৫ লাখ ইয়াবাসহ রোহিঙ্গা যুবক আটক

প্রকাশিত:সোমবার ১০ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১০ জানুয়ারী ২০২২ | ৪৩০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

কক্সবাজারের উখিয়ায় ৫ লাখ পিস ইয়াবাসহ সৈয়দুল আমিন (২৩) নামের এক রোহিঙ্গা যুবককে আটক করেছে র‌্যাব। সোমবার সকালে এক প্রেস বার্তায় বিষয়টি নিশ্চিত করেন র‌্যাব-১৫ সিনিয়র সহকারী পরিচালক (ল এন্ড মিডিয়া) এএসপি আবু সালাম চৌধুরী। এর আগে রোববার (৯ জানুয়ারি) রাতে কক্সবাজারের উখিয়ার বালুখালী এলাকা থেকে ইয়াবাসহ তাকে আটক করা হয়। আটক সৈয়দুল আমিন (২৩) বালুখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ব্লক-বি/৭৪-এর মো. আমিনের ছেলে।

এএসপি আবু সালাম চৌধুরী জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাবের একটি দল ওই এলাকায় অভিযানে যায়। এ সময় এক ব্যক্তিকে বস্তা নিয়ে ব্রিজের নিচ দিয়ে পার হতে দেখে থামতে বলা হয়। তখন সে বস্তা ফেলে দৌড় দেয়। এসময় ধাওয়া দিয়ে তাকে আটক ও বস্তাগুলো জব্দ করা হয়। বস্তায় ৫ লাখ ইয়াবা পাওয়া যায়। এসময় একটি ইজিবাইকও জব্দ করে র‌্যাব।

তিনি আরও জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ইয়াবা পাচারের সঙ্গে তিনিসহ আরও একটি গ্রুপ সম্পৃক্ত থাকার কথা স্বীকার করেছে সে। আটক রোহিঙ্গা যুবকের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের পর উখিয়া থানায় হস্তান্তরের প্রক্রিয়া চলছে বলে জানান তিনি।

নিউজ ট্যাগ: রোহিঙ্গা আটক

আরও খবর



ইরানকে কঠিন পরিণতি ভোগ করতে হবে: যুক্তরাষ্ট্র

প্রকাশিত:সোমবার ১০ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১০ জানুয়ারী ২০২২ | ৪২৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ইরানকে কঠিন পরিণতি ভোগ করতে হবে বলে হুশিয়ার করেছে যুক্তরাষ্ট্র। জেনারেল কাসেম সোলাইমানিকে হত্যার ঘটনায় ৫১ মার্কিন সামরিক কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে তেহরানের নিষেধাজ্ঞা আরোপের প্রতিক্রিয়ায় রোববার যুক্তরাষ্ট্র ওই হুশিয়ারি দেয়। খবর আরব নিউজের।

হোয়াইট হাউসের পক্ষ থেকে রোববার এক বিবৃতিতে ইরানকে ওই হুশিয়ারি দেওয়া হয়। বিবৃতিতে যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জ্যাক সুলিভান বলেছেন, ইরানের আরোপ করা নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা মার্কিন সেনা কর্মকর্তা ছাড়াও যুক্তরাষ্ট্রের কোনো নাগরিকের ওপর হামলা হলে এর পরিণতি হবে ভয়াবহ।  

ইরাকে ড্রোন হামলা চালিয়ে ইরানের শীর্ষ জেনারেল কাসেম সোলেইমানিকে হত্যার দায়ে গত শনিবার যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক বাহিনীর ৫১ পদস্থ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে ইরান।

২০২০ সালে ইরাকের বাগদাদের আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের কাছে ড্রোন হামলায় ইরানের বিপ্লবী গার্ড বাহিনীর কুদস ফোর্সের শীর্ষ ওই জেনারেলকে হত্যা করে যুক্তরাষ্ট্র। এ ঘটনায় এ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে বলে শনিবার জানিয়েছে তেহরান।

দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলছে, সন্ত্রাসবাদ এবং মানবাধিকার লঙ্ঘনের দায়ে ৫১ মার্কিন সামরিক কর্মকর্তাকে টার্গেট করা হয়েছে।  ইরানের নিষেধাজ্ঞার তালিকায় থাকা মার্কিন সামরিক কর্মকর্তাদের মধ্যে আছেন জয়েন্ট চিফস অব স্টাফের চেয়ারম্যান জেনারেল মার্ক মিলি, হোয়াইট হাউসের সাবেক জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা রবার্ট ওব্রায়েন।

এ নিষেধাজ্ঞার ফলে ইরানে থাকা মার্কিন কর্মকর্তাদের সম্পদ ইরানি কর্তৃপক্ষ বাজেয়াপ্ত করতে পারবে। তবে ইরানে মার্কিন কর্মকর্তাদের সম্পদ না থাকায় এই নিষেধাজ্ঞা প্রতীকী ব্যবস্থা বলে ধারণা করা হচ্ছে।

তেহরানের স্থানীয় গণমাধ্যমে দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিবৃতির বরাত দিয়ে বলা হয়েছে, জেনারেল কাসেম সোলাইমানি এবং তার সহযোগীর বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের সন্ত্রাসবাদী ভূমিকায় সংশ্লিষ্টতা এবং সন্ত্রাসবাদ ও মৌলিক মানবাধিকার লঙ্ঘনের দায়ে ওই ৫১ জনের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে।

ইরানের বিপ্লবী গার্ড বাহিনীর অভিজাত শাখা কুদস ফোর্সের কমান্ডার জেনারেল কাসেম সোলাইমানি, যিনি এই বাহিনীর বৈশ্বিক কর্মকাণ্ডের নেতৃত্ব দিয়ে আসছিলেন।

তাকে ২০২০ সালের ৩ জানুয়ারি ইরাকে ড্রোন হামলা চালিয়ে হত্যা করে মার্কিন সামরিক বাহিনী। পরে দেশটির তৎকালীন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ঘোষণা দেন, তার নির্দেশেই সোলাইমানিকে হত্যা করা হয়েছে।


আরও খবর



মদপানে রুয়েট শিক্ষার্থীর মৃত্যু

প্রকাশিত:সোমবার ০৩ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ০৩ জানুয়ারী ২০২২ | ৪৭০জন দেখেছেন

Image

রাবি প্রতিনিধি:

মদপান করে রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (রুয়েটের) যন্ত্রকৌশল বিভাগের ২০১৭-২০১৮ শিক্ষাবর্ষের এক শিক্ষার্থীর মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে।

রোববার (২ জানুয়ারী) দিবাগত রাত ১টা ১৫ মিনিটে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করে সে। এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে নগরীর মতিহার থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করেছে।

মৃত শিক্ষার্থীর নাম মাসুরুর মুহিত (২৩)। তার গ্রামের বাড়ি সিরাজগঞ্জ জেলার বেলকুচি থানার মুকুন্দগাঁতী গ্রামে। সে নগরীর তালাইমাড়ীর বি এস বি ছাত্রাবাস অবস্থান করতেন।

মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে মতিহার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আনোয়ার হোসেন তুহিন বলেন, "ওই শিক্ষার্থী অতিরিক্ত মদ্যপান ফলে নাকি ভেজাল মদ পানে মারা গেছে সেটা নিশ্চিত করতে পারেননি তারা। তবে লাশের ময়নাতদন্ত রিপোর্ট এলে জানা যাবে।"

মামলা সূত্রে জানা গেছে, গত রবিবার রাত ৮টা ১৫ মিনিটে রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (রুয়েট) যন্ত্রকৌশল বিভাগের শিক্ষার্থী মাসরুর মুহিতকে অসুস্থ অবস্থায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজের ১৬ নং ওয়ার্ডে ভর্তি করানো হয়। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত ১টা ১৫ মিনিটে তার মৃত্যু হয়।


আরও খবর