আজঃ বুধবার ২৫ মে ২০২২
শিরোনাম

১৫ মে’র মধ্যে হজযাত্রীদের এজেন্সি স্থানান্তর করতে হবে

প্রকাশিত:বুধবার ১১ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১১ মে ২০২২ | ৩৯০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

২০২২ সালে হজে যাওয়ার লক্ষ্যে লিড এজেন্সি নির্ধারণপূর্বক ২০২০ সালের নিবন্ধিত হজযাত্রীদের এজেন্সি স্থানান্তর সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি জারি করেছে ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়।

বিজ্ঞপ্তি অনুসারে, ১৫ মে’র মধ্যে লিড এজেন্সি নির্ধারণপূর্বক ২০২০ সালের নিবন্ধিত হজযাত্রীদের এক এজেন্সি থেকে অন্য এজেন্সিতে স্থানান্তর সম্পন্ন করতে হবে। মঙ্গলবার (১০ মে) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়।

২০২২ সালে হজ কার্যক্রম পরিচালনার জন্য বৈধ হজ এজেন্সির তালিকায় প্রকাশিত যেসব হজ এজেন্সির প্রাক-নিবন্ধিত ব্যক্তির সংখ্যা ৯৭ বা তার চেয়ে বেশি, সেসব এজেন্সিকে ২০২২ সালে হজের নিবন্ধন স্থানান্তর কার্যক্রম সম্পন্ন করার জন্য ধর্ম মন্ত্রণালয় এই নির্দেশনা জারি করেছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, নিবন্ধন স্থানান্তর কার্যক্রমের জন্য উপযুক্ত/তালিকায় প্রকাশিত বৈধ যেসব হজ এজেন্সির নিবন্ধিত ব্যক্তির সংখ্যা ৯৭ জনের কম, সেসব হজ এজেন্সি পরস্পর সমঝোতা করে সমন্বয় করবে। এক্ষেত্রে হজ ও ওমরাহ ব্যবস্থাপনা আইন, ২০২১ এবং এর অধীনে প্রণীত হজ ও ওমরাহ ব্যবস্থাপনা বিধিমালা, ২০২২ (খসড়া)-এর ২৫ বিধি অনুযায়ী, লিড এজেন্সি (তফশিল-৬ এর ফরম ১১ মোতাবেক) নির্ণয় করতে হবে। সমন্বয়কারী এজেন্সিগুলোর নিবন্ধিত ব্যক্তিদের লিড এজেন্সিতে স্থানান্তর করে নির্ধারিত কোটা পূরণপূর্বক নির্ধারিত কোটার সংশ্লিষ্ট কার্যক্রম সম্পন্ন করতে হবে।

বিজ্ঞপ্তিতে অনুসারে ১৫ মে’র মধ্যে এই কাজ সম্পন্ন করতে হবে। সমন্বয় শেষে সৌদি আরবের ই-হজ সিস্টেমে ইউজার আইডি তৈরির জন্য সৌদি আরবে হজ এজেন্সির তালিকা এবং হজ এজেন্সিভিত্তিক হজযাত্রীর সংখ্যা (গাইড ও মোনাজ্জেমসহ) পাঠাতে হবে। কোনও সময় বৃদ্ধি করা হবে না।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, সৌদি আরবে এজেন্সিভিত্তিক হজযাত্রীর তথ্য পাঠানোর পর সব ধরনের প্রতিস্থাপনের কাজ শুরু হবে। যেসব হজ এজেন্সি বিভিন্ন অভিযোগে শাস্তিপ্রাপ্ত, লাইসেন্স স্থগিত বা লাইসেন্স সচল না থাকায়, যাদের ই-হজ সিস্টেমে এজেন্সির ইউজার আইডি এবং পাসওয়ার্ড বন্ধ রয়েছে, সেসব হজ এজেন্সির অধীন বিদ্যমান নিবন্ধিত হজযাত্রীদের ২০২২ সালে হজ কার্যক্রমে অংশ গ্রহণের লক্ষ্যে তাদের ইউজার আইডি অ্যান্ড এএমপি, পাসওয়ার্ড (অ্যাক্টিভ) সচল করা রয়েছে, তারা সৌদি আরবে হজযাত্রী পাঠাতে উপযুক্ত। এমন হজ এজেন্সির কাছে ১৫ মে’র মধ্যে শুধু হজযাত্রী স্থানান্তর কার্যক্রম সম্পন্ন করতে পারবে। এরপর তাদের ইউজার আইডি এবং পাসওয়ার্ড আগের মতো বন্ধ থাকবে। তাদের ইউজার আইডি এবং পাসওয়ার্ড দিয়ে কোনও নিবন্ধন, হজযাত্রী স্থানান্তরপূর্বক গ্রহণ ইত্যাদি কার্যাদি সম্পন্ন করতে পারবে না।


আরও খবর
প্রথম হজ ফ্লাইট ৫ জুন শুরু

মঙ্গলবার ২৪ মে ২০২২




জীবাণুর বিরুদ্ধে কার্যক্ষমতা হারাচ্ছে অ্যান্টিবায়োটিক

প্রকাশিত:সোমবার ২৩ মে ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৩ মে ২০২২ | ২৬৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বেশিরভাগ জীবাণুই অ্যান্টিবায়োটিকের বিরুদ্ধে শক্তিশালী হচ্ছে। গুরুত্বপূর্ণ জীবাণুগুলোর মধ্যে গড়ে ৩১ থেকে ৬৭ শতাংশ জীবাণু মাল্টি ড্রাগ রেজিস্টেন্সি অর্জন করেছে। দেখা যাচ্ছে, বেশিরভাগ জীবাণুর বিরুদ্ধে কার্যক্ষমতা হারাচ্ছে অ্যান্টিবায়োটিক। ইন্টারন্যাশনাল ভ্যাক্সিন ইনাস্টটিউটের এক গবেষণায় এসব বিষয় উঠে এসেছে।

রাজধানীর বনানীতে হোটেল ওয়েস্টিনে কমিউনিকেবল ডিজিজ কন্ট্রোল (সিডিসি) ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত বাংলাদেশে চলমান অ্যান্টিমাইক্রোবায়াল রেসিস্ট্যান্সের (এএমআর) পরিস্থিতি ও এএমইউ ট্রেন্ডস শীর্ষক একটি কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। কর্মশালায় আন্তর্জাতিক গবেষণা প্রতিষ্ঠান ইন্টারন্যাশনাল ভ্যাক্সিন ইনাস্টটিউটের (ক্যাপটুরা) গবেষণা প্রতিবেদনটি তুলে ধরা হয়।

গবেষণায় দেখা গেছে, যেসব অ্যান্টিবায়োটিক সতর্কতার সঙ্গে ব্যবহার করা উচিত সেগুলোর ব্যবহার বাংলাদেশে অনেক বেশি (প্রায় ৭০% থেকে ৮৮%)। অথচ এই ওষুধগুলোর ব্যবহার ৪০% এর মধ্যে সীমিত রাখা উচিত। বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থা নির্ধারিত অগ্রাধিকার তালিকাভুক্ত ক্ষতিকর রেজিস্ট্যান্ট জীবাণুসমূহের উপস্থিতি দেশের কিছু কিছু নমুনায় পাওয়া গেছে। এসব জীবাণু জনস্বাস্থ্যের জন্য হুমকিস্বরূপ ও দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। জরুরি ভিত্তিতে মনিটরিং জোরদারের মাধ্যমে এগুলো প্রতিরোধ করা খুবই দরকার। দেশের অনেক মাইক্রোবায়োলজি ল্যাবে ডাটা ঠিকভাবে সংরক্ষণ করা হয় না এবং এসব ল্যাবের মাননিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থার উন্নতি প্রয়োজন।

এসময় বক্তারা বলেন, অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল রেজিস্ট্যান্স (এএমআর) বিশ্বব্যাপী জনস্বাস্থ্যের জন্য একটি গুরুতর এবং ক্রমবর্ধমাণ হুমকি। এই গবেষণালব্ধ ফলাফল বাংলাদেশ সরকারকে এএমআর সংবরণ কার্যক্রমে তথ্য-প্রমাণভিত্তিক নীতি এবং অনুশীলন নির্ধারণ ও এর প্রয়োগ করতে সাহায্য করবে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. আহমেদুল কবির এ ধরনের বিজ্ঞানভিত্তিক তথ্যউপাত্তের বিশ্লেষণধর্মী গবেষণামূলক কাজের প্রশংসা করে বলেন, অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল রেজিস্ট্যান্স সংবরণে রেজিস্টার্ড চিকিৎসকের প্রেসক্রিপশন ব্যতীত কোনো প্রকার অ্যান্টিবায়োটিক বিক্রয় ও গ্রহণ বন্ধ করা জরুরি। একই সঙ্গে অ্যান্টিবায়োটিকের যৌক্তিক ব্যবহার সুনিশ্চিতকরণে সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টা ও সচেতনতা প্রয়োজন।

ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মোহাম্মদ ইউসুফ বলেন, অ্যান্টিবায়োটিকসহ অন্যান্য ওষুধের গুণগত মান নিয়ন্ত্রণ, লাইসেন্সিং ও আইনগত ব্যবস্থা নিয়ে ঔষধ প্রশাসন কাজ করে যাচ্ছে। এ গবেষণার মাধ্যমে প্রাপ্ত তথ্য ব্যবহার করে সার্ভেইল্যান্স কার্যক্রমকে উন্নত করা সম্ভব।


আরও খবর



নাগরপুরে বড় ভাইয়ের হাতে ছোট ভাই খুন

প্রকাশিত:সোমবার ০৯ মে ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ০৯ মে ২০২২ | ৪৬৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

টাঙ্গাইলের নাগরপুরে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে বড় ভাইয়ের হাতে ছোট ভাইয়ের মৃত্যু হয়েছে। সোমবার (০৯ মে) উপজেলার মোকনা ইউনিয়নের ডাকাতিপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত সুমন মিয়া (২৫) ওই গ্রামের কলিম উদ্দিনের ছেলে।

নাগরপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মাসুদ জানান, জমিজমা নি‌য়ে তা‌দের প‌রিবারের ম‌ধ্যে দীর্ঘ দিন ধ‌রে বি‌রোধ চ‌লে আস‌ছিল। পুনরায় জমি নি‌য়ে ছোট ভাই সুমনের সঙ্গে কথা কাটাকা‌টির এক পর্যা‌য়ে বড় ভাই আ‌তোয়ার মিয়া ফলা দিয়ে আঘাত করে। এ‌তে সে গুরুতর আহত হ‌লে স্থানীয়রা তা‌কে উদ্ধার ক‌রে মির্জাপুর কুমুদিনী হাসপাতালে নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। তারা দুইজন সৎ ভাই ছিলেন।

নিউজ ট্যাগ: টাঙ্গাইল

আরও খবর



বন্যায় ডুবেছে সিলেটের সাবস্টেশন, বিদ্যুৎহীন ৪৫ হাজার গ্রাহক

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২ | ৩১০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বন্যা পরিস্থিতির আরও অবনতি হয়েছে সিলেটে। বন্যার পানিতে বিদ্যুতের সাবস্টেশন তলিয়ে যাওয়া এবং বৈদ্যুতিক মিটারে পানি উঠে যাওয়ায় সিলেট নগরীতে অন্তত ৪৫ হাজার পরিবার বিদুৎবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে।

জানা গেছে, কেবল সিলেট নগরেই ৪৫ হাজার গ্রাহক বিদ্যুৎহীন ভুতুড়ে অবস্থায় রয়েছেন। এসব এলাকায় মঙ্গলবার (১৭ মে) দুপুর থেকে বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ রয়েছে। জলাবদ্ধতা না কমায় খুব শীঘ্রই এসব এলাকার বিদ্যুৎ সংযোগ স্বাভাবিক হওয়ার সম্ভাবনা নেই নেই বলে জানিয়েছেন বিদ্যুৎ অফিসের কর্মকর্তারা।

বরইকান্দি সাবস্টেশন ও শাহজালাল উপশহরে একটি ফিডার পানির নিচে চলে যাওয়ায় এগুলো বন্ধ রয়েছে। এর মধ্যে বরইকান্দি সাবস্টেশনের অধীনে ৪০ হাজার গ্রাহক ও শাহজালাল উপশহরের একটি ফিডারের অধীনে ৫ হাজার গ্রাহক বিদ্যুৎহীন রয়েছেন।

বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন এলাকার বেশিরভাগ বাসিন্দা দৈনন্দিন ব্যবহার্য ও খাবার পানির সংকটেও রয়েছেন। বাড়িঘরে পানি ওঠায় কানাইঘাট, জকিগঞ্জ, কোম্পানিগঞ্জ, জৈন্তাপুর, সদর ও ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলার বেশিরভাগ এলাকার বিদ্যুৎ সরবরাহও বন্ধ রয়েছে।

নগরীর পনিবন্দি বাসিন্দারা বলছেন, একদিকে পানিতে আটকে আছেন তারা অপরদিকে নেই বিদ্যুৎ। মোবাইল ফোনও চার্জ দিতে পারছেন না তারা। তাই জরুরি প্রয়োজনে কারও সঙ্গে যোগাযোগও করা যাচ্ছে না। বিদ্যুৎহীন এলাকায় মোবাইল ফোনের নেটওয়ার্ক ও ইন্টারনেট সেবাও ব্যাহত হয়েছে। সবমিলিয়ে বন্যাকবলিত মানুষের দুর্ভোগ আরও বেড়েছে।


আরও খবর



ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রীর পদ ছাড়লেন বিপ্লব কুমার

প্রকাশিত:শনিবার ১৪ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ১৪ মে ২০২২ | ৪৯০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ত্রিপুরা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর পদ থেকে পদত্যাগ করছেন বিপ্লব কুমার দেব। শনিবার (১৪ মে) দুপুরে রাজভবনে গিয়ে তিনি রাজ্যপাল সত্যদেও আর্য নারায়ণের কাছে পদত্যাগপত্র জমা দেন।

এর আগে শুক্রবার (১৩ মে) দিল্লিতে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহর সঙ্গে দেখা করেন বিপ্লব কুমার। গত বৃহস্পতিবার তিনি রাজধানীতে যান এবং বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি ডা. জেপি আড্ডার সঙ্গে দেখা করেন।

তবে বিধানসভা ভোটের আগের বছর বিপ্লব কুমারের আচমকা পদত্যাগ নিয়ে রাজনৈতিক মহলে জোর আলোচনা শুরু হয়েছে।

২০১৮ সালের ৯ মার্চ প্রথমবার মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছিলেন বিপ্লব কুমার। তবে মেয়াদ শেষের ১০ মাস আগে হঠাৎই পদত্যাগ করলেন তিনি।

পদত্যাগপত্র জমা দেওয়ার সময় তার সঙ্গে ছিলেন কেন্দ্রীয়মন্ত্রী ভুপেন্দর যাদব, বিজেপির সাধারণ সম্পাদক বিনোদ কাউড়ে, পর্যবেক্ষক বিনোদ সোনকর, অজয় জাম্বুয়াল এবং কেন্দ্রীয় মন্ত্রী প্রতিমা ভৌমিক।

এদিন রাজ্যভবনে পদত্যাগপত্র জমা দেওয়ার পর বেরিয়ে আসার সময় কান্নায় ভেঙে পড়তে দেখা যায় বিপ্লব কুমারকে। তিনি বলেন, দলের সিদ্ধান্ত মাথা পেতে নিয়ে পদত্যাগ করেছেন।


আরও খবর



ঈদের সকালে তৈরী করুন দই ছাড়া লাচ্ছি

প্রকাশিত:রবিবার ০১ মে ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০১ মে ২০২২ | ৫৬০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

লাচ্ছি তৈরির অন্যতম উপাদান হলো দই। কিন্তু কেমন হয় যদি আপনি দই ছাড়াই লাচ্ছি তৈরি করতে পারেন? ঝটপট লাচ্ছি খেতে চাইলে আর দই কিনতে ছুটতে হবে না। বরং দই না থাকলেও ঘরে বসেই তৈরি করতে পারবেন লাচ্ছি। চলুন জেনে নেওয়া যাক দই ছাড়া লাচ্ছি তৈরির রেসিপি-

তৈরি করতে যা লাগবে: পানি- ৪ কাপ, গুঁড়া দুধ- ১২ চা চামচ, লেবুর রস- ৮ চা চামচ, চিনি- পরিমাণমতো, বরফ কুচি- প্রয়োজন অনুযায়ী, আইসক্রিম- স্বাদমতো, বাদাম কুচি- স্বাদমতো।

যেভাবে তৈরি করবেন: পানি সামান্য গরম করে নিন। এরপর তাতে গুঁড়া দুধ ভালো করে গুলিয়ে নিন। এবার দিন লেবুর রস। হালকা নেড়ে ঢেকে রাখুন মিনিট দশেক। এটুকু সময়েই দুধ জমাট বেঁধে যাবে। এবার একটি ব্লেন্ডারে জমাট বাঁধা দুধ, চিনি, অর্ধেকটা বরফ কুচি এবং বাদাম কুচি দিয়ে ব্লেন্ড করে নিন। ব্লেন্ড হয়ে গেলে পরিবেশন গ্লাসে ঢেলে নিন। এরপর উপরে এক স্কুপ করে আইসক্রিম দিয়ে পরিবেশন করুন দই ছাড়া লাচ্ছি।

নিউজ ট্যাগ: লাচ্ছি

আরও খবর